শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৪:০৯
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, June 27, 2017 6:28 am
A- A A+ Print

ক্ষমতা টেকাতে বিলিয়ন পাউন্ডের চুক্তি করলেন তেরেসা মে

7

লন্ডন: যুক্তরাজ্যে গত ৮ জুনের আগাম নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারায় তেরেসা মে’র দল কনজারভেটিভ পার্টি। এরপর নর্দান আয়ারল্যান্ডের দল ডিইউপির এমপিদের সমর্থন লাভের জন্য প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে দর কষাকষি চলে। অবশেষে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে প্রদেশটিতে অতিরিক্ত এক বিলিয়ন পাউন্ড বরাদ্দের চুক্তি করলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। সোমবার ডাউনিং স্ট্রিটে দুই পক্ষের মধ্যে এই চুক্তি হয়। এখন ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নিস্ট পার্টি (ডিইউপি) এবং এর ১০ জন এমপি মে’র সরকারকে সমর্থন দিয়ে যাবে, যদিও তাদের অংশীদারিত্বে জোট সরকার হচ্ছে না। তেরেসা মে ও ডিইউপি নেতা আরলিন ফস্টারের সভাপতিত্বে কনজারভেটিভ নেতা গেভিন উইলিয়ামসন ও অপরপক্ষের জেফরে ডোনাল্ডসন চুক্তিতে সই করেন, যা ২০২২ সাল পর্যন্ত মেয়াদ থাকা বর্তমান পার্লামেন্ট চালু রাখতে রসদ যুগিয়ে যাবে। চুক্তি সই অনুষ্ঠানে উভয়পক্ষের নেতাদের মুখে ছিল হাসি, কৌতূকও করেন তারা। চুক্তিকে স্বাগত জানিয়ে এক বিবৃতিতে তেরেসা মে বলেন, ‘এই চুক্তি পুরো যুক্তরাজ্যের স্বার্থে আমাদের একসঙ্গে কাজ করার সুযোগ করে দেবে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার যে প্রক্রিয়া আমরা শুরু করেছি তা এগিয়ে নিতে প্রয়োজনীয় নিশ্চয়তা দেবে এবং দেশে আরো শক্তিশালী ও ন্যায়ভিত্তিক সমাজ গঠনে সহায়তা করবে।’ চুক্তির শর্ত মতে, আগামী দুই বছরে নর্দান আয়ারল্যান্ডে সরকারি ব্যয় এক বিলিয়ন পাউন্ড বাড়াবেন মে। বিনিময়ে বাজেট, ব্রেক্সিট আইন, জাতীয় নিরাপত্তাসহ মে’র সামগ্রিক লেজিসলেটিভ পরিকল্পনায় সমর্থন দিয়ে যাবে ডিইউপি। ডাউনিং স্ট্রিটে ডিইউপি নেতা আরলিন ফস্টার বলেন, ‘পার্লামেন্টে সরকারকে সমর্থনের বিষয়ে কনজারভেটিভ পার্টির সঙ্গে আমরা আজকে একটি চুক্তিতে পৌঁছেছি।’ গতবছর ব্রেক্সিট নির্বাচনের অপ্রত্যাশিত ফলাফলের পর ডেভিড ক্যামেরন সরে গেলে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়ে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দেন তেরেসা মে। তার লক্ষ্য ছিল পার্লামেন্টে দুই তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করা, যাতে ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া এগিয়ে নিতে প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত নেয়া সহজ হয়। কিন্তু আগাম নির্বাচনে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় ৩২৬ আসনের চেয়ে আটটি আসন কম পায় মে’র কনজারভেটিভ পার্টি। তারা এবার ৩১৮টি আসন পায়, যা গতবারের চেয়ে ১৩টি কম। ডিইউপির এমপিদের সমর্থন নিয়ে ৬৫০ আসনের পার্লামেন্টে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে পারছেন তেরেসা মে।

Comments

Comments!

 ক্ষমতা টেকাতে বিলিয়ন পাউন্ডের চুক্তি করলেন তেরেসা মেAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ক্ষমতা টেকাতে বিলিয়ন পাউন্ডের চুক্তি করলেন তেরেসা মে

Tuesday, June 27, 2017 6:28 am
7

লন্ডন: যুক্তরাজ্যে গত ৮ জুনের আগাম নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারায় তেরেসা মে’র দল কনজারভেটিভ পার্টি। এরপর নর্দান আয়ারল্যান্ডের দল ডিইউপির এমপিদের সমর্থন লাভের জন্য প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে দর কষাকষি চলে।

অবশেষে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে প্রদেশটিতে অতিরিক্ত এক বিলিয়ন পাউন্ড বরাদ্দের চুক্তি করলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে। সোমবার ডাউনিং স্ট্রিটে দুই পক্ষের মধ্যে এই চুক্তি হয়।

এখন ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নিস্ট পার্টি (ডিইউপি) এবং এর ১০ জন এমপি মে’র সরকারকে সমর্থন দিয়ে যাবে, যদিও তাদের অংশীদারিত্বে জোট সরকার হচ্ছে না।

তেরেসা মে ও ডিইউপি নেতা আরলিন ফস্টারের সভাপতিত্বে কনজারভেটিভ নেতা গেভিন উইলিয়ামসন ও অপরপক্ষের জেফরে ডোনাল্ডসন চুক্তিতে সই করেন, যা ২০২২ সাল পর্যন্ত মেয়াদ থাকা বর্তমান পার্লামেন্ট চালু রাখতে রসদ যুগিয়ে যাবে। চুক্তি সই অনুষ্ঠানে উভয়পক্ষের নেতাদের মুখে ছিল হাসি, কৌতূকও করেন তারা।

চুক্তিকে স্বাগত জানিয়ে এক বিবৃতিতে তেরেসা মে বলেন, ‘এই চুক্তি পুরো যুক্তরাজ্যের স্বার্থে আমাদের একসঙ্গে কাজ করার সুযোগ করে দেবে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার যে প্রক্রিয়া আমরা শুরু করেছি তা এগিয়ে নিতে প্রয়োজনীয় নিশ্চয়তা দেবে এবং দেশে আরো শক্তিশালী ও ন্যায়ভিত্তিক সমাজ গঠনে সহায়তা করবে।’

চুক্তির শর্ত মতে, আগামী দুই বছরে নর্দান আয়ারল্যান্ডে সরকারি ব্যয় এক বিলিয়ন পাউন্ড বাড়াবেন মে। বিনিময়ে বাজেট, ব্রেক্সিট আইন, জাতীয় নিরাপত্তাসহ মে’র সামগ্রিক লেজিসলেটিভ পরিকল্পনায় সমর্থন দিয়ে যাবে ডিইউপি।

ডাউনিং স্ট্রিটে ডিইউপি নেতা আরলিন ফস্টার বলেন, ‘পার্লামেন্টে সরকারকে সমর্থনের বিষয়ে কনজারভেটিভ পার্টির সঙ্গে আমরা আজকে একটি চুক্তিতে পৌঁছেছি।’

গতবছর ব্রেক্সিট নির্বাচনের অপ্রত্যাশিত ফলাফলের পর ডেভিড ক্যামেরন সরে গেলে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়ে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দেন তেরেসা মে। তার লক্ষ্য ছিল পার্লামেন্টে দুই তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করা, যাতে ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া এগিয়ে নিতে প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত নেয়া সহজ হয়।

কিন্তু আগাম নির্বাচনে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় ৩২৬ আসনের চেয়ে আটটি আসন কম পায় মে’র কনজারভেটিভ পার্টি। তারা এবার ৩১৮টি আসন পায়, যা গতবারের চেয়ে ১৩টি কম।

ডিইউপির এমপিদের সমর্থন নিয়ে ৬৫০ আসনের পার্লামেন্টে ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে পারছেন তেরেসা মে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X