সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:৪০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, December 9, 2016 10:20 pm
A- A A+ Print

চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার সামিকেও এপ্রিলে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়!

চট্টগ্রামে জঙ্গি আস্তানায় বৃহস্পতিবার যে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়, তাঁদের মধ্যে ইফতিশাম আহমেদ সামিকে (২৩) নিজের ছেলে বলে দাবি করেছেন রংপুরের ব্যবসায়ী শেখ ইফতেখার আহমেদ। তাঁর দাবি, সাত মাস আগে ইফতিশামকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। রংপুর শহরের ধাপ ইঞ্জিনিয়ারপাড়া এলাকার পেট্রলপাম্প ব্যবসায়ী ইফতেখার আহমেদ। তাঁর ছেলে ইফতিশাম রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। ইফতেখার আহমেদ শুক্রবার মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, বৃহস্পতিবার টেলিভিশনে ছেলের গ্রেপ্তারের বিষয়টি দেখে তাঁকে চিনতে পারেন। তিনি বলেন, চলতি বছর ২৯ এপ্রিল দিবাগত রাতে সাদাপোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে ইফতিশামকে রাজশাহী নগরের মোন্নাফের মোড়ে নিলাভা ছাত্রাবাস থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। পরদিন সকালে খবর পেয়ে রাজশাহী ছুটে যান তিনি। কোথাও ছেলের সন্ধান না পেয়ে ওই দিনই রাজশাহী নগরের বোয়ালিয়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। এরপর থেকে পুলিশ তাঁর সন্ধান দিতে পারেনি। তিনি বলেন, ‘আমার ছেলে যেন সুষ্ঠু বিচার পায় এবং স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারে, সে বিষয়ে সরকারের সহযোগিতা কামনা করছি।’ রাজশাহী বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদত হোসেন শুক্রবার মুঠোফোনে ওই জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেন। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের আকবর শাহ থানা এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন হুজি-বির সন্দেহভাজন পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। তাঁদের কাছ থেকে অস্ত্র, গুলি, হাত গ্রেনেড ও বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধারের কথা জানানো হয়েছে। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন তাজুল ইসলাম, নাজিম উদ্দিন, আবুজার গিফারি, নূরে আলম ও ইফতিশাম আহমেদ। নূরে আলমের মা নীলফামারী শহরের উকিলের মোড় এলাকার বাসিন্দা নূর নাহার বেগম গতকালই দাবি করেন, গত ১১ এপ্রিল রাতে প্রশাসনের লোক পরিচয় দিয়ে নূরে আলমকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় কয়েকজন ব্যক্তি। এ ঘটনায় ওই সময় তিনি জিডি ও পরে মামলা করেন।

Comments

Comments!

 চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার সামিকেও এপ্রিলে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়!AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার সামিকেও এপ্রিলে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়!

Friday, December 9, 2016 10:20 pm

চট্টগ্রামে জঙ্গি আস্তানায় বৃহস্পতিবার যে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়, তাঁদের মধ্যে ইফতিশাম আহমেদ সামিকে (২৩) নিজের ছেলে বলে দাবি করেছেন রংপুরের ব্যবসায়ী শেখ ইফতেখার আহমেদ। তাঁর দাবি, সাত মাস আগে ইফতিশামকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়।

রংপুর শহরের ধাপ ইঞ্জিনিয়ারপাড়া এলাকার পেট্রলপাম্প ব্যবসায়ী ইফতেখার আহমেদ। তাঁর ছেলে ইফতিশাম রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।

ইফতেখার আহমেদ শুক্রবার মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, বৃহস্পতিবার টেলিভিশনে ছেলের গ্রেপ্তারের বিষয়টি দেখে তাঁকে চিনতে পারেন। তিনি বলেন, চলতি বছর ২৯ এপ্রিল দিবাগত রাতে সাদাপোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে ইফতিশামকে রাজশাহী নগরের মোন্নাফের মোড়ে নিলাভা ছাত্রাবাস থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। পরদিন সকালে খবর পেয়ে রাজশাহী ছুটে যান তিনি। কোথাও ছেলের সন্ধান না পেয়ে ওই দিনই রাজশাহী নগরের বোয়ালিয়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। এরপর থেকে পুলিশ তাঁর সন্ধান দিতে পারেনি। তিনি বলেন, ‘আমার ছেলে যেন সুষ্ঠু বিচার পায় এবং স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারে, সে বিষয়ে সরকারের সহযোগিতা কামনা করছি।’

রাজশাহী বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদত হোসেন শুক্রবার মুঠোফোনে ওই জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের আকবর শাহ থানা এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন হুজি-বির সন্দেহভাজন পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। তাঁদের কাছ থেকে অস্ত্র, গুলি, হাত গ্রেনেড ও বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধারের কথা জানানো হয়েছে। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন তাজুল ইসলাম, নাজিম উদ্দিন, আবুজার গিফারি, নূরে আলম ও ইফতিশাম আহমেদ।

নূরে আলমের মা নীলফামারী শহরের উকিলের মোড় এলাকার বাসিন্দা নূর নাহার বেগম গতকালই দাবি করেন, গত ১১ এপ্রিল রাতে প্রশাসনের লোক পরিচয় দিয়ে নূরে আলমকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় কয়েকজন ব্যক্তি। এ ঘটনায় ওই সময় তিনি জিডি ও পরে মামলা করেন।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X