সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৭:৩৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, October 30, 2017 9:47 pm
A- A A+ Print

‘গাড়িবহরে হামলার নির্দেশদাতা ধর্মপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও আ.লীগ নেতা শাহাদাত’

1509369124

চট্টগ্রাম: ইন্টারনেটে আসা অডিও টেপে খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার নির্দেশ দিতে যার কণ্ঠ শোনা গেছে, তা নিজের নয় বলে দাবি করেছেন চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সভাপতি শাহাদাত হোসেন। সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে শাহাদাত বলেন, অডিও টেপের ওই কণ্ঠটি ফেনীর ধর্মপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা শাহাদাত হোসেন শাকার। চট্টগ্রাম নগর বিএনপি সভাপতি বলেন, “গণমাধ্যমে এসেছে ওই হামলার মূল দায়িত্বে ছিলেন ফেনীর শর্শদি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জানে আলম ভুঁইয়া এবং ধর্মপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন শাকা। ওই শাহাদাতকে আমি শাহাদাত বলে চালিয়ে দিল!” কক্সবাজার যাওয়ার পথে শনিবার ফেনীতে মহাসড়কে একদল যুবক বিএনপি চেয়ারপারসনের গাড়িবহরে হামলা চালায়। খালেদার গাড়ি রক্ষা পেলেও ক্ষতিগ্রস্ত হয় বহরে থাকা সাংবাদিকদেরসহ অন্তত ২০টি গাড়ি। সেই হামলায় ৫ সাংবাদিকসহ আহত হন অন্তত অর্ধশত ব্যক্তি। ওই হামলার জন্য বিএনপি- ফেনীর আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের দায়ী করছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের দাবি, বিএনপি হামলার এই ঘটনা সাজিয়েছে। পাল্টাপাল্টি অভিযোগের মধ্যেই রোববার রাতে একটি অনলাইন সংবাদমাধ্যমে একটি অডিও টেপ প্রকাশ করা হয়, যাতে খালেদার গাড়িবহরে হামলার নির্দেশ দিতে শোনা যায়। ওই প্রতিবেদনে কণ্ঠটি ‘শাহাদাত হোসেনের’ উল্লেখ করার প্রতিক্রিয়ায় ‘মিথ্যা, অবাস্তব ও ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশনের প্রতিবাদে’ সংবাদ সম্মেলনে আসেন বিএনপি নেতা শাহাদাত। তিনি বলেন, “গত রাত ২টার দিকে একটি অনলাইনে একটি খবরসহ অডিও ছাড়া হয়। সেখানে লিখে দিয়েছে আমার নির্দেশে না কি হয়েছে। ওই আলাপের শব্দ, কণ্ঠ, একসেন্ট কোনোটাই মিল নেই। যেখানে ঘটনা সেখানকার (নোয়াখালীর) আঞ্চলিকতা রয়েছে কথায়।” “আমার ৩০ বছরের রাজনৈতিক জীবনে কাউকে গালি দিয়েও কথা বলিনি। সাংগঠনিক ও সুস্থ ধারার রাজনীতি করেছি। একজন চিকিৎসক হিসেবে সবসময় মানুষের জীবন রক্ষায় এগিয়ে গেছি,” -যোগ করেন চট্টগ্রাম নগর বিএনপি সভাপতি। হামলাকারীদের ছবি ইতোমধ্যে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আসার তথ্য তুলে ধরে শাহাদাত বলেন, “কারা জড়িত, সেটা স্পষ্ট। কাদের এজেন্ডা বাস্তবায়নে ভুয়া অডিও ছাড়া হল, সেটা তদন্ত করা উচিত। যে হামলার নির্দেশ দিয়েছে, তদন্ত করে তাকে গ্রেপ্তার ও বিচারের আওতায় আনতে হবে।” খালেদার গাড়িবহরের সাংবাদিকদের উপর হামলার বিষয়টি তুলে শাহাদাত বলেন, “এই গাড়ি বহরে হামলা নিয়ে যে ঝড় উঠেছে তাতে সরকার অত্যন্ত নাজুক অবস্থায় আছে। এর রেশেই মিডিয়ার ওপর হামলা হয়েছে। শুধু এই মিডিয়াগুলোর উপর নয়, যারাই সত্য কথা বলবে, তাদের উপরই হামলা করবে।” খালেদা জিয়ার কক্সবাজার সফর নিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বিভিন্ন বক্তব্যকে ‘হাস্যকর’ বলেও মন্তব্য করেন চট্টগ্রাম নগর বিএনপি সভাপতি শাহাদাত।

Comments

Comments!

 ‘গাড়িবহরে হামলার নির্দেশদাতা ধর্মপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও আ.লীগ নেতা শাহাদাত’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘গাড়িবহরে হামলার নির্দেশদাতা ধর্মপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও আ.লীগ নেতা শাহাদাত’

Monday, October 30, 2017 9:47 pm
1509369124

চট্টগ্রাম: ইন্টারনেটে আসা অডিও টেপে খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার নির্দেশ দিতে যার কণ্ঠ শোনা গেছে, তা নিজের নয় বলে দাবি করেছেন চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সভাপতি শাহাদাত হোসেন।

সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে শাহাদাত বলেন, অডিও টেপের ওই কণ্ঠটি ফেনীর ধর্মপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা শাহাদাত হোসেন শাকার।

চট্টগ্রাম নগর বিএনপি সভাপতি বলেন, “গণমাধ্যমে এসেছে ওই হামলার মূল দায়িত্বে ছিলেন ফেনীর শর্শদি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জানে আলম ভুঁইয়া এবং ধর্মপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন শাকা। ওই শাহাদাতকে আমি শাহাদাত বলে চালিয়ে দিল!”

কক্সবাজার যাওয়ার পথে শনিবার ফেনীতে মহাসড়কে একদল যুবক বিএনপি চেয়ারপারসনের গাড়িবহরে হামলা চালায়। খালেদার গাড়ি রক্ষা পেলেও ক্ষতিগ্রস্ত হয় বহরে থাকা সাংবাদিকদেরসহ অন্তত ২০টি গাড়ি। সেই হামলায় ৫ সাংবাদিকসহ আহত হন অন্তত অর্ধশত ব্যক্তি।

ওই হামলার জন্য বিএনপি- ফেনীর আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের দায়ী করছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের দাবি, বিএনপি হামলার এই ঘটনা সাজিয়েছে।

পাল্টাপাল্টি অভিযোগের মধ্যেই রোববার রাতে একটি অনলাইন সংবাদমাধ্যমে একটি অডিও টেপ প্রকাশ করা হয়, যাতে খালেদার গাড়িবহরে হামলার নির্দেশ দিতে শোনা যায়।

ওই প্রতিবেদনে কণ্ঠটি ‘শাহাদাত হোসেনের’ উল্লেখ করার প্রতিক্রিয়ায় ‘মিথ্যা, অবাস্তব ও ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশনের প্রতিবাদে’ সংবাদ সম্মেলনে আসেন বিএনপি নেতা শাহাদাত।

তিনি বলেন, “গত রাত ২টার দিকে একটি অনলাইনে একটি খবরসহ অডিও ছাড়া হয়। সেখানে লিখে দিয়েছে আমার নির্দেশে না কি হয়েছে। ওই আলাপের শব্দ, কণ্ঠ, একসেন্ট কোনোটাই মিল নেই। যেখানে ঘটনা সেখানকার (নোয়াখালীর) আঞ্চলিকতা রয়েছে কথায়।”

“আমার ৩০ বছরের রাজনৈতিক জীবনে কাউকে গালি দিয়েও কথা বলিনি। সাংগঠনিক ও সুস্থ ধারার রাজনীতি করেছি। একজন চিকিৎসক হিসেবে সবসময় মানুষের জীবন রক্ষায় এগিয়ে গেছি,” -যোগ করেন চট্টগ্রাম নগর বিএনপি সভাপতি।

হামলাকারীদের ছবি ইতোমধ্যে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আসার তথ্য তুলে ধরে শাহাদাত বলেন, “কারা জড়িত, সেটা স্পষ্ট। কাদের এজেন্ডা বাস্তবায়নে ভুয়া অডিও ছাড়া হল, সেটা তদন্ত করা উচিত। যে হামলার নির্দেশ দিয়েছে, তদন্ত করে তাকে গ্রেপ্তার ও বিচারের আওতায় আনতে হবে।”

খালেদার গাড়িবহরের সাংবাদিকদের উপর হামলার বিষয়টি তুলে শাহাদাত বলেন, “এই গাড়ি বহরে হামলা নিয়ে যে ঝড় উঠেছে তাতে সরকার অত্যন্ত নাজুক অবস্থায় আছে। এর রেশেই মিডিয়ার ওপর হামলা হয়েছে। শুধু এই মিডিয়াগুলোর উপর নয়, যারাই সত্য কথা বলবে, তাদের উপরই হামলা করবে।”

খালেদা জিয়ার কক্সবাজার সফর নিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বিভিন্ন বক্তব্যকে ‘হাস্যকর’ বলেও মন্তব্য করেন চট্টগ্রাম নগর বিএনপি সভাপতি শাহাদাত।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X