সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১:৩৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, June 30, 2017 10:35 pm
A- A A+ Print

অঢেল টাকা বাঁচার ঘোষণা সিএর, বেকার হয়েও খুশি ক্রিকেটাররা!

84dd3e756a70f3f1ca27b7b1371e6638-59564c249ae06

নিকট অতীতে এমন ঘোর সংকটে কখনো পড়েনি অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট। এ থেকে মুক্তির কোনো আভাসও মিলছে না। আর দুই পক্ষের অনড় অবস্থানের মধ্যে দিয়েই আজ পেরিয়ে যাচ্ছে পুরোনো চুক্তির শেষ সময়সীমা। আগামীকাল থেকে অস্ট্রেলিয়ার কোনো ক্রিকেটারের সঙ্গে বোর্ডের কোনো চুক্তি থাকবে না। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) বলছে, ক্রিকেটারদের যতক্ষণ বেতন দিতে হবে না, ততক্ষণ পর্যন্ত প্রতি ১৫ দিনে তারা ১২ লাখ ডলার বাঁচাতে পারবে। আর এই টাকা সরাসরি চলে যাবে তৃণমূল ক্রিকেটে। অর্থাৎ সিএ তাদের সর্বশেষ বিবৃতিতে বুঝিয়ে দিয়েছে, ক্রিকেটারদের সংগঠনের দাবির কাছে মাথানত তারা করবে না। আর ক্রিকেটারদের পক্ষ থেকে জশ হ্যাজলউড বলছেন, ‘বেতন না পেলে ক্ষতি নেই। বেকার থেকেও নাকি তাঁরা খুশি—সিএর “অন্যায্য প্রস্তাব” মানার চেয়ে।’ হ্যাজলউডের মন্তব্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ কারণে, সিএর বর্তমান কাঠামোয় তিনি চতুর্থ গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। সিএর নতুন মডেলের প্রস্তাব মেনে নিলে তাঁদের মতো শীর্ষ ক্রিকেটারেরই লাভ হতো। কিন্তু হ্যাজলউড বৃহত্তর স্বার্থ দেখছেন। এই ফাস্ট বোলার বরং আরও একবার বাউন্সার হাঁকালেন বোর্ডের কর্তাব্যক্তিদের দিকে—ঘরোয়া ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে দর্শক নেই যুক্তিতে যাঁরা সেখানকার ক্রিকেটারদের লভ্যাংশের বাইরে নিয়ে যেতে চাইছেন। সিএর সর্বশেষ প্রস্তাবও অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটারদের জন্য অপমানজনক মন্তব্য করে হ্যাজলউড বলেছেন, ‘তাঁরা সব সময়ই আঙুল তুলে দেখিয়ে দিয়েছেন, শেফিল্ড শিল্ডের ক্রিকেটে দর্শক নেই, কিন্তু তাঁরা কখনো বলেন না বিগ ব্যাশের কথা, যেখানে দর্শক উপচে পড়ে। সত্যি বলতে এই বিগ ব্যাশে অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের ভূমিকা খুব একটা নেই। এটা পুরোপুরি ঘরোয়া ক্রিকেটারদের সাফল্য, হ্যাঁ প্রত্যেক দলে এক-দুজন করে আন্তর্জাতিক তারকা থাকে বটে। এই ঘরোয়া ক্রিকেটাররা অবশ্য অপমানিত বোধ করতে পারে।’ হ্যাজলউড স্বীকার করেছেন, শনিবার সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর তিনি বেকার, তাঁর কারও সঙ্গে কাজের কোনো চুক্তি নেই, বোধটা অন্য রকম অভিজ্ঞতার মুখে দাঁড় করাবে। তবে বৃহত্তর স্বার্থে তিনি এটি মেনে নিতে রাজি আছেন। তবে এ-ও প্রত্যাশা করেছেন, দ্রুত সব পক্ষ সবার স্বার্থরক্ষা হয় এমন একটি সমাধানে পৌঁছাবে। যদিও সিএর সর্বশেষ অবস্থান দেখে মনে হয় না তারা আরও ছাড় দিতে রাজি। বোর্ড সর্বশেষ বিবৃতিতে অবশ্য এ পরিস্থিতির জন্য দুঃখ প্রকাশ করে বলেছে, তারা বুঝতে পারছে বর্তমান পরিস্থিতির কারণে অনেক কেন্দ্রীয় ও রাজ্য পর্যায়ের ক্রিকেটার যে চুক্তিহীন হয়ে পড়েছে, সেটি তাদের পরিবারের ওপর একটি আর্থিক ও মানসিক চাপ তৈরি করবে। তবে এ-ও বলেছে, ‘সিএ প্রতি ১৫ দিন অন্তত খেলোয়াড়দের বেতন বাবদে যে টাকা খরচ হতো, সেটি সরাসরি দিয়ে দেবে ন্যাশনাল কমিউনিটি ফ্যাসিলিটিজ ফান্ডিং স্কিমে। যে টাকার পরিমাণটা প্রতি ১৫ দিনে ১২ লাখ ডলার।’ সিএ জানিয়েছে, ইংল্যান্ডে নারী বিশ্বকাপে খেলেতে যাওয়ার আগে নারী ক্রিকেটারদের সঙ্গে আরেকটা ভিন্ন চুক্তি করে রেখেছিল সিএ। ফলে তাদের বেতন-ভাতা দিতে কোনো সমস্যা হবে না। কিন্তু ১৫ জুলাই খেলোয়াড়দের যে বেতন পাওয়ার কথা, চুক্তির অচলাবস্থা না কাটলে তা দেওয়া সম্ভব হবে না। এদিকে ১৪ জুলাই শুরু দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য ‘এ’ দলের খেলোয়াড়দের প্রস্তুতি শুরু হওয়ার কথা কয়েক দিনের মধ্যে। এই সফরে ভালো করলে বাংলাদেশ সফরের টেস্ট দলে ডাক পেতে পারেন জ্যাকসন বার্ড, শাড সেয়ার্স, ক্রিস ট্রেমেইন বা জ্যাসন বেহরেনডর্ফের মতো তরুণ ফাস্ট বোলারদের কেউ। এই খেলোয়াড়েরা দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বয়কট করা মানে টেস্ট দলে জায়গা করে নেওয়ার একটা মোক্ষম সুযোগও হারিয়ে ফেলা। অবশ্য বাংলাদেশ সফরটাও যে হবে, সেটিও যে এখন শতভাগ নিশ্চিত নয়!

Comments

Comments!

 অঢেল টাকা বাঁচার ঘোষণা সিএর, বেকার হয়েও খুশি ক্রিকেটাররা!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

অঢেল টাকা বাঁচার ঘোষণা সিএর, বেকার হয়েও খুশি ক্রিকেটাররা!

Friday, June 30, 2017 10:35 pm
84dd3e756a70f3f1ca27b7b1371e6638-59564c249ae06

নিকট অতীতে এমন ঘোর সংকটে কখনো পড়েনি অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট। এ থেকে মুক্তির কোনো আভাসও মিলছে না। আর দুই পক্ষের অনড় অবস্থানের মধ্যে দিয়েই আজ পেরিয়ে যাচ্ছে পুরোনো চুক্তির শেষ সময়সীমা। আগামীকাল থেকে অস্ট্রেলিয়ার কোনো ক্রিকেটারের সঙ্গে বোর্ডের কোনো চুক্তি থাকবে না।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) বলছে, ক্রিকেটারদের যতক্ষণ বেতন দিতে হবে না, ততক্ষণ পর্যন্ত প্রতি ১৫ দিনে তারা ১২ লাখ ডলার বাঁচাতে পারবে। আর এই টাকা সরাসরি চলে যাবে তৃণমূল ক্রিকেটে। অর্থাৎ সিএ তাদের সর্বশেষ বিবৃতিতে বুঝিয়ে দিয়েছে, ক্রিকেটারদের সংগঠনের দাবির কাছে মাথানত তারা করবে না।
আর ক্রিকেটারদের পক্ষ থেকে জশ হ্যাজলউড বলছেন, ‘বেতন না পেলে ক্ষতি নেই। বেকার থেকেও নাকি তাঁরা খুশি—সিএর “অন্যায্য প্রস্তাব” মানার চেয়ে।’
হ্যাজলউডের মন্তব্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ কারণে, সিএর বর্তমান কাঠামোয় তিনি চতুর্থ গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। সিএর নতুন মডেলের প্রস্তাব মেনে নিলে তাঁদের মতো শীর্ষ ক্রিকেটারেরই লাভ হতো। কিন্তু হ্যাজলউড বৃহত্তর স্বার্থ দেখছেন। এই ফাস্ট বোলার বরং আরও একবার বাউন্সার হাঁকালেন বোর্ডের কর্তাব্যক্তিদের দিকে—ঘরোয়া ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে দর্শক নেই যুক্তিতে যাঁরা সেখানকার ক্রিকেটারদের লভ্যাংশের বাইরে নিয়ে যেতে চাইছেন।
সিএর সর্বশেষ প্রস্তাবও অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটারদের জন্য অপমানজনক মন্তব্য করে হ্যাজলউড বলেছেন, ‘তাঁরা সব সময়ই আঙুল তুলে দেখিয়ে দিয়েছেন, শেফিল্ড শিল্ডের ক্রিকেটে দর্শক নেই, কিন্তু তাঁরা কখনো বলেন না বিগ ব্যাশের কথা, যেখানে দর্শক উপচে পড়ে। সত্যি বলতে এই বিগ ব্যাশে অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের ভূমিকা খুব একটা নেই। এটা পুরোপুরি ঘরোয়া ক্রিকেটারদের সাফল্য, হ্যাঁ প্রত্যেক দলে এক-দুজন করে আন্তর্জাতিক তারকা থাকে বটে। এই ঘরোয়া ক্রিকেটাররা অবশ্য অপমানিত বোধ করতে পারে।’
হ্যাজলউড স্বীকার করেছেন, শনিবার সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর তিনি বেকার, তাঁর কারও সঙ্গে কাজের কোনো চুক্তি নেই, বোধটা অন্য রকম অভিজ্ঞতার মুখে দাঁড় করাবে। তবে বৃহত্তর স্বার্থে তিনি এটি মেনে নিতে রাজি আছেন। তবে এ-ও প্রত্যাশা করেছেন, দ্রুত সব পক্ষ সবার স্বার্থরক্ষা হয় এমন একটি সমাধানে পৌঁছাবে।
যদিও সিএর সর্বশেষ অবস্থান দেখে মনে হয় না তারা আরও ছাড় দিতে রাজি। বোর্ড সর্বশেষ বিবৃতিতে অবশ্য এ পরিস্থিতির জন্য দুঃখ প্রকাশ করে বলেছে, তারা বুঝতে পারছে বর্তমান পরিস্থিতির কারণে অনেক কেন্দ্রীয় ও রাজ্য পর্যায়ের ক্রিকেটার যে চুক্তিহীন হয়ে পড়েছে, সেটি তাদের পরিবারের ওপর একটি আর্থিক ও মানসিক চাপ তৈরি করবে।
তবে এ-ও বলেছে, ‘সিএ প্রতি ১৫ দিন অন্তত খেলোয়াড়দের বেতন বাবদে যে টাকা খরচ হতো, সেটি সরাসরি দিয়ে দেবে ন্যাশনাল কমিউনিটি ফ্যাসিলিটিজ ফান্ডিং স্কিমে। যে টাকার পরিমাণটা প্রতি ১৫ দিনে ১২ লাখ ডলার।’
সিএ জানিয়েছে, ইংল্যান্ডে নারী বিশ্বকাপে খেলেতে যাওয়ার আগে নারী ক্রিকেটারদের সঙ্গে আরেকটা ভিন্ন চুক্তি করে রেখেছিল সিএ। ফলে তাদের বেতন-ভাতা দিতে কোনো সমস্যা হবে না। কিন্তু ১৫ জুলাই খেলোয়াড়দের যে বেতন পাওয়ার কথা, চুক্তির অচলাবস্থা না কাটলে তা দেওয়া সম্ভব হবে না।
এদিকে ১৪ জুলাই শুরু দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য ‘এ’ দলের খেলোয়াড়দের প্রস্তুতি শুরু হওয়ার কথা কয়েক দিনের মধ্যে। এই সফরে ভালো করলে বাংলাদেশ সফরের টেস্ট দলে ডাক পেতে পারেন জ্যাকসন বার্ড, শাড সেয়ার্স, ক্রিস ট্রেমেইন বা জ্যাসন বেহরেনডর্ফের মতো তরুণ ফাস্ট বোলারদের কেউ। এই খেলোয়াড়েরা দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বয়কট করা মানে টেস্ট দলে জায়গা করে নেওয়ার একটা মোক্ষম সুযোগও হারিয়ে ফেলা। অবশ্য বাংলাদেশ সফরটাও যে হবে, সেটিও যে এখন শতভাগ নিশ্চিত নয়!

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X