রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১২:৪৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, July 26, 2016 9:53 pm | আপডেটঃ July 26, 2016 9:53 PM
A- A A+ Print

‘অনবরত গুলি, মনে হচ্ছিল মারা যাব!’

27

ঢাকা: ‘অনবরত গুলি, মনে হচ্ছিল মারা যাব!’ রাজধানী ঢাকার কল্যাণপুরে মঙ্গলবার যৌথ বাহিনীর অভিযান চলাকালে প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে এভাবেই ঘটনার বর্ণনা দেন তরুণ আবু সায়েম আশরাফ। ওই ভবনের ছয়তলার বাসিন্দা তিনি। যৌথ বাহিনীর অভিযান শেষ হলেও তারা বাড়ি থেকে বেরোনোর অনুমতি পাননি। মঙ্গলবার বেলা দুইটা পর্যন্ত আটকা পড়ে ছিলেন সায়েমসহ ওই ভবনের অন্য বাসিন্দারা। আবু সায়েম বলছিলেন, ‘তারা নয়জন ভবনটির ছয়তলার একটি ফ্ল্যাটে থাকেন। এর নিচে পঞ্চম তলায় যৌথ বাহিনী অভিযান চালায়। ওই রাতে তারা নয়জনের মধ্যে সাতজন বাড়িতে ছিলেন। বাকি দুজন সেদিন বাড়িতে আসেননি। আত্মীয়ের বাসায় ছিলেন।’ সায়েম বলেন, ‘সোমবার দিবাগত রাতে তারা ঘুমিয়ে ছিলেন। হঠাৎ গোলাগুলির শব্দে তার ঘুম ভেঙে যায়। ঘটনার আকস্মিকতায় তিনি হতবাক হয়ে পড়েন। বুঝে উঠতে পারছিলেন না কী ঘটেছে।’ আশরাফ বলেন, ‘প্রথমে ভেবেছিলাম, পাশের ভবনে মারামারি বা অন্য কিছু হতে পারে। প্রথমে তিনটা গুলির শব্দ পাই। এরপর অনবরত গোলাগুলির শব্দ পাই। গোলাগুলির সময় মনে হচ্ছিল আমরা মারা যাব। আর বাঁচব না।’ আশরাফের চাচাতো ভাই মতিউর রহমান বলেন, ‘তার ভাই আশরাফসহ অন্যরা ভবন থেকে বেরোতে পারছেন না। পুলিশ তাদের বেরোতে নিষেধ করেছে।’ তিনি বলেন, ‘আজ বেলা ১টা ৪০ মিনিটে আশরাফ আমাকে মুঠো ফোনে খুদে বার্তা পাঠায়। তাতে লেখা ছিল, তাদের ভবন থেকে পুলিশ বা গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। মতিউর রহমান বলেন, ‘আশরাফ কয়েক বছর ধরে এ ভবনে ভাড়া থাকেন। শ্যামলী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়ছেন তিনি।’

Comments

Comments!

 ‘অনবরত গুলি, মনে হচ্ছিল মারা যাব!’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘অনবরত গুলি, মনে হচ্ছিল মারা যাব!’

Tuesday, July 26, 2016 9:53 pm | আপডেটঃ July 26, 2016 9:53 PM
27

ঢাকা: ‘অনবরত গুলি, মনে হচ্ছিল মারা যাব!’ রাজধানী ঢাকার কল্যাণপুরে মঙ্গলবার যৌথ বাহিনীর অভিযান চলাকালে প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে এভাবেই ঘটনার বর্ণনা দেন তরুণ আবু সায়েম আশরাফ। ওই ভবনের ছয়তলার বাসিন্দা তিনি।

যৌথ বাহিনীর অভিযান শেষ হলেও তারা বাড়ি থেকে বেরোনোর অনুমতি পাননি। মঙ্গলবার বেলা দুইটা পর্যন্ত আটকা পড়ে ছিলেন সায়েমসহ ওই ভবনের অন্য বাসিন্দারা।

আবু সায়েম বলছিলেন, ‘তারা নয়জন ভবনটির ছয়তলার একটি ফ্ল্যাটে থাকেন। এর নিচে পঞ্চম তলায় যৌথ বাহিনী অভিযান চালায়। ওই রাতে তারা নয়জনের মধ্যে সাতজন বাড়িতে ছিলেন। বাকি দুজন সেদিন বাড়িতে আসেননি। আত্মীয়ের বাসায় ছিলেন।’

সায়েম বলেন, ‘সোমবার দিবাগত রাতে তারা ঘুমিয়ে ছিলেন। হঠাৎ গোলাগুলির শব্দে তার ঘুম ভেঙে যায়। ঘটনার আকস্মিকতায় তিনি হতবাক হয়ে পড়েন। বুঝে উঠতে পারছিলেন না কী ঘটেছে।’

আশরাফ বলেন, ‘প্রথমে ভেবেছিলাম, পাশের ভবনে মারামারি বা অন্য কিছু হতে পারে। প্রথমে তিনটা গুলির শব্দ পাই। এরপর অনবরত গোলাগুলির শব্দ পাই। গোলাগুলির সময় মনে হচ্ছিল আমরা মারা যাব। আর বাঁচব না।’

আশরাফের চাচাতো ভাই মতিউর রহমান বলেন, ‘তার ভাই আশরাফসহ অন্যরা ভবন থেকে বেরোতে পারছেন না। পুলিশ তাদের বেরোতে নিষেধ করেছে।’

তিনি বলেন, ‘আজ বেলা ১টা ৪০ মিনিটে আশরাফ আমাকে মুঠো ফোনে খুদে বার্তা পাঠায়। তাতে লেখা ছিল, তাদের ভবন থেকে পুলিশ বা গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হবে।

মতিউর রহমান বলেন, ‘আশরাফ কয়েক বছর ধরে এ ভবনে ভাড়া থাকেন। শ্যামলী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়ছেন তিনি।’

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X