মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১১:০৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, September 25, 2016 6:50 pm
A- A A+ Print

কাগজে-কলমে বেশি হলেও ভারতের অধিকাংশ যুদ্ধবিমানই জরাগ্রস্ত

23

যুদ্ধের উত্তেজনার মধ্যে ভারতের বিমানবাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। ইসলামাবাদ-লাহোর মহাসড়কে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান নামিয়ে মহড়া শুরু করেছে পাকিস্তান। অথচ ভারত এখনও তেমন কোন প্রস্তুতি নিতে পারেনি। এ কারণে হতাশা ছড়িয়ে পড়েছে ভারতের বিমানবাহিনীর সদরদপ্তরে। বিমানবাহিনীর কর্মকর্তাদের বরাতে ভারতের হিন্দি দৈনিক জাগরণ ও নবভারতের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কাগজে-কলমে যুদ্ধবিমান অনেক হলেও অধিকাংশই জরাগ্রস্ত। বিমান বাহিনীতে যত যুদ্ধবিমান রয়েছে, তার সব ক’টি একসঙ্গে অভিযানে নামানোর অবস্থায় থাকে না। বিমানের বয়স যত বাড়ে, মেরামতির কাজও বাড়ে। জাগরণ জানায়, বিমান বাহিনীর এক শীর্ষ কর্মকর্তারা বলেছেন, ‘এখনই আমাদের ছয় স্কোয়াড্রন, অর্থাৎ ১০৮টি রাফাল-এর মতো মাল্টি-রোল কমব্যাট এয়ারক্রাফ্ট প্রয়োজন। কিন্তু শুক্রবার ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে ৩৬টি রাফাল যুদ্ধবিমান কেনার চুক্তি হয়েছে। এখনই দরকার ১০৮টি যুদ্ধবিমান। কেনা হল ৩৬টি। তা-ও সেগুলি সব হাতে পেতে লাগবে সাড়ে পাঁচ বছর। নবভারতের প্রতিবেদনে বলা হয়, বিমান বাহিনীর শক্তি এখনও প্রয়োজনের তুলনায় বেশ কম। পাকিস্তান ও চীনের সঙ্গে একই সময়ে যুদ্ধ লাগলে ভারতের ৪২ থেকে ৪৪ স্কোয়াড্রন যুদ্ধবিমান প্রয়োজন। রয়েছে মাত্র ৩৩ স্কোয়াড্রন। তার তিন ভাগের এক ভাগই জরাগ্রস্ত মিগ। প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে। বিমান বাহিনীর কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে পত্রিকাটি জানায়, আগামী ১০ বছরে অন্তত ৪০০টি যুদ্ধবিমান কেনা হলে তবেই একসঙ্গে পাকিস্তান-চীনের মোকাবিলা করা সম্ভব। ভারতীয় বিমান বাহিনীর সেরা অস্ত্র এখন রুশ সুখোই-৩০ যুদ্ধবিমান। কিন্তু তাদের যন্ত্রাংশ জোগাড় করতে বিমান বাহিনীর ঘাম ছুটছে। ফলে যে কোনও সময়ে মাত্র ৫৫ শতাংশ সুখোই ওড়ার অবস্থায় থাকে। তাই সুখোইয়ের যন্ত্রাংশ কেনার জন্য দীর্ঘমেয়াদি চুক্তি করতে চাইছে বিমান বাহিনী।

Comments

Comments!

 কাগজে-কলমে বেশি হলেও ভারতের অধিকাংশ যুদ্ধবিমানই জরাগ্রস্তAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

কাগজে-কলমে বেশি হলেও ভারতের অধিকাংশ যুদ্ধবিমানই জরাগ্রস্ত

Sunday, September 25, 2016 6:50 pm
23

যুদ্ধের উত্তেজনার মধ্যে ভারতের বিমানবাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। ইসলামাবাদ-লাহোর মহাসড়কে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান নামিয়ে মহড়া শুরু করেছে পাকিস্তান। অথচ ভারত এখনও তেমন কোন প্রস্তুতি নিতে পারেনি। এ কারণে হতাশা ছড়িয়ে পড়েছে ভারতের বিমানবাহিনীর সদরদপ্তরে।

বিমানবাহিনীর কর্মকর্তাদের বরাতে ভারতের হিন্দি দৈনিক জাগরণ ও নবভারতের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কাগজে-কলমে যুদ্ধবিমান অনেক হলেও অধিকাংশই জরাগ্রস্ত। বিমান বাহিনীতে যত যুদ্ধবিমান রয়েছে, তার সব ক’টি একসঙ্গে অভিযানে নামানোর অবস্থায় থাকে না। বিমানের বয়স যত বাড়ে, মেরামতির কাজও বাড়ে।

জাগরণ জানায়, বিমান বাহিনীর এক শীর্ষ কর্মকর্তারা বলেছেন, ‘এখনই আমাদের ছয় স্কোয়াড্রন, অর্থাৎ ১০৮টি রাফাল-এর মতো মাল্টি-রোল কমব্যাট এয়ারক্রাফ্ট প্রয়োজন। কিন্তু শুক্রবার ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে ৩৬টি রাফাল যুদ্ধবিমান কেনার চুক্তি হয়েছে। এখনই দরকার ১০৮টি যুদ্ধবিমান। কেনা হল ৩৬টি। তা-ও সেগুলি সব হাতে পেতে লাগবে সাড়ে পাঁচ বছর।

নবভারতের প্রতিবেদনে বলা হয়, বিমান বাহিনীর শক্তি এখনও প্রয়োজনের তুলনায় বেশ কম। পাকিস্তান ও চীনের সঙ্গে একই সময়ে যুদ্ধ লাগলে ভারতের ৪২ থেকে ৪৪ স্কোয়াড্রন যুদ্ধবিমান প্রয়োজন। রয়েছে মাত্র ৩৩ স্কোয়াড্রন। তার তিন ভাগের এক ভাগই জরাগ্রস্ত মিগ। প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে।

বিমান বাহিনীর কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে পত্রিকাটি জানায়, আগামী ১০ বছরে অন্তত ৪০০টি যুদ্ধবিমান কেনা হলে তবেই একসঙ্গে পাকিস্তান-চীনের মোকাবিলা করা সম্ভব। ভারতীয় বিমান বাহিনীর সেরা অস্ত্র এখন রুশ সুখোই-৩০ যুদ্ধবিমান। কিন্তু তাদের যন্ত্রাংশ জোগাড় করতে বিমান বাহিনীর ঘাম ছুটছে। ফলে যে কোনও সময়ে মাত্র ৫৫ শতাংশ সুখোই ওড়ার অবস্থায় থাকে। তাই সুখোইয়ের যন্ত্রাংশ কেনার জন্য দীর্ঘমেয়াদি চুক্তি করতে চাইছে বিমান বাহিনী।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X