রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:০৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, September 26, 2016 9:47 pm
A- A A+ Print

কাশ্মীর ইস্যুতে মোদী ব্যর্থ, ভারতের পাশে কেউ নেই : শিবসেনার দাবি

154301_1

ঢাকা: ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি’র শরিক দল শিবসেনা বলেছে, ‘কাশ্মীর ইস্যুতে কেবল সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রচার ছড়ানো হচ্ছে যে, মোদী পাকিস্তানকে ‘একঘরে’ করে দিয়েছে। কিন্তু এর বাস্তবতা ভিন্ন। আন্তর্জাতিক স্তরে কোনো দেশই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নয়, বরং তাদের পাশে রয়েছে। মূলত উরিতে হামলার পর একটি দেশকেও ভারতের পাশে দাঁড়াতে দেখা যাচ্ছে না।’ সোমবার শিবসেনার দলীয় মুখপত্র ‘সামনা’র সম্পাদকীয়তে পাক-কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর তীব্র সমালোচনা করে এমন মন্তব্য করা হয়েছে। ‘সামনা’য় বলা হয়েছে, ‘কয়েকটি দেশ মৌখিক বিরোধিতার পর বিজেপি সমর্থিত সোশ্যাল মিডিয়া প্রচার করতে শুরু করেছে কিভাবে মোদী পাকিস্তানকে বিচ্ছিন্ন করেছেন। কিন্তু সত্য এটাই যে, রাশিয়া পাকিস্তানের সঙ্গে সামরিক মহড়া বাতিল করেনি। চীন পাকিস্তানকে সমর্থন করেছে। ইন্দোনেশিয়াও তাই করেছে।’ শিবসেনা বলেছে, ‘উরিতে হামলার পর বলা হচ্ছিল, চীন পাকিস্তানের ওপর প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ। যদিও সেটাও মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। বরং চীন পাকিস্তানকে কথা দিয়েছে তোমার ওপরে কোনো বিদেশি আক্রমণ হলে আমরা তোমাদের পাশে আছি।’ নরেন্দ্র মোদীর আরব দেশ সফর নিষ্ফল প্রমাণিত হয়েছে বলে মন্তব্য করে শিবসেনা বলেছে, ‘ওআইসিও কাশ্মির ইস্যুতে প্রকাশ্যে পাকিস্তানকে সমর্থন জানিয়েছে। তাহলে আরব দেশে যাওয়ার কী ফায়দা হল? নেপালও পাকিস্তানের সঙ্গে সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক রেখেছে। আর উরি হামলার পর আমেরিকা পাকিস্তানের নাম সরাসরি উচ্চারণ না করে সন্ত্রাসবাদকে নিন্দা করেছে। এ ধরণের বিরোধিতা এবং নিন্দায় আসলে ব্যর্থতাই প্রমাণিত হয়েছে।’ ১৯৭১ সালের যুদ্ধের কথা তুলে ধরে শিবসেনা বলেছেন, সেসময় রাশিয়া ভারতের সাহায্যে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়েছিল। সেরকম বন্ধুত্বের নিদর্শন আজ দেখা যাচ্ছে না। শিবসেনার দাবি, জাতিসংঘে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কাশ্মীরে অত্যাচারের বদলায় উরি হামলা হয়েছে। এর সহজ অর্থ হল উরি হামলার দায় স্বীকার করার সাহস দেখিয়েছে পাকিস্তান। তারা শত্রু রাষ্ট্র হলেও সেদেশের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের বুকের ছাতি আচমকা ৫৬ ইঞ্চি হয়ে গেল কী করে? এজন্য অবশ্য তাদের বীরত্ব নয়, আমরাই সেজন্য দায়ী।’ শিবসেনা দাবি করেছে, ‘পাকিস্তান তো কবেই যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। পাঠানকোট থেকে শুরু করে উরি পর্যন্ত রক্তের ধারা বইয়েছে। সেনাবাহিনীর জওয়ানদের আত্ম-বলিদান অব্যাহত রয়েছে, আর আমাদের ‘দিল্লিশ্বর’ আজও পাকিস্তানকে সর্বশেষ হুঁশিয়ারি দিয়েই নিজেকে ধন্য মনে করছেন।’ দেশ সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে বলেও মন্তব্য করা হয়েছে শিবসেনার সম্পাদকীয়তে।
 

Comments

Comments!

 কাশ্মীর ইস্যুতে মোদী ব্যর্থ, ভারতের পাশে কেউ নেই : শিবসেনার দাবিAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

কাশ্মীর ইস্যুতে মোদী ব্যর্থ, ভারতের পাশে কেউ নেই : শিবসেনার দাবি

Monday, September 26, 2016 9:47 pm
154301_1

ঢাকা: ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি’র শরিক দল শিবসেনা বলেছে, ‘কাশ্মীর ইস্যুতে কেবল সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রচার ছড়ানো হচ্ছে যে, মোদী পাকিস্তানকে ‘একঘরে’ করে দিয়েছে। কিন্তু এর বাস্তবতা ভিন্ন। আন্তর্জাতিক স্তরে কোনো দেশই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নয়, বরং তাদের পাশে রয়েছে। মূলত উরিতে হামলার পর একটি দেশকেও ভারতের পাশে দাঁড়াতে দেখা যাচ্ছে না।’

সোমবার শিবসেনার দলীয় মুখপত্র ‘সামনা’র সম্পাদকীয়তে পাক-কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর তীব্র সমালোচনা করে এমন মন্তব্য করা হয়েছে।

‘সামনা’য় বলা হয়েছে, ‘কয়েকটি দেশ মৌখিক বিরোধিতার পর বিজেপি সমর্থিত সোশ্যাল মিডিয়া প্রচার করতে শুরু করেছে কিভাবে মোদী পাকিস্তানকে বিচ্ছিন্ন করেছেন। কিন্তু সত্য এটাই যে, রাশিয়া পাকিস্তানের সঙ্গে সামরিক মহড়া বাতিল করেনি। চীন পাকিস্তানকে সমর্থন করেছে। ইন্দোনেশিয়াও তাই করেছে।’

শিবসেনা বলেছে, ‘উরিতে হামলার পর বলা হচ্ছিল, চীন পাকিস্তানের ওপর প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ। যদিও সেটাও মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। বরং চীন পাকিস্তানকে কথা দিয়েছে তোমার ওপরে কোনো বিদেশি আক্রমণ হলে আমরা তোমাদের পাশে আছি।’

নরেন্দ্র মোদীর আরব দেশ সফর নিষ্ফল প্রমাণিত হয়েছে বলে মন্তব্য করে শিবসেনা বলেছে, ‘ওআইসিও কাশ্মির ইস্যুতে প্রকাশ্যে পাকিস্তানকে সমর্থন জানিয়েছে। তাহলে আরব দেশে যাওয়ার কী ফায়দা হল? নেপালও পাকিস্তানের সঙ্গে সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক রেখেছে। আর উরি হামলার পর আমেরিকা পাকিস্তানের নাম সরাসরি উচ্চারণ না করে সন্ত্রাসবাদকে নিন্দা করেছে। এ ধরণের বিরোধিতা এবং নিন্দায় আসলে ব্যর্থতাই প্রমাণিত হয়েছে।’

১৯৭১ সালের যুদ্ধের কথা তুলে ধরে শিবসেনা বলেছেন, সেসময় রাশিয়া ভারতের সাহায্যে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়েছিল। সেরকম বন্ধুত্বের নিদর্শন আজ দেখা যাচ্ছে না।

শিবসেনার দাবি, জাতিসংঘে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কাশ্মীরে অত্যাচারের বদলায় উরি হামলা হয়েছে। এর সহজ অর্থ হল উরি হামলার দায় স্বীকার করার সাহস দেখিয়েছে পাকিস্তান। তারা শত্রু রাষ্ট্র হলেও সেদেশের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের বুকের ছাতি আচমকা ৫৬ ইঞ্চি হয়ে গেল কী করে? এজন্য অবশ্য তাদের বীরত্ব নয়, আমরাই সেজন্য দায়ী।’

শিবসেনা দাবি করেছে, ‘পাকিস্তান তো কবেই যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। পাঠানকোট থেকে শুরু করে উরি পর্যন্ত রক্তের ধারা বইয়েছে। সেনাবাহিনীর জওয়ানদের আত্ম-বলিদান অব্যাহত রয়েছে, আর আমাদের ‘দিল্লিশ্বর’ আজও পাকিস্তানকে সর্বশেষ হুঁশিয়ারি দিয়েই নিজেকে ধন্য মনে করছেন।’

দেশ সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে বলেও মন্তব্য করা হয়েছে শিবসেনার সম্পাদকীয়তে।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X