বুধবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং, ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:১০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, October 24, 2017 5:59 pm
A- A A+ Print

অর্থপাচার মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার কারাগারে

1508838145

ঢাকা: অর্থপাচার মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের জামিন আবেদন নাকোচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক এ নির্দেশ দেন। এর আগে দিলদারসহ আপন জুয়েলার্সের তিন মালিক আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। অর্থ-পাচারে পৃথক তিন মামলায় আত্মসমর্পণকারী আপন জুয়েলার্সের অপর দুই মালিক হলেন- গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদ। এর আগে সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম  মো. নুরনবীর আদালতে রমনা থানায় দায়ের করা মামলায় আপন জুয়েলার্সের তিন মালিকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। এছাড়া রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর হাকিম নুরন্নাহার ইয়াসমিন গুলশান থানায় দায়ের করা পৃথক দুই মামলায় অপর দুই আসামি গুলজার ও আজাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জরি করেন। আদালত সূত্রে জানা গেছে, অর্থপাচারের এসব মামলায় আসামিরা উচ্চ আদালত থেকে আগাম জামিনে ছিলেন। কিন্তু সোমবার ও রোববার মামলার ধার্য তারিখে জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে আইনজীবীর মাধ্যম সময় আবেদন ও জামিন চান তারা। আদালত তা নাকচ করে আসামিদের বিরুদ্ধে পৃথক তিনটি মামলায় এ পরোয়ানা জারি করেন। চলতি বছরের ৬ মে আপন জুয়েলার্সের আরেক মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাতের বিরুদ্ধে বনানীর হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণ অভিযোগে মামলা হয়। এরপর আপন জুয়েলার্সের সোনা চোরাচালানের বিষয়ে তদন্তে নামে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর। ৪ জুন শুল্ক বিভাগ আপন জুয়েলার্সের ডিএনসিসি মার্কেট, উত্তরা, মৌচাক, সীমান্ত স্কয়ার ও সুবাস্তু শাখা থেকে ১৫ মণ স্বর্ণ ও ৪২৭ গ্রাম হীরা জব্দ করে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা দেয়। বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারায় ওই স্বর্ণালংকার জব্দ করা হয়। ওই স্বর্ণালংকার জব্দ করার ঘটনায় অর্থপাচারের অভিযোগে ১২ আগস্ট আপন জুয়েলার্সের তিন মালিকের বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়। এর মধ্যে দিলদারের বিরুদ্ধে তিনটি ও অপর দুইজনের বিরুদ্ধে একটি করে মামলা রয়েছে। এর আগে ৮ জুন আপন জুয়েলার্সের ওই তিন মালিকের বিরুদ্ধে শুল্ক ফাঁকির পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়। এর মধ্যে দিলদারের বিরুদ্ধে তিনটি ও অপর দুইজনের বিরুদ্ধে একটি করে মামলা রয়েছে।

Comments

Comments!

 অর্থপাচার মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার কারাগারেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

অর্থপাচার মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার কারাগারে

Tuesday, October 24, 2017 5:59 pm
1508838145

ঢাকা: অর্থপাচার মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের জামিন আবেদন নাকোচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক এ নির্দেশ দেন। এর আগে দিলদারসহ আপন জুয়েলার্সের তিন মালিক আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। অর্থ-পাচারে পৃথক তিন মামলায় আত্মসমর্পণকারী আপন জুয়েলার্সের অপর দুই মালিক হলেন- গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদ।
এর আগে সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম  মো. নুরনবীর আদালতে রমনা থানায় দায়ের করা মামলায় আপন জুয়েলার্সের তিন মালিকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।
এছাড়া রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর হাকিম নুরন্নাহার ইয়াসমিন গুলশান থানায় দায়ের করা পৃথক দুই মামলায় অপর দুই আসামি গুলজার ও আজাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জরি করেন।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, অর্থপাচারের এসব মামলায় আসামিরা উচ্চ আদালত থেকে আগাম জামিনে ছিলেন। কিন্তু সোমবার ও রোববার মামলার ধার্য তারিখে জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে আইনজীবীর মাধ্যম সময় আবেদন ও জামিন চান তারা। আদালত তা নাকচ করে আসামিদের বিরুদ্ধে পৃথক তিনটি মামলায় এ পরোয়ানা জারি করেন।
চলতি বছরের ৬ মে আপন জুয়েলার্সের আরেক মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাতের বিরুদ্ধে বনানীর হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণ অভিযোগে মামলা হয়। এরপর আপন জুয়েলার্সের সোনা চোরাচালানের বিষয়ে তদন্তে নামে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর।
৪ জুন শুল্ক বিভাগ আপন জুয়েলার্সের ডিএনসিসি মার্কেট, উত্তরা, মৌচাক, সীমান্ত স্কয়ার ও সুবাস্তু শাখা থেকে ১৫ মণ স্বর্ণ ও ৪২৭ গ্রাম হীরা জব্দ করে বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা দেয়।
বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারায় ওই স্বর্ণালংকার জব্দ করা হয়। ওই স্বর্ণালংকার জব্দ করার ঘটনায় অর্থপাচারের অভিযোগে ১২ আগস্ট আপন জুয়েলার্সের তিন মালিকের বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়। এর মধ্যে দিলদারের বিরুদ্ধে তিনটি ও অপর দুইজনের বিরুদ্ধে একটি করে মামলা রয়েছে।
এর আগে ৮ জুন আপন জুয়েলার্সের ওই তিন মালিকের বিরুদ্ধে শুল্ক ফাঁকির পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়। এর মধ্যে দিলদারের বিরুদ্ধে তিনটি ও অপর দুইজনের বিরুদ্ধে একটি করে মামলা রয়েছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X