মঙ্গলবার, ২০শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৮ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:০৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, September 7, 2016 12:11 am
A- A A+ Print

গুলশানে জঙ্গি আতঙ্কের পর জানা গেল চুরির খবর

8

সাঁজোয়া যান ও ফায়ার ব্রিগেডের গাড়ি নিয়ে এসে ঢাকার গুলশানের এক ভবন প্রায় তিন ঘণ্টা ঘেরাও করে রাখার পর ভেতরে তল্লাশি চালিয়ে চুরির খবর দিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। মঙ্গলবার সকালে গুলশান-১ নম্বর সেকশনের বীর উত্তম মীর শওকত আলী সড়কের ৫১ নম্বর হোল্ডিংয়ে এ ঘটনা ঘটে। সাত তলা ওই ভবনের নিচতলায় কয়েকটি ব‌্যাংকের এটিএম বুথ ও ওপরে ওঠার সিঁড়ি। এক পাশে দোতলা ও তৃতীয় তলায় এলজি-বাটারফ্লাইয়ের শো রুম। অন‌্যপাশের দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায় এনসিসি ব‌্যাংকের কার্যালয়। চতুর্থ তলায় ‘লি ছয় শিয়ং হাউজ’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের অফিস এবং একপাশে একটি বিউটি পার্লার। পঞ্চম তলায় নেক্সিম নামের একটি তথ‌্য-প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান এবং ষষ্ঠ তলায় ইউনিরয়‌্যাল সিকিউরিটিজের কার্যালয়। সপ্তম তলা খালি। পিঠে ব‌্যাগ নিয়ে কয়েকজন তরুণ জোর করে ওই ভবনে ঢুকেছে- এমন খবর পেয়ে সকাল ৯টার পর বিপুল সংখ‌্যক পুলিশ ওই এলাকা ঘিরে ফেললে শুরু হয় আতঙ্ক আর নানা গুঞ্জন। দুই মাস আগের গুলশান হামলার অভিজ্ঞতা মাথায় রেখে ব‌্যাপক প্রস্তুতি নিয়ে পুলিশ, ব‌্যাব ও সোয়াট সদস‌্যরা সেখানে উপস্থিত হলে নতুন কোনো সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটছে বলে ধারণা তৈরি হয় স্থানীয়দের মধ‌্যে।
ঘণ্টা তিনেক পর ভেতরে তল্লাশি শেষ করে বেরিয়ে এসে অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মুহম্মদ মারুফ হাসান সাংবাদিকদের বলেন, ভেতরে কাউকে পাওয়া যায়নি। কাউকে আটকও করা যায়নি। “আমরা দুটো ব‌্যাগ পেয়েছি। তারা চুরির উদ্দেশ‌্য নিয়ে এসেছিল বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি আমরা। ব‌্যাগে কী আছে তা পরীক্ষার জন‌্য বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটকে খবর দেওয়া হয়েছে।” পরে পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট এসে ওই ব‌্যাগে পায় মোবাইল ফোন। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সেখান থেকে সরে যান আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অধিকাংশ সদস‌্য। ঢাকা মহানগর পুলিশের গুলশান জোনের সহকারী কমিশনার রফিকুল ইসলাম বিডনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “দুটি ব‌্যাগে ১৭টি মোবাইল ফোন পাওয়া গেছে। মনে হচ্ছে, চোরেরা পেছন দিক দিয়ে পাঁচ তলার একটি জানালার গ্রিল কেটে ঢুকেছিল। সকালে তারা নিচতলা দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করলে দারোয়ান দেখে ফেলে পুলিশে খবর দেয়।”
‘কিছুই বুঝতে পারছি না’ সাত তলা ওই ভবনের ডানপাশে মোবাইল ফোন অপারেটর রবির কার্যালয়, আর বাঁ পাশে কমার্শিয়াল ব‌্যাংক অব সিলোন। অফিস শুরুর সময় গুলশান-১ নম্বর মোড়ের কাছে ব‌্যস্ত সড়কে হঠাৎ করে বিপুল সংখ‌্যক পুলিশের আনাগোনায় ওই এলাকায় চাঞ্চল‌্য তৈরি হয়। সকাল সাড়ে ৯টার পর ভবনটি ঘিরে রাখার খবর সংবাদমাধ‌্য‌মে আসতে শুরু করলে গুঞ্জনও ডালপালা মেলতে থাকে। সকাল সাড়ে ৯টার পর মোবাইল অপারেটর রবির কার্যালয় থেকে একজন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে ফোন করে বলেন, কয়েকজন লোক জোর করে এনসিসি ব‌্য‌াংকে ঢুকে পড়েছে বলে তারা শুনেছেন। এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে গুলশান থানার পরিদর্শক সালাউদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এনসিসি ব‌্যাংক নয়, ঘটনাটি ঘটেছে ওই ভবনেই এলজি শো রুমে। “তিন-চারজন যুবক দারোয়ানকে হুমকি ধামকি দিয়ে ভেতরে ঢুকে গেছে বলে আমরা খবর পেয়েছি। তারা বয়সে তরুণ, কাঁধে ব‌্যাগ আছে। পুলিশ ভবনটি ঘিরে ফেলেছে।”
গুলশান থানার এস আই সজীব রাহমান ঘটনাস্থলে আছেন জানতে পেরে ফোন করা হলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, গুলশান-১ নম্বরে এলজির শো রুমের চারপাশে অবস্থান নিয়ে আছেন তারা। তবে পরিস্থিতি তাদের কাছেও ‘স্পষ্ট নয়’। ততক্ষণে পুলিশের সাঁজোয়া যান এবং ফায়ার সার্ভিসের একটি গাড়ি এসে পড়ে ওই সড়কে। ভবনটির সামনে জমে ওঠে কৌতুহলি মানুষের ভিড়। গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার মত কোনো পরিস্থিতির তৈরি হচ্ছে কি না, সেই শঙ্কা জেগে ওঠে ওই এলাকার বিভিন্ন ভবনের অফিস ও দোকানকর্মীদের মধ‌্যে। গুলশান-১ এর উদয় টাওয়ারে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মী সনু শর্মা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “কয়েকটি টেলিভিশনে উদয় টাওয়ারের কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু আমরা শুনেছি ঘটনা ঘটেছে রবি কার্যালয়ের পাশের ভবনে। পুলিশ রাস্তা আটকায়নি। তবে মানুষ ভিড় করে আছে। ঠিক কী ঘটেছে বোঝা যাচ্ছে না।” কাছেই হুয়াওয়ে কার্যালয় থেকে একজন কর্মকর্তা টেলিফোনে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমরা কিছু বুঝতে পারছি না। প্রচুর পুলিশ এসেছে। আতঙ্ক তো একটু আছেই।”
‘পেছন দিয়ে ঢুকে সামনে দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা’ ওই ভবনের নিচতলায় ব্র্যাক ব্যাংকের এটিএম বুথের নিরাপত্তা কর্মী সবুর মোল্লা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ভোর পৌনে ৭টার দিকে তিনি দেখেন, এনসিসি ব্যাংকের নিচতলার কলাপসিবল গেইটের তালা ভেতর থেকে কাটার চেষ্টা করছে এক যুবক। “আমি ‘কে কে’ বলে চিৎকার করে উঠলে ওই যুবক ভেতরে ঢুকে গেল। তারপর গুলশান থানায় খবর দিলাম। তখন পুলিশ এসে পুরো ভবন ঘিরে ফেলল।” ভেতরে তল্লাশি শেষ করে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মুহম্মদ মারুফ হাসান বলেন, নিরাপত্তারক্ষী ভেতরে লোক দেখে খবর দিলেও খুঁজে কাউকে পাওয়া যায়নি। ওই এলাকা ঘুরে দেখা যায়, ভবনটির সামনের অংশ পরিপাটি হলেও পেছনের দিকের দেওয়ালে রঙও করা নেই। দ্বিতীয় তলা পর্যন্ত দেয়াল ঘেঁষে ঝুলছে অসংখ্য তার; তৃতীয় তলার বারান্দার গ্রিল জংধরা। কার্নিশের বিভিন্ন জায়গা দেখা গেল ভাঙা। দেয়ালের সঙ্গে একটি মইও ঠেস দিয়ে রাখতে দেখা যায়। উল্টো দিকে রাস্তার পাশে রয়েছে খাবারের টং দোকান। সকালে কড়া পুলিশি নিরাপত্তার মধ‌্যে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের দোকান খুলতে দেয়নি পুলিশ।
ভবনের পেছনের দিকে দ্বিতীয় তলা উচ্চতায় ‍এলজি বাটারফ্লাইয়ের বিলবোর্ড, পাশে এনসিসি ব্যাংকের বিলবোর্ড। পঞ্চম তলার একটি জানালায় দেখা গেল থাই গ্লাস খোলা, ভেতরে গ্রিল কাটা। ওই ভবনের পাশে কমার্শিয়াল ব‌্যাংক অব সিলোন, তারপর একটি ১৩ তলা নির্মাণাধীন ভবন যেন গায়ে গায়ে লেগে আছে। ব‌্যাংক অব সিলোনের ছাদ হয়ে এনসিসি ভবনের কার্নিশে উঠে পাইপ বেয়েই জানালার গ্রিল কেটে চোরেরা ভেতরে ঢুকেছিল বলে পুলিশের ধারণা। সকালে সামনের দিকের তালা কেটে বের হওয়ার সময় নিরাপত্তারক্ষী দেখে ফেলায় পেছন দিয়েই চোরের আবার বেরিয়ে গিয়ে থাকতে পারে বলে তারা মনে করছেন।

Comments

Comments!

 গুলশানে জঙ্গি আতঙ্কের পর জানা গেল চুরির খবরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

গুলশানে জঙ্গি আতঙ্কের পর জানা গেল চুরির খবর

Wednesday, September 7, 2016 12:11 am
8

সাঁজোয়া যান ও ফায়ার ব্রিগেডের গাড়ি নিয়ে এসে ঢাকার গুলশানের এক ভবন প্রায় তিন ঘণ্টা ঘেরাও করে রাখার পর ভেতরে তল্লাশি চালিয়ে চুরির খবর দিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

মঙ্গলবার সকালে গুলশান-১ নম্বর সেকশনের বীর উত্তম মীর শওকত আলী সড়কের ৫১ নম্বর হোল্ডিংয়ে এ ঘটনা ঘটে।

সাত তলা ওই ভবনের নিচতলায় কয়েকটি ব‌্যাংকের এটিএম বুথ ও ওপরে ওঠার সিঁড়ি। এক পাশে দোতলা ও তৃতীয় তলায় এলজি-বাটারফ্লাইয়ের শো রুম। অন‌্যপাশের দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায় এনসিসি ব‌্যাংকের কার্যালয়।

চতুর্থ তলায় ‘লি ছয় শিয়ং হাউজ’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের অফিস এবং একপাশে একটি বিউটি পার্লার। পঞ্চম তলায় নেক্সিম নামের একটি তথ‌্য-প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান এবং ষষ্ঠ তলায় ইউনিরয়‌্যাল সিকিউরিটিজের কার্যালয়। সপ্তম তলা খালি।

পিঠে ব‌্যাগ নিয়ে কয়েকজন তরুণ জোর করে ওই ভবনে ঢুকেছে- এমন খবর পেয়ে সকাল ৯টার পর বিপুল সংখ‌্যক পুলিশ ওই এলাকা ঘিরে ফেললে শুরু হয় আতঙ্ক আর নানা গুঞ্জন।

দুই মাস আগের গুলশান হামলার অভিজ্ঞতা মাথায় রেখে ব‌্যাপক প্রস্তুতি নিয়ে পুলিশ, ব‌্যাব ও সোয়াট সদস‌্যরা সেখানে উপস্থিত হলে নতুন কোনো সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটছে বলে ধারণা তৈরি হয় স্থানীয়দের মধ‌্যে।

ঘণ্টা তিনেক পর ভেতরে তল্লাশি শেষ করে বেরিয়ে এসে অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মুহম্মদ মারুফ হাসান সাংবাদিকদের বলেন, ভেতরে কাউকে পাওয়া যায়নি। কাউকে আটকও করা যায়নি।

“আমরা দুটো ব‌্যাগ পেয়েছি। তারা চুরির উদ্দেশ‌্য নিয়ে এসেছিল বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি আমরা। ব‌্যাগে কী আছে তা পরীক্ষার জন‌্য বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটকে খবর দেওয়া হয়েছে।”

পরে পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট এসে ওই ব‌্যাগে পায় মোবাইল ফোন। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সেখান থেকে সরে যান আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অধিকাংশ সদস‌্য।

ঢাকা মহানগর পুলিশের গুলশান জোনের সহকারী কমিশনার রফিকুল ইসলাম বিডনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “দুটি ব‌্যাগে ১৭টি মোবাইল ফোন পাওয়া গেছে। মনে হচ্ছে, চোরেরা পেছন দিক দিয়ে পাঁচ তলার একটি জানালার গ্রিল কেটে ঢুকেছিল। সকালে তারা নিচতলা দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করলে দারোয়ান দেখে ফেলে পুলিশে খবর দেয়।”

‘কিছুই বুঝতে পারছি না’

সাত তলা ওই ভবনের ডানপাশে মোবাইল ফোন অপারেটর রবির কার্যালয়, আর বাঁ পাশে কমার্শিয়াল ব‌্যাংক অব সিলোন।

অফিস শুরুর সময় গুলশান-১ নম্বর মোড়ের কাছে ব‌্যস্ত সড়কে হঠাৎ করে বিপুল সংখ‌্যক পুলিশের আনাগোনায় ওই এলাকায় চাঞ্চল‌্য তৈরি হয়। সকাল সাড়ে ৯টার পর ভবনটি ঘিরে রাখার খবর সংবাদমাধ‌্য‌মে আসতে শুরু করলে গুঞ্জনও ডালপালা মেলতে থাকে।

সকাল সাড়ে ৯টার পর মোবাইল অপারেটর রবির কার্যালয় থেকে একজন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে ফোন করে বলেন, কয়েকজন লোক জোর করে এনসিসি ব‌্য‌াংকে ঢুকে পড়েছে বলে তারা শুনেছেন।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে গুলশান থানার পরিদর্শক সালাউদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এনসিসি ব‌্যাংক নয়, ঘটনাটি ঘটেছে ওই ভবনেই এলজি শো রুমে।

“তিন-চারজন যুবক দারোয়ানকে হুমকি ধামকি দিয়ে ভেতরে ঢুকে গেছে বলে আমরা খবর পেয়েছি। তারা বয়সে তরুণ, কাঁধে ব‌্যাগ আছে। পুলিশ ভবনটি ঘিরে ফেলেছে।”

গুলশান থানার এস আই সজীব রাহমান ঘটনাস্থলে আছেন জানতে পেরে ফোন করা হলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, গুলশান-১ নম্বরে এলজির শো রুমের চারপাশে অবস্থান নিয়ে আছেন তারা। তবে পরিস্থিতি তাদের কাছেও ‘স্পষ্ট নয়’।

ততক্ষণে পুলিশের সাঁজোয়া যান এবং ফায়ার সার্ভিসের একটি গাড়ি এসে পড়ে ওই সড়কে। ভবনটির সামনে জমে ওঠে কৌতুহলি মানুষের ভিড়।

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার মত কোনো পরিস্থিতির তৈরি হচ্ছে কি না, সেই শঙ্কা জেগে ওঠে ওই এলাকার বিভিন্ন ভবনের অফিস ও দোকানকর্মীদের মধ‌্যে।

গুলশান-১ এর উদয় টাওয়ারে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মী সনু শর্মা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “কয়েকটি টেলিভিশনে উদয় টাওয়ারের কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু আমরা শুনেছি ঘটনা ঘটেছে রবি কার্যালয়ের পাশের ভবনে। পুলিশ রাস্তা আটকায়নি। তবে মানুষ ভিড় করে আছে। ঠিক কী ঘটেছে বোঝা যাচ্ছে না।”

কাছেই হুয়াওয়ে কার্যালয় থেকে একজন কর্মকর্তা টেলিফোনে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমরা কিছু বুঝতে পারছি না। প্রচুর পুলিশ এসেছে। আতঙ্ক তো একটু আছেই।”

‘পেছন দিয়ে ঢুকে সামনে দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা’

ওই ভবনের নিচতলায় ব্র্যাক ব্যাংকের এটিএম বুথের নিরাপত্তা কর্মী সবুর মোল্লা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ভোর পৌনে ৭টার দিকে তিনি দেখেন, এনসিসি ব্যাংকের নিচতলার কলাপসিবল গেইটের তালা ভেতর থেকে কাটার চেষ্টা করছে এক যুবক।

“আমি ‘কে কে’ বলে চিৎকার করে উঠলে ওই যুবক ভেতরে ঢুকে গেল। তারপর গুলশান থানায় খবর দিলাম। তখন পুলিশ এসে পুরো ভবন ঘিরে ফেলল।”

ভেতরে তল্লাশি শেষ করে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মুহম্মদ মারুফ হাসান বলেন, নিরাপত্তারক্ষী ভেতরে লোক দেখে খবর দিলেও খুঁজে কাউকে পাওয়া যায়নি।

ওই এলাকা ঘুরে দেখা যায়, ভবনটির সামনের অংশ পরিপাটি হলেও পেছনের দিকের দেওয়ালে রঙও করা নেই। দ্বিতীয় তলা পর্যন্ত দেয়াল ঘেঁষে ঝুলছে অসংখ্য তার; তৃতীয় তলার বারান্দার গ্রিল জংধরা। কার্নিশের বিভিন্ন জায়গা দেখা গেল ভাঙা। দেয়ালের সঙ্গে একটি মইও ঠেস দিয়ে রাখতে দেখা যায়।

উল্টো দিকে রাস্তার পাশে রয়েছে খাবারের টং দোকান। সকালে কড়া পুলিশি নিরাপত্তার মধ‌্যে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের দোকান খুলতে দেয়নি পুলিশ।

ভবনের পেছনের দিকে দ্বিতীয় তলা উচ্চতায় ‍এলজি বাটারফ্লাইয়ের বিলবোর্ড, পাশে এনসিসি ব্যাংকের বিলবোর্ড। পঞ্চম তলার একটি জানালায় দেখা গেল থাই গ্লাস খোলা, ভেতরে গ্রিল কাটা।

ওই ভবনের পাশে কমার্শিয়াল ব‌্যাংক অব সিলোন, তারপর একটি ১৩ তলা নির্মাণাধীন ভবন যেন গায়ে গায়ে লেগে আছে।

ব‌্যাংক অব সিলোনের ছাদ হয়ে এনসিসি ভবনের কার্নিশে উঠে পাইপ বেয়েই জানালার গ্রিল কেটে চোরেরা ভেতরে ঢুকেছিল বলে পুলিশের ধারণা।

সকালে সামনের দিকের তালা কেটে বের হওয়ার সময় নিরাপত্তারক্ষী দেখে ফেলায় পেছন দিয়েই চোরের আবার বেরিয়ে গিয়ে থাকতে পারে বলে তারা মনে করছেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X