বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৭:০৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, July 25, 2016 11:35 am
A- A A+ Print

ইনিংস ও ৯২রানে হার ওয়েস্ট ইন্ডিজের

8dba545d83da48be90b039e8b20ed705-ashwin

ক্রিড়া ডেস্ক: চতুর্থ দিনের লাঞ্চের সময় মনে হচ্ছিল, খেলাটা হয়তো পঞ্চম দিনে যেতেও পারে। কিন্তু চা বিরতির আগেই নিশ্চিত হয়ে গেল, খেলাটা পরের দিন যাওয়ার সম্ভাবনা খুব কম। নবম উইকেটে কার্লোস ব্রাফেট-দেবেন্দ্র বিশু ভারতের জয়টাকেই শুধু দীর্ঘায়িত করলেন। শেষ পর্যন্ত চার দিনেই ইনিংস ও ৯২ রানের জয় পেয়েছে ভারত। এই প্রথমবারের মতো ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে ইনিংস ব্যবধানে জিতল ভারত। দেশের বাইরেও এটা ভারতের সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়। এক দশক আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তাদের মাটিতে সর্বশেষ ফলোঅনে ফেলার লজ্জা দিয়েছিল ভারত। সেবার ব্রায়ান লারার দুর্দান্ত এক ইনিংসে হার বাঁচিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে এবার কেউ আর লারা হতে পারেননি। ভারতের হয়ে এই দিনটা পুরোপুরি নিজের করে নিয়েছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি পেয়েছেন, কাল তুলে নিয়েছেন ৭ উইকেট। দ্বিতীয়বারের মতো একই টেস্টে সেঞ্চুরি ও অন্তত ৫ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়লেন অশ্বিন। কোনো ভারতীয় ক্রিকেটারেরই অশ্বিনের মতো এমন কীর্তি নেই। ২১ রানেই ২ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ম্যাচে ফেরানোর চেষ্টা করেছিলেন রাজেন্দ্র চন্দ্রিকা ও মারলন স্যামুয়েলস। কিন্তু দলের ৮৮ রানে চন্দ্রিকা আউট হয়ে যাওয়ার পরেই যেন মড়ক লাগে ক্যারিবীয় ব্যাটিংয়ে। ৪৪ রানের ভেতরেই তারা হারায় আরও ৫ উইকেট। সেটিও মাত্র ১৮ ওভারের মধ্যেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৩২ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে ফেলার মনে হচ্ছিল, ম্যাচটা লাঞ্চের আগেই শেষ হয়ে যেতে পারে। সেখান থেকে শেষ প্রতিরোধের চেষ্টা করলেন ব্রাফেট-বিশু। নবম উইকেটে দুজন মিলে যোগ করেছেন ৯৫ রান। শেষ পর্যন্ত এই জুটি বিচ্ছিন্ন করতে অশ্বিনেরই শরণ নিতে হলো কোহলির। বিশু ও গ্যাব্রিয়েলকে একই ওভারে আউট করে অশ্বিনই দিয়েছেন তুলির শেষ আঁচড়। ৮৩ রানে ৭ উইকেট নিয়ে শেষ করেছেন ইনিংস। ম্যাচসেরার পুরস্কারও অনুমিতভাবে উঠেছে তাঁর হাতেই। সূত্র: ক্রিকইনফো।

Comments

Comments!

 ইনিংস ও ৯২রানে হার ওয়েস্ট ইন্ডিজেরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ইনিংস ও ৯২রানে হার ওয়েস্ট ইন্ডিজের

Monday, July 25, 2016 11:35 am
8dba545d83da48be90b039e8b20ed705-ashwin

ক্রিড়া ডেস্ক: চতুর্থ দিনের লাঞ্চের সময় মনে হচ্ছিল, খেলাটা হয়তো পঞ্চম দিনে যেতেও পারে। কিন্তু চা বিরতির আগেই নিশ্চিত হয়ে গেল, খেলাটা পরের দিন যাওয়ার সম্ভাবনা খুব কম। নবম উইকেটে কার্লোস ব্রাফেট-দেবেন্দ্র বিশু ভারতের জয়টাকেই শুধু দীর্ঘায়িত করলেন। শেষ পর্যন্ত চার দিনেই ইনিংস ও ৯২ রানের জয় পেয়েছে ভারত। এই প্রথমবারের মতো ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে ইনিংস ব্যবধানে জিতল ভারত। দেশের বাইরেও এটা ভারতের সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়।
এক দশক আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তাদের মাটিতে সর্বশেষ ফলোঅনে ফেলার লজ্জা দিয়েছিল ভারত। সেবার ব্রায়ান লারার দুর্দান্ত এক ইনিংসে হার বাঁচিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে এবার কেউ আর লারা হতে পারেননি। ভারতের হয়ে এই দিনটা পুরোপুরি নিজের করে নিয়েছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি পেয়েছেন, কাল তুলে নিয়েছেন ৭ উইকেট। দ্বিতীয়বারের মতো একই টেস্টে সেঞ্চুরি ও অন্তত ৫ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়লেন অশ্বিন। কোনো ভারতীয় ক্রিকেটারেরই অশ্বিনের মতো এমন কীর্তি নেই।
২১ রানেই ২ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ম্যাচে ফেরানোর চেষ্টা করেছিলেন রাজেন্দ্র চন্দ্রিকা ও মারলন স্যামুয়েলস। কিন্তু দলের ৮৮ রানে চন্দ্রিকা আউট হয়ে যাওয়ার পরেই যেন মড়ক লাগে ক্যারিবীয় ব্যাটিংয়ে। ৪৪ রানের ভেতরেই তারা হারায় আরও ৫ উইকেট। সেটিও মাত্র ১৮ ওভারের মধ্যেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৩২ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে ফেলার মনে হচ্ছিল, ম্যাচটা লাঞ্চের আগেই শেষ হয়ে যেতে পারে।
সেখান থেকে শেষ প্রতিরোধের চেষ্টা করলেন ব্রাফেট-বিশু। নবম উইকেটে দুজন মিলে যোগ করেছেন ৯৫ রান। শেষ পর্যন্ত এই জুটি বিচ্ছিন্ন করতে অশ্বিনেরই শরণ নিতে হলো কোহলির। বিশু ও গ্যাব্রিয়েলকে একই ওভারে আউট করে অশ্বিনই দিয়েছেন তুলির শেষ আঁচড়। ৮৩ রানে ৭ উইকেট নিয়ে শেষ করেছেন ইনিংস। ম্যাচসেরার পুরস্কারও অনুমিতভাবে উঠেছে তাঁর হাতেই। সূত্র: ক্রিকইনফো।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X