বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ভোর ৫:০৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, November 25, 2016 6:36 pm
A- A A+ Print

গণতন্ত্রকে রক্তাক্ত করার চক্রান্ত চলছে : কাদের

5

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, গণতন্ত্রকে রক্তাক্ত করার চক্রান্ত চলছে। আজও বিএনপি জোট বেপরোয়া চালকের মতো গণতন্ত্রকে রক্তাক্ত করার চক্রান্ত করছে। শুক্রবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আওয়ামী মোটরচালক লীগ আয়োজিত শহীদ নূর হোসেন দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, নূর হোসেন যে গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করেছেন, যে গণতন্ত্রের জন্য আত্মবলিদান দিয়েছেন, সেই গণতন্ত্র স্বৈরাচার থেকে মুক্ত হলেও বিপদ থেকে মুক্তি পায়নি। তিনি বলেন, গণতন্ত্রের সংকট এখনো চলছে। যারা ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ব্যর্থ হয়ে নিরীহ চালককে বোমার আগুনে পুড়িয়ে মেরেছে- তারা আসলে বাংলাদেশের গণতন্ত্রকেই পুড়িয়ে মারতে চেয়েছিল। তারা গণতন্ত্রের নামে গণতন্ত্রকে গুলি ও রক্তাক্ত করেছে। সেতুমন্ত্রী বলেন, এসব চক্রান্তের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। চালকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘মন্ত্রী হিসেবে অনেকে আমার সফলতার কথা বলে, কিন্তু মন্ত্রী হিসেবে আমি নিজেকে সফল মনে করি না। সড়কে দুর্ঘটনা ও যানজট দূর করতে পারিনি। এ দুটি বিষয় দৃশ্যমান ব্যর্থতা রয়েছে।’ সেতুমন্ত্রী বলেন, আমার মূল চ্যালেঞ্জ হচ্ছে পরিবহন ও সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা। এজন্য আপনাদের সহযোগিতা চাই। চালকদের জন্য ট্রেনিং ইনস্টিটিউশনের কাজ চলমান রয়েছে। বেসরকারি পর্যায়ে কিছু প্রশিক্ষণ সংস্থা থাকলেও চাহিদার তুলনায় একেবারে কম। অদক্ষ চালক দুর্ঘটনার কারণ। চালকদের উদ্দেশ্যে করে কাদের আরো বলেন, আপনাদেরকে অনুরোধ করবো বাচ্চাদেরকে, শিশুদেরকে ড্রাইভার বানাবেন না। যানজট আর দুর্ঘটনার জন্য দায়ি আমাদের মন-মানসিকতা। এটা পরিবর্তন না হলে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে না। শৃঙ্খলা না আসলে দুর্ঘটনা ও যানজট হবেই। মহিলা চালক বাড়ানোর ওপর জোর দিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, দেশে পুরুষের পাশাপাশি আরো মহিলা ড্রাইভার দরকার। মহিলারা গাড়ি চালালে ঝুঁকি কম থাকে। সংগঠনের সভাপতি মো. আলী হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শেখর, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. কালু শেখ প্রমুখ।  

Comments

Comments!

 গণতন্ত্রকে রক্তাক্ত করার চক্রান্ত চলছে : কাদেরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

গণতন্ত্রকে রক্তাক্ত করার চক্রান্ত চলছে : কাদের

Friday, November 25, 2016 6:36 pm
5

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, গণতন্ত্রকে রক্তাক্ত করার চক্রান্ত চলছে। আজও বিএনপি জোট বেপরোয়া চালকের মতো গণতন্ত্রকে রক্তাক্ত করার চক্রান্ত করছে।

শুক্রবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আওয়ামী মোটরচালক লীগ আয়োজিত শহীদ নূর হোসেন দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, নূর হোসেন যে গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করেছেন, যে গণতন্ত্রের জন্য আত্মবলিদান দিয়েছেন, সেই গণতন্ত্র স্বৈরাচার থেকে মুক্ত হলেও বিপদ থেকে মুক্তি পায়নি।

তিনি বলেন, গণতন্ত্রের সংকট এখনো চলছে। যারা ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ব্যর্থ হয়ে নিরীহ চালককে বোমার আগুনে পুড়িয়ে মেরেছে- তারা আসলে বাংলাদেশের গণতন্ত্রকেই পুড়িয়ে মারতে চেয়েছিল। তারা গণতন্ত্রের নামে গণতন্ত্রকে গুলি ও রক্তাক্ত করেছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, এসব চক্রান্তের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

চালকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘মন্ত্রী হিসেবে অনেকে আমার সফলতার কথা বলে, কিন্তু মন্ত্রী হিসেবে আমি নিজেকে সফল মনে করি না। সড়কে দুর্ঘটনা ও যানজট দূর করতে পারিনি। এ দুটি বিষয় দৃশ্যমান ব্যর্থতা রয়েছে।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, আমার মূল চ্যালেঞ্জ হচ্ছে পরিবহন ও সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা। এজন্য আপনাদের সহযোগিতা চাই। চালকদের জন্য ট্রেনিং ইনস্টিটিউশনের কাজ চলমান রয়েছে। বেসরকারি পর্যায়ে কিছু প্রশিক্ষণ সংস্থা থাকলেও চাহিদার তুলনায় একেবারে কম। অদক্ষ চালক দুর্ঘটনার কারণ।

চালকদের উদ্দেশ্যে করে কাদের আরো বলেন, আপনাদেরকে অনুরোধ করবো বাচ্চাদেরকে, শিশুদেরকে ড্রাইভার বানাবেন না। যানজট আর দুর্ঘটনার জন্য দায়ি আমাদের মন-মানসিকতা। এটা পরিবর্তন না হলে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে না। শৃঙ্খলা না আসলে দুর্ঘটনা ও যানজট হবেই।

মহিলা চালক বাড়ানোর ওপর জোর দিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, দেশে পুরুষের পাশাপাশি আরো মহিলা ড্রাইভার দরকার। মহিলারা গাড়ি চালালে ঝুঁকি কম থাকে।

সংগঠনের সভাপতি মো. আলী হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শেখর, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. কালু শেখ প্রমুখ।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X