বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৪:২৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, November 3, 2016 9:33 am | আপডেটঃ November 03, 2016 9:56 AM
A- A A+ Print

অস্ত্র-গুলিসহ ৪ জেএমবি আটক, ২ পুলিশ আহত

bagherhat1478144998

বাগেরহাটের দড়াটানা ব্রিজের কাছে জামাআতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্যদের সঙ্গে পুলিশের গোলাগুলি হয়েছে।
  এ ঘটনায় চার জেএমবি সদস্যকে হাত বোমাসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় জেএমবির ছোড়া হাত বোমায় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।   বাগেরহাট শহরের দড়াটানা ব্রিজের নিচে একটি চায়ের দোকানে জেএমবি সদস্যরা নাশকতার পরিকল্পনায় অবস্থান করছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে পুলিশ অভিযান চালায়। অভিযান চলাকালে পুলিশকে লক্ষ্য করে জেএমবি সদস্যরা বোমা নিক্ষেপ করে। এ সময় বোমা হামলায় গোয়েন্দা পুলিশের এএসআই নাজমুল হোসেন ও কনস্টেবল মোস্তাফিজুর রহমান আহত হন।   পরে পুলিশ পাঁচ রাউন্ড গুলি ছুড়ে ওই এলাকা ঘিরে ফেলে চার জেএমবি সদস্যকে আটক করে। এ সময় অজ্ঞাত ২/৩ জন জেএমবি সদস্য পালিয়ে যায়।   আটককৃতরা হলেন- সাতক্ষীরা জেলা সদরের গড়েরকান্দা গ্রামের জুম্মান আলী সরদারের ছেলে মো. মাকসুদুর রহমান ওরফে তোতা (২৪), একই জেলার ইটগাছা গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৬), কদমতলা বাজার এলাকার গিয়াস উদ্দিনের ছেলে মোরশেদ আলম (২০) ও পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের আশরাফুল আলী ফরাজীর ছেলে জহিরুল ইসলাম (২২)।   উদ্ধার করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে- একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি, দুটি বোমা, একটি ল্যাপটপ, ধারালো অস্ত্র, দুটি মোবাইলসহ বোমা তৈরির সরঞ্জামাদি।   বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় বলেন, বাগেরহাট শহরের দড়াটানা ব্রিজের নিচে একটি চায়ের দোকানে জেএমবি সদস্যরা নাশকতার পরিকল্পনায় অবস্থান করছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাসের নেতৃত্বে বাগেরহাট মডেল থানা ও গোয়েন্দা পুলিশ অভিযানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জেএমবি সদস্যরা পুলিশের ওপর বোমা নিক্ষেপ করলে পুলিশ পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় চার জেএমবি সদস্যকে আটক করা হয়। বোমা হামলায় পুলিশের দুই সদস্য আহত হন। এ ঘটনায় অস্ত্র, বোমা বিস্ফোরণ, তথ্য প্রযুক্তি আইনসহ চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।  

Comments

Comments!

 অস্ত্র-গুলিসহ ৪ জেএমবি আটক, ২ পুলিশ আহতAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

অস্ত্র-গুলিসহ ৪ জেএমবি আটক, ২ পুলিশ আহত

Thursday, November 3, 2016 9:33 am | আপডেটঃ November 03, 2016 9:56 AM
bagherhat1478144998

বাগেরহাটের দড়াটানা ব্রিজের কাছে জামাআতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্যদের সঙ্গে পুলিশের গোলাগুলি হয়েছে।

 

এ ঘটনায় চার জেএমবি সদস্যকে হাত বোমাসহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় জেএমবির ছোড়া হাত বোমায় দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

 

বাগেরহাট শহরের দড়াটানা ব্রিজের নিচে একটি চায়ের দোকানে জেএমবি সদস্যরা নাশকতার পরিকল্পনায় অবস্থান করছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে পুলিশ অভিযান চালায়। অভিযান চলাকালে পুলিশকে লক্ষ্য করে জেএমবি সদস্যরা বোমা নিক্ষেপ করে। এ সময় বোমা হামলায় গোয়েন্দা পুলিশের এএসআই নাজমুল হোসেন ও কনস্টেবল মোস্তাফিজুর রহমান আহত হন।

 

পরে পুলিশ পাঁচ রাউন্ড গুলি ছুড়ে ওই এলাকা ঘিরে ফেলে চার জেএমবি সদস্যকে আটক করে। এ সময় অজ্ঞাত ২/৩ জন জেএমবি সদস্য পালিয়ে যায়।

 

আটককৃতরা হলেন- সাতক্ষীরা জেলা সদরের গড়েরকান্দা গ্রামের জুম্মান আলী সরদারের ছেলে মো. মাকসুদুর রহমান ওরফে তোতা (২৪), একই জেলার ইটগাছা গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৬), কদমতলা বাজার এলাকার গিয়াস উদ্দিনের ছেলে মোরশেদ আলম (২০) ও পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের আশরাফুল আলী ফরাজীর ছেলে জহিরুল ইসলাম (২২)।

 

উদ্ধার করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে- একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি, দুটি বোমা, একটি ল্যাপটপ, ধারালো অস্ত্র, দুটি মোবাইলসহ বোমা তৈরির সরঞ্জামাদি।

 

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় বলেন, বাগেরহাট শহরের দড়াটানা ব্রিজের নিচে একটি চায়ের দোকানে জেএমবি সদস্যরা নাশকতার পরিকল্পনায় অবস্থান করছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাসের নেতৃত্বে বাগেরহাট মডেল থানা ও গোয়েন্দা পুলিশ অভিযানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জেএমবি সদস্যরা পুলিশের ওপর বোমা নিক্ষেপ করলে পুলিশ পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় চার জেএমবি সদস্যকে আটক করা হয়। বোমা হামলায় পুলিশের দুই সদস্য আহত হন। এ ঘটনায় অস্ত্র, বোমা বিস্ফোরণ, তথ্য প্রযুক্তি আইনসহ চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X