সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৯:৪৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, July 4, 2017 3:08 pm
A- A A+ Print

‘আমাদেরকে বললো ওষুধ নিয়ে যেতে, তাকে ভীষণ অসুস্থ ও ট্রমাটাইজড লাগছিলো’

1

ঢাকা: বিশিষ্ট কবি, কলামিস্ট ফরহাদ মজহারকে বাংলাদেশের যশোর জেলার নোয়াপাড়ায় ঢাকাগামী একটি বাস থেকে উদ্ধার করা হয় গতরাতে। উদ্ধারের পর প্রথমে ঢাকার আদাবর থানা ও পরে তাকে গোয়েন্দা পুলিশ বা ডিবির কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ফরহাদ মজহারের স্ত্রী ফরিদা আক্তার জানান, আজ সকাল সাড়ে আটটার দিকে মজহারকে ঢাকার আদাবর থানায় নিয়ে আসা হয়। ‘আমাদেরকে বললো উনার ওষুধ নিয়ে যেতে। ব্লাডপ্রেশারের ওষুধ কাল খেতে পারেননি বলে ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন তিনি। তাকে বেশ ক্লান্ত, বিধ্বস্ত ও ট্রমাটাইজড লাগছিলো’- বলেন ফরিদা আক্তার। খবর বিবিসির। তবে আদাবর থানায় কিছু সময় স্বামীর পাশে বসে থাকলেও কোনো ধরনের কথা হয়নি বলে জানান ফরিদা আক্তার। ‘তিনিতো অনেক অসুস্থ। কোনো কথা বলতে পারছেন না। ওখানে ঘন্টাখানেক রাখার পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি অফিসে নিয়ে আসা হয়েছে’-বলেন ফরহাদ মজহারের স্ত্রী। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত মজহারের স্ত্রী ও পরিবারের কজন সদস্য ডিবি অফিসেই অপেক্ষা করছিলেন। ফরহাদ মজহারকে সোমবার ভোর থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছিল তার পরিবার। ঢাকার শ্যামলীর নিজের বাসা থেকে ভোর পাঁচটার দিকে একটা ফোন পেয়ে বের হয়ে যান ফরহাদ মজহার। এরপর তার মোবাইল ফোন ব্যবহার করে একাধিকবার মুক্তিপণও দাবী করা হয়েছিল বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়। মজহারকে উদ্ধারের পর মুক্তিপণ বা অন্য কোনো বিষয়ে পুলিশ এখন পর্যন্ত তার পরিবারকে কিছু জানায়নি বলে জানাচ্ছিলেন ফরিদা আক্তার। ফরহাদ মজহারকে উদ্ধারের পর রাত একটার দিকে খুলনায় এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহমেদ বলেন ‘উদ্ধারের সময় মজহারের কাছে একটি ব্যাগ পাওয়া গেছে যাতে দৈনন্দিন ব্যবহারের জিনিসপত্র ছিল।’ তিনি বলেন, ‘আমরা এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় বেড়াতে গেলে যেমন প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো নিয়ে নিই, তার ব্যাগের ভেতর সেসব জিনিস প্রমাণ করে যে তিনি স্বেচ্ছায় গিয়েছেন’।

Comments

Comments!

 ‘আমাদেরকে বললো ওষুধ নিয়ে যেতে, তাকে ভীষণ অসুস্থ ও ট্রমাটাইজড লাগছিলো’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘আমাদেরকে বললো ওষুধ নিয়ে যেতে, তাকে ভীষণ অসুস্থ ও ট্রমাটাইজড লাগছিলো’

Tuesday, July 4, 2017 3:08 pm
1

ঢাকা: বিশিষ্ট কবি, কলামিস্ট ফরহাদ মজহারকে বাংলাদেশের যশোর জেলার নোয়াপাড়ায় ঢাকাগামী একটি বাস থেকে উদ্ধার করা হয় গতরাতে। উদ্ধারের পর প্রথমে ঢাকার আদাবর থানা ও পরে তাকে গোয়েন্দা পুলিশ বা ডিবির কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

ফরহাদ মজহারের স্ত্রী ফরিদা আক্তার জানান, আজ সকাল সাড়ে আটটার দিকে মজহারকে ঢাকার আদাবর থানায় নিয়ে আসা হয়।

‘আমাদেরকে বললো উনার ওষুধ নিয়ে যেতে। ব্লাডপ্রেশারের ওষুধ কাল খেতে পারেননি বলে ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন তিনি। তাকে বেশ ক্লান্ত, বিধ্বস্ত ও ট্রমাটাইজড লাগছিলো’- বলেন ফরিদা আক্তার। খবর বিবিসির।

তবে আদাবর থানায় কিছু সময় স্বামীর পাশে বসে থাকলেও কোনো ধরনের কথা হয়নি বলে জানান ফরিদা আক্তার।

‘তিনিতো অনেক অসুস্থ। কোনো কথা বলতে পারছেন না। ওখানে ঘন্টাখানেক রাখার পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি অফিসে নিয়ে আসা হয়েছে’-বলেন ফরহাদ মজহারের স্ত্রী।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত মজহারের স্ত্রী ও পরিবারের কজন সদস্য ডিবি অফিসেই অপেক্ষা করছিলেন।

ফরহাদ মজহারকে সোমবার ভোর থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছিল তার পরিবার।

ঢাকার শ্যামলীর নিজের বাসা থেকে ভোর পাঁচটার দিকে একটা ফোন পেয়ে বের হয়ে যান ফরহাদ মজহার।

এরপর তার মোবাইল ফোন ব্যবহার করে একাধিকবার মুক্তিপণও দাবী করা হয়েছিল বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

মজহারকে উদ্ধারের পর মুক্তিপণ বা অন্য কোনো বিষয়ে পুলিশ এখন পর্যন্ত তার পরিবারকে কিছু জানায়নি বলে জানাচ্ছিলেন ফরিদা আক্তার।

ফরহাদ মজহারকে উদ্ধারের পর রাত একটার দিকে খুলনায় এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহমেদ বলেন ‘উদ্ধারের সময় মজহারের কাছে একটি ব্যাগ পাওয়া গেছে যাতে দৈনন্দিন ব্যবহারের জিনিসপত্র ছিল।’

তিনি বলেন, ‘আমরা এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় বেড়াতে গেলে যেমন প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো নিয়ে নিই, তার ব্যাগের ভেতর সেসব জিনিস প্রমাণ করে যে তিনি স্বেচ্ছায় গিয়েছেন’।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X