মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৯:৩৪
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, June 28, 2017 12:53 pm
A- A A+ Print

এবার কর্মস্থলে ফেরার যুদ্ধ

7

পবিত্র ঈদুল ফিতরের নির্ধারিত ছুটি শেষ। ঈদ করতে বাড়ি যাওয়ার মতোই শুরু হচ্ছে কর্মস্থলে ফেরার যুদ্ধ। ফাঁকা হয়ে যাওয়া ঢাকা আবার কর্মব্যস্ত হতে শুরু করেছে। বুধবার থেকে অফিস, আদালত খোলা থাকায় গ্রামের বাড়িতে ঈদ উদযাপন শেষে আবারও ঢাকায় ফেরা শুরু হয়েছে। তবে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়সহ অনেক প্রতিষ্ঠান এখনো বন্ধ থাকায় রাজধানীতে পুরোদমে লোকজন ফিরতে শুরু করেনি। দক্ষিণাঞ্চল থেকে যারা লঞ্চে যাতায়াত করেন তাদের ক্ষেত্রে এই বিষয়টি বেশি প্রযোজ্য। আজ সকালে সদরঘাট ঘুরে এবং বাংলাদেশ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে এই চিত্র ফুটে উঠেছে। ঈদের নির্দিষ্ট ছুটি ব্যতীত যারা অতিরিক্ত ছুটি পাননি তাদের গতকাল রাতে লঞ্চযোগে ঢাকা ফিরতে হয়েছে। তবে অফিস খোলার প্রথম দিন হওয়ায় টিকিট নিয়ে যুদ্ধ হয়নি। অনেকটা স্বাচ্ছন্দ্যেই রাজধানীতে ফিরেছেন তারা। যারা ঈদ উদযাপন করতে বাড়িতে গিয়েছিলেন তারা  ঢাকায় আসা শুরু করলেও রাজধানীর কর্মচাঞ্চল্য ফিরে আসতে কিছুটা সময় লাগবে। ঢাকার প্রধান সড়কগুলো এখনও ফাঁকা। মানুষ ও যানবাহনের চলাচল সীমিত। হোটেল, রেস্টুরেন্ট খোলেনি। অধিকাংশ দোকানপাট রয়েছে বন্ধ। মূলত জনবহুল রাজধানী এখনো অনেকটাই ফাঁকা। একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন জাহাঙ্গীর হোসেন। পটুয়াখালীতে নিজের বাড়িতে ঈদ উদযাপন করার পর রাজধানীতে ফিরেছেন তিনি। রাইজিংবিডিকে তিনি বলেন, জুনে ক্লোজিং হওয়ায় তিন দিনের বেশি ছুটি পাইনি। পরিবার রেখে তাই আজই ঢাকা ফিরতে হলো। তবে অনেকটা আরামেই এসেছি বলতে পারেন। খুব বেশি ভিড়ও চোখে পড়েনি।’ সরকারি ব্যাংকে কর্মরত মনির নামে একজন জানান,  লঞ্চে ভিড় ছিল তুলনামূলক কম। লঞ্চের কেবিন কিংবা সোফা কোথাও অতিরিক্ত ভিড় চোখে পড়েনি। মনে হচ্ছে ফিরে আসার আসল যুদ্ধ শুরু হবে শুক্রবার ও শনিবার থেকে। বাংলাদেশ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিটিএ) সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে ৮০ থেকে ৮৫টি লঞ্চ বরিশাল, চাঁদপুর, পুটয়াখালী, বরগুনা ও ঝালকাঠিসহ বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ঢাকা এসেছে। তবে এখনো স্পেশাল সার্ভিস শুরু হয়নি। অন্যদিকে ঈদে যারা কর্মস্থল ছেড়ে যেতে পারেননি, তারা এখনো ঢাকা ছাড়ছেন। তাদের জন্য বুধবার ঢাকা থেকে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন গন্তব্যের উদ্দেশ্য ৯৫টি লঞ্চ রাজধানী ছেড়ে যাবে। সকাল সাড়ে ৭টা থেকে রাত ১টা পর্যন্ত লঞ্চগুলো তাদের গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়ে যাবে। এ বিষয়ে বিআইডব্লিটিএ-এর যুগ্ম পরিচালক (ট্রাফিক) জয়নাল আবেদিন রাইজিংবিডিকে বলেন, ঈদে যাত্রীর প্রচণ্ড চাপ থাকলেও রাজধানীতে ফেরা কিংবা রাজধানী ছেড়ে যাওয়া কোনো ক্ষেত্রেই অতিরিক্ত ভিড় চোখে পড়েনি। সপ্তাহের শেষে ভিড় শুরু হবে। বলতে পারেন সার্বিক পরিবেশ অনেকটা স্বাভাবিক।

Comments

Comments!

 এবার কর্মস্থলে ফেরার যুদ্ধAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

এবার কর্মস্থলে ফেরার যুদ্ধ

Wednesday, June 28, 2017 12:53 pm
7

পবিত্র ঈদুল ফিতরের নির্ধারিত ছুটি শেষ। ঈদ করতে বাড়ি যাওয়ার মতোই শুরু হচ্ছে কর্মস্থলে ফেরার যুদ্ধ।

ফাঁকা হয়ে যাওয়া ঢাকা আবার কর্মব্যস্ত হতে শুরু করেছে।

বুধবার থেকে অফিস, আদালত খোলা থাকায় গ্রামের বাড়িতে ঈদ উদযাপন শেষে আবারও ঢাকায় ফেরা শুরু হয়েছে।

তবে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়সহ অনেক প্রতিষ্ঠান এখনো বন্ধ থাকায় রাজধানীতে পুরোদমে লোকজন ফিরতে শুরু করেনি। দক্ষিণাঞ্চল থেকে যারা লঞ্চে যাতায়াত করেন তাদের ক্ষেত্রে এই বিষয়টি বেশি প্রযোজ্য।

আজ সকালে সদরঘাট ঘুরে এবং বাংলাদেশ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে এই চিত্র ফুটে উঠেছে।

ঈদের নির্দিষ্ট ছুটি ব্যতীত যারা অতিরিক্ত ছুটি পাননি তাদের গতকাল রাতে লঞ্চযোগে ঢাকা ফিরতে হয়েছে। তবে অফিস খোলার প্রথম দিন হওয়ায় টিকিট নিয়ে যুদ্ধ হয়নি। অনেকটা স্বাচ্ছন্দ্যেই রাজধানীতে ফিরেছেন তারা।

যারা ঈদ উদযাপন করতে বাড়িতে গিয়েছিলেন তারা  ঢাকায় আসা শুরু করলেও রাজধানীর কর্মচাঞ্চল্য ফিরে আসতে কিছুটা সময় লাগবে। ঢাকার প্রধান সড়কগুলো এখনও ফাঁকা। মানুষ ও যানবাহনের চলাচল সীমিত। হোটেল, রেস্টুরেন্ট খোলেনি। অধিকাংশ দোকানপাট রয়েছে বন্ধ। মূলত জনবহুল রাজধানী এখনো অনেকটাই ফাঁকা।

একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন জাহাঙ্গীর হোসেন। পটুয়াখালীতে নিজের বাড়িতে ঈদ উদযাপন করার পর রাজধানীতে ফিরেছেন তিনি।

রাইজিংবিডিকে তিনি বলেন, জুনে ক্লোজিং হওয়ায় তিন দিনের বেশি ছুটি পাইনি। পরিবার রেখে তাই আজই ঢাকা ফিরতে হলো। তবে অনেকটা আরামেই এসেছি বলতে পারেন। খুব বেশি ভিড়ও চোখে পড়েনি।’

সরকারি ব্যাংকে কর্মরত মনির নামে একজন জানান,  লঞ্চে ভিড় ছিল তুলনামূলক কম। লঞ্চের কেবিন কিংবা সোফা কোথাও অতিরিক্ত ভিড় চোখে পড়েনি। মনে হচ্ছে ফিরে আসার আসল যুদ্ধ শুরু হবে শুক্রবার ও শনিবার থেকে।

বাংলাদেশ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিটিএ) সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে ৮০ থেকে ৮৫টি লঞ্চ বরিশাল, চাঁদপুর, পুটয়াখালী, বরগুনা ও ঝালকাঠিসহ বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ঢাকা এসেছে। তবে এখনো স্পেশাল সার্ভিস শুরু হয়নি।

অন্যদিকে ঈদে যারা কর্মস্থল ছেড়ে যেতে পারেননি, তারা এখনো ঢাকা ছাড়ছেন। তাদের জন্য বুধবার ঢাকা থেকে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন গন্তব্যের উদ্দেশ্য ৯৫টি লঞ্চ রাজধানী ছেড়ে যাবে। সকাল সাড়ে ৭টা থেকে রাত ১টা পর্যন্ত লঞ্চগুলো তাদের গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়ে যাবে।

এ বিষয়ে বিআইডব্লিটিএ-এর যুগ্ম পরিচালক (ট্রাফিক) জয়নাল আবেদিন রাইজিংবিডিকে বলেন, ঈদে যাত্রীর প্রচণ্ড চাপ থাকলেও রাজধানীতে ফেরা কিংবা রাজধানী ছেড়ে যাওয়া কোনো ক্ষেত্রেই অতিরিক্ত ভিড় চোখে পড়েনি। সপ্তাহের শেষে ভিড় শুরু হবে। বলতে পারেন সার্বিক পরিবেশ অনেকটা স্বাভাবিক।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X