শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, দুপুর ২:০৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, November 7, 2016 7:49 am
A- A A+ Print

এবারও লটারির মাধ্যমে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তি

student1478450546

ঢাকা মহানগরীর সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোর ৪০ শতাংশ আসন সংশ্লিষ্ট এলাকার শিক্ষার্থীদের জন্য সংরক্ষণের বিধান রেখে এবারও ভর্তি নীতিমালা জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। নীতিমালা অনুযায়ী, অবশ্যই প্রথম শ্রেণিতে লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত শিক্ষার্থী ভর্তি করতে হবে। রোববার শিক্ষা সচিব মো. সোহবার হোসাইন স্বাক্ষরিত জারি করা নীতিমালায় বলা হয়েছে, ঢাকা মহানগরীর বিদ্যালয়গুলোর ‘ক্যাচমেন্ট’ এলাকার শিক্ষার্থীদের জন্য ৪০ শতাংশ কোটা সংরক্ষণ করতে হবে। বাকি ৬০ শতাংশ আসন সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরকে (মাউশি) ঢাকা মহানগরীর সব সরকারি বিদ্যালয়ের আওতাধীন ‘ক্যাচমেন্ট’ এলাকা নির্ধারণ করে সংশ্লিষ্টদের অবহিত করতে বলা হয়েছে। বরাবরের মতো এবারও মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের সন্তানদের জন্য ৫ শতাংশ কোটা বরাদ্দ থাকছে। এক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যা এবং পুত্র-কন্যা পাওয়া না গেলে পুত্র-কন্যার সন্তানদের ভর্তির জন্য ৫ শতাংশ কোটা সংরক্ষিত থাকবে। নীতিমালা অনুযায়ী, প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির জন্য অবশ্যই লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী নির্বাচন করতে হবে। লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকা ছাড়াও অপেক্ষমাণ তালিকা প্রকাশ করতে হবে। নির্বাচিত শিক্ষার্থী নির্ধারিত তারিখের মধ্যে ভর্তি না হলে অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে পর্যায়ক্রমে ভর্তির ব্যবস্থা করতে হবে। আর দ্বিতীয় থেকে অষ্টম শ্রেণির শূন্য আসনে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থী বাছাই করতে হবে লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে মেধাক্রম অনুসারে। নবম শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তি হবে জেএসসি-জেডিসির ফলের ভিত্তিতে। ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির ক্ষেত্রে মোট আসনের ১০ শতাংশ কোটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে। নীতিমালায় বলা হয়েছে, ভর্তির আবেদনের জন্য সর্বো্চ্চ ১৫০ টাকা গ্রহণ করা যাবে। আর সেশন চার্জসহ ভর্তি ফি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী আদায় করতে হবে।  

Comments

Comments!

 এবারও লটারির মাধ্যমে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তিAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

এবারও লটারির মাধ্যমে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তি

Monday, November 7, 2016 7:49 am
student1478450546

ঢাকা মহানগরীর সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোর ৪০ শতাংশ আসন সংশ্লিষ্ট এলাকার শিক্ষার্থীদের জন্য সংরক্ষণের বিধান রেখে এবারও ভর্তি নীতিমালা জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। নীতিমালা অনুযায়ী, অবশ্যই প্রথম শ্রেণিতে লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত শিক্ষার্থী ভর্তি করতে হবে।

রোববার শিক্ষা সচিব মো. সোহবার হোসাইন স্বাক্ষরিত জারি করা নীতিমালায় বলা হয়েছে, ঢাকা মহানগরীর বিদ্যালয়গুলোর ‘ক্যাচমেন্ট’ এলাকার শিক্ষার্থীদের জন্য ৪০ শতাংশ কোটা সংরক্ষণ করতে হবে। বাকি ৬০ শতাংশ আসন সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরকে (মাউশি) ঢাকা মহানগরীর সব সরকারি বিদ্যালয়ের আওতাধীন ‘ক্যাচমেন্ট’ এলাকা নির্ধারণ করে সংশ্লিষ্টদের অবহিত করতে বলা হয়েছে।

বরাবরের মতো এবারও মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের সন্তানদের জন্য ৫ শতাংশ কোটা বরাদ্দ থাকছে। এক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যা এবং পুত্র-কন্যা পাওয়া না গেলে পুত্র-কন্যার সন্তানদের ভর্তির জন্য ৫ শতাংশ কোটা সংরক্ষিত থাকবে।

নীতিমালা অনুযায়ী, প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির জন্য অবশ্যই লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী নির্বাচন করতে হবে। লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকা ছাড়াও অপেক্ষমাণ তালিকা প্রকাশ করতে হবে। নির্বাচিত শিক্ষার্থী নির্ধারিত তারিখের মধ্যে ভর্তি না হলে অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে পর্যায়ক্রমে ভর্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

আর দ্বিতীয় থেকে অষ্টম শ্রেণির শূন্য আসনে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থী বাছাই করতে হবে লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে মেধাক্রম অনুসারে। নবম শ্রেণিতে শিক্ষার্থী ভর্তি হবে জেএসসি-জেডিসির ফলের ভিত্তিতে।

ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির ক্ষেত্রে মোট আসনের ১০ শতাংশ কোটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে। নীতিমালায় বলা হয়েছে, ভর্তির আবেদনের জন্য সর্বো্চ্চ ১৫০ টাকা গ্রহণ করা যাবে। আর সেশন চার্জসহ ভর্তি ফি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী আদায় করতে হবে।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X