শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৪৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, September 15, 2016 11:29 pm | আপডেটঃ September 15, 2016 11:49 PM
A- A A+ Print

গাড়িটি আশিকুরের, ঘটনার সময় ছিলেন ছেলে নাসিফ

b6dd17208a7021e1ddaf120b6f875b2f-untitled-1

রাজধানীর শেওড়াপাড়ায় গতকাল বুধবার যে প্রাইভেট কারের চাপায় আতাউর রহমান ও রওশন আরা দম্পতি প্রাণ হারিয়েছেন, এর মালিক আশিকুর রহমান খান নামের এক ব্যক্তি। তবে ঘটনার সময় গাড়িতে ছিলেন তাঁর ছেলে নাসিফ খান ওরফে অনি। এ সময় ওই প্রাইভেট কারে নাসিফের সঙ্গে তাঁর কয়েকজন বন্ধু ছিলেন। গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়ার পর নাসিফ তাঁর শাহীনবাগের বাসায় ফেরেন। ঘণ্টা দুয়েক পর মা-বাবার সঙ্গে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে বাড়ি ছাড়েন তিনি। ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের নাম প্রকাশ করছে না পুলিশ। তদন্তে অগ্রগতির খবরও জানেন না আতাউর রহমানের ছেলে মো. রায়হান। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামীম শিকদার প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা সবকিছুরই সন্ধান পেয়েছি। এখন ধরার অপেক্ষায়। তদন্তের স্বার্থে এর চেয়ে কিছু বলা যাবে না।’ জানা গেছে, গতকাল সকাল ৬টা ৯ মিনিটে শেওড়াপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে স্ত্রী রওশন আরার সঙ্গে বের হন আতাউর রহমান। মোহাম্মদপুরে মেয়ের বাসায় যাচ্ছিলেন তাঁরা। শেওড়াপাড়া বাসস্ট্যান্ডসংলগ্ন ফুটপাতে তাঁরা দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় দ্রুতগতির একটি প্রাইভেট কার (ঢাকা মেট্রো গ ২১-৮৫৭১) তাঁদের ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে মারা যান আতাউর রহমান ও রওশন আরা। দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া গাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন যাত্রীরা। তবে গাড়িটি কে চালাচ্ছিলেন এবং কতজন গাড়িতে ছিলেন, এ ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সকাল সাড়ে ছয়টায় দিকে নাসিফ তাঁর শাহীনবাগের বাসা ফেরেন। ঘণ্টা দুয়েক পর মা-বাবার সঙ্গে বাসা ছাড়েন তিনি। প্রাইভেট কারের নম্বর। ছবি: প্রথম আলোবাংলাদেশ রোড অ্যান্ড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) সূত্রে জানা গেছে, যে প্রাইভেট কারের চাপায় দুজন মারা গেছেন, এটি ২০০৮ সালে রেজিস্ট্রেশন করা হয়। এরপর লিখিতভাবে দুবার মালিকানা পরিবর্তন হয় গাড়িটির। সবশেষ মালিক ছিলেন হাসান হায়দার। রেজিস্ট্রেশন-প্রক্রিয়া শেষ না হলেও তাঁর কাছ থেকে গাড়িটি নাঈম নামের এক ব্যক্তি কেনেন, যিনি পুরোনো গাড়ি কেনাবেচার ব্যবসা করেন। হাসান হায়দার প্রথম আলোকে বলেন, নাইমের কাছ থেকে গাড়িটি কেনেন আশিকুর রহমান খান। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আশিকুর রহমান খান পেশায় একজন ঠিকাদার। তাঁর পরিচয়পত্রটি প্রাইভেট কারের ভেতর পাওয়া গেছে। গাড়িটির ভেতর থেকে মদের বোতলও উদ্ধার করা হয়। কোরবানির ঈদের দিন রাত দেড়টার দিকে নাসিফ তাঁর এক বন্ধুর সঙ্গে গাড়িটি নিয়ে বের হন। এরপর গাড়ি ছাড়াই ফিরে আসেন। তদন্তের অগ্রগতি সম্পর্কে আতাউর রহমানের ছেলে মো. রায়হান প্রথম আলোকে বলেন, ‘ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত, এ ব্যাপারে পুলিশ আমাকে কিছু জানায়নি। জানলেও কি বিচার পাব?’

Comments

Comments!

 গাড়িটি আশিকুরের, ঘটনার সময় ছিলেন ছেলে নাসিফAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

গাড়িটি আশিকুরের, ঘটনার সময় ছিলেন ছেলে নাসিফ

Thursday, September 15, 2016 11:29 pm | আপডেটঃ September 15, 2016 11:49 PM
b6dd17208a7021e1ddaf120b6f875b2f-untitled-1

রাজধানীর শেওড়াপাড়ায় গতকাল বুধবার যে প্রাইভেট কারের চাপায় আতাউর রহমান ও রওশন আরা দম্পতি প্রাণ হারিয়েছেন, এর মালিক আশিকুর রহমান খান নামের এক ব্যক্তি। তবে ঘটনার সময় গাড়িতে ছিলেন তাঁর ছেলে নাসিফ খান ওরফে অনি। এ সময় ওই প্রাইভেট কারে নাসিফের সঙ্গে তাঁর কয়েকজন বন্ধু ছিলেন। গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়ার পর নাসিফ তাঁর শাহীনবাগের বাসায় ফেরেন। ঘণ্টা দুয়েক পর মা-বাবার সঙ্গে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে বাড়ি ছাড়েন তিনি।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের নাম প্রকাশ করছে না পুলিশ। তদন্তে অগ্রগতির খবরও জানেন না আতাউর রহমানের ছেলে মো. রায়হান। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামীম শিকদার প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা সবকিছুরই সন্ধান পেয়েছি। এখন ধরার অপেক্ষায়। তদন্তের স্বার্থে এর চেয়ে কিছু বলা যাবে না।’
জানা গেছে, গতকাল সকাল ৬টা ৯ মিনিটে শেওড়াপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে স্ত্রী রওশন আরার সঙ্গে বের হন আতাউর রহমান। মোহাম্মদপুরে মেয়ের বাসায় যাচ্ছিলেন তাঁরা। শেওড়াপাড়া বাসস্ট্যান্ডসংলগ্ন ফুটপাতে তাঁরা দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় দ্রুতগতির একটি প্রাইভেট কার (ঢাকা মেট্রো গ ২১-৮৫৭১) তাঁদের ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে মারা যান আতাউর রহমান ও রওশন আরা। দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া গাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন যাত্রীরা। তবে গাড়িটি কে চালাচ্ছিলেন এবং কতজন গাড়িতে ছিলেন, এ ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সকাল সাড়ে ছয়টায় দিকে নাসিফ তাঁর শাহীনবাগের বাসা ফেরেন। ঘণ্টা দুয়েক পর মা-বাবার সঙ্গে বাসা ছাড়েন তিনি।
প্রাইভেট কারের নম্বর। ছবি: প্রথম আলোবাংলাদেশ রোড অ্যান্ড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) সূত্রে জানা গেছে, যে প্রাইভেট কারের চাপায় দুজন মারা গেছেন, এটি ২০০৮ সালে রেজিস্ট্রেশন করা হয়। এরপর লিখিতভাবে দুবার মালিকানা পরিবর্তন হয় গাড়িটির। সবশেষ মালিক ছিলেন হাসান হায়দার। রেজিস্ট্রেশন-প্রক্রিয়া শেষ না হলেও তাঁর কাছ থেকে গাড়িটি নাঈম নামের এক ব্যক্তি কেনেন, যিনি পুরোনো গাড়ি কেনাবেচার ব্যবসা করেন। হাসান হায়দার প্রথম আলোকে বলেন, নাইমের কাছ থেকে গাড়িটি কেনেন আশিকুর রহমান খান।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আশিকুর রহমান খান পেশায় একজন ঠিকাদার। তাঁর পরিচয়পত্রটি প্রাইভেট কারের ভেতর পাওয়া গেছে। গাড়িটির ভেতর থেকে মদের বোতলও উদ্ধার করা হয়। কোরবানির ঈদের দিন রাত দেড়টার দিকে নাসিফ তাঁর এক বন্ধুর সঙ্গে গাড়িটি নিয়ে বের হন। এরপর গাড়ি ছাড়াই ফিরে আসেন।
তদন্তের অগ্রগতি সম্পর্কে আতাউর রহমানের ছেলে মো. রায়হান প্রথম আলোকে বলেন, ‘ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত, এ ব্যাপারে পুলিশ আমাকে কিছু জানায়নি। জানলেও কি বিচার পাব?’

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X