সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১১:৪২
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, November 2, 2016 9:21 pm
A- A A+ Print

এখনো ফেরেননি তিন হাজার হজযাত্রী

1450695040

বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার মাধ্যমে হজে যাওয়া তিন হাজারের বেশি বাংলাদেশি সৌদি আরব থেকে এখনো দেশে ফেরেননি। গতকাল মঙ্গলবার কাতারের ইংরেজি দৈনিক দ্য গালফ টাইমসের ঢাকা থেকে করা একটি প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১৭ অক্টোবর হজযাত্রীদের সর্বশেষ ফ্লাইটটি সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশে পৌঁছায়। অভিযোগ রয়েছে, কিছু হজ এজেন্সি হজ ও ওমরাহ পালনের নামে মানব পাচারের সঙ্গে যুক্ত। এ অভিযোগে গত বছর বাংলাদেশ সরকার ৯৫টি হজ ও ওমরাহ এজেন্সির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নেয়। এসব সংস্থা হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) ও অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশের (এটিএবি) অধীনে পরিচালিত। বাংলাদেশের ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছর ১ লাখ ১ হাজার ৭৫৮ জন লোক হজ করেছেন। ঢাকায় হজ কার্যালয়ের পরিচালক আবু সালেহ মোস্তফা কামাল ঢাকায় সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘হজে যাওয়া তিন হাজারের বেশি লোক দেশে ফেরেননি। অনেক হজযাত্রীই তৃতীয় কোনো বিমান সংস্থার মাধ্যমে দেশে ফিরে থাকেন। কাজেই সৌদি আরবের হজ কার্যালয় ও অভিবাসন বিভাগ থেকে প্রকৃত সংখ্যা জানার জন্য আমরা অপেক্ষা করছি।’ মোস্তফা কামাল সতর্ক করে দিয়ে বলেন, হজ ও ওমরাহ পালনের কথা বলে মানবপাচারে জড়িত থাকা সংস্থা বা ব্যক্তির বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমরা কোনো অনিয়ম সহ্য করব না। কেননা এখানে দেশের ভাবমূর্তি জড়িত।’ সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হজবিষয়ক টাস্কফোর্সের সভায়ও বিষয়টি আলোচিত হয়েছে। হাবের এক নেতা বলেছেন, দীর্ঘ সময়ের প্যাকেজ এবং তৃতীয় কোনো বিমান সংস্থা ব্যবহারের কারণেই হজযাত্রীদের দেশে ফিরতে দেরি হচ্ছে। সংগঠনটির জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ হেলাল বলেন, ‘সৌদি আরবের অভিবাসন বিভাগ থেকে হজ শেষে দেশটি ত্যাগ করা ব্যক্তিদের চূড়ান্ত তালিকা পাওয়ার পর আমরা জানতে পারব, সেখানে কতজন বাংলাদেশি রয়ে গেছেন।’ এজেন্সি মালিকেরা মানব পাচারের সঙ্গে জড়িত নন বলে দাবি করেন তিনি। এক প্রশ্নের জবাবে মোহাম্মদ হেলাল বলেন, ‘হজ পালন শেষে কেউই সৌদি আরবে থাকতে চাইবে না। অনেক হাজি তৃতীয় কোনো বিমান সংস্থার মাধ্যমে এখনো দেশে ফিরছেন। সরকারি অনেক কর্মকর্তাসহ অন্য অনেক কর্মকর্তাই সৌদি আরবে হজ করতে গিয়েছেন তৃতীয় কোনো মাধ্যমে।’ গত বছর অনিয়মের কারণে বাংলাদেশের ৬৯টি হজ ও ওমরাহ এজেন্সির নিবন্ধন বাতিল এবং জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়। এ ছাড়া ২৬টি এজেন্সির জামানত বাজেয়াপ্ত করার পাশাপাশি ওই প্রতিষ্ঠানগুলোকে জরিমানা করা হয়। বাংলাদেশের ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় সৌদি আরব সরকারের দেওয়া তালিকা অনুসারে এবং গত সেপ্টেম্বরে মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী অনিয়মে জড়িত এজেন্সিগুলোকে শাস্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Comments

Comments!

 এখনো ফেরেননি তিন হাজার হজযাত্রীAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

এখনো ফেরেননি তিন হাজার হজযাত্রী

Wednesday, November 2, 2016 9:21 pm
1450695040

বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার মাধ্যমে হজে যাওয়া তিন হাজারের বেশি বাংলাদেশি সৌদি আরব থেকে এখনো দেশে ফেরেননি। গতকাল মঙ্গলবার কাতারের ইংরেজি দৈনিক দ্য গালফ টাইমসের ঢাকা থেকে করা একটি প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১৭ অক্টোবর হজযাত্রীদের সর্বশেষ ফ্লাইটটি সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশে পৌঁছায়। অভিযোগ রয়েছে, কিছু হজ এজেন্সি হজ ও ওমরাহ পালনের নামে মানব পাচারের সঙ্গে যুক্ত। এ অভিযোগে গত বছর বাংলাদেশ সরকার ৯৫টি হজ ও ওমরাহ এজেন্সির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নেয়। এসব সংস্থা হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) ও অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশের (এটিএবি) অধীনে পরিচালিত।

বাংলাদেশের ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছর ১ লাখ ১ হাজার ৭৫৮ জন লোক হজ করেছেন।

ঢাকায় হজ কার্যালয়ের পরিচালক আবু সালেহ মোস্তফা কামাল ঢাকায় সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘হজে যাওয়া তিন হাজারের বেশি লোক দেশে ফেরেননি। অনেক হজযাত্রীই তৃতীয় কোনো বিমান সংস্থার মাধ্যমে দেশে ফিরে থাকেন। কাজেই সৌদি আরবের হজ কার্যালয় ও অভিবাসন বিভাগ থেকে প্রকৃত সংখ্যা জানার জন্য আমরা অপেক্ষা করছি।’ মোস্তফা কামাল সতর্ক করে দিয়ে বলেন, হজ ও ওমরাহ পালনের কথা বলে মানবপাচারে জড়িত থাকা সংস্থা বা ব্যক্তির বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমরা কোনো অনিয়ম সহ্য করব না। কেননা এখানে দেশের ভাবমূর্তি জড়িত।’
সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হজবিষয়ক টাস্কফোর্সের সভায়ও বিষয়টি আলোচিত হয়েছে।

হাবের এক নেতা বলেছেন, দীর্ঘ সময়ের প্যাকেজ এবং তৃতীয় কোনো বিমান সংস্থা ব্যবহারের কারণেই হজযাত্রীদের দেশে ফিরতে দেরি হচ্ছে। সংগঠনটির জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ হেলাল বলেন, ‘সৌদি আরবের অভিবাসন বিভাগ থেকে হজ শেষে দেশটি ত্যাগ করা ব্যক্তিদের চূড়ান্ত তালিকা পাওয়ার পর আমরা জানতে পারব, সেখানে কতজন বাংলাদেশি রয়ে গেছেন।’ এজেন্সি মালিকেরা মানব পাচারের সঙ্গে জড়িত নন বলে দাবি করেন তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে মোহাম্মদ হেলাল বলেন, ‘হজ পালন শেষে কেউই সৌদি আরবে থাকতে চাইবে না। অনেক হাজি তৃতীয় কোনো বিমান সংস্থার মাধ্যমে এখনো দেশে ফিরছেন। সরকারি অনেক কর্মকর্তাসহ অন্য অনেক কর্মকর্তাই সৌদি আরবে হজ করতে গিয়েছেন তৃতীয় কোনো মাধ্যমে।’

গত বছর অনিয়মের কারণে বাংলাদেশের ৬৯টি হজ ও ওমরাহ এজেন্সির নিবন্ধন বাতিল এবং জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়। এ ছাড়া ২৬টি এজেন্সির জামানত বাজেয়াপ্ত করার পাশাপাশি ওই প্রতিষ্ঠানগুলোকে জরিমানা করা হয়।

বাংলাদেশের ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় সৌদি আরব সরকারের দেওয়া তালিকা অনুসারে এবং গত সেপ্টেম্বরে মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী অনিয়মে জড়িত এজেন্সিগুলোকে শাস্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X