শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৫৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, July 24, 2016 11:10 am | আপডেটঃ July 24, 2016 11:12 AM
A- A A+ Print

কাবুল হত্যাকাণ্ড: আজ আফগানিস্তানে জাতীয় শোক

29cd44a1ca62b471f63ecf923db63533-Afgan

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গতকাল শনিবার আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৮০ জন নিহত ও ২৩০ জন আহত হয়েছে। আইএস এই হামলার দায় স্বীকার করেছে।  আজ দেশটিতে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হচ্ছে। বিবিসি বলছে, টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি বলেছেন, হামলাকারীদের কঠোর হস্তে দমন করতে তিনি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। দেশটিতে নিযুক্ত জাতিসংঘ দল এই হামলাকে ‘যুদ্ধাপরাধ’ বলে চিহ্নিত করেছে। জাতিসংঘের সাহায্যকারী দলের প্রধান তাদামিচি ইয়ামামোতো বলেছেন, বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে এই হামলা চালানো হয়েছে। গতকাল শনিবার সংখ্যালঘু শিয়া হাজারা সম্প্রদায়ের একটি বিক্ষোভ সমাবেশে আত্মঘাতী হামলায় কমপক্ষে ৮০ জন নিহত হয়। আহত হয় ২৩০ জন। ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) হামলাটি চালিয়েছে বলে দাবি করে। আইএসের আমাক ওয়েবসাইটে দাবি করা হয়েছে, তাদের দুজন সদস্য সমাবেশে ঢুকে হামলাটি চালিয়েছে। আফগানিস্তানের তালেবান বাহিনীর পক্ষ থেকে এই হামলার নিন্দা জানানো হয়েছে। হাজারা গোষ্ঠীর লোকেরা একটি বিদ্যুৎ লাইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করছিল। তুর্কমেনিস্তান, উজবেকিস্তান, তাজিকিস্তান, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের মধ্য দিয়ে যাবে এমন একটি বিদ্যুৎ লাইন আফগানিস্তানের শিয়া হাজারা অধ্যুষিত বামিয়ান প্রদেশের ওপর দিয়ে নেওয়ার কথা। ২০১৩ সালে তৎকালীন আফগান সরকারের আমলে এই বিদ্যুৎ লাইন বামিয়ান থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়। বিদ্যুৎ লাইনের নকশা আবার বামিয়ানে ফিরিয়ে নেওয়ার দাবিতে গতকাল কাবুলের দেহ্ মাজাং চত্বরে শিয়া হাজারা সম্প্রদায়ের কয়েক হাজার মানুষ বিক্ষোভ সমাবেশে জড়ো হয়। বিকেলে হঠাৎ করেই সেখানে একাধিক আত্মঘাতী বিস্ফোরণ হয়। আফগানিস্তানে সব মিলিয়ে ৩০ লাখ হাজারা শিয়ার বাস। ৯০ এর দশকে আল কায়েদা এবং পশতুন সুন্নিদের হামলায় বহু হাজারা নিহত হয়। হাজারা সম্প্রদায় মনে করে, দেশটিতে প্রায় সব সরকারই তাদের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করে এসেছে। গতকালের বিক্ষোভ মিছিলেও সেই ক্ষোভের প্রকাশ ঘটে। গতকাল হামলার আগে বিক্ষোভ শান্তিপূর্ণ ছিল। তবে হামলার পর সেখানে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়।

Comments

Comments!

 কাবুল হত্যাকাণ্ড: আজ আফগানিস্তানে জাতীয় শোকAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

কাবুল হত্যাকাণ্ড: আজ আফগানিস্তানে জাতীয় শোক

Sunday, July 24, 2016 11:10 am | আপডেটঃ July 24, 2016 11:12 AM
29cd44a1ca62b471f63ecf923db63533-Afgan

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গতকাল শনিবার আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৮০ জন নিহত ও ২৩০ জন আহত হয়েছে। আইএস এই হামলার দায় স্বীকার করেছে।  আজ দেশটিতে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হচ্ছে।
বিবিসি বলছে, টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি বলেছেন, হামলাকারীদের কঠোর হস্তে দমন করতে তিনি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।
দেশটিতে নিযুক্ত জাতিসংঘ দল এই হামলাকে ‘যুদ্ধাপরাধ’ বলে চিহ্নিত করেছে। জাতিসংঘের সাহায্যকারী দলের প্রধান তাদামিচি ইয়ামামোতো বলেছেন, বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে এই হামলা চালানো হয়েছে।
গতকাল শনিবার সংখ্যালঘু শিয়া হাজারা সম্প্রদায়ের একটি বিক্ষোভ সমাবেশে আত্মঘাতী হামলায় কমপক্ষে ৮০ জন নিহত হয়। আহত হয় ২৩০ জন। ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) হামলাটি চালিয়েছে বলে দাবি করে। আইএসের আমাক ওয়েবসাইটে দাবি করা হয়েছে, তাদের দুজন সদস্য সমাবেশে ঢুকে হামলাটি চালিয়েছে। আফগানিস্তানের তালেবান বাহিনীর পক্ষ থেকে এই হামলার নিন্দা জানানো হয়েছে।

হাজারা গোষ্ঠীর লোকেরা একটি বিদ্যুৎ লাইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করছিল। তুর্কমেনিস্তান, উজবেকিস্তান, তাজিকিস্তান, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের মধ্য দিয়ে যাবে এমন একটি বিদ্যুৎ লাইন আফগানিস্তানের শিয়া হাজারা অধ্যুষিত বামিয়ান প্রদেশের ওপর দিয়ে নেওয়ার কথা। ২০১৩ সালে তৎকালীন আফগান সরকারের আমলে এই বিদ্যুৎ লাইন বামিয়ান থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

বিদ্যুৎ লাইনের নকশা আবার বামিয়ানে ফিরিয়ে নেওয়ার দাবিতে গতকাল কাবুলের দেহ্ মাজাং চত্বরে শিয়া হাজারা সম্প্রদায়ের কয়েক হাজার মানুষ বিক্ষোভ সমাবেশে জড়ো হয়। বিকেলে হঠাৎ করেই সেখানে একাধিক আত্মঘাতী বিস্ফোরণ হয়।

আফগানিস্তানে সব মিলিয়ে ৩০ লাখ হাজারা শিয়ার বাস। ৯০ এর দশকে আল কায়েদা এবং পশতুন সুন্নিদের হামলায় বহু হাজারা নিহত হয়। হাজারা সম্প্রদায় মনে করে, দেশটিতে প্রায় সব সরকারই তাদের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করে এসেছে। গতকালের বিক্ষোভ মিছিলেও সেই ক্ষোভের প্রকাশ ঘটে। গতকাল হামলার আগে বিক্ষোভ শান্তিপূর্ণ ছিল। তবে হামলার পর সেখানে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X