সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১:৩৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, July 22, 2017 9:30 am
A- A A+ Print

ইউএনওর বিরুদ্ধে মামলাকারী আ.লীগ নেতা বহিষ্কার

10

বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃতি করার অভিযোগে বরিশালের আগৈলঝড়া উপজেলার সাবেক ইউএনও’র বিরুদ্ধে করা মামলার বাদী সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজুকে আওয়ামী লীগ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। শুক্রবার বিকেলে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ তাকে দল থেকে বহিষ্কার করে বলে জানিয়েছেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ  সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস এমপি। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, দলের গঠনতন্ত্রের ৪৭(ক) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তারিক সালমানকে এভাবে কারাগারে পাঠানোর ঘটনা জানাজানি হলে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃত্ব ছাড়াও সরকারি কর্মকর্তাদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ঘটনাটি ভাইরাল হয়। ভুক্তভোগী ইউএনও তারিক সালমান দাবি করেন, কাগজে-কলমে বরিশাল আইনজীবী সমিতির সভাপতি ওবায়েদ উল্লাহ সাজু মামলার বাদী। কিন্তু কেউ তাকে দিয়ে এটি করিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আগৈলঝাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা থাকাকালে টিআর, কাবিখা প্রকল্পের কাজ কঠোরভাবে তদারকি করায় আমাকে কয়েকজন জনপ্রতিনিধির রোষানলে পড়তে হয়। তারা আমার দুর্নীতি খুঁজে না পাওয়ায় শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় পুরস্কৃত ছবি দিয়ে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করেছেন।’ তারিক সালমান বলেন, ‘জাতির জনকের এই ছবি কোথায় বিকৃত হয়েছে, তা অদ্যবধি খুঁজে পাইনি।’ গত ৭ জুন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি বিকৃতি করার অভিযোগে  আদালতে তারিক সালমানের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেন সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম খোকনসহ বেশ কয়েকজন নেতা। ১৯ জুলাই তারিক সালমানের তিন ঘণ্টা কারাভোগ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। বরিশালের শিক্ষাবিদ তপংকর চক্রবর্তী বলেন, একটি পাঁচ বছরের শিশুর আঁকা ছবি নিয়ে যে কাণ্ড হলো তা কারো কাম্য নয়। এত ছোট শিশু কখনো হুবহু ছবি আঁকতে পারে না। তাকে উৎসাহ দিতে ছবিটি কার্ডে ছাপা হয়েছে। এটি ভালো উদ্যোগ। অথচ সেই উৎসাহদাতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের নিন্দাজনক ঘটনা। এর আগে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামও এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘটনাটি শুনে মর্মাহত হয়েছেন। তিনি বলেন, এর জন্য বরিশালের ডিসি ও এসপিকে জবাবদিহি করতে হবে। অ্যাডভোকেট সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু ৫ বছর আগে আওয়ামী লীগে যোগ দেন। রাতারাতি তিনি বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম সম্পাদক হন। ২০১৬ সালের ২৩ ডিসেম্বর উজিরপুরে সওজের জমি দখল করার অভিযোগে তাকেসহ সাতজনকে আটক করেছিল পুলিশ। আগৈলঝরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা থাকাকালে স্বাধীনতা দিবসে শিশুর আঁকা বঙ্গবন্ধুর ছবি দিয়ে কার্ড ছাপান তারিক সালমান। বরগুনা সদর উপজেলায় বদলি হয়ে যাওয়ার পর ৭ জুন তার বিরুদ্ধে বরিশাল চিফ মেট্রোপলিট্রন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন ওবায়েদ উল্লাহ সাজু। ওই মামলায় ১৯ জুলাই প্রথমে তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বরিশাল চিফ মেট্রোপলিট্রন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. আলী হোসাইন। এর আড়াই ঘণ্টা পর তাকে জামিন দেওয়া হয়।

Comments

Comments!

 ইউএনওর বিরুদ্ধে মামলাকারী আ.লীগ নেতা বহিষ্কারAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ইউএনওর বিরুদ্ধে মামলাকারী আ.লীগ নেতা বহিষ্কার

Saturday, July 22, 2017 9:30 am
10

বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃতি করার অভিযোগে বরিশালের আগৈলঝড়া উপজেলার সাবেক ইউএনও’র বিরুদ্ধে করা মামলার বাদী সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজুকে আওয়ামী লীগ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। শুক্রবার বিকেলে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ তাকে দল থেকে বহিষ্কার করে বলে জানিয়েছেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ  সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস এমপি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, দলের গঠনতন্ত্রের ৪৭(ক) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তারিক সালমানকে এভাবে কারাগারে পাঠানোর ঘটনা জানাজানি হলে আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃত্ব ছাড়াও সরকারি কর্মকর্তাদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ঘটনাটি ভাইরাল হয়।

ভুক্তভোগী ইউএনও তারিক সালমান দাবি করেন, কাগজে-কলমে বরিশাল আইনজীবী সমিতির সভাপতি ওবায়েদ উল্লাহ সাজু মামলার বাদী। কিন্তু কেউ তাকে দিয়ে এটি করিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আগৈলঝাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা থাকাকালে টিআর, কাবিখা প্রকল্পের কাজ কঠোরভাবে তদারকি করায় আমাকে কয়েকজন জনপ্রতিনিধির রোষানলে পড়তে হয়। তারা আমার দুর্নীতি খুঁজে না পাওয়ায় শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় পুরস্কৃত ছবি দিয়ে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করেছেন।’

তারিক সালমান বলেন, ‘জাতির জনকের এই ছবি কোথায় বিকৃত হয়েছে, তা অদ্যবধি খুঁজে পাইনি।’

গত ৭ জুন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি বিকৃতি করার অভিযোগে  আদালতে তারিক সালমানের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেন সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম খোকনসহ বেশ কয়েকজন নেতা।

১৯ জুলাই তারিক সালমানের তিন ঘণ্টা কারাভোগ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

বরিশালের শিক্ষাবিদ তপংকর চক্রবর্তী বলেন, একটি পাঁচ বছরের শিশুর আঁকা ছবি নিয়ে যে কাণ্ড হলো তা কারো কাম্য নয়। এত ছোট শিশু কখনো হুবহু ছবি আঁকতে পারে না। তাকে উৎসাহ দিতে ছবিটি কার্ডে ছাপা হয়েছে। এটি ভালো উদ্যোগ। অথচ সেই উৎসাহদাতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের নিন্দাজনক ঘটনা।

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামও এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘটনাটি শুনে মর্মাহত হয়েছেন। তিনি বলেন, এর জন্য বরিশালের ডিসি ও এসপিকে জবাবদিহি করতে হবে।

অ্যাডভোকেট সৈয়দ ওবায়েদ উল্লাহ সাজু ৫ বছর আগে আওয়ামী লীগে যোগ দেন। রাতারাতি তিনি বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম সম্পাদক হন। ২০১৬ সালের ২৩ ডিসেম্বর উজিরপুরে সওজের জমি দখল করার অভিযোগে তাকেসহ সাতজনকে আটক করেছিল পুলিশ।

আগৈলঝরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা থাকাকালে স্বাধীনতা দিবসে শিশুর আঁকা বঙ্গবন্ধুর ছবি দিয়ে কার্ড ছাপান তারিক সালমান। বরগুনা সদর উপজেলায় বদলি হয়ে যাওয়ার পর ৭ জুন তার বিরুদ্ধে বরিশাল চিফ মেট্রোপলিট্রন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন ওবায়েদ উল্লাহ সাজু। ওই মামলায় ১৯ জুলাই প্রথমে তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বরিশাল চিফ মেট্রোপলিট্রন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. আলী হোসাইন। এর আড়াই ঘণ্টা পর তাকে জামিন দেওয়া হয়।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X