শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১০:১৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, July 4, 2017 8:48 pm
A- A A+ Print

গুলশান হামলায় নিহতদের পরিবারকে সহায়তায় অর্থ ছাড়

3

আর্থিক সহযোগিতা পাচ্ছেন গুলশানের হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় নিহতদের পরিবারের সদস্যরা। সোমবার অর্থ বিভাগ থেকে নিহতদের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণের অর্থ ছাড় হয়েছে। তবে আনুষঙ্গিক কাজ শেষে ক্ষতিগ্রস্তদের হাতে ক্ষতিপূরণের অর্থ তুলে দিতে আরো কিছু সময় লাগবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত প্রতি পরিবারের জন্য ১৫ হাজার ইউরো করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সে হিসেবে নিহত ২০ জনের পরিবারের জন্য মোট ৩ লাখ ইউরো প্রয়োজন হবে। প্রথমে ইতালীয় ৯ নাগরিকের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের অর্থ দেওয়া হবে। পর্যায়ক্রমে নিহত অন্যদের পরিবারও ক্ষতিপূরণের অর্থ পাবেন বলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে। সূত্র জানায়, এর আগে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে নিহত ইতালীয়দের পরিবার থেকে সরকারের কাছে ক্ষতিপূরণের দাবি করা হয়েছিল। সরকার যে ক্ষতিপূরণ দিচ্ছে তার চেয়ে অনেক বেশি দাবি ছিল তাদের। তবে তাদের দাবির পরিমাণ উল্লেখ করেনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই সূত্র। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, গুলশানে জঙ্গি হামলার ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রথমে শুধু নিহত ৯ ইতালীয় নাগরিকের পরিবারকে ১ লাখ ৩৫ হাজার ইউরোর সমপরিমাণ ১ কোটি ২৩ লাখ টাকা দেওয়ার সুপারিশ করেছিল। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনও নিয়েছিল। পরে বিষয়টি অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টিগোচর হলে তিনি এ সিদ্ধান্তকে বৈষম্যমূলক উল্লেখ করে এতে আপত্তি জানান। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমার প্রস্তাব হবে, এই ক্ষতিপূরণ সব ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে দেওয়া হবে এবং এই ব্যয় সরকারি কোষাগার থেকে হবে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার যে কোনো দেশেরই (বাংলাদেশিসহ) হোক না কেন তারা সবাই এই সহায়তা পাবেন।’ অর্থমন্ত্রী প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন। বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিগোচর করলে তিনি অর্থমন্ত্রীর প্রস্তাবের সঙ্গে সহমত পোষণ করেন এবং জঙ্গি হামলায় নিহত সবার পরিবারকে আর্থিক সুবিধা দেওয়ার নির্দেশ দেন। এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর দেওয়া এক নোটে প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন, ‘মাননীয় অর্থমন্ত্রীর প্রস্তাবের সঙ্গে একমত পোষণ করি। যারা হামলার শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন, তারা যে দেশেরই হোক, সকলকে আমরা সহায়তা করব।’ প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশের ভিত্তিতে অর্থ মন্ত্রণালয় আবার নতুন করে বরাদ্দ দেয়। গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে গত বছরের ১ জুলাই রাতে জঙ্গিরা ২০ জিম্মিকে হত্যা করে। এদের মধ্যে ৯ জন ইতালিয়ান, ৭ জন জাপানি, ৩ জন বাংলাদেশি এবং ১ জন ভারতীয়। এ ছাড়া সন্ত্রাসীদের হামলায় দুজন পুলিশও প্রাণ হারান। সব নিহতের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। প্রথমে শুধু নিহত নয় ইতালীয় নাগরিকের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছিল। এতে ব্যয় ধরা হয়েছিল ১ লাখ ৩৫ হাজার ইউরো (প্রায় ১ কোটি ২৩ লাখ টাকা)। সূত্র জানায়, অপ্রত্যাশিত খাতে এ পরিমাণ অর্থ না থাকায় অর্থ বিভাগ জননিরাপত্তা বিভাগকে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে তা জোগান দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত বিষয়টিতে আপত্তি জানান অর্থমন্ত্রী। তিনি এক নোটে লিখেন, ‘স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নিল যে হলি আর্টিজানে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ইতালীয়দের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। তাদের মনেই হলো না যে এই সুবিধা সব ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে দেওয়া উচিত। এ বিষয়ে জাপান সফরকালে কানাঘুষা শুনতে পাই যে, এরকম একটি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এটি তখনই একটি বৈষম্যমূলক পদক্ষেপের নিন্দার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়।’ গত ১৪ মে অর্থমন্ত্রীর দেওয়া নোটের সঙ্গে একমত পোষণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একই দিন প্রস্তাবে সম্মতি জানান এবং তাতে অনুমোদন দেন। ওই দিন তিনি অপর নোটে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে নিহত সব পরিবারকে আর্থিক সুবিধা দেওয়ার নির্দেশ দেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে অর্থমন্ত্রী এ ব্যাপারে  ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। সোমবার সে অর্থ ছাড় হয়েছে।

Comments

Comments!

 গুলশান হামলায় নিহতদের পরিবারকে সহায়তায় অর্থ ছাড়AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

গুলশান হামলায় নিহতদের পরিবারকে সহায়তায় অর্থ ছাড়

Tuesday, July 4, 2017 8:48 pm
3

আর্থিক সহযোগিতা পাচ্ছেন গুলশানের হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় নিহতদের পরিবারের সদস্যরা।

সোমবার অর্থ বিভাগ থেকে নিহতদের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণের অর্থ ছাড় হয়েছে। তবে আনুষঙ্গিক কাজ শেষে ক্ষতিগ্রস্তদের হাতে ক্ষতিপূরণের অর্থ তুলে দিতে আরো কিছু সময় লাগবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত প্রতি পরিবারের জন্য ১৫ হাজার ইউরো করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সে হিসেবে নিহত ২০ জনের পরিবারের জন্য মোট ৩ লাখ ইউরো প্রয়োজন হবে। প্রথমে ইতালীয় ৯ নাগরিকের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের অর্থ দেওয়া হবে। পর্যায়ক্রমে নিহত অন্যদের পরিবারও ক্ষতিপূরণের অর্থ পাবেন বলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে।

সূত্র জানায়, এর আগে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে নিহত ইতালীয়দের পরিবার থেকে সরকারের কাছে ক্ষতিপূরণের দাবি করা হয়েছিল। সরকার যে ক্ষতিপূরণ দিচ্ছে তার চেয়ে অনেক বেশি দাবি ছিল তাদের। তবে তাদের দাবির পরিমাণ উল্লেখ করেনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই সূত্র।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, গুলশানে জঙ্গি হামলার ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রথমে শুধু নিহত ৯ ইতালীয় নাগরিকের পরিবারকে ১ লাখ ৩৫ হাজার ইউরোর সমপরিমাণ ১ কোটি ২৩ লাখ টাকা দেওয়ার সুপারিশ করেছিল। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনও নিয়েছিল। পরে বিষয়টি অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টিগোচর হলে তিনি এ সিদ্ধান্তকে বৈষম্যমূলক উল্লেখ করে এতে আপত্তি জানান।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমার প্রস্তাব হবে, এই ক্ষতিপূরণ সব ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে দেওয়া হবে এবং এই ব্যয় সরকারি কোষাগার থেকে হবে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার যে কোনো দেশেরই (বাংলাদেশিসহ) হোক না কেন তারা সবাই এই সহায়তা পাবেন।’ অর্থমন্ত্রী প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন।

বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিগোচর করলে তিনি অর্থমন্ত্রীর প্রস্তাবের সঙ্গে সহমত পোষণ করেন এবং জঙ্গি হামলায় নিহত সবার পরিবারকে আর্থিক সুবিধা দেওয়ার নির্দেশ দেন। এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর দেওয়া এক নোটে প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন, ‘মাননীয় অর্থমন্ত্রীর প্রস্তাবের সঙ্গে একমত পোষণ করি। যারা হামলার শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন, তারা যে দেশেরই হোক, সকলকে আমরা সহায়তা করব।’ প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশের ভিত্তিতে অর্থ মন্ত্রণালয় আবার নতুন করে বরাদ্দ দেয়।

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে গত বছরের ১ জুলাই রাতে জঙ্গিরা ২০ জিম্মিকে হত্যা করে। এদের মধ্যে ৯ জন ইতালিয়ান, ৭ জন জাপানি, ৩ জন বাংলাদেশি এবং ১ জন ভারতীয়। এ ছাড়া সন্ত্রাসীদের হামলায় দুজন পুলিশও প্রাণ হারান। সব নিহতের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। প্রথমে শুধু নিহত নয় ইতালীয় নাগরিকের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছিল। এতে ব্যয় ধরা হয়েছিল ১ লাখ ৩৫ হাজার ইউরো (প্রায় ১ কোটি ২৩ লাখ টাকা)।

সূত্র জানায়, অপ্রত্যাশিত খাতে এ পরিমাণ অর্থ না থাকায় অর্থ বিভাগ জননিরাপত্তা বিভাগকে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে তা জোগান দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত বিষয়টিতে আপত্তি জানান অর্থমন্ত্রী। তিনি এক নোটে লিখেন, ‘স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নিল যে হলি আর্টিজানে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ইতালীয়দের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। তাদের মনেই হলো না যে এই সুবিধা সব ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে দেওয়া উচিত। এ বিষয়ে জাপান সফরকালে কানাঘুষা শুনতে পাই যে, এরকম একটি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এটি তখনই একটি বৈষম্যমূলক পদক্ষেপের নিন্দার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়।’

গত ১৪ মে অর্থমন্ত্রীর দেওয়া নোটের সঙ্গে একমত পোষণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একই দিন প্রস্তাবে সম্মতি জানান এবং তাতে অনুমোদন দেন। ওই দিন তিনি অপর নোটে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে নিহত সব পরিবারকে আর্থিক সুবিধা দেওয়ার নির্দেশ দেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে অর্থমন্ত্রী এ ব্যাপারে  ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। সোমবার সে অর্থ ছাড় হয়েছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X