বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:৩৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, September 20, 2017 8:37 am
A- A A+ Print

উত্তর কোরিয়াকে ধ্বংস করে ফেলব : জাতিসংঘে অভিষেক ভাষণে ট্রাম্প; * ইসলামী সন্ত্রাসও বন্ধ করব * বিশ্বের বিরাট একটি অংশ নরকের দিকে যাচ্ছে * চীন রাশিয়া ভেনিজুয়েলা ও ইরানের বিরুদ্ধেও হুশিয়ারি * কোনো কথা বলেননি রোহিঙ্গা ইস্যুতে

4

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জাতিসংঘে নিজের প্রথম ভাষণে বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সরকার প্রতিবেশী দেশগুলোর ওপর পরমাণু হামলার হুমকি দিলে যুক্তরাষ্ট্র দেশটিকে (উত্তর কোরিয়া) ধ্বংস করে দেবে। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র উগ্র ইসলামী সন্ত্রাসও বন্ধ করবে। একই সঙ্গে ইরান, ভেনিজুয়েলা, চীন, রাশিয়া ও সিরিয়ার বিরুদ্ধেও ট্রাম্প হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। মঙ্গলবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সম্মেলনে উদ্বোধনী ভাষণে তিনি এ মন্তব্য করেন। তবে বিস্ময়ের বিষয়, ট্রাম্প তার ভাষণে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে কোনো কথা বলেননি। ট্রাম্প আরও বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের বিশাল শক্তি ও ধৈর্য রয়েছে। তবে তাকে যদি তার মিত্র রাষ্ট্রগুলোর সুরক্ষা দিতে বাধ্য করা হয়, তাহলে উত্তর কোরিয়াকে একেবারে ধ্বংস করা ছাড়া আমাদের কোনো উপায় থাকবে না। শুধু তাই নয়, ইউক্রেন থেকে দক্ষিণ চীন সাগর পর্যন্ত আমাদের সার্বভৌমত্বের প্রতি যে কোনো হুমকি প্রত্যাখ্যান করছি।’ ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে পরমাণু চুক্তির বিরোধিতা করে বলেন, ‘ওই চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রের জন্য লজ্জাজনক। তবে আমার মনে হয়, আপনারা এর শেষটা শোনেননি। আমাকে বিশ্বাস করুন। সময় এসেছে, ইরান যে ধ্বংসযজ্ঞ চালাচ্ছে তার বিরুদ্ধে সারা বিশ্বের উচিত আমাদের পাশে দাঁড়ানো।’ মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, জাতিসংঘের সদস্য কোনো কোনো দুর্বৃত্ত দেশ শুধু সন্ত্রাসকেই সমর্থন দিচ্ছে না, মানব ইতিহাসের সবচেয়ে ধ্বংসাত্মক অস্ত্র দিয়ে অন্য দেশ ও তাদের জনগণকে হুমকিও দিচ্ছে। তিনি ইরান ও উত্তর কোরিয়াকে ইঙ্গিত করে এমন মন্তব্য করেন। এ ছাড়া তিনি ইউক্রেন ও দক্ষিণ চীন সাগরের সার্বভৌমত্ব নিয়ে রাশিয়া ও চীনের বিরুদ্ধে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। ট্রাম্প বলেন, ‘ইউক্রেন ও দক্ষিণ চীন সাগরের সার্বভৌমত্বের প্রতি হুমকিকে আমরা প্রত্যাখ্যান করছি। আমাদের অবশ্যই আইনের প্রতি শ্রদ্ধা থাকতে হবে, সীমান্তকে সম্মান করতে হবে এবং সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করতে হবে।’ তিনি বলেন, ভেনিজুয়েলার সমাজতান্ত্রিক সরকার একটি সমৃদ্ধ জাতিকে ধ্বংস করেছে। এ বিষয়টিও আমাদের মনে রাখতে হবে। তিনি ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র নিকোলাস মাদুরো সরকারের ওপর আরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে চায়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, নিকোলাস মাদুরোর সরকার দেশটির ভালো মানুষের জন্য ভয়াবহ দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তার সরকার যে ব্যর্থ আদর্শ আরোপ করেছে তাতে সর্বত্র দারিদ্র্য ও দুর্র্দশা দেখা দিয়েছে। তিনি বলেন, বিশ্বের বড় একটি অংশই সংঘাতময় এবং কার্যত নরকের দিকে যাচ্ছে। তিনি মনে করেন, জাতিসংঘ চাইলে এ ধরনের বহু সমস্যারই সমাধান সম্ভব। ভাষণে ট্রাম্প বলেন, আমরা উগ্র ইসলামী সন্ত্রাস বন্ধ করব। কারণ আমরা একে চলতে দিতে পারি না। সিরিয়া সংকট নিয়ে ট্রাম্প বলেন, রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করে কোনো সমাজই নিরাপদ হতে পারে না।

Comments

Comments!

 উত্তর কোরিয়াকে ধ্বংস করে ফেলব : জাতিসংঘে অভিষেক ভাষণে ট্রাম্প; * ইসলামী সন্ত্রাসও বন্ধ করব * বিশ্বের বিরাট একটি অংশ নরকের দিকে যাচ্ছে * চীন রাশিয়া ভেনিজুয়েলা ও ইরানের বিরুদ্ধেও হুশিয়ারি * কোনো কথা বলেননি রোহিঙ্গা ইস্যুতেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

উত্তর কোরিয়াকে ধ্বংস করে ফেলব : জাতিসংঘে অভিষেক ভাষণে ট্রাম্প; * ইসলামী সন্ত্রাসও বন্ধ করব * বিশ্বের বিরাট একটি অংশ নরকের দিকে যাচ্ছে * চীন রাশিয়া ভেনিজুয়েলা ও ইরানের বিরুদ্ধেও হুশিয়ারি * কোনো কথা বলেননি রোহিঙ্গা ইস্যুতে

Wednesday, September 20, 2017 8:37 am
4

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জাতিসংঘে নিজের প্রথম ভাষণে বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সরকার প্রতিবেশী দেশগুলোর ওপর পরমাণু হামলার হুমকি দিলে যুক্তরাষ্ট্র দেশটিকে (উত্তর কোরিয়া) ধ্বংস করে দেবে। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র উগ্র ইসলামী সন্ত্রাসও বন্ধ করবে। একই সঙ্গে ইরান, ভেনিজুয়েলা, চীন, রাশিয়া ও সিরিয়ার বিরুদ্ধেও ট্রাম্প হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। মঙ্গলবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সম্মেলনে উদ্বোধনী ভাষণে তিনি এ মন্তব্য করেন। তবে বিস্ময়ের বিষয়, ট্রাম্প তার ভাষণে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে কোনো কথা বলেননি।

ট্রাম্প আরও বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের বিশাল শক্তি ও ধৈর্য রয়েছে। তবে তাকে যদি তার মিত্র রাষ্ট্রগুলোর সুরক্ষা দিতে বাধ্য করা হয়, তাহলে উত্তর কোরিয়াকে একেবারে ধ্বংস করা ছাড়া আমাদের কোনো উপায় থাকবে না। শুধু তাই নয়, ইউক্রেন থেকে দক্ষিণ চীন সাগর পর্যন্ত আমাদের সার্বভৌমত্বের প্রতি যে কোনো হুমকি প্রত্যাখ্যান করছি।’

ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে পরমাণু চুক্তির বিরোধিতা করে বলেন, ‘ওই চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রের জন্য লজ্জাজনক। তবে আমার মনে হয়, আপনারা এর শেষটা শোনেননি। আমাকে বিশ্বাস করুন। সময় এসেছে, ইরান যে ধ্বংসযজ্ঞ চালাচ্ছে তার বিরুদ্ধে সারা বিশ্বের উচিত আমাদের পাশে দাঁড়ানো।’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, জাতিসংঘের সদস্য কোনো কোনো দুর্বৃত্ত দেশ শুধু সন্ত্রাসকেই সমর্থন দিচ্ছে না, মানব ইতিহাসের সবচেয়ে ধ্বংসাত্মক অস্ত্র দিয়ে অন্য দেশ ও তাদের জনগণকে হুমকিও দিচ্ছে। তিনি ইরান ও উত্তর কোরিয়াকে ইঙ্গিত করে এমন মন্তব্য করেন।

এ ছাড়া তিনি ইউক্রেন ও দক্ষিণ চীন সাগরের সার্বভৌমত্ব নিয়ে রাশিয়া ও চীনের বিরুদ্ধে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। ট্রাম্প বলেন, ‘ইউক্রেন ও দক্ষিণ চীন সাগরের সার্বভৌমত্বের প্রতি হুমকিকে আমরা প্রত্যাখ্যান করছি। আমাদের অবশ্যই আইনের প্রতি শ্রদ্ধা থাকতে হবে, সীমান্তকে সম্মান করতে হবে এবং সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করতে হবে।’ তিনি বলেন, ভেনিজুয়েলার সমাজতান্ত্রিক সরকার একটি সমৃদ্ধ জাতিকে ধ্বংস করেছে। এ বিষয়টিও আমাদের মনে রাখতে হবে। তিনি ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র নিকোলাস মাদুরো সরকারের ওপর আরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে চায়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, নিকোলাস মাদুরোর সরকার দেশটির ভালো মানুষের জন্য ভয়াবহ দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তার সরকার যে ব্যর্থ আদর্শ আরোপ করেছে তাতে সর্বত্র দারিদ্র্য ও দুর্র্দশা দেখা দিয়েছে। তিনি বলেন, বিশ্বের বড় একটি অংশই সংঘাতময় এবং কার্যত নরকের দিকে যাচ্ছে। তিনি মনে করেন, জাতিসংঘ চাইলে এ ধরনের বহু সমস্যারই সমাধান সম্ভব। ভাষণে ট্রাম্প বলেন, আমরা উগ্র ইসলামী সন্ত্রাস বন্ধ করব। কারণ আমরা একে চলতে দিতে পারি না। সিরিয়া সংকট নিয়ে ট্রাম্প বলেন, রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করে কোনো সমাজই নিরাপদ হতে পারে না।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X