শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৮:৪১
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Tuesday, October 25, 2016 2:35 pm
A- A A+ Print

ঘুষ চেয়ে না পেয়ে গুলি, পুলিশের অস্বীকার

253048_1

ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজার এলাকার ধোপাদিতে পুলিশের গুলিতে আহত হয়েছেন এক ট্রাকচালক। তার নাম নাসির উদ্দিন (৫০) । তিনি উপজেলার মিঠাপকুর গ্রামের সামসুদ্দিনের ছেলে। সোমবার দিনগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ নাসির ও তার পরিবারের অভিযোগ, আদালতের গ্রেফতারি আদেশে নাসিরকে আটকের পরে উপজেলার বারোবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ (আইসি) মো. নজরুল ইসলাম এক লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন । দাবি করা টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় ফাঁড়িতে তিনদিন ধরে তাকে আটকে রাখা হয়। এরপর পরিকল্পিত ভাবে তাকে গুলি করা হয়। কালীগঞ্জ থানার ওসি আমিনুল ইসলাম ও বারোবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নজরুল ইসলাম অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন । ওসি জানান, গুলিবিদ্ধ নাসির এলাকার কুখ্যাত ডাকাত। সে বারোবাজার এলাকায় একটি সড়কে ডাকাতি করার প্রস্তুতিকালে পুলিশের টহল দলের সদস্যরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় পুলিশের ওপর হামলার চেষ্টা করে ডাকাতরা। আত্মরক্ষায় পুলিশ গুলি চালায়। এসময় 'ডাকাত' নাসির গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশের এই দাবি নাকচ করে চিকিৎসাধীন নাসির জানায়, শনিবার বেলা ১২টার দিকে বাজারের জাহিদের দোকানে বসা ছিল সে । এ সময় বারোবাজার পুলিশ ফাঁড়ির দারোগা নজরুল ইসলাম তাকে আটক করে নিয়ে যায় । এর আগের দিন শুক্রবার তাকে আরেক দফায় ধরে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে একই ফাঁড়ির এএসআই হিমায়েত। ওইদিন নাসির পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। তার দেয়া তথ্যমতে ২০১০ সালে দায়ের করা দুইটি মামলায় আদালতে নিয়মিত হাজির না হওয়ার কারণে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। ওই মামলায় পুলিশ তাকে আটক করেছে । পায়ে গুলি করার ঘটনার বিষয়ে নাসির জানায়, সোমবার দিবাগত রাত প্রায় ২টার দিকে বারোবাজার পুলিশ ফাঁড়ি থেকে চোখ বেঁধে তাকে ঘটনাস্থল ধোপাদি বাজারের কাছে নিয়ে যাওয়া হয় এবং গাড়ি থেকে নামিয়ে তার ডান পায়ে গুলি করা হয় । গুলিবিদ্ধ পা থেকে প্রচুর রক্ত ঝরছে বলেও জানায় সে । তবে বারোজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নজরুল ইসলাম সোমবার বিকালে স্থানীয় বাজার থেকে নাসিরকে আটক করার বিষয়টি যুগান্তরের কাছে স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, নাসিরের বিরুদ্ধে ডাকাতিসহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে । সোমবার রাত ১২টার দিকে অস্ত্র উদ্ধার করার জন্য তাকে সঙ্গে নিয়ে ধোপাদি বাজারের কাছে যাওয়ার পরে আগে থেকেই সেখানে অবস্থান নেয়া নাসিরের সহযোগীরা পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে । এ সময় পালানোর চেষ্টা করে নাসির । পুলিশ গুলি চালালে এক পায়ে গুলিবিদ্ধ হয় সে । তবে এক লাখ টাকা ঘুষ দাবির কথা অস্বীকার করেন তিনি। আহতের ছেলে তরিকুল ইসলাম, স্ত্রী কহিনুর ও পরিবারের সদস্যরা বলছেন, নাসির উদ্দিন একজন ট্রাকচালক এবং কালীগঞ্জ মটরশ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক নেতা। ডাকাতির প্রশ্নেই আসে না। বারোবাজার ফাঁড়ির পুলিশ গত শনিবার বেলা ১২টার দিকে স্থানীয় একটি দোকান থেকে আটক করে তাকে। এরপর এক লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন । সেই টাকা না দেয়ার কারণে পায়ে গুলি করা হয়েছে । ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী বলেছেন, প্রকৃত পক্ষে কি ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে । সদর হাসপাতাল সুত্র জানায়, নাসিরের পায়ের অবস্থা গুরুতর । তার ডান পায়ে গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে ।

Comments

Comments!

 ঘুষ চেয়ে না পেয়ে গুলি, পুলিশের অস্বীকারAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ঘুষ চেয়ে না পেয়ে গুলি, পুলিশের অস্বীকার

Tuesday, October 25, 2016 2:35 pm
253048_1

ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজার এলাকার ধোপাদিতে পুলিশের গুলিতে আহত হয়েছেন এক ট্রাকচালক। তার নাম নাসির উদ্দিন (৫০) । তিনি উপজেলার মিঠাপকুর গ্রামের সামসুদ্দিনের ছেলে। সোমবার দিনগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে।

গুলিবিদ্ধ নাসির ও তার পরিবারের অভিযোগ, আদালতের গ্রেফতারি আদেশে নাসিরকে আটকের পরে উপজেলার বারোবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ (আইসি) মো. নজরুল ইসলাম এক লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন । দাবি করা টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় ফাঁড়িতে তিনদিন ধরে তাকে আটকে রাখা হয়। এরপর পরিকল্পিত ভাবে তাকে গুলি করা হয়।

কালীগঞ্জ থানার ওসি আমিনুল ইসলাম ও বারোবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নজরুল ইসলাম অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ।

ওসি জানান, গুলিবিদ্ধ নাসির এলাকার কুখ্যাত ডাকাত। সে বারোবাজার এলাকায় একটি সড়কে ডাকাতি করার প্রস্তুতিকালে পুলিশের টহল দলের সদস্যরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় পুলিশের ওপর হামলার চেষ্টা করে ডাকাতরা। আত্মরক্ষায় পুলিশ গুলি চালায়। এসময় ‘ডাকাত’ নাসির গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশের এই দাবি নাকচ করে চিকিৎসাধীন নাসির জানায়, শনিবার বেলা ১২টার দিকে বাজারের জাহিদের দোকানে বসা ছিল সে । এ সময় বারোবাজার পুলিশ ফাঁড়ির দারোগা নজরুল ইসলাম তাকে আটক করে নিয়ে যায় । এর আগের দিন শুক্রবার তাকে আরেক দফায় ধরে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে একই ফাঁড়ির এএসআই হিমায়েত। ওইদিন নাসির পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

তার দেয়া তথ্যমতে ২০১০ সালে দায়ের করা দুইটি মামলায় আদালতে নিয়মিত হাজির না হওয়ার কারণে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। ওই মামলায় পুলিশ তাকে আটক করেছে ।

পায়ে গুলি করার ঘটনার বিষয়ে নাসির জানায়, সোমবার দিবাগত রাত প্রায় ২টার দিকে বারোবাজার পুলিশ ফাঁড়ি থেকে চোখ বেঁধে তাকে ঘটনাস্থল ধোপাদি বাজারের কাছে নিয়ে যাওয়া হয় এবং গাড়ি থেকে নামিয়ে তার ডান পায়ে গুলি করা হয় । গুলিবিদ্ধ পা থেকে প্রচুর রক্ত ঝরছে বলেও জানায় সে ।

তবে বারোজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নজরুল ইসলাম সোমবার বিকালে স্থানীয় বাজার থেকে নাসিরকে আটক করার বিষয়টি যুগান্তরের কাছে স্বীকার করেছেন।

তিনি জানান, নাসিরের বিরুদ্ধে ডাকাতিসহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে । সোমবার রাত ১২টার দিকে অস্ত্র উদ্ধার করার জন্য তাকে সঙ্গে নিয়ে ধোপাদি বাজারের কাছে যাওয়ার পরে আগে থেকেই সেখানে অবস্থান নেয়া নাসিরের সহযোগীরা পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে । এ সময় পালানোর চেষ্টা করে নাসির । পুলিশ গুলি চালালে এক পায়ে গুলিবিদ্ধ হয় সে ।

তবে এক লাখ টাকা ঘুষ দাবির কথা অস্বীকার করেন তিনি।

আহতের ছেলে তরিকুল ইসলাম, স্ত্রী কহিনুর ও পরিবারের সদস্যরা বলছেন, নাসির উদ্দিন একজন ট্রাকচালক এবং কালীগঞ্জ মটরশ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক নেতা। ডাকাতির প্রশ্নেই আসে না।

বারোবাজার ফাঁড়ির পুলিশ গত শনিবার বেলা ১২টার দিকে স্থানীয় একটি দোকান থেকে আটক করে তাকে। এরপর এক লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন । সেই টাকা না দেয়ার কারণে পায়ে গুলি করা হয়েছে ।

ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী বলেছেন, প্রকৃত পক্ষে কি ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে ।

সদর হাসপাতাল সুত্র জানায়, নাসিরের পায়ের অবস্থা গুরুতর । তার ডান পায়ে গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে ।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X