রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ২:২৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, May 5, 2017 11:46 am
A- A A+ Print

উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্র প্রতিরোধ করতে পারবে না!

15

যুক্তরাষ্ট্র সরকার স্বীকার করেছে যে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি তাদের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দিয়ে প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়। ইউএস কংগ্রেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ায় যে পাল্টা ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংস ব্যবস্থা হিসেবে টারমিনাল হাই অলটিচিউড এরিয়া ডিফেন্স বা ‘থাড’ এ্যান্টি মিসাইল ব্যবস্থা মোতায়েন করা হয়েছে তা দিয়েও উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়। উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রগুলো পরীক্ষার সময় গত বছর দেখা গেছে সেগুলো এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েয়ে যা অতি উচ্চতায় যুক্তরাষ্ট্রের এ্যান্টি মিসাইল বা ক্ষেপণাস্ত্র বিধংসী আঘাত থেকে নিজেকে এড়িয়ে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। দি কংগ্রসনাল রিসার্চ সার্ভিস বলছে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রগুলো অত্যধিক কৌণিক অবস্থান ও দ্রুতগতিতে নিচে নেমে আসতে সক্ষম যা থাড এ্যান্টি মিসাইল সিস্টেমে প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে না। কংগ্রেস প্রতিবেদনে আরো বলা হচ্ছে, ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় তাই উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধ করা যাবে না। কংগ্রেস প্রতিবেদনে আরো ভয়ঙ্কর তথ্য দিয়ে বলা হচ্ছে উত্তর কোরিয়া ইতিমধ্যে স্বল্পসময়ের ব্যবধানে একাধিক পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার সক্ষমতা অর্জন করেছে যা সামরিক বিজ্ঞানে ‘স্যালভো এ্যাটাক’ হিসেবে বিবেচিত। ফলে দুরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত দিয়ে উত্তর কোরিয়াকে পর্যুদস্ত করার উপায় আর নেই। কারণ তা করতে গেলে উত্তর কোরিয়া পাল্টা একাধিক পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়তে শুরু করবে যা আর এ্যান্টি মিসাইল বা ক্ষেপণাস্ত্র বিধংসী ব্যবস্থা দিয়ে প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে না। এবং তৃতীয় আক্রমণাত্মক ব্যবস্থা হিসেবে উত্তর কোরিয়া ডুবোজাহাজ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে সফলভাবে ২০১৫ সালে। এধরনের আক্রমণে দক্ষিণ কোরিয়ায় মোতায়েনকৃত থাড এ্যান্টি মিসাইল প্রতিরক্ষা বলয়ের বাইরে থেকে দেশটিতে আঘাত হানতে পারবে উত্তর কোরিয়া। কারণ থাড রাডার আওতার বাইরে থেকেই উত্তর কোরিয়া ডুবোজাহাজ থেকে পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানতে পারবে। কম্যুনিস্ট দেশ উত্তর কোরিয়া সাম্প্রতিক সময়ে ধারাবাহিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মাধ্যমে বেশ সফল হওয়ার পর জাপানে বিশেষ ড্রোন ও দক্ষিণ কোরিয়া থাড ক্ষেপনাস্ত্র বিধংসী ব্যবস্থা মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। উত্তর কোরিয়া বলে দিয়েছে দেশটি আক্রান্ত হলে প্রথমেই জাপানে পারমাণবিক হামলা চালাবে। একই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানতে সক্ষম এমন দূরপাল্লার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। কংগ্রেস রিপোর্টে যুক্তরাষ্ট্রে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সক্ষমতার বিষয়টি স্বীকার করেই বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারাও বিশ্বাস করে উত্তর কোরিয়ার আন্ত:মহাদেশী দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার সক্ষমতা আছে তবে তা এখনো চূড়ান্তভাবে পরীক্ষা করা হয়নি। উত্তর কোরিয়ার সর্বশেষ দুটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সফল হয়নি বলে দাবি করছে পেন্টাগন ও দক্ষিণ কোরিয়া। তারপর উত্তর কোরিয়া রাশিয়া অভিমুখে ভুলবশত আরেকটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে এবং মধ্য আকাশে তা বিধ্বস্ত করে দেওয়া হয়। কংগ্রেস প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে এধরনের অব্যাহত ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মাধ্যমে সফল হচ্ছে উত্তর কোরিয়া একই সঙ্গে দেশটি স্বল্প থেকে মাঝারি ও দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে আঞ্চলিক ক্ষেপণাস্ত্র ভিত্তিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে। এধরনের ক্রমবর্ধমান সক্ষমতা উত্তর কোরিয়ার বিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে এবং প্রতিরক্ষা কৌশল আরো জোরদার করবে। সূত্র: ডেইলি স্টার ইউকে
 

Comments

Comments!

 উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্র প্রতিরোধ করতে পারবে না!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্র প্রতিরোধ করতে পারবে না!

Friday, May 5, 2017 11:46 am
15

যুক্তরাষ্ট্র সরকার স্বীকার করেছে যে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি তাদের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দিয়ে প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়।

ইউএস কংগ্রেসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ায় যে পাল্টা ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংস ব্যবস্থা হিসেবে টারমিনাল হাই অলটিচিউড এরিয়া ডিফেন্স বা ‘থাড’ এ্যান্টি মিসাইল ব্যবস্থা মোতায়েন করা হয়েছে তা দিয়েও উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়।

উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রগুলো পরীক্ষার সময় গত বছর দেখা গেছে সেগুলো এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েয়ে যা অতি উচ্চতায় যুক্তরাষ্ট্রের এ্যান্টি মিসাইল বা ক্ষেপণাস্ত্র বিধংসী আঘাত থেকে নিজেকে এড়িয়ে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।

দি কংগ্রসনাল রিসার্চ সার্ভিস বলছে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রগুলো অত্যধিক কৌণিক অবস্থান ও দ্রুতগতিতে নিচে নেমে আসতে সক্ষম যা থাড এ্যান্টি মিসাইল সিস্টেমে প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে না। কংগ্রেস প্রতিবেদনে আরো বলা হচ্ছে, ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় তাই উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধ করা যাবে না।

কংগ্রেস প্রতিবেদনে আরো ভয়ঙ্কর তথ্য দিয়ে বলা হচ্ছে উত্তর কোরিয়া ইতিমধ্যে স্বল্পসময়ের ব্যবধানে একাধিক পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার সক্ষমতা অর্জন করেছে যা সামরিক বিজ্ঞানে ‘স্যালভো এ্যাটাক’ হিসেবে বিবেচিত। ফলে দুরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত দিয়ে উত্তর কোরিয়াকে পর্যুদস্ত করার উপায় আর নেই। কারণ তা করতে গেলে উত্তর কোরিয়া পাল্টা একাধিক পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়তে শুরু করবে যা আর এ্যান্টি মিসাইল বা ক্ষেপণাস্ত্র বিধংসী ব্যবস্থা দিয়ে প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে না।

এবং তৃতীয় আক্রমণাত্মক ব্যবস্থা হিসেবে উত্তর কোরিয়া ডুবোজাহাজ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে সফলভাবে ২০১৫ সালে। এধরনের আক্রমণে দক্ষিণ কোরিয়ায় মোতায়েনকৃত থাড এ্যান্টি মিসাইল প্রতিরক্ষা বলয়ের বাইরে থেকে দেশটিতে আঘাত হানতে পারবে উত্তর কোরিয়া। কারণ থাড রাডার আওতার বাইরে থেকেই উত্তর কোরিয়া ডুবোজাহাজ থেকে পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানতে পারবে।

কম্যুনিস্ট দেশ উত্তর কোরিয়া সাম্প্রতিক সময়ে ধারাবাহিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মাধ্যমে বেশ সফল হওয়ার পর জাপানে বিশেষ ড্রোন ও দক্ষিণ কোরিয়া থাড ক্ষেপনাস্ত্র বিধংসী ব্যবস্থা মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। উত্তর কোরিয়া বলে দিয়েছে দেশটি আক্রান্ত হলে প্রথমেই জাপানে পারমাণবিক হামলা চালাবে। একই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানতে সক্ষম এমন দূরপাল্লার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। কংগ্রেস রিপোর্টে যুক্তরাষ্ট্রে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সক্ষমতার বিষয়টি স্বীকার করেই বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারাও বিশ্বাস করে উত্তর কোরিয়ার আন্ত:মহাদেশী দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার সক্ষমতা আছে তবে তা এখনো চূড়ান্তভাবে পরীক্ষা করা হয়নি। উত্তর কোরিয়ার সর্বশেষ দুটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা সফল হয়নি বলে দাবি করছে পেন্টাগন ও দক্ষিণ কোরিয়া। তারপর উত্তর কোরিয়া রাশিয়া অভিমুখে ভুলবশত আরেকটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে এবং মধ্য আকাশে তা বিধ্বস্ত করে দেওয়া হয়।

কংগ্রেস প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে এধরনের অব্যাহত ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মাধ্যমে সফল হচ্ছে উত্তর কোরিয়া একই সঙ্গে দেশটি স্বল্প থেকে মাঝারি ও দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে আঞ্চলিক ক্ষেপণাস্ত্র ভিত্তিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে। এধরনের ক্রমবর্ধমান সক্ষমতা উত্তর কোরিয়ার বিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে এবং প্রতিরক্ষা কৌশল আরো জোরদার করবে।

সূত্র: ডেইলি স্টার ইউকে

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X