রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৯:৩৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, October 6, 2017 9:47 am
A- A A+ Print

এইচ টি ইমামের আইফোনের সন্ধান এখনো মেলেনি

86159_ht

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের আইফোনের সন্ধান এখনো মেলেনি। ফোনটিতে ছিল রাষ্ট্রীয় নানা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ১৭ই সেপ্টেম্বর কলকাতার পার্ক সার্কাস এলাকার বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের কাছাকাছি  কোনো জায়গা থেকে তার ব্যবহার করা মোবাইলফোনটি খোয়া যায়। এ নিয়ে বাংলাদেশ চ্যান্সেরির প্রধান বি এম জামাল হোসেন স্থানীয় বেনিয়াপুকুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে কলকাতা পুলিশ গত দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে তদন্ত করছে। এইচ টি ইমামের সফরকালে প্রটোকলসহ অন্যান্য কাজের সঙ্গে থাকা হাইকমিশনের কর্মকর্তাদের বক্তব্য নিয়েছেন তারা। কিন্তু এখনো ফোনটি হারিয়ে যাওয়ার রহস্য বা এর অবস্থা সম্পর্কে কোনো ক্লু মেলেনি। কলকাতা মিশনের একাধিক কর্মকর্তা গতকাল মানবজমিনের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, কলকাতা পুলিশ ফোনটি খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করছে। তারা ব্যবহারকারীর প্রকৃত নামের বানানসহ অন্যান্য তথ্য হাইকমিশনের সঙ্গে ক্রসচেক করে নিয়েছেন। সফর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে পুলিশের কথা হয়েছে। কিন্তু এখনো এর কোনো অগ্রগতি আছে বলে জানা যায়নি। ফোনটি হারিয়ে যাওয়ার পর বাংলাদেশি কর্মকর্তাদের বরাতে টাইমস অব ইন্ডিয়া একটি রিপোর্ট করেছিল। তাতে বলা হয়েছিল- ওই মোবাইল ফোনটিতে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য থাকতে পারে। কারণ এইচ টি ইমাম বাংলাদেশের মন্ত্রিসভার একজন সদস্যের পদমর্যাদা ধারণ করেন এবং তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেশ ঘনিষ্ঠজন। ফোনটি কীভাবে খোয়া গেল সে সম্পর্কে কোনো ধারণাই পাওয়া যাচ্ছে না জানিয়ে সেদিনের রিপোর্টে বলা হয়- এইচ টি ইমাম কলকাতা এয়ারপোর্টে পৌঁছানোর পর থেকে হোটেল কক্ষে পৌঁছানো পর্যন্ত বাংলাদেশি কূটনীতিক পরিবেষ্টিত ছিলেন। টাইম অব ইন্ডিয়ার রিপোর্টে সে সময় আরো বলা হয়- হারিয়ে যাওয়ার পর থেকে ফোনটি আর চালু হয়নি। সেটিতে এইচ টি ইমামের যে সিমকার্ড ছিল, তা খুলে ফেলা হয়েছে কি-না সেটি তদন্ত করছে পুলিশ। হারিয়ে যাওয়া ফোনটি থেকে তথ্য চুরির আশঙ্কা ব্যক্ত করে রিপোর্টে বলা হয়- কলকাতার এক পুলিশ কর্মকর্তা টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানিয়েছেন- এই মুহূর্তে ফোন খুঁজে পাওয়াটা কলকাতা পুলিশের সুনামের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন তারা। ফোন খুঁজে পেতে দেরি হওয়ার কারণ হিসেবে সে সময় বলা হয়- ফোনটির নির্মাতা অ্যাপলের যে ট্রাকিং পদ্ধতি রয়েছে, তা কাজ করছে না।

Comments

Comments!

 এইচ টি ইমামের আইফোনের সন্ধান এখনো মেলেনিAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

এইচ টি ইমামের আইফোনের সন্ধান এখনো মেলেনি

Friday, October 6, 2017 9:47 am
86159_ht

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের আইফোনের সন্ধান এখনো মেলেনি। ফোনটিতে ছিল রাষ্ট্রীয় নানা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ১৭ই সেপ্টেম্বর কলকাতার পার্ক সার্কাস এলাকার বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের কাছাকাছি  কোনো জায়গা থেকে তার ব্যবহার করা মোবাইলফোনটি খোয়া যায়। এ নিয়ে বাংলাদেশ চ্যান্সেরির প্রধান বি এম জামাল হোসেন স্থানীয় বেনিয়াপুকুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে কলকাতা পুলিশ গত দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে তদন্ত করছে। এইচ টি ইমামের সফরকালে প্রটোকলসহ অন্যান্য কাজের সঙ্গে থাকা হাইকমিশনের কর্মকর্তাদের বক্তব্য নিয়েছেন তারা। কিন্তু এখনো ফোনটি হারিয়ে যাওয়ার রহস্য বা এর অবস্থা সম্পর্কে কোনো ক্লু মেলেনি। কলকাতা মিশনের একাধিক কর্মকর্তা গতকাল মানবজমিনের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, কলকাতা পুলিশ ফোনটি খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করছে। তারা ব্যবহারকারীর প্রকৃত নামের বানানসহ অন্যান্য তথ্য হাইকমিশনের সঙ্গে ক্রসচেক করে নিয়েছেন। সফর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে পুলিশের কথা হয়েছে। কিন্তু এখনো এর কোনো অগ্রগতি আছে বলে জানা যায়নি। ফোনটি হারিয়ে যাওয়ার পর বাংলাদেশি কর্মকর্তাদের বরাতে টাইমস অব ইন্ডিয়া একটি রিপোর্ট করেছিল। তাতে বলা হয়েছিল- ওই মোবাইল ফোনটিতে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য থাকতে পারে। কারণ এইচ টি ইমাম বাংলাদেশের মন্ত্রিসভার একজন সদস্যের পদমর্যাদা ধারণ করেন এবং তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেশ ঘনিষ্ঠজন। ফোনটি কীভাবে খোয়া গেল সে সম্পর্কে কোনো ধারণাই পাওয়া যাচ্ছে না জানিয়ে সেদিনের রিপোর্টে বলা হয়- এইচ টি ইমাম কলকাতা এয়ারপোর্টে পৌঁছানোর পর থেকে হোটেল কক্ষে পৌঁছানো পর্যন্ত বাংলাদেশি কূটনীতিক পরিবেষ্টিত ছিলেন। টাইম অব ইন্ডিয়ার রিপোর্টে সে সময় আরো বলা হয়- হারিয়ে যাওয়ার পর থেকে ফোনটি আর চালু হয়নি। সেটিতে এইচ টি ইমামের যে সিমকার্ড ছিল, তা খুলে ফেলা হয়েছে কি-না সেটি তদন্ত করছে পুলিশ। হারিয়ে যাওয়া ফোনটি থেকে তথ্য চুরির আশঙ্কা ব্যক্ত করে রিপোর্টে বলা হয়- কলকাতার এক পুলিশ কর্মকর্তা টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানিয়েছেন- এই মুহূর্তে ফোন খুঁজে পাওয়াটা কলকাতা পুলিশের সুনামের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন তারা। ফোন খুঁজে পেতে দেরি হওয়ার কারণ হিসেবে সে সময় বলা হয়- ফোনটির নির্মাতা অ্যাপলের যে ট্রাকিং পদ্ধতি রয়েছে, তা কাজ করছে না।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X