রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:৪৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, July 18, 2017 5:45 pm
A- A A+ Print

ইতিহাস গড়েই জিতল শ্রীলঙ্কা

Srilanka_Zimbabwe_Top20170718153935

পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারের পর একমাত্র টেস্টেও হারতে বসেছিল শ্রীলঙ্কা। তবে পঞ্চম দিনে ডিকভেলা ও গুনারত্নের ব্যাটিং নৈপুণ্যে রেকর্ড জয় পেয়েছে লঙ্কানরা। কলম্বোতে একমাত্র টেস্টে সিকান্দার রাজার প্রথম শতকে শ্রীলঙ্কাকে বড় লক্ষ্য দেয় জিম্বাবুয়ে। জয়ের জন্য রেকর্ড ইনিংস গড়া প্রয়োজন ছিল তাদের। পঞ্চম দিনের ভাঙ্গাচূড়া উইকেটে বড় লক্ষ্য তাড়ায় হারের চোখ রাঙ্গানি দেখেছিল তারা। তবে দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়েই ৩৮৮ রানের রেকর্ড লক্ষ্য তাড়া করে ৪ উইকেটে জয় পেয়েছে দিনেশ চান্দিমালের দল। শ্রীলঙ্কার মাটিতে চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩৮২ রানের লক্ষ্য তাড়ার রেকর্ড পাকিস্তানের। ২০১৫ সালে পাল্লেকেলের সেই টেস্ট ৭ উইকেটে জিতেছিল অতিথিরা। দেশের মাটিতে লঙ্কানরা সর্বোচ্চ ৩৫২ রানের লক্ষ্য তাড়া করে জিতেছে, ২০০৬ সালে পি সারা ওভালে। আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩৮৮ রান তাড়ায় নতুন ইতিহাস গড়ল শ্রীলঙ্কা। জয়ের লক্ষ্যে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ১৭০ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে গতকাল চতুর্থ দিনের খেলা শেষ করেছিল শ্রীলঙ্কা। ওপেনিংয়ে নেমে দিমুথ করুনারত্নে ৪৯ এবং উপুল থারাঙ্গা ২৭ রানে আউট হয়েছিলেন। গতকাল ৬০ রানে অপরাজিত থাকা কুশাল মেন্ডিসের ওপর আজ প্রত্যাশাটা ছিল বেশি। তার সঙ্গে ১৭ রান নিয়ে আজ খেলতে নামেন ম্যাথুস। তবে নামের পাশে আজ ৬ রান যোগ করতেই সাজঘরে ফেরেন মেন্ডিস। এরপর দলীয় ২০৩ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২৫ রানে ম্যাথুস আউট হলে আশায় বুক বাঁধে জিম্বাবুয়ে। কিন্তু সফরকারীদের আশা আজ নিরাশায় পরিণত করেন স্বাগতিক দুই ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকভেলা ও অসেলা গুনারত্নে। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে তাদের কাছ থেকে পাওয়া ১২১ রানের জুটিই মূলত শ্রীলঙ্কার জয়ের পথটি সুগম করে। ১১৮ বল মোকাবেলা করে ৮১ রানে উইলিয়ামসের বলে চাকাভার হাতে ধরা পড়েন ডিকভেলা। দ্বিতীয় ইনিংসে লঙ্কানদের হয়ে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংসটি খেলে ফেরেন তিনি। তবে ডিকভেলা ফিরলেও দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন গুনারত্বে। ব্যক্তিগত ৮০ রানে অপরাজিত ছিলেন গুনারত্বে। তার সঙ্গে ৬৭ রানের জুটি গড়ার পথে ২৯ রান করেন দিলরুয়ান পেরেরা। বল হাতে জিম্বাবুয়ের হয়ে গ্রায়েম ক্রেমার সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট নেন। এছাড়া ২টি উইকেট পান সেন উইলিয়াম। এর আগে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে সিকান্দার রাজার ১২৭ রানের ইনিংসে ভর করে ৩৭৭ রান করে জিম্বাবুয়ে। এছাড়া দলটির হয়ে ম্যালকম ওয়ালার ৬৮, গ্রায়েম ক্রেমার ৪৮ এবং পিটার মুরের ৪০ রানে ভর করে ৩৭৭ রান করেছিল সফরকারীরা। ফলে সব মিলিয়ে জয়ের জন্য ৩৮৮ রান প্রয়োজন হয় স্বাগতিকদের। সংক্ষিপ্ত স্কোর: জিম্বাবুয়ে ৩৫৬/১০ ও ৩৭৭/১০ শ্রীলঙ্কা: ৩৪৬/১০ ও ৩৯১/৬ ফল: শ্রীলঙ্কা ৪ উইকেট জয়ী ম্যাচসেরা : আসেলা গুনারত্নে সিরিজ : শ্রীলঙ্কা ১-০ ব্যবধানে জয়ী।

Comments

Comments!

 ইতিহাস গড়েই জিতল শ্রীলঙ্কাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ইতিহাস গড়েই জিতল শ্রীলঙ্কা

Tuesday, July 18, 2017 5:45 pm
Srilanka_Zimbabwe_Top20170718153935

পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারের পর একমাত্র টেস্টেও হারতে বসেছিল শ্রীলঙ্কা। তবে পঞ্চম দিনে ডিকভেলা ও গুনারত্নের ব্যাটিং নৈপুণ্যে রেকর্ড জয় পেয়েছে লঙ্কানরা।

কলম্বোতে একমাত্র টেস্টে সিকান্দার রাজার প্রথম শতকে শ্রীলঙ্কাকে বড় লক্ষ্য দেয় জিম্বাবুয়ে। জয়ের জন্য রেকর্ড ইনিংস গড়া প্রয়োজন ছিল তাদের। পঞ্চম দিনের ভাঙ্গাচূড়া উইকেটে বড় লক্ষ্য তাড়ায় হারের চোখ রাঙ্গানি দেখেছিল তারা। তবে দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়েই ৩৮৮ রানের রেকর্ড লক্ষ্য তাড়া করে ৪ উইকেটে জয় পেয়েছে দিনেশ চান্দিমালের দল।

শ্রীলঙ্কার মাটিতে চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩৮২ রানের লক্ষ্য তাড়ার রেকর্ড পাকিস্তানের। ২০১৫ সালে পাল্লেকেলের সেই টেস্ট ৭ উইকেটে জিতেছিল অতিথিরা। দেশের মাটিতে লঙ্কানরা সর্বোচ্চ ৩৫২ রানের লক্ষ্য তাড়া করে জিতেছে, ২০০৬ সালে পি সারা ওভালে। আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩৮৮ রান তাড়ায় নতুন ইতিহাস গড়ল শ্রীলঙ্কা।

জয়ের লক্ষ্যে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ১৭০ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে গতকাল চতুর্থ দিনের খেলা শেষ করেছিল শ্রীলঙ্কা। ওপেনিংয়ে নেমে দিমুথ করুনারত্নে ৪৯ এবং উপুল থারাঙ্গা ২৭ রানে আউট হয়েছিলেন।

গতকাল ৬০ রানে অপরাজিত থাকা কুশাল মেন্ডিসের ওপর আজ প্রত্যাশাটা ছিল বেশি। তার সঙ্গে ১৭ রান নিয়ে আজ খেলতে নামেন ম্যাথুস। তবে নামের পাশে আজ ৬ রান যোগ করতেই সাজঘরে ফেরেন মেন্ডিস। এরপর দলীয় ২০৩ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ২৫ রানে ম্যাথুস আউট হলে আশায় বুক বাঁধে জিম্বাবুয়ে।

কিন্তু সফরকারীদের আশা আজ নিরাশায় পরিণত করেন স্বাগতিক দুই ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকভেলা ও অসেলা গুনারত্নে। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে তাদের কাছ থেকে পাওয়া ১২১ রানের জুটিই মূলত শ্রীলঙ্কার জয়ের পথটি সুগম করে। ১১৮ বল মোকাবেলা করে ৮১ রানে উইলিয়ামসের বলে চাকাভার হাতে ধরা পড়েন ডিকভেলা। দ্বিতীয় ইনিংসে লঙ্কানদের হয়ে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংসটি খেলে ফেরেন তিনি। তবে ডিকভেলা ফিরলেও দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন গুনারত্বে। ব্যক্তিগত ৮০ রানে অপরাজিত ছিলেন গুনারত্বে। তার সঙ্গে ৬৭ রানের জুটি গড়ার পথে ২৯ রান করেন দিলরুয়ান পেরেরা।

বল হাতে জিম্বাবুয়ের হয়ে গ্রায়েম ক্রেমার সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট নেন। এছাড়া ২টি উইকেট পান সেন উইলিয়াম।

এর আগে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে সিকান্দার রাজার ১২৭ রানের ইনিংসে ভর করে ৩৭৭ রান করে জিম্বাবুয়ে। এছাড়া দলটির হয়ে ম্যালকম ওয়ালার ৬৮, গ্রায়েম ক্রেমার ৪৮ এবং পিটার মুরের ৪০ রানে ভর করে ৩৭৭ রান করেছিল সফরকারীরা। ফলে সব মিলিয়ে জয়ের জন্য ৩৮৮ রান প্রয়োজন হয় স্বাগতিকদের।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: জিম্বাবুয়ে ৩৫৬/১০ ও ৩৭৭/১০
শ্রীলঙ্কা: ৩৪৬/১০ ও ৩৯১/৬
ফল: শ্রীলঙ্কা ৪ উইকেট জয়ী
ম্যাচসেরা : আসেলা গুনারত্নে
সিরিজ : শ্রীলঙ্কা ১-০ ব্যবধানে জয়ী।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X