রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৭:৩৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, September 26, 2017 9:53 pm
A- A A+ Print

কর দিয়ে বাহাদুরি দেখানোর এখনই সময়

NBR20170926173306

 
জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান বলেছেন, এখন আয়কর আর ভীতির বিষয় নয়। আমাদের ব্যবসায়ী ও জনগণ আয়কর দিয়ে বাহাদুরি দেখাচ্ছেন। আয়কর দিয়ে জনগণের বাহাদুরি দেখানোর এখনই সময়। আর জনগণকে বাহাদুরি দেখানোর সুযোগ দিচ্ছে এনবিআর। মঙ্গলবার রাজধানীর মিরপুরে এনবিআরের কর অঞ্চল-৩ আয়োজিত ‘আয়কর ক্যাম্প ও করদাতা উদ্বুদ্ধকরণ’ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মো. নজিবুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সারাবিশ্বে বাংলাদেশ একটি উন্নয়নের রোল মডেল হয়েছে। এ রোল মডেলকে আরও সমুন্নত ও সুসংহত করার জন্য রাজস্ব আহরণের প্রক্রিয়া আরও সুসংহত হবে। আয়কর প্রদান অত্যন্ত সহজ একটি বিষয় এবং আয়কর দেওয়াটা সবার নাগরিক দায়িত্ব। তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রীর হাত ধরে বর্তমানে ৪ লাখ কোটি টাকার বাজেট অতিক্রম করেছে। তার স্বপ্ন হচ্ছে ৫ লাখ কোটি টাকায় উপনীত করার। সবার অব্যাহত সহযোগিতার মাধ্যমে এটা সম্ভব হবে। চেয়ারম্যান বলেন, অর্থমন্ত্রী কর বাহাদুর পরিবার সম্মাননা দেওয়ার কথা বলেছেন। বাংলাদেশে যারা আয়কর দেন অর্থমন্ত্রী তাদের বিভিন্নভাবে সম্মাননা দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যে প্রস্তাব দিয়েছেন। আমরা আয়কর মেলা করে ট্যাক্স কার্ড দিই। আগামী ১ থেকে ৭ নভেম্বর আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হবে। নভেম্বরের ২৪ থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত জাতীয় আয়কর সপ্তাহ। বাংলাদেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে এর প্রমাণ হচ্ছে আমাদের একটি নিজস্ব আয়কর দিবস রয়েছে। নভেম্বর মাস হচ্ছে বাংলাদেশের জন্য আয়কর প্রদানের একটি উৎসব। কর বাহাদুর পরিবার সম্মাননা সম্পর্কে চেয়ারম্যান বলেন, একই পরিবারের উপার্জনক্ষম সবাই কর দিলে তাদের আমরা চিহ্নিত ও পুরস্কারের ব্যবস্থা করব। কাজ শুরু হয়েছে। শিগগিরই কাজ শেষ করে আয়কর মেলার শেষে তা ঘোষণা ও পুরস্কার দেওয়া হবে। তিনি বলেন, দেশে একটি রাজস্ববান্ধব সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি অর্থমন্ত্রী বাজেট বক্তৃতায়ও তা উল্লেখ করেছেন। আমরা করসেবা প্রদান শুধু উপজেলা নয়, ইউনিয়ন পর্যন্ত নিয়ে গেছি। ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার ব্যবহার করে ই-টিআইএন, অন্যান্য কর, ভ্যাট ও শুল্ক সেবা সংক্রান্ত সেবা, তথ্য প্রদান করছি। এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, অভ্যন্তরীণ সম্পদের ওপর নির্ভর করে দেশের উন্নয়ন করতে হবে। সেজন্য আয়করের এত বেশি প্রয়োজন। ভ্যাটে কোনো ফাঁকি দেওয়া যাবে না। নাগরিকদের পবিত্র দায়িত্ব হচ্ছে সরকারকে সঠিকভাবে রাজস্ব দেওয়া। রাজস্ব দিলেই পদ্মাসেতু, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট, মাতারবাড়ি বিদ্যুৎ প্রকল্পের মতো উন্নয়ন কাজ হবে। এসব জনগণের করের টাকায় হচ্ছে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা বলেন, করযোগ্য ব্যক্তি কর প্রদান না করলে সামান্য জরিমানার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এ জরিমানার পরিমাণ অনেক বেশি করা উচিত। এমন আইন করা উচিত যে সম্পদ অনুযায়ী কর নেওয়া। অর্থমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, দেশের অনেক করযোগ্য ব্যক্তি রয়েছে। ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে অন্তত ৫ কোটি মানুষকে অনলাইনের আওতায় আনুন। তাদের সম্পদ অনুযায়ী কর আদায় করলে ২০৪১ নয়, ২০৩১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে। রাজনৈতিক ব্যক্তিসহ করযোগ্য সবাইকে করের আওতায় আসার আহ্বান জানান তিনি। অনুষ্ঠানে কর অঞ্চল-৩ এর কমিশনার নাহার ফেরদৌস বেগমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন এনবিআর সদস্য (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) মো. আব্দুর রাজ্জাক। অনুষ্ঠানে ১৭৬ জন করদাতার মধ্যে কর সনদপত্র বিতরণ করা হয়।

Comments

Comments!

 কর দিয়ে বাহাদুরি দেখানোর এখনই সময়AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

কর দিয়ে বাহাদুরি দেখানোর এখনই সময়

Tuesday, September 26, 2017 9:53 pm
NBR20170926173306

 

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান বলেছেন, এখন আয়কর আর ভীতির বিষয় নয়। আমাদের ব্যবসায়ী ও জনগণ আয়কর দিয়ে বাহাদুরি দেখাচ্ছেন। আয়কর দিয়ে জনগণের বাহাদুরি দেখানোর এখনই সময়। আর জনগণকে বাহাদুরি দেখানোর সুযোগ দিচ্ছে এনবিআর।

মঙ্গলবার রাজধানীর মিরপুরে এনবিআরের কর অঞ্চল-৩ আয়োজিত ‘আয়কর ক্যাম্প ও করদাতা উদ্বুদ্ধকরণ’ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মো. নজিবুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সারাবিশ্বে বাংলাদেশ একটি উন্নয়নের রোল মডেল হয়েছে। এ রোল মডেলকে আরও সমুন্নত ও সুসংহত করার জন্য রাজস্ব আহরণের প্রক্রিয়া আরও সুসংহত হবে। আয়কর প্রদান অত্যন্ত সহজ একটি বিষয় এবং আয়কর দেওয়াটা সবার নাগরিক দায়িত্ব।

তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রীর হাত ধরে বর্তমানে ৪ লাখ কোটি টাকার বাজেট অতিক্রম করেছে। তার স্বপ্ন হচ্ছে ৫ লাখ কোটি টাকায় উপনীত করার। সবার অব্যাহত সহযোগিতার মাধ্যমে এটা সম্ভব হবে।

চেয়ারম্যান বলেন, অর্থমন্ত্রী কর বাহাদুর পরিবার সম্মাননা দেওয়ার কথা বলেছেন। বাংলাদেশে যারা আয়কর দেন অর্থমন্ত্রী তাদের বিভিন্নভাবে সম্মাননা দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যে প্রস্তাব দিয়েছেন। আমরা আয়কর মেলা করে ট্যাক্স কার্ড দিই। আগামী ১ থেকে ৭ নভেম্বর আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হবে। নভেম্বরের ২৪ থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত জাতীয় আয়কর সপ্তাহ। বাংলাদেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে এর প্রমাণ হচ্ছে আমাদের একটি নিজস্ব আয়কর দিবস রয়েছে। নভেম্বর মাস হচ্ছে বাংলাদেশের জন্য আয়কর প্রদানের একটি উৎসব।

কর বাহাদুর পরিবার সম্মাননা সম্পর্কে চেয়ারম্যান বলেন, একই পরিবারের উপার্জনক্ষম সবাই কর দিলে তাদের আমরা চিহ্নিত ও পুরস্কারের ব্যবস্থা করব। কাজ শুরু হয়েছে। শিগগিরই কাজ শেষ করে আয়কর মেলার শেষে তা ঘোষণা ও পুরস্কার দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, দেশে একটি রাজস্ববান্ধব সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি অর্থমন্ত্রী বাজেট বক্তৃতায়ও তা উল্লেখ করেছেন। আমরা করসেবা প্রদান শুধু উপজেলা নয়, ইউনিয়ন পর্যন্ত নিয়ে গেছি। ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার ব্যবহার করে ই-টিআইএন, অন্যান্য কর, ভ্যাট ও শুল্ক সেবা সংক্রান্ত সেবা, তথ্য প্রদান করছি।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, অভ্যন্তরীণ সম্পদের ওপর নির্ভর করে দেশের উন্নয়ন করতে হবে। সেজন্য আয়করের এত বেশি প্রয়োজন। ভ্যাটে কোনো ফাঁকি দেওয়া যাবে না। নাগরিকদের পবিত্র দায়িত্ব হচ্ছে সরকারকে সঠিকভাবে রাজস্ব দেওয়া। রাজস্ব দিলেই পদ্মাসেতু, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট, মাতারবাড়ি বিদ্যুৎ প্রকল্পের মতো উন্নয়ন কাজ হবে। এসব জনগণের করের টাকায় হচ্ছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা বলেন, করযোগ্য ব্যক্তি কর প্রদান না করলে সামান্য জরিমানার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এ জরিমানার পরিমাণ অনেক বেশি করা উচিত। এমন আইন করা উচিত যে সম্পদ অনুযায়ী কর নেওয়া।

অর্থমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, দেশের অনেক করযোগ্য ব্যক্তি রয়েছে। ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে অন্তত ৫ কোটি মানুষকে অনলাইনের আওতায় আনুন। তাদের সম্পদ অনুযায়ী কর আদায় করলে ২০৪১ নয়, ২০৩১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে। রাজনৈতিক ব্যক্তিসহ করযোগ্য সবাইকে করের আওতায় আসার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে কর অঞ্চল-৩ এর কমিশনার নাহার ফেরদৌস বেগমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন এনবিআর সদস্য (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) মো. আব্দুর রাজ্জাক। অনুষ্ঠানে ১৭৬ জন করদাতার মধ্যে কর সনদপত্র বিতরণ করা হয়।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X