মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:০৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, October 7, 2017 11:12 am
A- A A+ Print

উস্কানি দিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে যুদ্ধ বাধানোর চেষ্টা করা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

4

রোহিঙ্গা ইস্যুতে পরিস্থিতিকে ভিন্ন দিকে নিতে উস্কানি দিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের যুদ্ধ বাধানোর চেষ্টা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার সকাল ১০ টার দিকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে দলের পক্ষ থেকে দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে পরিস্থিতিকে ভিন্ন দিকে নিতে উস্কানি দেয়া হয়েছে। প্রতিবেশি দেশের সঙ্গে যুদ্ধ লাগিয়ে দেয়ার মতো উস্কানি ছিল। তখন একটা যুদ্ধ বেধে যেতো। বিচক্ষণতার সঙ্গে পারিস্থিতি সামাল দেয়া হয়েছে। আমি যুক্তরাষ্ট্র থেকেই সেনাবাহিনী ও বিজিবিসহ সকল বাহিনীকে সতর্ক করেছি। আমি নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কিছু করা যাবে না। সেনাবাহিনী-বিজিবি দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করেছে।
বিমানবন্দরেই মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, আওয়ামী লীগ ও ১৪ দলের জ্যেষ্ঠ নেতারা ও বিশিষ্ট নাগরিকেরা প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান। প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দিচ্ছে আওয়ামী লীগ ও ক্ষমতাসীনদের জোট ১৪ দল। বিমানবন্দর থেকে গণভবন পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে নেতা-কর্মীরা ফুল আর ব্যানার-ফেস্টুন হাতে অবস্থান নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা ও শুভেচ্ছা জানাবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭২ তম অধিবেশনে রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা ও তাদের ফেরত নিতে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে পাঁচ দফা প্রস্তাব দেন, যা ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়। এ জন্যই প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেওয়া হচ্ছে বলে আওয়ামী লীগের নেতারা জানিয়েছেন। বিমানবন্দর থেকে বনানী, কাকলী, মহাখালী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, বিজয় সরণিসহ পথে পথে নেতা-কর্মীরা অবস্থান নিয়েছেন। ইতিমধ্যে এই সড়কে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ব্যানার, ফেস্টুন স্থাপন করা হয়েছে। আর গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তা ছাড়াও শিল্পী-সাহিত্যিকদের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে গত ১৬ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্র সফরে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অধিবেশনে বক্তৃতা, গুরুত্বপূর্ণ সভায় অংশগ্রহণ ও কয়েকজন সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। ২২ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক থেকে ভার্জিনিয়ায় যান তিনি। সেখানে যাওয়ার পর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে ২৫ সেপ্টেম্বর একটি হাসপাতালে তাঁর পিত্তথলিতে অস্ত্রোপচার হয়। সেখান থেকে শেখ হাসিনা ৩ অক্টোবর লন্ডনে যান।

Comments

Comments!

 উস্কানি দিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে যুদ্ধ বাধানোর চেষ্টা করা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রীAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

উস্কানি দিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে যুদ্ধ বাধানোর চেষ্টা করা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

Saturday, October 7, 2017 11:12 am
4

রোহিঙ্গা ইস্যুতে পরিস্থিতিকে ভিন্ন দিকে নিতে উস্কানি দিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের যুদ্ধ বাধানোর চেষ্টা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
শনিবার সকাল ১০ টার দিকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে দলের পক্ষ থেকে দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে পরিস্থিতিকে ভিন্ন দিকে নিতে উস্কানি দেয়া হয়েছে। প্রতিবেশি দেশের সঙ্গে যুদ্ধ লাগিয়ে দেয়ার মতো উস্কানি ছিল। তখন একটা যুদ্ধ বেধে যেতো। বিচক্ষণতার সঙ্গে পারিস্থিতি সামাল দেয়া হয়েছে। আমি যুক্তরাষ্ট্র থেকেই সেনাবাহিনী ও বিজিবিসহ সকল বাহিনীকে সতর্ক করেছি। আমি নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কিছু করা যাবে না। সেনাবাহিনী-বিজিবি দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করেছে।

বিমানবন্দরেই মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, আওয়ামী লীগ ও ১৪ দলের জ্যেষ্ঠ নেতারা ও বিশিষ্ট নাগরিকেরা প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান।

প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দিচ্ছে আওয়ামী লীগ ও ক্ষমতাসীনদের জোট ১৪ দল। বিমানবন্দর থেকে গণভবন পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে নেতা-কর্মীরা ফুল আর ব্যানার-ফেস্টুন হাতে অবস্থান নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা ও শুভেচ্ছা জানাবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭২ তম অধিবেশনে রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা ও তাদের ফেরত নিতে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে পাঁচ দফা প্রস্তাব দেন, যা ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়। এ জন্যই প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেওয়া হচ্ছে বলে আওয়ামী লীগের নেতারা জানিয়েছেন।

বিমানবন্দর থেকে বনানী, কাকলী, মহাখালী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, বিজয় সরণিসহ পথে পথে নেতা-কর্মীরা অবস্থান নিয়েছেন। ইতিমধ্যে এই সড়কে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ব্যানার, ফেস্টুন স্থাপন করা হয়েছে। আর গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তা ছাড়াও শিল্পী-সাহিত্যিকদের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে গত ১৬ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্র সফরে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অধিবেশনে বক্তৃতা, গুরুত্বপূর্ণ সভায় অংশগ্রহণ ও কয়েকজন সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। ২২ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক থেকে ভার্জিনিয়ায় যান তিনি। সেখানে যাওয়ার পর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে ২৫ সেপ্টেম্বর একটি হাসপাতালে তাঁর পিত্তথলিতে অস্ত্রোপচার হয়। সেখান থেকে শেখ হাসিনা ৩ অক্টোবর লন্ডনে যান।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X