রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৯:৪২
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, November 6, 2016 9:51 am
A- A A+ Print

অনুশীলনেও থাকবেন না তাঁরা!

0632793d64479a94922d48fb2aef8ec8-untitled-7

সাইক্লোন ‘নাদা’র প্রভাবজনিত বৃষ্টি দলগুলোকে ঢুকিয়ে দিয়েছে ইনডোরে। বিপিএলের অনুশীলন সীমাবদ্ধ হয়ে পড়েছে সেখানেই। তবে খবর এটা নয়। খবর হলো এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় কাল যা ঘটল, তা। বৃষ্টিতে বাইরের উইকেট ভেজা। বিপিএলের ভিড়ে মোস্তাফিজুর রহমান নেট পাননি ইনডোরেও। পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশকে নিয়ে তাই বোলিং অনুশীলন না করেই ফিরে এলেন মোস্তাফিজ।

চোট আর অস্ত্রোপচারের ধকল কাটিয়ে তিন-চার দিন হলো এক-দুই পা দৌড়ে বোলিং করেছেন। প্রাথমিক দলে থাকায় বলতে পারেন নিউজিল্যান্ড সিরিজের প্রস্তুতিই শুরু হয়ে গেল বাঁহাতি এই পেসারের। নিউজিল্যান্ডে পূর্ণ শক্তির মোস্তাফিজকে পাওয়ার ব্যাপারে বেশ আশাবাদী প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন। তিনি তাকিয়ে তাসকিন আহমেদের দিকেও। সব ঠিকঠাক থাকলে তাসকিনের টেস্ট অভিষেক হয়ে যেতে পারে এই সফরেই।

মোস্তাফিজ আর তাসকিনের দিগন্তে যখন একটু একটু করে আশার আলো ফুটে উঠছে, তখন আগে থেকেই আকাশে জড়ো হওয়া কালো মেঘটা আরও কালো হয়ে উঠল অন্য দুই পেসার আল আমিন হোসেন ও রুবেল হোসেনের আকাশে। দুজনের কেউই নেই নিউজিল্যান্ড সিরিজের অনুশীলন ক্যাম্পের দলে। নেই ইংল্যান্ড সিরিজের দলে থাকা আরেক পেসার কামরুল ইসলাম ও নাসির হোসেনও। পরশু রাতে ঘোষিত ২২ জনের এই দলটিই অস্ট্রেলিয়ায় যাবে অনুশীলন ক্যাম্প করতে, সেখান থেকে নিউজিল্যান্ডে।

নিউজিল্যান্ডের উইকেটে আল আমিনের বোলিং কার্যকর হতে পারত। রুবেল হোসেন তো ওই কন্ডিশনে পরীক্ষিতই। গত নিউজিল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে ছয় ম্যাচে পেয়েছিলেন ৮ উইকেট। কামরুলকেও একটা সিরিজে মাত্র কয়েক ওভার বল করিয়েই প্রাথমিক দলে না রাখাটা বিস্ময়কর। আর নাসির হোসেনের সমস্যাটা যে কোথায়, সে তো এক রহস্যই। আগের মতো এবারও গুঞ্জন—কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের পছন্দের তালিকায় নেই বলেই এঁদের রাখা হয়নি অনুশীলন ক্যাম্পের খেলোয়াড় তালিকায়ও।

প্রধান নির্বাচক অবশ্য তাঁদের সিদ্ধান্তের পক্ষে কিছু ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করলেন। নাসিরকে দলে না নেওয়ার প্রধান কারণ পেস বোলিংয়ের সামনে তাঁর ব্যাটিং দুর্বলতা, ‘ফাস্ট বোলিংয়ের সামনে নাসির অতটা সাবলীল নয় বলে ওই কন্ডিশনে ওর সমস্যা হতে পারে। তা ছাড়া সাত নম্বরে আমাদের এখন তিনজন খেলোয়াড় হয়ে গেছে। টেস্টে সাব্বির, ওয়ানডেতে মোসাদ্দেক, বাউন্সি উইকেটের জন্য সৌম্য আছে।’

রুবেল আর আল আমিনকে প্রাথমিক দলে না রাখার কারণ মোটামুটি একই বলে মনে হলো মিনহাজুলের কথায়। একে তো মোস্তাফিজের ফেরার সম্ভাবনা, তার ওপর রুবেল-আল আমিনের আপাতত কিছু দেওয়ার নেই বলেও মনে করছেন তিনি, ‘গত এক বছরে ঘরোয়া ক্রিকেটে তাদের পারফরম্যান্স কী? আফগানিস্তানের বিপক্ষেও রুবেলের ভালো পারফরম্যান্স ছিল না। আর ফিটনেসটাও দেখতে হবে। ওর চেয়ে ভালো কাউকে পেলে তাকে আমরা সুযোগ দেব না কেন?’

শুভাশিস রায় নির্বাচকদের দৃষ্টিতে সে রকমই একজন। ‘ওর বলে সুইং আছে। সিমিং কন্ডিশনে ভালো করতে পারবে’—বলেছেন মিনহাজুল। কামরুলের বাদ পড়ার কারণটা এর ঠিক বিপরীত বলে জানালেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক, ‘লো বাউন্সের উইকেটে ভালো বল করে বলে ওকে ইংল্যান্ড সিরিজের দলে নেওয়া হয়েছিল।’

আল আমিন, রুবেলদের সঙ্গে স্ট্যান্ডবাই তালিকায় রাখা হয়েছে কামরুলকেও। প্রস্তুতি ক্যাম্পের ২২ জনের মধ্যে থাকা নাজমুল হোসেন ও ইবাদত হোসেন নিউজিল্যান্ড সফরের মূল দলের জন্য বিবেচিত হবেন না। এ মুহূর্তে ‘এ’ দল বা একাডেমি দলের কার্যক্রম নেই। অনুশীলনের সুযোগ দিতেই তাই তাদের ক্যাম্পে রাখা। অবশ্য শরীরের এক পাশের পেশির চোটে পড়ায় ইবাদতের জন্য সেটাও এখন অনিশ্চিত।

বিপিএল শেষে আগামী ৯ ও ১০ ডিসেম্বর দুই ভাগে ভাগ হয়ে বাংলাদেশ দল প্রথমে যাবে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। সেখানে আট-দশ দিনের প্রস্তুতি ক্যাম্প করে যাবে নিউজিল্যান্ডে। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড দুই জায়গাতেই যাবেন ক্যাম্পের ২২ ক্রিকেটার। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষে শুধু টেস্টের খেলোয়াড়দের রেখে ফিরে আসবেন অন্যরা।

অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তুতি ক্যাম্পে বিসিবির খরচ হবে ১ কোটি টাকারও বেশি। বাড়তি খরচ গুনতে হবে নিউজিল্যান্ড সফরেও। দ্বিপাক্ষিক সিরিজে খেলোয়াড়-কর্মকর্তাসহ সর্বোচ্চ ২৫ জনের খরচ বহন করে স্বাগতিক বোর্ড। কিন্তু এই সফরের শুরুতে বাংলাদেশ দলে খেলোয়াড়ই থাকবেন ২২ জন। কোচ-কর্মকর্তা মিলে দলের মোট সদস্য হতে পারে ৩০ জনেরও বেশি।

Comments

Comments!

 অনুশীলনেও থাকবেন না তাঁরা!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

অনুশীলনেও থাকবেন না তাঁরা!

Sunday, November 6, 2016 9:51 am
0632793d64479a94922d48fb2aef8ec8-untitled-7

সাইক্লোন ‘নাদা’র প্রভাবজনিত বৃষ্টি দলগুলোকে ঢুকিয়ে দিয়েছে ইনডোরে। বিপিএলের অনুশীলন সীমাবদ্ধ হয়ে পড়েছে সেখানেই। তবে খবর এটা নয়। খবর হলো এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় কাল যা ঘটল, তা। বৃষ্টিতে বাইরের উইকেট ভেজা। বিপিএলের ভিড়ে মোস্তাফিজুর রহমান নেট পাননি ইনডোরেও। পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশকে নিয়ে তাই বোলিং অনুশীলন না করেই ফিরে এলেন মোস্তাফিজ।

চোট আর অস্ত্রোপচারের ধকল কাটিয়ে তিন-চার দিন হলো এক-দুই পা দৌড়ে বোলিং করেছেন। প্রাথমিক দলে থাকায় বলতে পারেন নিউজিল্যান্ড সিরিজের প্রস্তুতিই শুরু হয়ে গেল বাঁহাতি এই পেসারের। নিউজিল্যান্ডে পূর্ণ শক্তির মোস্তাফিজকে পাওয়ার ব্যাপারে বেশ আশাবাদী প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন। তিনি তাকিয়ে তাসকিন আহমেদের দিকেও। সব ঠিকঠাক থাকলে তাসকিনের টেস্ট অভিষেক হয়ে যেতে পারে এই সফরেই।

মোস্তাফিজ আর তাসকিনের দিগন্তে যখন একটু একটু করে আশার আলো ফুটে উঠছে, তখন আগে থেকেই আকাশে জড়ো হওয়া কালো মেঘটা আরও কালো হয়ে উঠল অন্য দুই পেসার আল আমিন হোসেন ও রুবেল হোসেনের আকাশে। দুজনের কেউই নেই নিউজিল্যান্ড সিরিজের অনুশীলন ক্যাম্পের দলে। নেই ইংল্যান্ড সিরিজের দলে থাকা আরেক পেসার কামরুল ইসলাম ও নাসির হোসেনও। পরশু রাতে ঘোষিত ২২ জনের এই দলটিই অস্ট্রেলিয়ায় যাবে অনুশীলন ক্যাম্প করতে, সেখান থেকে নিউজিল্যান্ডে।

নিউজিল্যান্ডের উইকেটে আল আমিনের বোলিং কার্যকর হতে পারত। রুবেল হোসেন তো ওই কন্ডিশনে পরীক্ষিতই। গত নিউজিল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে ছয় ম্যাচে পেয়েছিলেন ৮ উইকেট। কামরুলকেও একটা সিরিজে মাত্র কয়েক ওভার বল করিয়েই প্রাথমিক দলে না রাখাটা বিস্ময়কর। আর নাসির হোসেনের সমস্যাটা যে কোথায়, সে তো এক রহস্যই। আগের মতো এবারও গুঞ্জন—কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের পছন্দের তালিকায় নেই বলেই এঁদের রাখা হয়নি অনুশীলন ক্যাম্পের খেলোয়াড় তালিকায়ও।

প্রধান নির্বাচক অবশ্য তাঁদের সিদ্ধান্তের পক্ষে কিছু ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করলেন। নাসিরকে দলে না নেওয়ার প্রধান কারণ পেস বোলিংয়ের সামনে তাঁর ব্যাটিং দুর্বলতা, ‘ফাস্ট বোলিংয়ের সামনে নাসির অতটা সাবলীল নয় বলে ওই কন্ডিশনে ওর সমস্যা হতে পারে। তা ছাড়া সাত নম্বরে আমাদের এখন তিনজন খেলোয়াড় হয়ে গেছে। টেস্টে সাব্বির, ওয়ানডেতে মোসাদ্দেক, বাউন্সি উইকেটের জন্য সৌম্য আছে।’

রুবেল আর আল আমিনকে প্রাথমিক দলে না রাখার কারণ মোটামুটি একই বলে মনে হলো মিনহাজুলের কথায়। একে তো মোস্তাফিজের ফেরার সম্ভাবনা, তার ওপর রুবেল-আল আমিনের আপাতত কিছু দেওয়ার নেই বলেও মনে করছেন তিনি, ‘গত এক বছরে ঘরোয়া ক্রিকেটে তাদের পারফরম্যান্স কী? আফগানিস্তানের বিপক্ষেও রুবেলের ভালো পারফরম্যান্স ছিল না। আর ফিটনেসটাও দেখতে হবে। ওর চেয়ে ভালো কাউকে পেলে তাকে আমরা সুযোগ দেব না কেন?’

শুভাশিস রায় নির্বাচকদের দৃষ্টিতে সে রকমই একজন। ‘ওর বলে সুইং আছে। সিমিং কন্ডিশনে ভালো করতে পারবে’—বলেছেন মিনহাজুল। কামরুলের বাদ পড়ার কারণটা এর ঠিক বিপরীত বলে জানালেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক, ‘লো বাউন্সের উইকেটে ভালো বল করে বলে ওকে ইংল্যান্ড সিরিজের দলে নেওয়া হয়েছিল।’

আল আমিন, রুবেলদের সঙ্গে স্ট্যান্ডবাই তালিকায় রাখা হয়েছে কামরুলকেও। প্রস্তুতি ক্যাম্পের ২২ জনের মধ্যে থাকা নাজমুল হোসেন ও ইবাদত হোসেন নিউজিল্যান্ড সফরের মূল দলের জন্য বিবেচিত হবেন না। এ মুহূর্তে ‘এ’ দল বা একাডেমি দলের কার্যক্রম নেই। অনুশীলনের সুযোগ দিতেই তাই তাদের ক্যাম্পে রাখা। অবশ্য শরীরের এক পাশের পেশির চোটে পড়ায় ইবাদতের জন্য সেটাও এখন অনিশ্চিত।

বিপিএল শেষে আগামী ৯ ও ১০ ডিসেম্বর দুই ভাগে ভাগ হয়ে বাংলাদেশ দল প্রথমে যাবে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। সেখানে আট-দশ দিনের প্রস্তুতি ক্যাম্প করে যাবে নিউজিল্যান্ডে। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড দুই জায়গাতেই যাবেন ক্যাম্পের ২২ ক্রিকেটার। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষে শুধু টেস্টের খেলোয়াড়দের রেখে ফিরে আসবেন অন্যরা।

অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তুতি ক্যাম্পে বিসিবির খরচ হবে ১ কোটি টাকারও বেশি। বাড়তি খরচ গুনতে হবে নিউজিল্যান্ড সফরেও। দ্বিপাক্ষিক সিরিজে খেলোয়াড়-কর্মকর্তাসহ সর্বোচ্চ ২৫ জনের খরচ বহন করে স্বাগতিক বোর্ড। কিন্তু এই সফরের শুরুতে বাংলাদেশ দলে খেলোয়াড়ই থাকবেন ২২ জন। কোচ-কর্মকর্তা মিলে দলের মোট সদস্য হতে পারে ৩০ জনেরও বেশি।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X