বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৩৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, January 14, 2017 6:32 pm
A- A A+ Print

আবারও রাজপথে আসব,আমরা শেষ পর্যন্ত লড়ে যাব : ফখরুল

৩৪

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সময়-সুযোগমতো আবারও রাজপথে আসবে বিএনপি। তিনি আরও বলেন, ‘আমরা একটা কথা পরিষ্কার করে বলতে পারি, উই আর কমিটেড উইল ফাইট টু দ্য লাস্ট (আমরা শেষ পর্যন্ত লড়ে যাব)।’ আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল ইসলাম এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, ‘আন্দোলন কৌশলের ব্যাপার। রাজনীতিতে উত্থান-পতন আছে, কখনো আমার ভালো সময় যাবে, কখনো খারাপ সময় যাবে। আমরা প্রতিবার রাজপথে আসছি, সময়মতো-সুযোগমতো অবশ্যই আবারও রাজপথে আসব।’ বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমরা গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনবার জন্য, শহীদ জিয়াউর রহমানের আদর্শ বাস্তবায়নের জন্য, জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও সংগ্রাম করব, লড়াই করব। সেই লড়াইয়ে সফল হব, ইনশা আল্লাহ।’ এর আগে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিএনপির রাজপথে না থাকার সমালোচনা করেন। এ সময় তিনি মন্তব্য করেন, বিএনপি খালেদা জিয়ার ওপর সব দায়-দায়িত্ব দিয়ে ভুল করছে। এর জবাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘ওনার কথাগুলো আমরা শ্রদ্ধার সঙ্গে নিয়েছি। তবে একটা কথা না বললেই নয়, বিএনপি গণতান্ত্রিক শক্তি। আমরা লড়াই করছি একটা ফ্যাসিস্ট শক্তির সঙ্গে। এই এক বছরে আমাদের হাজারের ওপরে নেতা-কর্মীকে হত্যা করা হয়েছে, পুলিশ গুলি করে মেরেছে। পাঁচ শর ওপরে আমাদের নেতা-কর্মী গুম হয়ে গেছে, হাজার হাজার নেতা-কর্মী পঙ্গু হয়েছে, ক্রাচে ভর করে এখনো আসে, কেউ রিকশা চালায়।’ ফখরুল বলেন, এই সরকার তার ফ্যাসিস্ট বাহিনী দিয়ে নির্মম নির্যাতনে বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য কাজ করছে। সেটা কোনো দিনও সম্ভব হবে না। তিনি আরও বলেন, ‘এত কিছুর পরও তারা আমাদের একজন নেতা-কর্মীকেও বিচ্যুত করতে পারেনি। এখানেই বিএনপির শক্তি, এখানে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের শক্তি।’ বিএনপির মহাসচিব খালেদা জিয়ার নেতৃত্বের প্রশংসা করে বলেন, ‘আমি তাঁকে অভিবাদন জানাই। বাংলাদেশে কয়জন নেতা আছেন, যাঁরা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের জন্য এত ত্যাগ স্বীকার করেছেন। একজন গৃহবধূ ছিলেন, দেশের প্রয়োজনে রাজনীতিতে এসেছেন। দীর্ঘ নয় বছর রাজপথে সংগ্রাম করেছেন, ক্ষমতায় বসে সংগ্রাম করেননি। তারপরে স্বামী হারিয়েছেন, পুত্র হারিয়েছেন, আরেক পুত্র নির্বাসিত। তাঁকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করা হয়েছে, এখন প্রতি সপ্তাহে আদালতে গিয়ে মিথ্যা মামলায় তাঁকে হাজিরা দিতে হয়।’ মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, গোটা বাংলাদেশে এখন বিএনপি মানেই হচ্ছে আসামি। বিএনপি মানেই হচ্ছে, কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে অথবা জেলখানায় থাকতে হবে। বিএনপি মানেই হচ্ছে, তাঁকে রাতের অন্ধকারে হত্যা করা হবে অথবা এলাকা থেকে পালিয়ে অন্য জায়গায় থাকতে হবে। ডেমোক্রেসি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ নামে একটি সংগঠন আবদুল হাই শিকদার রচিত ‘জ্যোতির্ময় জিয়া এবং কালো মেঘের দল’ বইয়ের চতুর্থ সংস্করণের প্রকাশনা উপলক্ষে এই আলোচনা সভা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন আশরাফ উদ্দিন। আরও বক্তব্য দেন অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমেদ, অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহ, সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ, গ্রন্থের লেখক আবদুল হাই শিকদার প্রমুখ।

Comments

Comments!

 আবারও রাজপথে আসব,আমরা শেষ পর্যন্ত লড়ে যাব : ফখরুলAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

আবারও রাজপথে আসব,আমরা শেষ পর্যন্ত লড়ে যাব : ফখরুল

Saturday, January 14, 2017 6:32 pm
৩৪

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সময়-সুযোগমতো আবারও রাজপথে আসবে বিএনপি। তিনি আরও বলেন, ‘আমরা একটা কথা পরিষ্কার করে বলতে পারি, উই আর কমিটেড উইল ফাইট টু দ্য লাস্ট (আমরা শেষ পর্যন্ত লড়ে যাব)।’
আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল ইসলাম এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, ‘আন্দোলন কৌশলের ব্যাপার। রাজনীতিতে উত্থান-পতন আছে, কখনো আমার ভালো সময় যাবে, কখনো খারাপ সময় যাবে। আমরা প্রতিবার রাজপথে আসছি, সময়মতো-সুযোগমতো অবশ্যই আবারও রাজপথে আসব।’
বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমরা গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনবার জন্য, শহীদ জিয়াউর রহমানের আদর্শ বাস্তবায়নের জন্য, জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও সংগ্রাম করব, লড়াই করব। সেই লড়াইয়ে সফল হব, ইনশা আল্লাহ।’
এর আগে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিএনপির রাজপথে না থাকার সমালোচনা করেন। এ সময় তিনি মন্তব্য করেন, বিএনপি খালেদা জিয়ার ওপর সব দায়-দায়িত্ব দিয়ে ভুল করছে।
এর জবাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘ওনার কথাগুলো আমরা শ্রদ্ধার সঙ্গে নিয়েছি। তবে একটা কথা না বললেই নয়, বিএনপি গণতান্ত্রিক শক্তি। আমরা লড়াই করছি একটা ফ্যাসিস্ট শক্তির সঙ্গে। এই এক বছরে আমাদের হাজারের ওপরে নেতা-কর্মীকে হত্যা করা হয়েছে, পুলিশ গুলি করে মেরেছে। পাঁচ শর ওপরে আমাদের নেতা-কর্মী গুম হয়ে গেছে, হাজার হাজার নেতা-কর্মী পঙ্গু হয়েছে, ক্রাচে ভর করে এখনো আসে, কেউ রিকশা চালায়।’
ফখরুল বলেন, এই সরকার তার ফ্যাসিস্ট বাহিনী দিয়ে নির্মম নির্যাতনে বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য কাজ করছে। সেটা কোনো দিনও সম্ভব হবে না। তিনি আরও বলেন, ‘এত কিছুর পরও তারা আমাদের একজন নেতা-কর্মীকেও বিচ্যুত করতে পারেনি। এখানেই বিএনপির শক্তি, এখানে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের শক্তি।’
বিএনপির মহাসচিব খালেদা জিয়ার নেতৃত্বের প্রশংসা করে বলেন, ‘আমি তাঁকে অভিবাদন জানাই। বাংলাদেশে কয়জন নেতা আছেন, যাঁরা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের জন্য এত ত্যাগ স্বীকার করেছেন। একজন গৃহবধূ ছিলেন, দেশের প্রয়োজনে রাজনীতিতে এসেছেন। দীর্ঘ নয় বছর রাজপথে সংগ্রাম করেছেন, ক্ষমতায় বসে সংগ্রাম করেননি। তারপরে স্বামী হারিয়েছেন, পুত্র হারিয়েছেন, আরেক পুত্র নির্বাসিত। তাঁকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করা হয়েছে, এখন প্রতি সপ্তাহে আদালতে গিয়ে মিথ্যা মামলায় তাঁকে হাজিরা দিতে হয়।’
মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, গোটা বাংলাদেশে এখন বিএনপি মানেই হচ্ছে আসামি। বিএনপি মানেই হচ্ছে, কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে অথবা জেলখানায় থাকতে হবে। বিএনপি মানেই হচ্ছে, তাঁকে রাতের অন্ধকারে হত্যা করা হবে অথবা এলাকা থেকে পালিয়ে অন্য জায়গায় থাকতে হবে।
ডেমোক্রেসি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ নামে একটি সংগঠন আবদুল হাই শিকদার রচিত ‘জ্যোতির্ময় জিয়া এবং কালো মেঘের দল’ বইয়ের চতুর্থ সংস্করণের প্রকাশনা উপলক্ষে এই আলোচনা সভা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন আশরাফ উদ্দিন। আরও বক্তব্য দেন অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমেদ, অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহ, সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ, গ্রন্থের লেখক আবদুল হাই শিকদার প্রমুখ।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X