বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১০:৫৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, December 16, 2016 12:41 pm
A- A A+ Print

‘আম্মা’র পর ‘চিনাম্মা’র যুগে তামিলনাড়ু

photo-1481863823

ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যবাসীর প্রিয় ‘আম্মা’ জয়রাম জয়ললিতার মৃত্যুর পর ‘চিনাম্মা’ (খালা) শশীকলা নটরাজনের হাতেই যাচ্ছে  শাসনের ভার। এমন সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত করেছে তামিলনাড়ুর ক্ষমতাসীন দল এআইএডিএমকে । দুই সপ্তাহ আগে জয়রাম জয়ললিতার মৃত্যুর পর দলের বিশ্বস্ত সূত্র থেকে জানা গিয়েছিল, দলের দায়িত্ব নিতে চলেছেন শশীকলা। অনুমিত সেই খবরটিকে সত্যি প্রমাণ করে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে এআইএডিএমকে এ-সংক্রান্ত একটি ঘোষণা দিয়ে। দলটির মুখপাত্র ও তামিলনাড়ুর স্পিকার সি পোন্নাইয়ান বলেন, ‘পুরো দলের চাওয়া ছিল এটিই যে, আম্মার পর চিনাম্মা আসুন। আম্মার মতো করে ক্ষমতার দায়িত্বভার সামলানোর ক্ষমতা আছে একমাত্র তাঁরই।’ ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, ৫৪ বছর বয়সী শশীকলা নটরাজন এর আগে তামিলনাড়ুর ক্ষমতাসীন এআইএডিএমকের কোনো পদে ছিলেন না। দলে তাঁর অন্তর্ভুক্তি ও মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের জন্য নিয়মে সংশোধন আনতে হবে। গত ৫ ডিসেম্বর হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে মৃত্যুবরণের আগপর্যন্ত তামিলনাড়ুর দুই লাখ সন্তানের মা বলে পরিচিত জয়ললিতার জনপ্রিয়তা ছিল আকাশচুম্বী। তিনি ছিলেন অবিবাহিত। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, তাঁর প্রতি তামিলনাড়ুবাসীর নিষ্ঠা ছিল ‘ধর্মবিশ্বাসের সমপর্যায়ের’। মৃত্যুর আগপর্যন্ত চেন্নাইয়ে জয়ললিতার বিশাল বাংলো ‘পোয়েস গার্ডেনে’ তাঁর সঙ্গেই ছিলেন ‘চিনাম্মা’ শশীকলা। এনডিটিভির খবর অনুযায়ী, তামিলনাড়ুতে জয়ললিতার দলে অনেক চাটুকার ছিলেন, যাদের কখনো নিরুৎসাহিত করেননি আম্মা। এমনটি জয়ললিতা কোনো জনসমাবেশে গেলে মন্ত্রীসহ দলের নেতাকর্মীরা তাঁকে ভূমিষ্ঠ হয়ে প্রণাম করতেন। তাঁর মৃত্যুর পর দলে আম্মার অনুগত ও পান্নেরসেলভাম তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী হন। এই পান্নেরসেলভামও আম্মাকে প্রচণ্ড সম্মান করতেন। এমনকি সব সময় নিজের শার্টের পকেটে আম্মার একটি ছবি রাখতেন পান্নেরসেলভাম। এর আগে ভারতের লোকসভার ডেপুটি স্পিকার থামবিদুরাই সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, আম্মার পর সেই জায়গা নিতে পারেন একমাত্র চিনাম্মা। থামবিদুরাই আরো বলেন, জয়ললিতার পর দলে শশীকলার নামই উঠে আসছে ওই জায়গায়। তাই তাঁকে পার্টির জেনারেল সেক্রেটারির দায়িত্ব গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। থামবিদুরাইয়ের মতে, দল চায় নেতৃত্বে আসুন শশীকলা। এতে সম্মতি রয়েছে দলের সদস্য থেকে শুরু করে বিধায়ক, সংসদদেরও। এ ক্ষেত্রে দ্বিতীয় আর কারো নামই ভাবছেন না তাঁরা। তিনি আরো বলেন, এআইএডিএমকে মানুষের পার্টি। আর শশীকলা মানুষের নাড়ি খুব ভালোই বোঝেন।

Comments

Comments!

 ‘আম্মা’র পর ‘চিনাম্মা’র যুগে তামিলনাড়ুAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘আম্মা’র পর ‘চিনাম্মা’র যুগে তামিলনাড়ু

Friday, December 16, 2016 12:41 pm
photo-1481863823

ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যবাসীর প্রিয় ‘আম্মা’ জয়রাম জয়ললিতার মৃত্যুর পর ‘চিনাম্মা’ (খালা) শশীকলা নটরাজনের হাতেই যাচ্ছে  শাসনের ভার। এমন সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত করেছে তামিলনাড়ুর ক্ষমতাসীন দল এআইএডিএমকে ।

দুই সপ্তাহ আগে জয়রাম জয়ললিতার মৃত্যুর পর দলের বিশ্বস্ত সূত্র থেকে জানা গিয়েছিল, দলের দায়িত্ব নিতে চলেছেন শশীকলা। অনুমিত সেই খবরটিকে সত্যি প্রমাণ করে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে এআইএডিএমকে এ-সংক্রান্ত একটি ঘোষণা দিয়ে।

দলটির মুখপাত্র ও তামিলনাড়ুর স্পিকার সি পোন্নাইয়ান বলেন, ‘পুরো দলের চাওয়া ছিল এটিই যে, আম্মার পর চিনাম্মা আসুন। আম্মার মতো করে ক্ষমতার দায়িত্বভার সামলানোর ক্ষমতা আছে একমাত্র তাঁরই।’

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, ৫৪ বছর বয়সী শশীকলা নটরাজন এর আগে তামিলনাড়ুর ক্ষমতাসীন এআইএডিএমকের কোনো পদে ছিলেন না। দলে তাঁর অন্তর্ভুক্তি ও মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের জন্য নিয়মে সংশোধন আনতে হবে।

গত ৫ ডিসেম্বর হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে মৃত্যুবরণের আগপর্যন্ত তামিলনাড়ুর দুই লাখ সন্তানের মা বলে পরিচিত জয়ললিতার জনপ্রিয়তা ছিল আকাশচুম্বী। তিনি ছিলেন অবিবাহিত।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, তাঁর প্রতি তামিলনাড়ুবাসীর নিষ্ঠা ছিল ‘ধর্মবিশ্বাসের সমপর্যায়ের’। মৃত্যুর আগপর্যন্ত চেন্নাইয়ে জয়ললিতার বিশাল বাংলো ‘পোয়েস গার্ডেনে’ তাঁর সঙ্গেই ছিলেন ‘চিনাম্মা’ শশীকলা।

এনডিটিভির খবর অনুযায়ী, তামিলনাড়ুতে জয়ললিতার দলে অনেক চাটুকার ছিলেন, যাদের কখনো নিরুৎসাহিত করেননি আম্মা। এমনটি জয়ললিতা কোনো জনসমাবেশে গেলে মন্ত্রীসহ দলের নেতাকর্মীরা তাঁকে ভূমিষ্ঠ হয়ে প্রণাম করতেন। তাঁর মৃত্যুর পর দলে আম্মার অনুগত ও পান্নেরসেলভাম তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী হন।

এই পান্নেরসেলভামও আম্মাকে প্রচণ্ড সম্মান করতেন। এমনকি সব সময় নিজের শার্টের পকেটে আম্মার একটি ছবি রাখতেন পান্নেরসেলভাম।

এর আগে ভারতের লোকসভার ডেপুটি স্পিকার থামবিদুরাই সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, আম্মার পর সেই জায়গা নিতে পারেন একমাত্র চিনাম্মা।

থামবিদুরাই আরো বলেন, জয়ললিতার পর দলে শশীকলার নামই উঠে আসছে ওই জায়গায়। তাই তাঁকে পার্টির জেনারেল সেক্রেটারির দায়িত্ব গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

থামবিদুরাইয়ের মতে, দল চায় নেতৃত্বে আসুন শশীকলা। এতে সম্মতি রয়েছে দলের সদস্য থেকে শুরু করে বিধায়ক, সংসদদেরও। এ ক্ষেত্রে দ্বিতীয় আর কারো নামই ভাবছেন না তাঁরা। তিনি আরো বলেন, এআইএডিএমকে মানুষের পার্টি। আর শশীকলা মানুষের নাড়ি খুব ভালোই বোঝেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X