বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:৩১
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, October 18, 2017 11:55 pm
A- A A+ Print

এক ম্যাচ হাতে থাকতেই প্রোটিয়ানদের সিরিজ জয়, টাইগারদের লজ্জার হার

b37d550033c5fe2e006f68cd5c8a5345-59e73d94917bb

ঢাকা: দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও বড় পরাজয় টাইগারদের। ৩৫৩ রানের পাহাড় টপকাতে মাঠে নেমে ২৪৯ রানেই অলআউট। এতে শনির দশা যেন কোনোমতেই কাটছে না। টাইগারদের আজকের পরাজয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ২-০ তে সিরিজ জিতে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রথম ওয়ানডেতেও ১০ উইকেটে হেরেছিল বাংলাদেশ। ৩৫৪ রানের টার্গেট দিয়ে খেলা শেষ করে দক্ষিণ আফ্রিকা। তখন তামিম ছাড়া আর কাকে ভরসা করা যায়। যদিও দলে অনেক ভালো ব্যাটসম্যান রয়েছে। তবে ওপেনিংয়ে তামিমের ভালো খেলা মানে ব্যাটিং এ কিছুটা অন্যদের মনোবল চাঙ্গা করা। কিন্তু ইনজুরি কাটিয়ে ফেরা তামিম আজ দলের জন্য তেমন ভালো কিছুই দেখাতে পারলেন না। দলীয় রান যখন ৪৪ তখন ভাঙল ওপেনিং জুটি। তামিম ইকবাল ২৫ বলে দুই চার এবং এক ছক্কায় ২৩ রান করে ডোয়াইন প্রিটোরিসের বলে এলবিডাব্লিউ হয়ে গেলেন। তামিমের বিদায়ের পর তিন নম্বরে নামা লিটন দাসও ১২ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ১৪ রান করে অ্যানদিলে ফেলুকায়োরের শিকার হয়ে ফিরে গেলেন সাজঘরে। এরপর ৩০ রানের অপরাজিত ইমরুল কায়েসের সঙ্গে জুটি বাঁধলেন মুশফিকুর রহিম। ২৮ ওভারে দুই বলে ১৬৪ রানে ইমরুল কায়েস ৭৭ বলে ৬৮ রান করে সাজঘরে চলে গেলেন। ৪র্থ ব্যাটিংএ নামলেন সাকিব আল হাসান। মাঠে নামতে না নামতেই তাহিরের বলে কিপারের হাতে কট তুলে পাঁচ বলে ৫ রান করে ফিরে যান। ৫৮ রানের মুশফিকের সাথে জুটি বাঁধলেন মাহমুদউল্লাহ, ৩১ ওভার দুইবলে দলীয় রান ১৭৬। এরপরে ৬০ রানে মুশফিকের বিদায় ক্যাচআউটে। এরপর তাসকিন ছাড়া একে একে বিদায় অন্যদেরও। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে আগে ব্যাট করে সাড়ে তিন শ রান করা মোটেও অস্বাভাবিক কোনো ঘটনা নয়। কিন্তু চলতি সফরে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের ফর্ম এই টার্গেটকেই কঠিন করে ফেলেছে। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ডি ভিলিয়ার্সের বিধ্বংসী সেঞ্চুরি আর হাশিম আমলার ব্যাটিং দাপটে ৫ উইকেটে ৩৫৩ রান তুলে প্রোটিয়ারা। রুবেলের ৩ উইকেট আর সাকিবের ২ উইকেটে রানবন্যা আটকানো সম্ভব হয়নি। ইনিংসের শুরু থেকে সাবলীলভাবেই খেলছিল প্রোটিয়ারা। আরেকটি শতরানের ওপেনিং জুটি গড়ার আগেই আঘাত হানেন বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সাকিবের ঘূর্ণিবলে লাইন মিস করে এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন আগের ম্যাচে দেড় শতাধিক রান করা কুইন্টন ডি কক (৪৬)রানে ফিরে এসেছিল সাজ ঘরে। ৯০ রানে উদ্বোধনী জুটি ভাঙার পর দ্বিতীয় ব্রেক থ্রু টিও এল একই ওভারে। দুর্দান্ত ফ্লাইট ডেলিভারিতে অধিনায়ক ফাফ ডু-প্লেসিসের স্টাম্প উড়ে গেল। কোনো রান না করেই ফিরতে হলো ডু-প্লেসিসকে। ৯০ রানে ২ উইকেট হারানোর পর ১৩৬ রানের জুটি গড়ে বিপদ সামাল দেন ডি ভিলিয়ার্স এবং গত ম্যাচের শতাধীক রানের অধীকারি হাশিম আমলা। ওই মুহূর্তে একটি ব্রেক থ্রু দরকার ছিল। হাশিম আমলাকে (৮৫) মুশফিকুর রহিমের তালুবন্দি করে সেই ব্রেক থ্রু এনে দেন রুবেল হোসেন। কিন্তু কামব্যাক ম্যাচে ঠিকই ক্যারিয়ারের ২৫তম সেঞ্চুরি তুলে নেন বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স। ৬৮ বলে ঝড়ের গতিতে সেঞ্চুরির পর রুবেলের বলে ক্যাচ দেওয়ার আগে করেন ১০৪ বলে ১৫ চার ৭ ছক্কায় ১৭৬ রান। এরপর ডুমিনি (৩০) আর প্রিটোরিয়াসকেও (০) শিকারে পরিণত করেন রুবেল। সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড- বাংলাদেশ : (৪৭.৫ ওভারে ২৪৯) (তামিম ২৩, ইমরুল ৬৮, লিটন ১৪, মুশফিক ৬০, সাকিব ৫, মাহমুদুল্লাহ ৩৫, সাব্বির ১৭, নাসির ৩, মাশরাফি ০, তাসকিন ৩*, রুবেল ৮; রাবাদা ০/৪০, প্যাটারসন ১/৬৭, প্রিটোরিয়াস ২/৪৮, ফেহলুকওয়ায়ো ৪/৪০, তাহির ৩/৫০)। দক্ষিণ আফ্রিকা : (৫০ ওভারে ৩৫৩/৬) (ডি কক ৪৬, আমলা ৮৫, ডু প্লেসি ০, ডি ভিলিয়ার্স ১৭৬, ডুমিনি ৩০, বেহার্ডিন ৭*, প্রিটোরিয়াস ০, ফেহলুকওয়ায়ো ০*; মাশরাফি ০/৮২, তাসকিন ০/৭১, সাকিব ২/৬০, নাসির ০/৪৯, রুবেল ৪/৬২, সাব্বির ০/১১, মাহমুদুল্লাহ ০/১৬)।

Comments

Comments!

 এক ম্যাচ হাতে থাকতেই প্রোটিয়ানদের সিরিজ জয়, টাইগারদের লজ্জার হারAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

এক ম্যাচ হাতে থাকতেই প্রোটিয়ানদের সিরিজ জয়, টাইগারদের লজ্জার হার

Wednesday, October 18, 2017 11:55 pm
b37d550033c5fe2e006f68cd5c8a5345-59e73d94917bb

ঢাকা: দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও বড় পরাজয় টাইগারদের। ৩৫৩ রানের পাহাড় টপকাতে মাঠে নেমে ২৪৯ রানেই অলআউট। এতে শনির দশা যেন কোনোমতেই কাটছে না। টাইগারদের আজকের পরাজয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ২-০ তে সিরিজ জিতে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রথম ওয়ানডেতেও ১০ উইকেটে হেরেছিল বাংলাদেশ।

৩৫৪ রানের টার্গেট দিয়ে খেলা শেষ করে দক্ষিণ আফ্রিকা। তখন তামিম ছাড়া আর কাকে ভরসা করা যায়। যদিও দলে অনেক ভালো ব্যাটসম্যান রয়েছে। তবে ওপেনিংয়ে তামিমের ভালো খেলা মানে ব্যাটিং এ কিছুটা অন্যদের মনোবল চাঙ্গা করা।

কিন্তু ইনজুরি কাটিয়ে ফেরা তামিম আজ দলের জন্য তেমন ভালো কিছুই দেখাতে পারলেন না। দলীয় রান যখন ৪৪ তখন ভাঙল ওপেনিং জুটি। তামিম ইকবাল ২৫ বলে দুই চার এবং এক ছক্কায় ২৩ রান করে ডোয়াইন প্রিটোরিসের বলে এলবিডাব্লিউ হয়ে গেলেন।

তামিমের বিদায়ের পর তিন নম্বরে নামা লিটন দাসও ১২ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ১৪ রান করে অ্যানদিলে ফেলুকায়োরের শিকার হয়ে ফিরে গেলেন সাজঘরে। এরপর ৩০ রানের অপরাজিত ইমরুল কায়েসের সঙ্গে জুটি বাঁধলেন মুশফিকুর রহিম।

২৮ ওভারে দুই বলে ১৬৪ রানে ইমরুল কায়েস ৭৭ বলে ৬৮ রান করে সাজঘরে চলে গেলেন। ৪র্থ ব্যাটিংএ নামলেন সাকিব আল হাসান। মাঠে নামতে না নামতেই তাহিরের বলে কিপারের হাতে কট তুলে পাঁচ বলে ৫ রান করে ফিরে যান। ৫৮ রানের মুশফিকের সাথে জুটি বাঁধলেন মাহমুদউল্লাহ, ৩১ ওভার দুইবলে দলীয় রান ১৭৬। এরপরে ৬০ রানে মুশফিকের বিদায় ক্যাচআউটে। এরপর তাসকিন ছাড়া একে একে বিদায় অন্যদেরও।

এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে আগে ব্যাট করে সাড়ে তিন শ রান করা মোটেও অস্বাভাবিক কোনো ঘটনা নয়।

কিন্তু চলতি সফরে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের ফর্ম এই টার্গেটকেই কঠিন করে ফেলেছে। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ডি ভিলিয়ার্সের বিধ্বংসী সেঞ্চুরি আর হাশিম আমলার ব্যাটিং দাপটে ৫ উইকেটে ৩৫৩ রান তুলে প্রোটিয়ারা। রুবেলের ৩ উইকেট আর সাকিবের ২ উইকেটে রানবন্যা আটকানো সম্ভব হয়নি।

ইনিংসের শুরু থেকে সাবলীলভাবেই খেলছিল প্রোটিয়ারা। আরেকটি শতরানের ওপেনিং জুটি গড়ার আগেই আঘাত হানেন বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সাকিবের ঘূর্ণিবলে লাইন মিস করে এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন আগের ম্যাচে দেড় শতাধিক রান করা কুইন্টন ডি কক (৪৬)রানে ফিরে এসেছিল সাজ ঘরে। ৯০ রানে উদ্বোধনী জুটি ভাঙার পর দ্বিতীয় ব্রেক থ্রু টিও এল একই ওভারে। দুর্দান্ত ফ্লাইট ডেলিভারিতে অধিনায়ক ফাফ ডু-প্লেসিসের স্টাম্প উড়ে গেল। কোনো রান না করেই ফিরতে হলো ডু-প্লেসিসকে।

৯০ রানে ২ উইকেট হারানোর পর ১৩৬ রানের জুটি গড়ে বিপদ সামাল দেন ডি ভিলিয়ার্স এবং গত ম্যাচের শতাধীক রানের অধীকারি হাশিম আমলা। ওই মুহূর্তে একটি ব্রেক থ্রু দরকার ছিল। হাশিম আমলাকে (৮৫) মুশফিকুর রহিমের তালুবন্দি করে সেই ব্রেক থ্রু এনে দেন রুবেল হোসেন।

কিন্তু কামব্যাক ম্যাচে ঠিকই ক্যারিয়ারের ২৫তম সেঞ্চুরি তুলে নেন বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স। ৬৮ বলে ঝড়ের গতিতে সেঞ্চুরির পর রুবেলের বলে ক্যাচ দেওয়ার আগে করেন ১০৪ বলে ১৫ চার ৭ ছক্কায় ১৭৬ রান। এরপর ডুমিনি (৩০) আর প্রিটোরিয়াসকেও (০) শিকারে পরিণত করেন রুবেল।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ড-
বাংলাদেশ : (৪৭.৫ ওভারে ২৪৯) (তামিম ২৩, ইমরুল ৬৮, লিটন ১৪, মুশফিক ৬০, সাকিব ৫, মাহমুদুল্লাহ ৩৫, সাব্বির ১৭, নাসির ৩, মাশরাফি ০, তাসকিন ৩*, রুবেল ৮; রাবাদা ০/৪০, প্যাটারসন ১/৬৭, প্রিটোরিয়াস ২/৪৮, ফেহলুকওয়ায়ো ৪/৪০, তাহির ৩/৫০)।

দক্ষিণ আফ্রিকা : (৫০ ওভারে ৩৫৩/৬) (ডি কক ৪৬, আমলা ৮৫, ডু প্লেসি ০, ডি ভিলিয়ার্স ১৭৬, ডুমিনি ৩০, বেহার্ডিন ৭*, প্রিটোরিয়াস ০, ফেহলুকওয়ায়ো ০*; মাশরাফি ০/৮২, তাসকিন ০/৭১, সাকিব ২/৬০, নাসির ০/৪৯, রুবেল ৪/৬২, সাব্বির ০/১১, মাহমুদুল্লাহ ০/১৬)।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X