শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৮:৪০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, May 25, 2017 7:40 pm
A- A A+ Print

ইংরেজি মাধ্যমে সেশন ফির নামে অর্থ আদায় বেআইনি

10

দেশের ইংরেজি মাধ্যমের কোনো শিক্ষার্থী এক শ্রেণি থেকে অন্য শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হওয়ার পর পুনরায় ভর্তি বা সেশন ফির নামে তার কাছ থেকে অর্থ আদায় করা বেআইনি বলে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সেশন ফি ও ভ্যাট আদায়-সংক্রান্ত পৃথক দুটি রিটের চূড়ান্ত শুনানি শেষে আজ বৃহস্পতিবার বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. বদরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন। ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনা কার্যক্রমে স্বচ্ছতা বজায় রাখতে বেশ কয়েক দফা নির্দেশনা দিয়েছেন উচ্চ আদালত। ১৯৬২ সালের বেসরকারি বিদ্যালয় নিবন্ধন অধ্যাদেশ ও ২০০৭ সালের বেসরকারি (ইংরেজি মাধ্যম) বিদ্যালয় নিবন্ধন নীতিমালা অনুসারে দেশের প্রতিটি ইংরেজি মাধ্যম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (প্লে গ্রুপ থেকে এ লেভেল পর্যন্ত) ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন করতে হবে। কমিটিতে অভিভাবকদের প্রতিনিধিও থাকতে হবে। রায়ে আরও বলা হয়, ব্যবস্থাপনা কমিটি শিক্ষার্থীদের ভর্তি ফি, বেতন নির্ধারণ করবে, শিক্ষক ও কর্মচারী নিয়োগ দেবে। এ ক্ষেত্রে মালিক পক্ষের হস্তক্ষেপ থাকবে না। একই সঙ্গে শিক্ষক ও স্টাফ নিয়োগ প্রক্রিয়া স্বচ্ছ করতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অডিট রিপোর্ট অভিভাবকদের কাছে সহজলভ্য করতে হবে ও বিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে। ব্যবস্থাপনা কমিটি যদি অন্য কোনো চার্জ আরোপ করে, তাহলে অভিভাবকদের মতামত ও বক্তব্যের প্রাধান্য দিতে হবে ও স্বচ্ছতার জন্য ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে। ‘ফ্রি স্টাইলে চলছে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল’ শিরোনামে কয়েক বছর আগে একটি দৈনিকে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এ প্রতিবেদন যুক্ত করে এ বিষয়ে নীতিমালা প্রণয়নের জন্য নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন দুই শিক্ষার্থীর অভিভাবক জাবেদ ফারুক। রিটে রাজধানীর ইংরেজি মাধ্যমের ২৮টি স্কুলকে বিবাদী করা হয়। প্রাথমিক শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রুলসহ অন্তর্বর্তী আদেশ দেন। অপর রিটটি করেন আইনজীবী ফাতেমা এস চৌধুরী। ওই রিটেও রুল আসে। এসব রুলের ওপর গত ৫ এপ্রিল শুনানি শেষ হয়। এর ধারাবাহিকতায় আদালত আজ রায় ঘোষণা করেন। জাবেদ ফারুকের করা রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী এম বদরুদোজ্জা বাদল, অনীকা হক ও জে আর খান রবিন। অপর রিটের পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন আইনজীবী মাসুদ রেজা সোবহান। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সরদার মো. রাশেদ জাহাঙ্গীর ও প্রতিকার চাকমা। ইংরেজি মাধ্যম বিদ্যালয়গুলোর পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আসাদুজ্জামান, ওমর সাদাত ও আহসানুল করিম। রায়ের পর অনীকা হক বলেন, ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষার্থী এক শ্রেণি থেকে অন্য শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হওয়ার পর তার কাছ থেকে পুনরায় ভর্তি, সেশন ফি, একাডেমিক ফি বা অন্য কোনো ফির নামে ফি নেওয়া যাবে না বলে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। তিনি বলেন, দেশের কৃষ্টি ও সংস্কৃতি অনুযায়ী জাতীয় দিবসগুলো যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করতে হবে। বঙ্গবন্ধু, ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস শিক্ষার্থীদের জানাতে হবে। এসব স্কুলে প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত বাংলা ভাষাকে আরও গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে; যাতে ভবিষ্যতে তারা বিভিন্ন ফোরামে শুদ্ধভাবে বাংলা বলতে ও লিখতে পারে। এই আইনজীবী আরও বলেন, রায় পাওয়ার এক মাসের মধ্যে এই অনুলিপি নিবন্ধিত সব ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে পৌঁছে দিতে বলা হয়েছে। নির্দেশনা বাস্তবায়নের অগ্রগতি প্রতিবেদন ছয় মাসের পর আদালতে দাখিল করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে বলা হয়।

Comments

Comments!

 ইংরেজি মাধ্যমে সেশন ফির নামে অর্থ আদায় বেআইনিAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ইংরেজি মাধ্যমে সেশন ফির নামে অর্থ আদায় বেআইনি

Thursday, May 25, 2017 7:40 pm
10

দেশের ইংরেজি মাধ্যমের কোনো শিক্ষার্থী এক শ্রেণি থেকে অন্য শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হওয়ার পর পুনরায় ভর্তি বা সেশন ফির নামে তার কাছ থেকে অর্থ আদায় করা বেআইনি বলে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট।

শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সেশন ফি ও ভ্যাট আদায়-সংক্রান্ত পৃথক দুটি রিটের চূড়ান্ত শুনানি শেষে আজ বৃহস্পতিবার বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. বদরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালনা কার্যক্রমে স্বচ্ছতা বজায় রাখতে বেশ কয়েক দফা নির্দেশনা দিয়েছেন উচ্চ আদালত। ১৯৬২ সালের বেসরকারি বিদ্যালয় নিবন্ধন অধ্যাদেশ ও ২০০৭ সালের বেসরকারি (ইংরেজি মাধ্যম) বিদ্যালয় নিবন্ধন নীতিমালা অনুসারে দেশের প্রতিটি ইংরেজি মাধ্যম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে (প্লে গ্রুপ থেকে এ লেভেল পর্যন্ত) ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন করতে হবে। কমিটিতে অভিভাবকদের প্রতিনিধিও থাকতে হবে।

রায়ে আরও বলা হয়, ব্যবস্থাপনা কমিটি শিক্ষার্থীদের ভর্তি ফি, বেতন নির্ধারণ করবে, শিক্ষক ও কর্মচারী নিয়োগ দেবে। এ ক্ষেত্রে মালিক পক্ষের হস্তক্ষেপ থাকবে না।
একই সঙ্গে শিক্ষক ও স্টাফ নিয়োগ প্রক্রিয়া স্বচ্ছ করতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অডিট রিপোর্ট অভিভাবকদের কাছে সহজলভ্য করতে হবে ও বিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে। ব্যবস্থাপনা কমিটি যদি অন্য কোনো চার্জ আরোপ করে, তাহলে অভিভাবকদের মতামত ও বক্তব্যের প্রাধান্য দিতে হবে ও স্বচ্ছতার জন্য ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে।

‘ফ্রি স্টাইলে চলছে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল’ শিরোনামে কয়েক বছর আগে একটি দৈনিকে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এ প্রতিবেদন যুক্ত করে এ বিষয়ে নীতিমালা প্রণয়নের জন্য নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন দুই শিক্ষার্থীর অভিভাবক জাবেদ ফারুক। রিটে রাজধানীর ইংরেজি মাধ্যমের ২৮টি স্কুলকে বিবাদী করা হয়। প্রাথমিক শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রুলসহ অন্তর্বর্তী আদেশ দেন। অপর রিটটি করেন আইনজীবী ফাতেমা এস চৌধুরী। ওই রিটেও রুল আসে। এসব রুলের ওপর গত ৫ এপ্রিল শুনানি শেষ হয়। এর ধারাবাহিকতায় আদালত আজ রায় ঘোষণা করেন।

জাবেদ ফারুকের করা রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী এম বদরুদোজ্জা বাদল, অনীকা হক ও জে আর খান রবিন। অপর রিটের পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন আইনজীবী মাসুদ রেজা সোবহান। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সরদার মো. রাশেদ জাহাঙ্গীর ও প্রতিকার চাকমা। ইংরেজি মাধ্যম বিদ্যালয়গুলোর পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আসাদুজ্জামান, ওমর সাদাত ও আহসানুল করিম।

রায়ের পর অনীকা হক বলেন, ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষার্থী এক শ্রেণি থেকে অন্য শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হওয়ার পর তার কাছ থেকে পুনরায় ভর্তি, সেশন ফি, একাডেমিক ফি বা অন্য কোনো ফির নামে ফি নেওয়া যাবে না বলে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। তিনি বলেন, দেশের কৃষ্টি ও সংস্কৃতি অনুযায়ী জাতীয় দিবসগুলো যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করতে হবে। বঙ্গবন্ধু, ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস শিক্ষার্থীদের জানাতে হবে। এসব স্কুলে প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত বাংলা ভাষাকে আরও গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে; যাতে ভবিষ্যতে তারা বিভিন্ন ফোরামে শুদ্ধভাবে বাংলা বলতে ও লিখতে পারে।

এই আইনজীবী আরও বলেন, রায় পাওয়ার এক মাসের মধ্যে এই অনুলিপি নিবন্ধিত সব ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে পৌঁছে দিতে বলা হয়েছে। নির্দেশনা বাস্তবায়নের অগ্রগতি প্রতিবেদন ছয় মাসের পর আদালতে দাখিল করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে বলা হয়।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X