সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৪:১৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, November 4, 2016 3:39 pm
A- A A+ Print

এনডিটিভি সাময়িক বন্ধের নির্দেশ ভারত সরকারের

158472_1

নয়াদিল্লি: ভারতের হিন্দি সংবাদ চ্যানেল এনডিটিভি ইন্ডিয়াকে 'শাস্তিমূলক ব্যবস্থা' হিসাবে ২৪ ঘন্টার জন্য বন্ধ করে দিচ্ছে দেশটির সরকার। এ বছরের জানুয়ারিতে পাঠানকোটে ভারতীয় বিমান বাহিনীর একটি ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলার সময়ে ওই চ্যানেলটির প্রতিবেদনে 'কৌশলগত ও স্পর্শকাতর' কিছু তথ্য পরিবেশন করার দায়ে এই শাস্তিমূলক ব্যবস্থার কথা জানিয়েছে ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়। ভারতের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেল এনডিটিভি অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে ওই ঘটনার সময়ে তাদের চ্যানেলে সম্প্রচারিত প্রতিবেদনগুলি নিশ্চিতভাবেই 'ব্যালান্সড' ছিল। পাঠানকোটের ওই হামলায় সাতজন ভারতীয় সেনাসদস্য ও ছয়জন জঙ্গি নিহত হয়েছিলেন। ভারত দাবি করে যে পাকিস্তান ভিত্তিক সংগঠন জয়েশ-এ-মুহাম্মদ ওই ঘটনার জন্য দায়ী ছিল। ঘটনার পর পাকিস্তান থেকে একটি দলও তদন্ত করতে পাঠানকোটে এসেছিল। ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় আগেই অভিযোগ তুলেছিল যে ওই হামলা চলাকালীন-ই পাঠানকোট বিমান ঘাঁটির কোথায় অস্ত্রভান্ডার আছে, যুদ্ধবিমানগুলি কোথায় রাখা আছে - এধরনের কৌশলগত তথ্য তাদের প্রতিবেদনে তুলে ধরেছিল এনডিটিভি-র হিন্দি চ্যানেলটি। চ্যানেলের কাছে নোটিশও পাঠানো হয় এবং তারপরে একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির কাছে এনডিটিভি ইন্ডিয়া তাদের বক্তব্যও পেশ করে। কিন্তু চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় জানিয়েছে ৯ নভেম্বর মাঝরাত থেকে ২৪ ঘন্টার জন্য এনডিটিভি ইন্ডিয়ার সম্প্রচার বন্ধ করে দেওয়া হবে। এনডিটিভি এক বিবৃতি জারি করে বলেছে তারা এই 'অভূতপূর্ব সিদ্ধান্তে'র বিরুদ্ধে কি কি ব্যবস্থা নেয়া যায়, তা খতিয়ে দেখছে। অন্যদিকে একটি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়ার মতো সিদ্ধান্তে ভারতে শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক। অনেকেই মনে করিয়ে দিচ্ছেন সত্তরের দশকে ইন্দিরা গান্ধী যেভাবে জরুরি অবস্থার সময়ে গণমাধ্যমগুলির ওপরে নিয়ন্ত্রণ জারি করেছিলেন, সেই সময়ের কথা। এনডিটিভি-রই প্রাক্তন কর্মকর্তা ও টেলিভিশন সাংবাদিক রাজদীপ সরদেশাই টুইট করে বলেছেন, ‘এনডিটিভি ভারতের সংযমী ও দায়িত্বশীল চ্যানেলগুলির মধ্যে অন্যতম। আজ এনডিটিভি বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে, কাল কার পালা?’ আরেক সাংবাদিক সাগরিকা ঘোষ লিখেছেন, ‘স্বাধীন গণমাধ্যমের ওপরে সরকারের এটা হতবাক করে দেওয়ার মতো শক্তি প্রদর্শন। গণমাধ্যমকে হত্যা করবেন না।’ অনেক সাধারণ মানুষও ফেসবুক-টুইটারে এই ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। বেশীরভাগই যেমন গণমাধ্যমের ওপরে সরকারের এই হস্তক্ষেপের বিরোধিতা করেছেন, অনেকে আবার এই ঘোষণাকে স্বাগতও জানিয়েছেন। তেজিন্দার পাল বগ্গা লিখেছেন, ‘এনডিটিভি-তে যেসব তথ্য দেওয়া হয়েছিল, সেগুলো জঙ্গিদের হাতেও চলে যেতে পারত, যার ফলে আরও প্রাণহানি ঘটার সম্ভাবনা ছিল।’ সূত্র: বিবিসি

Comments

Comments!

 এনডিটিভি সাময়িক বন্ধের নির্দেশ ভারত সরকারেরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

এনডিটিভি সাময়িক বন্ধের নির্দেশ ভারত সরকারের

Friday, November 4, 2016 3:39 pm
158472_1

নয়াদিল্লি: ভারতের হিন্দি সংবাদ চ্যানেল এনডিটিভি ইন্ডিয়াকে ‘শাস্তিমূলক ব্যবস্থা’ হিসাবে ২৪ ঘন্টার জন্য বন্ধ করে দিচ্ছে দেশটির সরকার। এ বছরের জানুয়ারিতে পাঠানকোটে ভারতীয় বিমান বাহিনীর একটি ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলার সময়ে ওই চ্যানেলটির প্রতিবেদনে ‘কৌশলগত ও স্পর্শকাতর’ কিছু তথ্য পরিবেশন করার দায়ে এই শাস্তিমূলক ব্যবস্থার কথা জানিয়েছে ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়।

ভারতের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেল এনডিটিভি অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে ওই ঘটনার সময়ে তাদের চ্যানেলে সম্প্রচারিত প্রতিবেদনগুলি নিশ্চিতভাবেই ‘ব্যালান্সড’ ছিল। পাঠানকোটের ওই হামলায় সাতজন ভারতীয় সেনাসদস্য ও ছয়জন জঙ্গি নিহত হয়েছিলেন।

ভারত দাবি করে যে পাকিস্তান ভিত্তিক সংগঠন জয়েশ-এ-মুহাম্মদ ওই ঘটনার জন্য দায়ী ছিল। ঘটনার পর পাকিস্তান থেকে একটি দলও তদন্ত করতে পাঠানকোটে এসেছিল।

ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় আগেই অভিযোগ তুলেছিল যে ওই হামলা চলাকালীন-ই পাঠানকোট বিমান ঘাঁটির কোথায় অস্ত্রভান্ডার আছে, যুদ্ধবিমানগুলি কোথায় রাখা আছে – এধরনের কৌশলগত তথ্য তাদের প্রতিবেদনে তুলে ধরেছিল এনডিটিভি-র হিন্দি চ্যানেলটি।

চ্যানেলের কাছে নোটিশও পাঠানো হয় এবং তারপরে একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির কাছে এনডিটিভি ইন্ডিয়া তাদের বক্তব্যও পেশ করে। কিন্তু চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় জানিয়েছে ৯ নভেম্বর মাঝরাত থেকে ২৪ ঘন্টার জন্য এনডিটিভি ইন্ডিয়ার সম্প্রচার বন্ধ করে দেওয়া হবে।

এনডিটিভি এক বিবৃতি জারি করে বলেছে তারা এই ‘অভূতপূর্ব সিদ্ধান্তে’র বিরুদ্ধে কি কি ব্যবস্থা নেয়া যায়, তা খতিয়ে দেখছে। অন্যদিকে একটি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়ার মতো সিদ্ধান্তে ভারতে শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক।

অনেকেই মনে করিয়ে দিচ্ছেন সত্তরের দশকে ইন্দিরা গান্ধী যেভাবে জরুরি অবস্থার সময়ে গণমাধ্যমগুলির ওপরে নিয়ন্ত্রণ জারি করেছিলেন, সেই সময়ের কথা।

এনডিটিভি-রই প্রাক্তন কর্মকর্তা ও টেলিভিশন সাংবাদিক রাজদীপ সরদেশাই টুইট করে বলেছেন, ‘এনডিটিভি ভারতের সংযমী ও দায়িত্বশীল চ্যানেলগুলির মধ্যে অন্যতম। আজ এনডিটিভি বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে, কাল কার পালা?’

আরেক সাংবাদিক সাগরিকা ঘোষ লিখেছেন, ‘স্বাধীন গণমাধ্যমের ওপরে সরকারের এটা হতবাক করে দেওয়ার মতো শক্তি প্রদর্শন। গণমাধ্যমকে হত্যা করবেন না।’

অনেক সাধারণ মানুষও ফেসবুক-টুইটারে এই ঘটনার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। বেশীরভাগই যেমন গণমাধ্যমের ওপরে সরকারের এই হস্তক্ষেপের বিরোধিতা করেছেন, অনেকে আবার এই ঘোষণাকে স্বাগতও জানিয়েছেন।

তেজিন্দার পাল বগ্গা লিখেছেন, ‘এনডিটিভি-তে যেসব তথ্য দেওয়া হয়েছিল, সেগুলো জঙ্গিদের হাতেও চলে যেতে পারত, যার ফলে আরও প্রাণহানি ঘটার সম্ভাবনা ছিল।’

সূত্র: বিবিসি

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X