সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:৫৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, June 2, 2017 1:41 pm
A- A A+ Print

অস্ত্র ও গোলাবারুদ মজুদের কারণ শিগগিরই জানা যাবে: আইজিপি

175870_1

নারায়ণগঞ্জ: পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) শহীদুল হক সাংবাদিকদের বলেছেন, কারা কী উদ্দেশ্যে এই বিপুল পরিমাণ অস্ত্র এ গোলাবারুদ মজুদ করেছে তা শিগগিরই জানা যাবে। শুক্রবার নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র এ গোলাবারুদ উদ্ধারের পর সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলে তিনি। রূপগঞ্জের পূর্বাচল ৫ নম্বর সেক্টরে অভিযান চালিয়ে ৬২টি এসএনজি, ৫১টি ম্যাগাজিন, ৫টি পিস্তল, ২টি ওয়াকিটকি, ২টি রকেটরঞ্চার, ৫৪টি গ্রেনেড, বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ, বোমা তৈরির সরঞ্জাম, ডেটোনেটর ও গুলি উদ্ধার করে পুলিশ। প্রেস ব্রিফিংয়ে অংশ নেন আইজিপি জানান, বিশেষভাবে মুড়িয়ে প্লাস্টিকের ব্যাগে ভরে দড়ি দিয়ে এসব অস্ত্র গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়েছিল। আইজিপি শহীদুল হক বলেন, গত মঙ্গলবার রাতে রূপগঞ্জ থানার এসআই শাজাহানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ রূপগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের বগলা গ্রামে শরিফুল ইসলাম নামের একজনের বাড়িতে অভিযান চালায়। সেখানে একটি এম সিক্সটিন রাইফেল উদ্ধার করা হয়। তবে শরিফুলকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। বৃহস্পতিবার শরিফুল একটি মাদক মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে যান। ফেরার পথে নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকা থেকে জেলা গোয়েন্দা ও রূপগঞ্জ থানা পুলিশের টিম যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাকে জিজ্ঞসাবাদ করা হলে সে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র লুকিয়ে রাখার কথা স্বীকার করে।                                    উদ্ধারকৃত অস্ত্র শরিফুলের দেয়া তথ্য অনুযায়ী বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ১টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারুক হোসেনের নেতৃত্বে অভিযান শুরু করে পুলিশ। রূপগঞ্জ উপশহরের ৩ নং সেক্টরের ব্লু সিটি এলাকায় মাটি কাটার যন্ত্র দিয়ে মাটি খনন করে দুটি এসএনজি উদ্ধার করা হয়। পরে আরো জিজ্ঞাসাবাদে শরিফুল স্বীকার করে, উপশহরের ৫ নম্বর সেক্টরে আরো বিপুল অস্ত্র মজুদ রয়েছে। পরে শরিফুলের দেখানো পথে ৫ নম্বর সেক্টরের একটি লেকে তল্লাশি চালানো হয়। লেক থেকে দড়ি দিয়ে একটি গাছের সঙ্গে বাঁধা একটি ব্যাগ দেখতে পায় পুলিশ। পরে পুলিশ ওই দড়ি টেনে একে একে আটটি প্লাস্টিকের ব্যাগ থেকে বিশেষভাবে মোড়ানো বাকি ৬০ এসএমজি উদ্ধার করে। রাতে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এনে ওই লেকে তল্লাশি চালিয়ে বাকি গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়। আইজিপি বলেন, ‘বাংলাদেশকে নিয়ে দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র চলছে। সেই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই কোনো অপরাধী চক্র এই বিপুল পরিমাণ অস্ত্র গোরাবারুদ এনে থাকতে পারে। এরই মধ্যে এক ব্যক্তি আমাদের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে। ঐ ব্যক্তির তথ্যের ভিত্তিতে এই সব অস্ত্র-গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে। এই চক্রের হাতে আরো অস্ত্র-গোলাবারুদ আছে কিনা খুঁজে দেখা হচ্ছে। কারা কী কারণে কী উদ্দেশ্যে এই গোলাবারুদ মজুদ করেছে তা শিগগিরই জানা যাবে।’ ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি মোখলেসুর রহমান, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি শফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত ডিআইজি মাহবুবুর রহমান, নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মইনুল হক।

Comments

Comments!

 অস্ত্র ও গোলাবারুদ মজুদের কারণ শিগগিরই জানা যাবে: আইজিপিAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

অস্ত্র ও গোলাবারুদ মজুদের কারণ শিগগিরই জানা যাবে: আইজিপি

Friday, June 2, 2017 1:41 pm
175870_1

নারায়ণগঞ্জ: পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) শহীদুল হক সাংবাদিকদের বলেছেন, কারা কী উদ্দেশ্যে এই বিপুল পরিমাণ অস্ত্র এ গোলাবারুদ মজুদ করেছে তা শিগগিরই জানা যাবে।

শুক্রবার নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র এ গোলাবারুদ উদ্ধারের পর সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলে তিনি।

রূপগঞ্জের পূর্বাচল ৫ নম্বর সেক্টরে অভিযান চালিয়ে ৬২টি এসএনজি, ৫১টি ম্যাগাজিন, ৫টি পিস্তল, ২টি ওয়াকিটকি, ২টি রকেটরঞ্চার, ৫৪টি গ্রেনেড, বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ, বোমা তৈরির সরঞ্জাম, ডেটোনেটর ও গুলি উদ্ধার করে পুলিশ।

প্রেস ব্রিফিংয়ে অংশ নেন আইজিপি জানান, বিশেষভাবে মুড়িয়ে প্লাস্টিকের ব্যাগে ভরে দড়ি দিয়ে এসব অস্ত্র গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়েছিল।

আইজিপি শহীদুল হক বলেন, গত মঙ্গলবার রাতে রূপগঞ্জ থানার এসআই শাজাহানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ রূপগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের বগলা গ্রামে শরিফুল ইসলাম নামের একজনের বাড়িতে অভিযান চালায়। সেখানে একটি এম সিক্সটিন রাইফেল উদ্ধার করা হয়। তবে শরিফুলকে গ্রেপ্তার করা যায়নি।

বৃহস্পতিবার শরিফুল একটি মাদক মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে যান। ফেরার পথে নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকা থেকে জেলা গোয়েন্দা ও রূপগঞ্জ থানা পুলিশের টিম যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাকে জিজ্ঞসাবাদ করা হলে সে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র লুকিয়ে রাখার কথা স্বীকার করে।

                                   উদ্ধারকৃত অস্ত্র

শরিফুলের দেয়া তথ্য অনুযায়ী বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ১টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারুক হোসেনের নেতৃত্বে অভিযান শুরু করে পুলিশ। রূপগঞ্জ উপশহরের ৩ নং সেক্টরের ব্লু সিটি এলাকায় মাটি কাটার যন্ত্র দিয়ে মাটি খনন করে দুটি এসএনজি উদ্ধার করা হয়। পরে আরো জিজ্ঞাসাবাদে শরিফুল স্বীকার করে, উপশহরের ৫ নম্বর সেক্টরে আরো বিপুল অস্ত্র মজুদ রয়েছে।

পরে শরিফুলের দেখানো পথে ৫ নম্বর সেক্টরের একটি লেকে তল্লাশি চালানো হয়। লেক থেকে দড়ি দিয়ে একটি গাছের সঙ্গে বাঁধা একটি ব্যাগ দেখতে পায় পুলিশ। পরে পুলিশ ওই দড়ি টেনে একে একে আটটি প্লাস্টিকের ব্যাগ থেকে বিশেষভাবে মোড়ানো বাকি ৬০ এসএমজি উদ্ধার করে। রাতে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল এনে ওই লেকে তল্লাশি চালিয়ে বাকি গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।

আইজিপি বলেন, ‘বাংলাদেশকে নিয়ে দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র চলছে। সেই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই কোনো অপরাধী চক্র এই বিপুল পরিমাণ অস্ত্র গোরাবারুদ এনে থাকতে পারে। এরই মধ্যে এক ব্যক্তি আমাদের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে। ঐ ব্যক্তির তথ্যের ভিত্তিতে এই সব অস্ত্র-গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে। এই চক্রের হাতে আরো অস্ত্র-গোলাবারুদ আছে কিনা খুঁজে দেখা হচ্ছে। কারা কী কারণে কী উদ্দেশ্যে এই গোলাবারুদ মজুদ করেছে তা শিগগিরই জানা যাবে।’

ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি মোখলেসুর রহমান, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি শফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত ডিআইজি মাহবুবুর রহমান, নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মইনুল হক।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X