বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৬:৪১
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Saturday, January 7, 2017 6:46 pm
A- A A+ Print

গণতন্ত্রের সব দরজা-জানালা বন্ধ : বিএনপি

40

‘গণতন্ত্র হত্যা দিবসে’ বিএনপির সমাবেশ করতে না দিয়ে সরকার গণতন্ত্রের সকল দরজা-জানালা বন্ধ করে দিয়েছে বলে দাবি করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। শনিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করা বিএনপি দিনটিকে (৫ জানুয়ারি) ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করে। এ বছর দেশব্যাপী দিবসটিতে ‘কালো পতাকা মিছিল ও কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি পালন করেছে দলটির নেতা-কর্মীরা। ৫ জানুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরা থাকার কারণে ওই দিন সমাবেশ না করে ৭ জানুয়ারি সমাবেশের কর্মসূচি দেয় দলটি। এজন্য রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ব্যবহারের অনুমতি চেয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করলেও অনুমতি পায়নি। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসে রিজভী। তিনি বলেন, ‘৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র হত্যা দিবস উপলক্ষে আজ ৭ জানুয়ারি ঢাকায় বিএনপির উদ্যোগে সমাবেশের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছিল। কিন্তু দেশের জনগণ যে দেশের মালিক-এই সত্যটি তারা (সরকার) বেমালুম ভুলে গেছে।’ রিজভী বলেন, ‘এখন গোটা দেশটাকেই আওয়ামী লীগ নিজেদের পৈতৃক সম্পত্তি এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে নিজেদের লাঠিয়াল বাহিনী মনে করে। যখন যেমন খুশী তারা এই পেটোয়া বাহিনী দিয়ে বিরোধী দলের যেকোন কর্মসূচিকে লাগাতারভাবে দমন করে যাচ্ছে।’ বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘সরকার জনগণকে ক্ষমতার উৎস মনে করে না, পুলিশকে মনে করে ক্ষমতার উৎস। তাই আজকের কর্মসূচি করতে না দেওয়ায় আবারও প্রমাণিত হলো যে, তারা গণতন্ত্রের সব দরজা-জানালা বন্ধ করে দিয়েছে।’ বিএনপির কর্মসূচিতে  বাধা ও সমাবেশ করতে না দেওয়ায় তীব্র নিন্দা, ঘৃণা জানান রুহুল কবির রিজভী। বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘মনে হচ্ছে সরকার বিএনপির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। কার্যালয়ের সামনে মোতায়েন করা হয়েছে জলকামান, এপিসিসহ ভারী-মাঝারী অস্ত্রসজ্জিত পুলিশ-র্যা বে কয়েকটি প্লাটুন। অবরুদ্ধ হয়ে আছে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়। ’ বিএনপি ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায় বলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সমালোচনাও করেন রিজভী। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগই জনবিচ্ছিন্ন হয়ে ষড়যন্ত্রের মাধ্যেমে ক্ষমতায় বসে আছে। দেশ-বিদেশি ষড়যন্ত্রকারীরা আপনাদের ক্ষমতায় বসিয়েছে। এখন র্যা ব-পুলিশ ও অদৃশ্য ক্ষমতার জোরে আপনারা ক্ষমতা টিকিয়ে রেখেছেন। আজ দেশে গণতন্ত্রের লেশমাত্র নেই। বিরোধী দলের গণতান্ত্রিক অধিকার, সভা-সমাবেশ করার অধিকার এবং নিয়মতান্ত্রিক প্রতিবাদের ভাষাটুকুও আজ কেড়ে নিয়েছে সরকার।’ ৫ জানুয়ারি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষে কর্মসূচি পালনকালে বরিশাল মহানগর কার্যালয়ে শাসক দলের নেতা-কর্মীদের ‘হামলায়’ মহিলা কাউন্সিলরসহ মহিলা দলের অর্ধশত নেতা-কর্মীকে আহত করার নিন্দা জানান রিজভী। তিনি বলেন, ‘নারীদের প্রতি এই অবমাননাকর ও অমর্যাদাকর আচরণে সারা দেশের মানুষ ধিক্কার জানালেও তাতে সরকারের কোনো টনক নড়ছে না। বিরোধী দলকে নিচিহৃ করার জন্যই অনাচারের পথ বেছে নিয়েছে সরকার। আর এই পথ বেছে নেওয়ার জন্যই অপরাধীরা আশকারা পাচ্ছে।’    

Comments

Comments!

 গণতন্ত্রের সব দরজা-জানালা বন্ধ : বিএনপিAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

গণতন্ত্রের সব দরজা-জানালা বন্ধ : বিএনপি

Saturday, January 7, 2017 6:46 pm
40

‘গণতন্ত্র হত্যা দিবসে’ বিএনপির সমাবেশ করতে না দিয়ে সরকার গণতন্ত্রের সকল দরজা-জানালা বন্ধ করে দিয়েছে বলে দাবি করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করা বিএনপি দিনটিকে (৫ জানুয়ারি) ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করে। এ বছর দেশব্যাপী দিবসটিতে ‘কালো পতাকা মিছিল ও কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচি পালন করেছে দলটির নেতা-কর্মীরা।

৫ জানুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরা থাকার কারণে ওই দিন সমাবেশ না করে ৭ জানুয়ারি সমাবেশের কর্মসূচি দেয় দলটি। এজন্য রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ব্যবহারের অনুমতি চেয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করলেও অনুমতি পায়নি। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসে রিজভী।

তিনি বলেন, ‘৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র হত্যা দিবস উপলক্ষে আজ ৭ জানুয়ারি ঢাকায় বিএনপির উদ্যোগে সমাবেশের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছিল। কিন্তু দেশের জনগণ যে দেশের মালিক-এই সত্যটি তারা (সরকার) বেমালুম ভুলে গেছে।’

রিজভী বলেন, ‘এখন গোটা দেশটাকেই আওয়ামী লীগ নিজেদের পৈতৃক সম্পত্তি এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে নিজেদের লাঠিয়াল বাহিনী মনে করে। যখন যেমন খুশী তারা এই পেটোয়া বাহিনী দিয়ে বিরোধী দলের যেকোন কর্মসূচিকে লাগাতারভাবে দমন করে যাচ্ছে।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘সরকার জনগণকে ক্ষমতার উৎস মনে করে না, পুলিশকে মনে করে ক্ষমতার উৎস। তাই আজকের কর্মসূচি করতে না দেওয়ায় আবারও প্রমাণিত হলো যে, তারা গণতন্ত্রের সব দরজা-জানালা বন্ধ করে দিয়েছে।’

বিএনপির কর্মসূচিতে  বাধা ও সমাবেশ করতে না দেওয়ায় তীব্র নিন্দা, ঘৃণা জানান রুহুল কবির রিজভী।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘মনে হচ্ছে সরকার বিএনপির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। কার্যালয়ের সামনে মোতায়েন করা হয়েছে জলকামান, এপিসিসহ ভারী-মাঝারী অস্ত্রসজ্জিত পুলিশ-র্যা বে কয়েকটি প্লাটুন। অবরুদ্ধ হয়ে আছে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়। ’

বিএনপি ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায় বলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সমালোচনাও করেন রিজভী।

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগই জনবিচ্ছিন্ন হয়ে ষড়যন্ত্রের মাধ্যেমে ক্ষমতায় বসে আছে। দেশ-বিদেশি ষড়যন্ত্রকারীরা আপনাদের ক্ষমতায় বসিয়েছে। এখন র্যা ব-পুলিশ ও অদৃশ্য ক্ষমতার জোরে আপনারা ক্ষমতা টিকিয়ে রেখেছেন। আজ দেশে গণতন্ত্রের লেশমাত্র নেই। বিরোধী দলের গণতান্ত্রিক অধিকার, সভা-সমাবেশ করার অধিকার এবং নিয়মতান্ত্রিক প্রতিবাদের ভাষাটুকুও আজ কেড়ে নিয়েছে সরকার।’

৫ জানুয়ারি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষে কর্মসূচি পালনকালে বরিশাল মহানগর কার্যালয়ে শাসক দলের নেতা-কর্মীদের ‘হামলায়’ মহিলা কাউন্সিলরসহ মহিলা দলের অর্ধশত নেতা-কর্মীকে আহত করার নিন্দা জানান রিজভী।

তিনি বলেন, ‘নারীদের প্রতি এই অবমাননাকর ও অমর্যাদাকর আচরণে সারা দেশের মানুষ ধিক্কার জানালেও তাতে সরকারের কোনো টনক নড়ছে না। বিরোধী দলকে নিচিহৃ করার জন্যই অনাচারের পথ বেছে নিয়েছে সরকার। আর এই পথ বেছে নেওয়ার জন্যই অপরাধীরা আশকারা পাচ্ছে।’

 

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X