রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১২:৪১
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, December 3, 2016 4:17 pm
A- A A+ Print

আইএসের অনুমতির বিষয়ে তথ্য নেই

25

গুলশানে হলি আর্টিজান হামলার আগে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) কাছ থেকে তামিম চৌধুরী অনুমতি নিয়েছিলেন কি না, সে বিষয়ে কোনো তথ্য গোয়েন্দাদের কাছে নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।শনিবার দুপুরে ডিএমপির সদর দপ্তরে এক অনুষ্ঠানে  সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স একটি প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত ১ জুলাই হলি আর্টিজানে হামলার আগে আইএসের কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছিলেন ওই হামলার সন্দেহভাজন পরিকল্পনাকারী তামিম চৌধুরী। আইএসও এই হামলার অনুমতি দিয়েছিল। গুলশান হামলায় আইএসের বিশেষ ভূমিকা ছিল, তার তথ্য-প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাদের দাবি, হামলার আগে তাদের মাঝে যোগাযোগের এ তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা। সেই কর্মকর্তা জানান, বিদেশি নাগরিকদের হামলার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করতে তামিম চৌধুরী জঙ্গিগোষ্ঠীর সদস্য আবু তারেক মোহাম্মদ তাজউদ্দিন কাউসারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে কমিশনার বলেন, আইএসের সঙ্গে তামিম চৌধুরীর যোগাযোগ বা হামলার আগে তাদের কাছ থেকে অনুমতি দেওয়ার বিষয়ে আমাদের ‘ইন্টিলিজেন্সদের’ কাছে কোনো তথ্য নেই। তিনি বলেন, জঙ্গিবাদ নির্মূলে আমাদের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিট (সিটিটিসি) কাজ করছে। ভবিষ্যতে দেশের মানুষের নিরাপত্তার স্বার্থে তারা কাজ করে যাবে। তিনি আরো বলেন, গুলশান হামলার পর থেকে পুলিশের সক্ষমতা অনেক বেড়েছে। আমরা এখন যেকোনো ধরনের হামলা মোকাবিলায় সক্ষম। এক প্রশ্নের জবাবে কমিশনার বলেন, জঙ্গি সংগঠন নব্য জেএমবির অনেক নেতা বিভিন্ন অভিযানে মারা গেছেন। অনেকে পলাতক রয়েছেন। এদের মধ্যে মারজান, বাশার, রাজিবসহ পলাতকদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গত ১ জুলাই হলি আর্টিজানে জঙ্গিদের হামলায় ২২ জন নিহত হন। তাদের বেশির ভাগই বিদেশি নাগরিক। হামলার পর থেকে পুলিশ দাবি করছিল হামলার মাস্টারমাইন্ড তামিম চৌধুরী। তিনি নব্য জেএমবির শীর্ষ নেতা।  গত ২৭ আগস্ট নারায়ণগঞ্জে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানে নিহত হন তামিম।    

Comments

Comments!

 আইএসের অনুমতির বিষয়ে তথ্য নেইAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

আইএসের অনুমতির বিষয়ে তথ্য নেই

Saturday, December 3, 2016 4:17 pm
25

গুলশানে হলি আর্টিজান হামলার আগে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) কাছ থেকে তামিম চৌধুরী অনুমতি নিয়েছিলেন কি না, সে বিষয়ে কোনো তথ্য গোয়েন্দাদের কাছে নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।শনিবার দুপুরে ডিএমপির সদর দপ্তরে এক অনুষ্ঠানে  সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স একটি প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত ১ জুলাই হলি আর্টিজানে হামলার আগে আইএসের কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছিলেন ওই হামলার সন্দেহভাজন পরিকল্পনাকারী তামিম চৌধুরী। আইএসও এই হামলার অনুমতি দিয়েছিল। গুলশান হামলায় আইএসের বিশেষ ভূমিকা ছিল, তার তথ্য-প্রমাণ পাওয়া গেছে।

তাদের দাবি, হামলার আগে তাদের মাঝে যোগাযোগের এ তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা। সেই কর্মকর্তা জানান, বিদেশি নাগরিকদের হামলার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করতে তামিম চৌধুরী জঙ্গিগোষ্ঠীর সদস্য আবু তারেক মোহাম্মদ তাজউদ্দিন কাউসারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কমিশনার বলেন, আইএসের সঙ্গে তামিম চৌধুরীর যোগাযোগ বা হামলার আগে তাদের কাছ থেকে অনুমতি দেওয়ার বিষয়ে আমাদের ‘ইন্টিলিজেন্সদের’ কাছে কোনো তথ্য নেই।

তিনি বলেন, জঙ্গিবাদ নির্মূলে আমাদের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিট (সিটিটিসি) কাজ করছে। ভবিষ্যতে দেশের মানুষের নিরাপত্তার স্বার্থে তারা কাজ করে যাবে।

তিনি আরো বলেন, গুলশান হামলার পর থেকে পুলিশের সক্ষমতা অনেক বেড়েছে। আমরা এখন যেকোনো ধরনের হামলা মোকাবিলায় সক্ষম।

এক প্রশ্নের জবাবে কমিশনার বলেন, জঙ্গি সংগঠন নব্য জেএমবির অনেক নেতা বিভিন্ন অভিযানে মারা গেছেন। অনেকে পলাতক রয়েছেন। এদের মধ্যে মারজান, বাশার, রাজিবসহ পলাতকদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

গত ১ জুলাই হলি আর্টিজানে জঙ্গিদের হামলায় ২২ জন নিহত হন। তাদের বেশির ভাগই বিদেশি নাগরিক। হামলার পর থেকে পুলিশ দাবি করছিল হামলার মাস্টারমাইন্ড তামিম চৌধুরী। তিনি নব্য জেএমবির শীর্ষ নেতা।  গত ২৭ আগস্ট নারায়ণগঞ্জে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানে নিহত হন তামিম।

 

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X