বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১:০৫
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, January 1, 2017 9:19 pm
A- A A+ Print

গ্রামীণ ব্যাংককে মূল ধারায় ফেরানোর উদ্যোগ নেয়া হবে: মুহিত

165381_1

ঢাকা: গ্রামীণ ব্যাংককে নতুন ভূমিকায় পুনরুজ্জীবিত করতে কাজ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেন,এ লক্ষ্যে গ্রামীণ ব্যাংকের নামে চলা মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করতে সরকারের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেয়া হবে। রবিবার অর্থমন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ব্যাংক ও আর্থিক বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঙ্গে নতুন বছরের শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, ৮২ সালে আমি যখন প্রথম মন্ত্রী হই, তখন এটা ৪০ শতাংশের বেশি ছিল। যে জায়গায় এখন এটা ৮-৯-১০ শতাংশ হয়। আরো কমানো উচিৎ। আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, যখন গ্রামীণ ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করা হয়, তখন দুটি উদ্দেশ্য ছিল। একটি হলো ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীকে ঋণ দেয়া এবং তাদের ঋণ ফেরত দেয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা। এখন এটি শতভাগ সফল। মানুষ ঋণ নেয় এবং তা ফেরতও দেয়। তাই গ্রামীণ ব্যাংক পরিচালনার ক্ষেত্রে আমি নতুন করে ভূমিকা সৃষ্টি করতে চাই। নতুন বছর কেমন যাবে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গত বছরের মতো নতুন বছরও ভালো যাবে। তবে নতুন বছরে আমাদের চ্যালেঞ্জ বিনিয়োগ বাড়ানো। এ বছরে ষষ্ঠ পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনাসহ সব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া একই গতিতে থাকবে। বছর শেষ ও নতুন বছর উদযাপন করতে না পারার হতাশা প্রকাশ করে মুহিত বলেন, আমাদের দুর্ভাগ্য আমরা ইয়ার এন্ডিং উদযাপন করতে পারি না। গতকাল রাত সাড়ে আটটার দিকে মনে হয়েছে শহর যেন মৃত। মানুষ ঘরে চলে গেছে। গাড়িঘোড়া চলছে না। নিরাপত্তা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়; কিন্তু সেটিকে কাটিয়ে উঠে আমরা যদি সফলভাবে বছর উদযাপন করতে পারতাম তবে ভালো হতো। অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে জটিল কিছু দেখছি না বলেও তিনি মন্তব্য করেন।
 

Comments

Comments!

 গ্রামীণ ব্যাংককে মূল ধারায় ফেরানোর উদ্যোগ নেয়া হবে: মুহিতAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

গ্রামীণ ব্যাংককে মূল ধারায় ফেরানোর উদ্যোগ নেয়া হবে: মুহিত

Sunday, January 1, 2017 9:19 pm
165381_1

ঢাকা: গ্রামীণ ব্যাংককে নতুন ভূমিকায় পুনরুজ্জীবিত করতে কাজ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেন,এ লক্ষ্যে গ্রামীণ ব্যাংকের নামে চলা মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করতে সরকারের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেয়া হবে।

রবিবার অর্থমন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ব্যাংক ও আর্থিক বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঙ্গে নতুন বছরের শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ৮২ সালে আমি যখন প্রথম মন্ত্রী হই, তখন এটা ৪০ শতাংশের বেশি ছিল। যে জায়গায় এখন এটা ৮-৯-১০ শতাংশ হয়। আরো কমানো উচিৎ।

আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, যখন গ্রামীণ ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করা হয়, তখন দুটি উদ্দেশ্য ছিল। একটি হলো ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীকে ঋণ দেয়া এবং তাদের ঋণ ফেরত দেয়ার অভ্যাস গড়ে তোলা। এখন এটি শতভাগ সফল। মানুষ ঋণ নেয় এবং তা ফেরতও দেয়। তাই গ্রামীণ ব্যাংক পরিচালনার ক্ষেত্রে আমি নতুন করে ভূমিকা সৃষ্টি করতে চাই।

নতুন বছর কেমন যাবে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গত বছরের মতো নতুন বছরও ভালো যাবে। তবে নতুন বছরে আমাদের চ্যালেঞ্জ বিনিয়োগ বাড়ানো। এ বছরে ষষ্ঠ পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনাসহ সব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া একই গতিতে থাকবে।

বছর শেষ ও নতুন বছর উদযাপন করতে না পারার হতাশা প্রকাশ করে মুহিত বলেন, আমাদের দুর্ভাগ্য আমরা ইয়ার এন্ডিং উদযাপন করতে পারি না। গতকাল রাত সাড়ে আটটার দিকে মনে হয়েছে শহর যেন মৃত। মানুষ ঘরে চলে গেছে। গাড়িঘোড়া চলছে না। নিরাপত্তা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়; কিন্তু সেটিকে কাটিয়ে উঠে আমরা যদি সফলভাবে বছর উদযাপন করতে পারতাম তবে ভালো হতো।

অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে জটিল কিছু দেখছি না বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X