মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৫৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, September 21, 2016 5:54 pm
A- A A+ Print

ইন্টারনেট ছাড়াই চ্যাটিং সুবিধার অ্যাপ

app1474453627

অত্যাধিক রোমিং চার্জ, অস্বাভাবিক বেশি দামে ইন্টারনেট ডাটা প্যাকেজ বা মোবাইল কভারেজের কথা ভুলে যান। কারণ ‘ফায়ারচ্যাট’ নামক অ্যাপ ব্যবহারে আরেকজনের সঙ্গে চ্যাট করতে পারবেন সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে এবং ইন্টারনেট সুবিধা ছাড়াই! এমনকি মোবাইল নেটওয়ার্ক না থাকলেও। মেশ নেটওয়ার্ক প্রযুক্তির এই অ্যাপটির সাহায্যে চ্যাটিং করা যায় মোবাইলে ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট কিংবা ইন্টারনেট ডাটা ছাড়াই। তবে মেশ নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি হওয়ায় অ্যাপটি ২শ’ ফুটের মধ্যে থাকা দুটি স্মার্টফোনের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংযোগ স্থাপন করে। এবং স্মার্টফোনে অ্যাপটি ব্যবহারের সংখ্যা যতো বাড়ে, নেটওয়ার্কও ততো বিস্তৃত হয়। অর্থাৎ অনেকটা শেকলের মতো, প্রথমটির ২শ’ ফুটের মধ্যে দ্বিতীয়টি, আবার দ্বিতীয়টির ২শ’ ফুটের মধ্যে তৃতীয়টি। এভাবে বাড়তে থাকে ফায়ারচ্যাটের নেটওয়ার্কের বিস্তৃতি। তাই আশেপাশে কয়েকজন ফায়ারচ্যাট অ্যাপ ব্যবহারকারী থাকলে, এই সুবিধা খুব ভালোভাবে উপভোগ করতে পারবেন। আর এক্ষেত্রে মোবাইলের ব্লুটুথ অথবা ওয়াই-ফাই অপশনটি চালু থাকলেই হয়। এছাড়া অনেক দূরের কাউকে মেসেজ পাঠাতে চাইলে, মেসেজটি পাঠিয়ে দিলেই হবে। ওই মেসেজ ইন্টারনেট বা ওয়াই-ফাই সংযোগ আছে এমন স্মার্টফোন পেলেই তার মাধ্যমে চলে যাবে। এক সময় প্রেরকের মোবাইলেও পৌঁছে যাবে।তাই মোবাইলে নেটওয়ার্ক না থাকা অবস্থায় কিংবা ইন্টারনেট না থাকলে জরুরি যোগাযোগে দারুন সহায়ক ফায়ারচ্যাট অ্যাপ। বিমান কিংবা সাবওয়েতে থাকাকালীন সময়েও আত্মীয়, বন্ধুদের মেসেজ পাঠাতে সাহায্য করবে এই অ্যাপ। যত বেশি মানুষ এই অ্যাপ ব্যবহার করবে, নেটওয়ার্কও তত বড় আর শক্তিশালী হবে। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী ৫ মিলিয়ন মানুষ এই অ্যাপটি ডাউনলোড করেছেন। কোনো শহরে জনসংখ্যার ৫ শতাংশ এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে সেখানে মেসেজে আদান-প্রদান হবে সর্বোচ্চ ১০ মিনিটেই। অন্যথায় ২০ মিনিট পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। আপনি যখন ইন্টারনেটে থাকেন তখন ফেসবুক কিংবা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে মেসেজিং করতেই পারেন। কিন্তু ফায়ারচ্যাটে মোবাইলে রাখতে পারেন জরুরি মূহূর্তের সহায়ক হিসেবে কিংবা ইন্টারনেট খরচ ছাড়াই চ্যাটিং সুবিধা পেতে। ফায়ারচ্যাট অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে বিনা মূল্যে ডাউনলোড করা যাবে goo.gl/pJU1XP লিংক থেকে এবং আইফোনেgoo.gl/yQkWQs  লিংক থেকে।  

Comments

Comments!

 ইন্টারনেট ছাড়াই চ্যাটিং সুবিধার অ্যাপAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ইন্টারনেট ছাড়াই চ্যাটিং সুবিধার অ্যাপ

Wednesday, September 21, 2016 5:54 pm
app1474453627

অত্যাধিক রোমিং চার্জ, অস্বাভাবিক বেশি দামে ইন্টারনেট ডাটা প্যাকেজ বা মোবাইল কভারেজের কথা ভুলে যান। কারণ ‘ফায়ারচ্যাট’ নামক অ্যাপ ব্যবহারে আরেকজনের সঙ্গে চ্যাট করতে পারবেন সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে এবং ইন্টারনেট সুবিধা ছাড়াই! এমনকি মোবাইল নেটওয়ার্ক না থাকলেও।

মেশ নেটওয়ার্ক প্রযুক্তির এই অ্যাপটির সাহায্যে চ্যাটিং করা যায় মোবাইলে ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট কিংবা ইন্টারনেট ডাটা ছাড়াই। তবে মেশ নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি হওয়ায় অ্যাপটি ২শ’ ফুটের মধ্যে থাকা দুটি স্মার্টফোনের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংযোগ স্থাপন করে। এবং স্মার্টফোনে অ্যাপটি ব্যবহারের সংখ্যা যতো বাড়ে, নেটওয়ার্কও ততো বিস্তৃত হয়। অর্থাৎ অনেকটা শেকলের মতো, প্রথমটির ২শ’ ফুটের মধ্যে দ্বিতীয়টি, আবার দ্বিতীয়টির ২শ’ ফুটের মধ্যে তৃতীয়টি। এভাবে বাড়তে থাকে ফায়ারচ্যাটের নেটওয়ার্কের বিস্তৃতি। তাই আশেপাশে কয়েকজন ফায়ারচ্যাট অ্যাপ ব্যবহারকারী থাকলে, এই সুবিধা খুব ভালোভাবে উপভোগ করতে পারবেন। আর এক্ষেত্রে মোবাইলের ব্লুটুথ অথবা ওয়াই-ফাই অপশনটি চালু থাকলেই হয়।

এছাড়া অনেক দূরের কাউকে মেসেজ পাঠাতে চাইলে, মেসেজটি পাঠিয়ে দিলেই হবে। ওই মেসেজ ইন্টারনেট বা ওয়াই-ফাই সংযোগ আছে এমন স্মার্টফোন পেলেই তার মাধ্যমে চলে যাবে। এক সময় প্রেরকের মোবাইলেও পৌঁছে যাবে।তাই মোবাইলে নেটওয়ার্ক না থাকা অবস্থায় কিংবা ইন্টারনেট না থাকলে জরুরি যোগাযোগে দারুন সহায়ক ফায়ারচ্যাট অ্যাপ। বিমান কিংবা সাবওয়েতে থাকাকালীন সময়েও আত্মীয়, বন্ধুদের মেসেজ পাঠাতে সাহায্য করবে এই অ্যাপ।

যত বেশি মানুষ এই অ্যাপ ব্যবহার করবে, নেটওয়ার্কও তত বড় আর শক্তিশালী হবে। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী ৫ মিলিয়ন মানুষ এই অ্যাপটি ডাউনলোড করেছেন। কোনো শহরে জনসংখ্যার ৫ শতাংশ এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে সেখানে মেসেজে আদান-প্রদান হবে সর্বোচ্চ ১০ মিনিটেই। অন্যথায় ২০ মিনিট পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

আপনি যখন ইন্টারনেটে থাকেন তখন ফেসবুক কিংবা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে মেসেজিং করতেই পারেন। কিন্তু ফায়ারচ্যাটে মোবাইলে রাখতে পারেন জরুরি মূহূর্তের সহায়ক হিসেবে কিংবা ইন্টারনেট খরচ ছাড়াই চ্যাটিং সুবিধা পেতে।

ফায়ারচ্যাট অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে বিনা মূল্যে ডাউনলোড করা যাবে goo.gl/pJU1XP লিংক থেকে এবং আইফোনেgoo.gl/yQkWQs  লিংক থেকে।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X