সোমবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১১:৫৬
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, November 1, 2016 1:33 pm
A- A A+ Print

ক্রিকেটে বাংলাদেশ কেন বিদেশের মাটিতে কম সফল?

158160_1

ঢাকা: ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের দারুণ জয়ের পর ইংল্যান্ডের সাবেক টেস্ট ক্রিকেট ক্যাপ্টেন ইয়ান বোথাম বলেছেন, ‘বাংলাদেশকে এখন বিদেশের মাটিতে জিতে দেখাতে হবে। সেটাই তাদের জন্য এখন বড় পরীক্ষা’।
কাছাকাছি সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটে ব্যাপক চমক দেখিয়েছে। ২০১৪ সাল থেকে দেশের মাটিতে বাংলাদেশ ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে ছয়টি। টেস্ট সিরিজ জিতেছে একটি। কিন্তু দেশের বাইরে বাংলাদেশ একবারই সিরিজ জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।
বাংলাদেশ বিদেশের মাটিতে কেন এতটা সফল নয়? ক্রীড়া সাংবাদিক মোহাম্মদ ইসাম বলছেন, ‘বাংলাদেশ গত পাঁচ বছরে সব মিলিয়ে ২৭ টি টেস্ট খেলেছে। তার মধ্যে মোটে ৭টি দেশের বাইরে। আর বাকিগুলো দেশেই। বাংলাদেশ দেশের বাইরে খুব একটা খেলে না। এ কারণেই বাংলাদেশ দেশের বাইরে পারফর্ম করতে পারে না’। ইসাম আরো বলছেন, ভারতে বাংলাদেশ কোনো দ্বিপাক্ষিক ট্যুর করে নি। সামনের বছরের ফেব্রুয়ারিতে একটি সফর রয়েছে। অস্ট্রেলিয়াতে শেষ সফর ছিলো ২০০৮ সালে একটি ওয়ানডে আর ২০০৩ সালে টেস্ট খেলতে। ইংল্যান্ডে বাংলাদেশ ২০১০ এ সফর করেছে। দেশের বাইরে বাংলাদেশ শেষ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলেছে ২০১৪ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে। তিনি বলছেন, ‘বড় দলতো বাদই দিলাম আসলে কোন জায়গাতেই বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সফর নেই। সেটাই মুল কারণ’। বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার তেমন কোন ডাক পায় না বলছিলেন তিনি। তার কারণ হিসেবে তিনি বলছেন, ‘ক্রিকেটের যে ক্যালেন্ডার তৈরি হয় সেটা একসময় আইসিসি তৈরি করতো। কিন্তু এখন এখানে অর্থের ব্যাপারটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। তাই দু’দেশের বোর্ডই এখন আলাপ করে সিরিজ ঠিক করে। অনেক দেশে বাংলাদেশ দল গেলে মাঠে বা টিভি স্বত্বের দিকে থেকে অর্থ উপার্জন অতটা হয়না। এসব কারণে বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলোর সাথে খেলার সুযোগ পায় না’। তবে দেশের মাটিতে জিতেই বাংলাদেশকে বড় দেশগুলোর কাছে নিজেকে প্রমাণ করতে হবে। আর তাহলেই দ্বিপাক্ষিক সিরিজের দাওয়াত মিলবে, বলছিলেন মোহাম্মদ ইসাম। ‘এই যে ইংল্যান্ডকে বাংলাদেশ হারালো সেটিই বাংলাদেশের বিদেশের মাটিতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের ডাক পেতে সবচাইতে বড় যোগ্যতা হিসেবে কাজে দেবে’।
 

Comments

Comments!

 ক্রিকেটে বাংলাদেশ কেন বিদেশের মাটিতে কম সফল?AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ক্রিকেটে বাংলাদেশ কেন বিদেশের মাটিতে কম সফল?

Tuesday, November 1, 2016 1:33 pm
158160_1

ঢাকা: ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের দারুণ জয়ের পর ইংল্যান্ডের সাবেক টেস্ট ক্রিকেট ক্যাপ্টেন ইয়ান বোথাম বলেছেন, ‘বাংলাদেশকে এখন বিদেশের মাটিতে জিতে দেখাতে হবে। সেটাই তাদের জন্য এখন বড় পরীক্ষা’।

কাছাকাছি সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটে ব্যাপক চমক দেখিয়েছে। ২০১৪ সাল থেকে দেশের মাটিতে বাংলাদেশ ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে ছয়টি।

টেস্ট সিরিজ জিতেছে একটি। কিন্তু দেশের বাইরে বাংলাদেশ একবারই সিরিজ জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

বাংলাদেশ বিদেশের মাটিতে কেন এতটা সফল নয়?

ক্রীড়া সাংবাদিক মোহাম্মদ ইসাম বলছেন, ‘বাংলাদেশ গত পাঁচ বছরে সব মিলিয়ে ২৭ টি টেস্ট খেলেছে। তার মধ্যে মোটে ৭টি দেশের বাইরে। আর বাকিগুলো দেশেই। বাংলাদেশ দেশের বাইরে খুব একটা খেলে না। এ কারণেই বাংলাদেশ দেশের বাইরে পারফর্ম করতে পারে না’।

ইসাম আরো বলছেন, ভারতে বাংলাদেশ কোনো দ্বিপাক্ষিক ট্যুর করে নি। সামনের বছরের ফেব্রুয়ারিতে একটি সফর রয়েছে।

অস্ট্রেলিয়াতে শেষ সফর ছিলো ২০০৮ সালে একটি ওয়ানডে আর ২০০৩ সালে টেস্ট খেলতে।

ইংল্যান্ডে বাংলাদেশ ২০১০ এ সফর করেছে। দেশের বাইরে বাংলাদেশ শেষ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলেছে ২০১৪ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে।

তিনি বলছেন, ‘বড় দলতো বাদই দিলাম আসলে কোন জায়গাতেই বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সফর নেই। সেটাই মুল কারণ’।

বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার তেমন কোন ডাক পায় না বলছিলেন তিনি।

তার কারণ হিসেবে তিনি বলছেন, ‘ক্রিকেটের যে ক্যালেন্ডার তৈরি হয় সেটা একসময় আইসিসি তৈরি করতো। কিন্তু এখন এখানে অর্থের ব্যাপারটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। তাই দু’দেশের বোর্ডই এখন আলাপ করে সিরিজ ঠিক করে। অনেক দেশে বাংলাদেশ দল গেলে মাঠে বা টিভি স্বত্বের দিকে থেকে অর্থ উপার্জন অতটা হয়না। এসব কারণে বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলোর সাথে খেলার সুযোগ পায় না’।

তবে দেশের মাটিতে জিতেই বাংলাদেশকে বড় দেশগুলোর কাছে নিজেকে প্রমাণ করতে হবে।

আর তাহলেই দ্বিপাক্ষিক সিরিজের দাওয়াত মিলবে, বলছিলেন মোহাম্মদ ইসাম।

‘এই যে ইংল্যান্ডকে বাংলাদেশ হারালো সেটিই বাংলাদেশের বিদেশের মাটিতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের ডাক পেতে সবচাইতে বড় যোগ্যতা হিসেবে কাজে দেবে’।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X