রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ২:১৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, December 1, 2016 12:47 am
A- A A+ Print

এই কুমিল্লা যদি আগে দেখা দিত…

55555555555555

এই একটি শব্দযুগল দেখার জন্য মাশরাফি আর কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের ভক্ত-সমর্থকেরা চাতক চোখে চেয়ে ছিল—‘টানা জয়’! সেটাই পেল কুমিল্লা। নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে এসে প্রথম জয়ের দেখা পাওয়া মাশরাফির দল টানা জয় পেল নবম আর দশম ম্যাচে। রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে পাওয়া প্রথম জয়, সেটিকে মনে করিয়ে দিয়ে আবারও সেই রাজশাহীকে ৮ উইকেটে হারাল কুমিল্লা। ১২৫ রান তাড়া করতে নেমে কুমিল্লার শুরু অবশ্য খুব একটা ভালো হয়নি। ১৬ রানে ইমরুল কায়েস আউট হলেও আহমেদ শেহজাদ-মারলন স্যামুয়েলস স্বচ্ছন্দেই এগিয়েছেন। দুজনের দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে আসে ৬৯ বলে ৯০ রান। এই জুটিতেই আসলে খেলা শেষ। ফরহাদ রেজার বলে জেমস ফ্র্যাঙ্কলিনের ক্যাচ হয়ে শেহজাদ আউট হয়েছেন হাফ সেঞ্চুরি থেকে চার রান দূরে থেকে। তবে বিপিএলে নিজের দ্বিতীয় ফিফটি পেয়েছেন স্যামুয়েলস। ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান সবচেয়ে বেশি চড়াও হয়েছে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে। মিরাজের এক ওভারেই মেরেছেন পর পর তিন ছক্কা। বিপিএল ঢাকায় ফেরার পর সন্ধ্যার প্রতিটি ম্যাচ হয়েছে লো-স্কোরিং। কাল পর্যন্ত ৬ ম্যাচে মোট রান হয়েছে ১৫১২। ইনিংস গড়ে রান ১২৬। কালও একই ছবি। যদিও রাজশাহীর ভালো শুরু এনে দেন দুই ওপেনার মুমিনুল হক ও নুরুল হাসান। ৩৮ রানে ওপেনিং জুটি ভাঙার পর ২১ রানের মধ্যে তারা হারিয়েছে ৬ উইকেট। ১১তম ওভারে কুমিল্লা পেসার সাইফউদ্দিন পেয়েছিলেন হ্যাটট্রিকের সুযোগ। রাজশাহীকে উদ্ধার করেছে জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন-আবুল হাসানের অষ্টম উইকেট জুটি। নির্দিষ্ট করে কিউই অলরাউন্ডারে সওয়ার হয়ে তারা পেয়েছে লড়াইয়ের পুঁজি। চট্টগ্রাম পর্বের শুরু থেকেই দলের সঙ্গে আছেন ফ্র্যাঙ্কলিন। কাল প্রথম ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েই নিজেকে চিনিয়েছেন এই কিউই। ৩১ বলে করেছেন ৪৪ রান। দুই চারের সঙ্গে ছক্কা মেরেছেন তিনটি। শাহাদাত হোসেনের করা শেষ ওভারেই তুলেছেন ২৩ রান। আবুল হাসানের সঙ্গে অষ্টম উইকেটে যোগ করেছেন ২৯ বলে ৪৬ রান। ফ্র্যাঙ্কলিনের রানটা অবশ্য রাজশাহীর কাজে আসেনি শেষ পর্যন্ত। এখন মাশরাফিরা জিতলেই বাড়তে থাকবে কুমিল্লা-সমর্থকদের আফসোস। আরও আগে এভাবে জ্বলে উঠলে প্লে-অফ খেলার স্বপ্নটা নিশ্চয়ই তাঁদের বেঁচে থাকত! সংক্ষিপ্ত স্কোর: রাজশাহী: ২০ ওভারে ১২৪/৭ (মুমিনুল ২০, নুরুল ১৭, সাব্বির ৮, প্যাটেল ৪, মিরাজ ৭, ফ্র্যাঙ্কলিন ৪৪*, স্যামি ০, রেজা ১৩, হাসান ৪*; মাশরাফি ২/২৪, শাহাদাত ০/৪১, নাবিল ১/১৪, রশিদ ১/১৬, সাইফউদ্দিন ৩/১২, নাজমুল ০/১১)। কুমিল্লা: ১৮.৪ ওভারে ১২৫/২ (ইমরুল ৯, শেহজাদ ৪৬, স্যামুয়েলস ৫৫*, লতিফ ৭*; সামি ০/১৯, মিরাজ ১/২৭, নাজমুল ০/৩১, প্যাটেল ০/১৪, হাসান ০/৯, রেজা ১/১৪, ফ্র্যাঙ্কলিন ০/৭)। ফল: কুমিল্লা ৮ উইকেটে জয়ী। ম্যান অব দ্য ম্যাচ: মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

Comments

Comments!

 এই কুমিল্লা যদি আগে দেখা দিত…AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

এই কুমিল্লা যদি আগে দেখা দিত…

Thursday, December 1, 2016 12:47 am
55555555555555

এই একটি শব্দযুগল দেখার জন্য মাশরাফি আর কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের ভক্ত-সমর্থকেরা চাতক চোখে চেয়ে ছিল—‘টানা জয়’! সেটাই পেল কুমিল্লা। নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে এসে প্রথম জয়ের দেখা পাওয়া মাশরাফির দল টানা জয় পেল নবম আর দশম ম্যাচে। রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে পাওয়া প্রথম জয়, সেটিকে মনে করিয়ে দিয়ে আবারও সেই রাজশাহীকে ৮ উইকেটে হারাল কুমিল্লা।
১২৫ রান তাড়া করতে নেমে কুমিল্লার শুরু অবশ্য খুব একটা ভালো হয়নি। ১৬ রানে ইমরুল কায়েস আউট হলেও আহমেদ শেহজাদ-মারলন স্যামুয়েলস স্বচ্ছন্দেই এগিয়েছেন। দুজনের দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে আসে ৬৯ বলে ৯০ রান। এই জুটিতেই আসলে খেলা শেষ।
ফরহাদ রেজার বলে জেমস ফ্র্যাঙ্কলিনের ক্যাচ হয়ে শেহজাদ আউট হয়েছেন হাফ সেঞ্চুরি থেকে চার রান দূরে থেকে। তবে বিপিএলে নিজের দ্বিতীয় ফিফটি পেয়েছেন স্যামুয়েলস। ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান সবচেয়ে বেশি চড়াও হয়েছে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে। মিরাজের এক ওভারেই মেরেছেন পর পর তিন ছক্কা।
বিপিএল ঢাকায় ফেরার পর সন্ধ্যার প্রতিটি ম্যাচ হয়েছে লো-স্কোরিং। কাল পর্যন্ত ৬ ম্যাচে মোট রান হয়েছে ১৫১২। ইনিংস গড়ে রান ১২৬। কালও একই ছবি। যদিও রাজশাহীর ভালো শুরু এনে দেন দুই ওপেনার মুমিনুল হক ও নুরুল হাসান। ৩৮ রানে ওপেনিং জুটি ভাঙার পর ২১ রানের মধ্যে তারা হারিয়েছে ৬ উইকেট। ১১তম ওভারে কুমিল্লা পেসার সাইফউদ্দিন পেয়েছিলেন হ্যাটট্রিকের সুযোগ। রাজশাহীকে উদ্ধার করেছে জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন-আবুল হাসানের অষ্টম উইকেট জুটি। নির্দিষ্ট করে কিউই অলরাউন্ডারে সওয়ার হয়ে তারা পেয়েছে লড়াইয়ের পুঁজি।

চট্টগ্রাম পর্বের শুরু থেকেই দলের সঙ্গে আছেন ফ্র্যাঙ্কলিন। কাল প্রথম ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েই নিজেকে চিনিয়েছেন এই কিউই। ৩১ বলে করেছেন ৪৪ রান। দুই চারের সঙ্গে ছক্কা মেরেছেন তিনটি। শাহাদাত হোসেনের করা শেষ ওভারেই তুলেছেন ২৩ রান। আবুল হাসানের সঙ্গে অষ্টম উইকেটে যোগ করেছেন ২৯ বলে ৪৬ রান। ফ্র্যাঙ্কলিনের রানটা অবশ্য রাজশাহীর কাজে আসেনি শেষ পর্যন্ত।
এখন মাশরাফিরা জিতলেই বাড়তে থাকবে কুমিল্লা-সমর্থকদের আফসোস। আরও আগে এভাবে জ্বলে উঠলে প্লে-অফ খেলার স্বপ্নটা নিশ্চয়ই তাঁদের বেঁচে থাকত!

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
রাজশাহী: ২০ ওভারে ১২৪/৭ (মুমিনুল ২০, নুরুল ১৭, সাব্বির ৮, প্যাটেল ৪, মিরাজ ৭, ফ্র্যাঙ্কলিন ৪৪*, স্যামি ০, রেজা ১৩, হাসান ৪*; মাশরাফি ২/২৪, শাহাদাত ০/৪১, নাবিল ১/১৪, রশিদ ১/১৬, সাইফউদ্দিন ৩/১২, নাজমুল ০/১১)।
কুমিল্লা: ১৮.৪ ওভারে ১২৫/২ (ইমরুল ৯, শেহজাদ ৪৬, স্যামুয়েলস ৫৫*, লতিফ ৭*; সামি ০/১৯, মিরাজ ১/২৭, নাজমুল ০/৩১, প্যাটেল ০/১৪, হাসান ০/৯, রেজা ১/১৪, ফ্র্যাঙ্কলিন ০/৭)।
ফল: কুমিল্লা ৮ উইকেটে জয়ী।
ম্যান অব দ্য ম্যাচ: মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X