রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১২:৫৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, October 1, 2017 12:30 pm
A- A A+ Print

উ. কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ‘সরাসরি যোগাযোগ’

nort_korea20171001091756

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সরাসরি যোগযোগ করছে ‍যুক্তরাষ্ট্র। তিনি বলেছেন, পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে আলোচনার ‘সম্ভাব্যতা’ যাচাই করে দেখছে ওয়াশিংটন। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। চীনে সফররত টিলারসন শনিবার জানিয়েছেন, ‘পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ চলছে... তবে আমরা অন্ধকার অবস্থায় নেই।’ সাম্প্রতিক সময়ে যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য ছোঁড়াছুড়ি হচ্ছে। তাদের বাকযুদ্ধের ডামাডোলে বিশ্বরাজনীতিও গরম হয়ে উঠছে। কিন্তু এরই মধ্যে দুই দেশের মধ্যে সরাসরি যোগযোগ হচ্ছে- গণমাধ্যমের কাছে এটি নতুন খবর। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও জানিয়েছে, পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য বেশ কয়েকটি চ্যানেল কাজ করছে। তবে খুবই সামান্য অগ্রগতি হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হিথার ন্যয়ের্ত এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘উত্তর কোরিয়ার বর্তমান শাসন ক্ষমতা পরিবর্তনের পক্ষে নয় যুক্তরাষ্ট্র... এমন নিশ্চয়তা দেওয়ার পরও দেশটির কর্মকর্তারা এমন কোনো ইঙ্গিত দেননি, যাতে বোঝা যায়, পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের বিষয়ে আলোচনার জন্য তারা আগ্রহী বা প্রস্তুত।’ যুক্তরাষ্ট্রের মাথা ব্যথা উত্তর কোরিয়ার পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে। ৩ সেপ্টেম্বর তারা যে হাইড্রোজেন বোমার পরীক্ষা চালিয়েছে এবং দাবি করেছে, এটি ক্ষুদ্রাকৃতির ও ক্ষেপণাস্ত্রে যুক্ত করে হামলা চালানোর উপযোগী- মূলত এ ঘোষণার পরই যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ নেতৃত্ব নড়েচড়ে বসেছে। যেকোনো উপায়ে দেশটিকে শান্ত করতে চায় তারা। উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সঙ্গে সংলাপের আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু পরে সেই ট্রাম্পই বলেছিলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র শুধু উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে কথাই বলে আসছে আর তাদের চাঁদা দিয়ে যাচ্ছে। আলোচনা কোনো উত্তর নয়।’ উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সংলাপের বিষয়ে চীন ও রাশিয়া বারবার আহ্বান জানালেও যুক্তরাষ্ট্র এ বিষয়ে পরিষ্কার করে কিছু বলেনি। উল্টো বিভিন্ন সময়ে ট্রাম্প উত্তর কোরিয়াকে ধ্বংসের হুমকি দিয়েছেন। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ভাষণে ট্রাম্প বলেছেন, হামলা চালালে উত্তর কোরিয়াকে সম্পূর্ণ ধ্বংস করা হবে। এর আগে কিম জং-উনকে উদ্দেশ্য করে ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘রকেট ম্যান আত্মঘাতী মিশনে আছেন।’ তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন

Comments

Comments!

 উ. কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ‘সরাসরি যোগাযোগ’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

উ. কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ‘সরাসরি যোগাযোগ’

Sunday, October 1, 2017 12:30 pm
nort_korea20171001091756

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সরাসরি যোগযোগ করছে ‍যুক্তরাষ্ট্র।

তিনি বলেছেন, পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে আলোচনার ‘সম্ভাব্যতা’ যাচাই করে দেখছে ওয়াশিংটন। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

চীনে সফররত টিলারসন শনিবার জানিয়েছেন, ‘পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ চলছে… তবে আমরা অন্ধকার অবস্থায় নেই।’

সাম্প্রতিক সময়ে যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য ছোঁড়াছুড়ি হচ্ছে। তাদের বাকযুদ্ধের ডামাডোলে বিশ্বরাজনীতিও গরম হয়ে উঠছে। কিন্তু এরই মধ্যে দুই দেশের মধ্যে সরাসরি যোগযোগ হচ্ছে- গণমাধ্যমের কাছে এটি নতুন খবর।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও জানিয়েছে, পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য বেশ কয়েকটি চ্যানেল কাজ করছে। তবে খুবই সামান্য অগ্রগতি হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হিথার ন্যয়ের্ত এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘উত্তর কোরিয়ার বর্তমান শাসন ক্ষমতা পরিবর্তনের পক্ষে নয় যুক্তরাষ্ট্র… এমন নিশ্চয়তা দেওয়ার পরও দেশটির কর্মকর্তারা এমন কোনো ইঙ্গিত দেননি, যাতে বোঝা যায়, পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের বিষয়ে আলোচনার জন্য তারা আগ্রহী বা প্রস্তুত।’

যুক্তরাষ্ট্রের মাথা ব্যথা উত্তর কোরিয়ার পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে। ৩ সেপ্টেম্বর তারা যে হাইড্রোজেন বোমার পরীক্ষা চালিয়েছে এবং দাবি করেছে, এটি ক্ষুদ্রাকৃতির ও ক্ষেপণাস্ত্রে যুক্ত করে হামলা চালানোর উপযোগী- মূলত এ ঘোষণার পরই যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ নেতৃত্ব নড়েচড়ে বসেছে। যেকোনো উপায়ে দেশটিকে শান্ত করতে চায় তারা।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সঙ্গে সংলাপের আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু পরে সেই ট্রাম্পই বলেছিলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র শুধু উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে কথাই বলে আসছে আর তাদের চাঁদা দিয়ে যাচ্ছে। আলোচনা কোনো উত্তর নয়।’

উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সংলাপের বিষয়ে চীন ও রাশিয়া বারবার আহ্বান জানালেও যুক্তরাষ্ট্র এ বিষয়ে পরিষ্কার করে কিছু বলেনি। উল্টো বিভিন্ন সময়ে ট্রাম্প উত্তর কোরিয়াকে ধ্বংসের হুমকি দিয়েছেন। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ভাষণে ট্রাম্প বলেছেন, হামলা চালালে উত্তর কোরিয়াকে সম্পূর্ণ ধ্বংস করা হবে।

এর আগে কিম জং-উনকে উদ্দেশ্য করে ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘রকেট ম্যান আত্মঘাতী মিশনে আছেন।’

তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X