বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৮:২০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, July 22, 2017 9:16 am
A- A A+ Print

‘একতরফা নির্বাচনের যৌথ প্রযোজনায় ইসি-সরকার’

7

  নির্বাচন কমিশন ও সরকার মিলে ‘একতরফা ও নীলনকশার’ নির্বাচন আয়োজন করতে চাইছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী। শুক্রবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন। রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘চাকরি জীবনে বর্তমান সিইসির দায়িত্বশীল কোনো বড় পদে কাজ করার অভিজ্ঞতা না থাকলেও আওয়ামী লীগ যে তাদের এজেন্ডা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নুরুল হুদা সাহেবকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে এটি জনগণের নিকট পরিষ্কার।’ ‘সম্প্রতি সিইসির বিভিন্ন বক্তব্যে এটি আরো সুষ্পষ্ট হয়েছে। সিইসি হিসেবে যোগদানের পর তিনি বিতর্কের ঊর্ধ্বে উঠতে পারেননি। নির্বাচন কমিশনে পদোন্নতি ও রদবদলে সিইসি একক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, যা সম্পূর্ণরূপে নির্বাচনী আইনবহির্ভূত,’ বলেন রিজভী। বিএনপির এই নেতা অভিযোগ করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে মন্ত্রী-এমপি ও আওয়ামী নেতারা সরকারী ব্যয়ে ইতোমধ্যেই নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন, যা সম্পূর্ণরূপে নির্বাচনী আইনপরিপন্থি। দেশের ভোটারদের ভোটাধিকার যেহেতু থাকবে না সেহেতু ক্ষমতাসীনরা আগামী নির্বাচন নিয়ে অনাচারে লিপ্ত।’ সরকার স্বাভাবিক রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডেও বাধা দিচ্ছে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, ‘বহিরাঙ্গণের সভা দূরে থাক, বিএনপির ঘরোয়া সভাতেও পুলিশ ও সরকার দলীয় সন্ত্রাসীরা আক্রমণ চালাচ্ছে।’ এ সময় দেশের বিভিন্ন স্থানে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান চলাকালে শাসক দলের নেতা-কর্মীদের হামলার ঘটনা তুলে ধরেন রিজভী। আইসিটি আইনের ৫৭ ধারা দিয়ে সরকার সাংবাদিকদের নির্যাতন করছে মন্তব্য করে রিজভী বলেন, ‘এ পর্যন্ত প্রায় ৫০ জন সাংবাদিককের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় মামলা দেওয়া হয়েছে। গতকালও একজন সিনিয়র সাংবাদিককে ৫৭ ধারায় আটক করে কারাগারে প্রেরণ করেছে। আইসিটি আইনের ৫৭ ধারা স্বাধীন মতপ্রকাশের স্বাধীনতার অন্তরায়।’ তিনি বলেন, ‘গণমাধ্যমে জানতে পেরেছি ৫৭ ধারা থেকে আরো ভয়াবহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করতে যাচ্ছে সরকার। সে আইনের ১৯ ধারাতে গণমাধ্যমকে আরো শক্তভাবে নিয়ন্ত্রণের বিধান রাখা হয়েছে। প্রস্তাবিত আইনের খসড়ার ১৫ (৫) ধারা চিন্তা ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতার জন্য আরেকটি বড় বাধা হবে।’

Comments

Comments!

 ‘একতরফা নির্বাচনের যৌথ প্রযোজনায় ইসি-সরকার’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘একতরফা নির্বাচনের যৌথ প্রযোজনায় ইসি-সরকার’

Saturday, July 22, 2017 9:16 am
7

 

নির্বাচন কমিশন ও সরকার মিলে ‘একতরফা ও নীলনকশার’ নির্বাচন আয়োজন করতে চাইছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী।

শুক্রবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘চাকরি জীবনে বর্তমান সিইসির দায়িত্বশীল কোনো বড় পদে কাজ করার অভিজ্ঞতা না থাকলেও আওয়ামী লীগ যে তাদের এজেন্ডা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নুরুল হুদা সাহেবকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে এটি জনগণের নিকট পরিষ্কার।’

‘সম্প্রতি সিইসির বিভিন্ন বক্তব্যে এটি আরো সুষ্পষ্ট হয়েছে। সিইসি হিসেবে যোগদানের পর তিনি বিতর্কের ঊর্ধ্বে উঠতে পারেননি। নির্বাচন কমিশনে পদোন্নতি ও রদবদলে সিইসি একক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, যা সম্পূর্ণরূপে নির্বাচনী আইনবহির্ভূত,’ বলেন রিজভী।

বিএনপির এই নেতা অভিযোগ করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে মন্ত্রী-এমপি ও আওয়ামী নেতারা সরকারী ব্যয়ে ইতোমধ্যেই নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন, যা সম্পূর্ণরূপে নির্বাচনী আইনপরিপন্থি। দেশের ভোটারদের ভোটাধিকার যেহেতু থাকবে না সেহেতু ক্ষমতাসীনরা আগামী নির্বাচন নিয়ে অনাচারে লিপ্ত।’

সরকার স্বাভাবিক রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডেও বাধা দিচ্ছে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, ‘বহিরাঙ্গণের সভা দূরে থাক, বিএনপির ঘরোয়া সভাতেও পুলিশ ও সরকার দলীয় সন্ত্রাসীরা আক্রমণ চালাচ্ছে।’

এ সময় দেশের বিভিন্ন স্থানে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান চলাকালে শাসক দলের নেতা-কর্মীদের হামলার ঘটনা তুলে ধরেন রিজভী।

আইসিটি আইনের ৫৭ ধারা দিয়ে সরকার সাংবাদিকদের নির্যাতন করছে মন্তব্য করে রিজভী বলেন, ‘এ পর্যন্ত প্রায় ৫০ জন সাংবাদিককের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় মামলা দেওয়া হয়েছে। গতকালও একজন সিনিয়র সাংবাদিককে ৫৭ ধারায় আটক করে কারাগারে প্রেরণ করেছে। আইসিটি আইনের ৫৭ ধারা স্বাধীন মতপ্রকাশের স্বাধীনতার অন্তরায়।’

তিনি বলেন, ‘গণমাধ্যমে জানতে পেরেছি ৫৭ ধারা থেকে আরো ভয়াবহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করতে যাচ্ছে সরকার। সে আইনের ১৯ ধারাতে গণমাধ্যমকে আরো শক্তভাবে নিয়ন্ত্রণের বিধান রাখা হয়েছে। প্রস্তাবিত আইনের খসড়ার ১৫ (৫) ধারা চিন্তা ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতার জন্য আরেকটি বড় বাধা হবে।’

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X