সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৫৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, November 27, 2016 8:43 am
A- A A+ Print

কারচুপির অভিযোগ : তিন রাজ্যে ভোট পুনর্গণনায় ৪৫ লাখ ডলার জমা

9

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে গ্রিন পার্টির মনোনীত প্রার্থী জিল স্টেইন তিনটি দোদুল্যমান রাজ্যে পুনরায় ভোট গণনার জন্য আবেদন করতে তহবিল সংগ্রহ করছেন। এ রাজ্য তিনটি হল মিশিগান, পেনসিলভানিয়া ও উইসকনসিন। তিনটিতেই জিতেছিলেন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওই তিন রাজ্যে ফলাফল পুনর্বিবেচনায় চ্যালেঞ্জ করবে বলে বুধবার স্টেইনের প্রচার শিবির জানায়। এরই মধ্যে এ সংক্রান্ত তহবিলে প্রায় ৪৫ লাখ ডলার জমা পড়েছে। খবর দ্য গার্ডিয়ানের। জিল স্টেইন বলেন, ‘ভোট কার্যক্রমে অনিয়মের সুস্পষ্ট প্রমাণের’ পরিপ্রেক্ষিতে তিনি পুনরায় ভোট গণনার জন্য তহবিল সংগ্রহ করছেন। তিনি বলেন, রাজ্য কর্তৃপক্ষের প্রকাশ করা উপাত্ত বিশ্লেণ মোট ভোট গণনার ক্ষেত্রে ‘গুরুত্বপূর্ণ অনিয়ম’ পাওয়া গেছে। এক বিবৃতিতে স্টেইন বলেন, ‘২০১৬ সালের নির্বাচন আনুষ্ঠানিকভাবে গৃহীত হওয়ার আগেই এসব বিষয় নিয়ে তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচনই আমাদের প্রাপ্য।’ অনলাইনে একটি ইন্টারনেট পেজের মাধ্যমে এ তহবিল সংগ্রহ করা হচ্ছে। তিন রাজ্যে নির্বাচনের ফলাফল পুনর্বিবেচনার আবেদন করতে ৬০ থেকে ৭০ লাখ ডলার প্রয়োজন। এরই মধ্যে উইসকনসিনের জন্য প্রয়োজনীয় ২০ লাখ ডলার সংগ্রহ করা হয়েছে। জিল স্টেইন ও তার দলকে এখন দ্রুত বিভিন্ন কাজ করতে হবে। উইসকনসিনে ভোট পুনর্গণনার অনুরোধ জানানোর শেষ সময় শুক্রবার। এ রাজ্যে হিলারি ক্লিনটনের চেয়ে ট্রাম্প ০.৭ শতাংশ ব্যবধানে জিতেছেন। পেনসিলভানিয়ায় ব্যবধান ছিল ১.২ শতাংশ। ওই রাজ্যে ভোট গণনার অনুরোধ জানানোর শেষ সময় সোমবার। মিশিগানে বুধবার হল ফলাফল চ্যালেঞ্জ করার শেষ সময়। এ রাজ্যে বর্তমানে ট্রাম্প মাত্র ০.৩ শতাংশ ব্যবধানে এগিয়ে আছেন। এদিকে হিলারি উইসকনসিনে ২৭ হাজার ভোটে হেরে গেছেন। পেনসিলভানিয়ায় গত ৫টি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। কিন্তু এবার সেখানে বিজয়ী হয়েছেন ট্রাম্প। হিলারির সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ সহযোগী হুমা আবেদিনের বোন ফেসবুকে লিখেছেন, পেনসিলভানিয়া, মিশিগান ও উইসকনসিনে মাত্র ৫৫ হাজার ভোট এদিক-ওদিক হলেই ফল ঘুরে যাবে! তিনি মার্কিন আইন মন্ত্রণালয়কে তদন্তের অনুরোধ জানাতে সবাইকে আহ্বান জানান। একই দাবি তুলেছেন ডেমোক্রেটিক জাতীয় কমিটির সাবেক পরামর্শক আলেক্সান্ডার চালুপা। প্রচারাভিযান চলাকালে তিনি মস্কোর সঙ্গে ট্রাম্পের তৎকালীন প্রচারণা ম্যানেজার পল ম্যানাপোর্টের যোগসূত্র তদন্ত করেছিলেন।

Comments

Comments!

 কারচুপির অভিযোগ : তিন রাজ্যে ভোট পুনর্গণনায় ৪৫ লাখ ডলার জমাAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

কারচুপির অভিযোগ : তিন রাজ্যে ভোট পুনর্গণনায় ৪৫ লাখ ডলার জমা

Sunday, November 27, 2016 8:43 am
9

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে গ্রিন পার্টির মনোনীত প্রার্থী জিল স্টেইন তিনটি দোদুল্যমান রাজ্যে পুনরায় ভোট গণনার জন্য আবেদন করতে তহবিল সংগ্রহ করছেন। এ রাজ্য তিনটি হল মিশিগান, পেনসিলভানিয়া ও উইসকনসিন। তিনটিতেই জিতেছিলেন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ওই তিন রাজ্যে ফলাফল পুনর্বিবেচনায় চ্যালেঞ্জ করবে বলে বুধবার স্টেইনের প্রচার শিবির জানায়। এরই মধ্যে এ সংক্রান্ত তহবিলে প্রায় ৪৫ লাখ ডলার জমা পড়েছে। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

জিল স্টেইন বলেন, ‘ভোট কার্যক্রমে অনিয়মের সুস্পষ্ট প্রমাণের’ পরিপ্রেক্ষিতে তিনি পুনরায় ভোট গণনার জন্য তহবিল সংগ্রহ করছেন। তিনি বলেন, রাজ্য কর্তৃপক্ষের প্রকাশ করা উপাত্ত বিশ্লেণ মোট ভোট গণনার ক্ষেত্রে ‘গুরুত্বপূর্ণ অনিয়ম’ পাওয়া গেছে।

এক বিবৃতিতে স্টেইন বলেন, ‘২০১৬ সালের নির্বাচন আনুষ্ঠানিকভাবে গৃহীত হওয়ার আগেই এসব বিষয় নিয়ে তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচনই আমাদের প্রাপ্য।’

অনলাইনে একটি ইন্টারনেট পেজের মাধ্যমে এ তহবিল সংগ্রহ করা হচ্ছে। তিন রাজ্যে নির্বাচনের ফলাফল পুনর্বিবেচনার আবেদন করতে ৬০ থেকে ৭০ লাখ ডলার প্রয়োজন। এরই মধ্যে উইসকনসিনের জন্য প্রয়োজনীয় ২০ লাখ ডলার সংগ্রহ করা হয়েছে। জিল স্টেইন ও তার দলকে এখন দ্রুত বিভিন্ন কাজ করতে হবে। উইসকনসিনে ভোট পুনর্গণনার অনুরোধ জানানোর শেষ সময় শুক্রবার।

এ রাজ্যে হিলারি ক্লিনটনের চেয়ে ট্রাম্প ০.৭ শতাংশ ব্যবধানে জিতেছেন। পেনসিলভানিয়ায় ব্যবধান ছিল ১.২ শতাংশ। ওই রাজ্যে ভোট গণনার অনুরোধ জানানোর শেষ সময় সোমবার। মিশিগানে বুধবার হল ফলাফল চ্যালেঞ্জ করার শেষ সময়। এ রাজ্যে বর্তমানে ট্রাম্প মাত্র ০.৩ শতাংশ ব্যবধানে এগিয়ে আছেন।

এদিকে হিলারি উইসকনসিনে ২৭ হাজার ভোটে হেরে গেছেন। পেনসিলভানিয়ায় গত ৫টি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। কিন্তু এবার সেখানে বিজয়ী হয়েছেন ট্রাম্প।

হিলারির সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ সহযোগী হুমা আবেদিনের বোন ফেসবুকে লিখেছেন, পেনসিলভানিয়া, মিশিগান ও উইসকনসিনে মাত্র ৫৫ হাজার ভোট এদিক-ওদিক হলেই ফল ঘুরে যাবে! তিনি মার্কিন আইন মন্ত্রণালয়কে তদন্তের অনুরোধ জানাতে সবাইকে আহ্বান জানান।

একই দাবি তুলেছেন ডেমোক্রেটিক জাতীয় কমিটির সাবেক পরামর্শক আলেক্সান্ডার চালুপা। প্রচারাভিযান চলাকালে তিনি মস্কোর সঙ্গে ট্রাম্পের তৎকালীন প্রচারণা ম্যানেজার পল ম্যানাপোর্টের যোগসূত্র তদন্ত করেছিলেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X