শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:৪৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Sunday, January 15, 2017 1:11 pm
A- A A+ Print

চতুর্থ দিন শেষে ১২২ রানের লিড টাইগারদের

19

বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শনিবার ভোর সাড়ে তিনটায় শুরু হয়। গতকাল ২৯২ করা নিউজিল্যান্ড আজ চতুর্থ দিনে ব্যাট করতে নেমে ৫৩৯ রানে অলআউট হয়েছে। ফলে দ্বিতীয় ইনিংসে মাঠে নামার আগে ৫৬ রানের লিড পায় বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৫৯৫ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে চতুর্থদিনে ৫৩৯ রানে অলআউট হয় নিউজিল্যান্ড। ৫৬ রানের লিড নিয়ে খেলতে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে আজ ৬৬ রান তুলে দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ। এই রান তুলতে তিনটি উইকেট হারায় বাংলাদেশ। পঞ্চম দিনে মাঠে নামার আগে বাংলাদেশের টোটাল লিড ১২২ রান। দেখা যাক শেষ দিনে বাকি ৭ উইকেট নিয়ে কতদূর যেতে পারেন মুশফিকুর রহিমের দল।   স্কোর: বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস ৬৬/৩; আউট হয়ে ফিরে গেছেন তামিম ইকবাল ২১, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৫ ও মেহেদী হাসান মিরাজ ১ রান।   উইকেট বিলিয়ে দিলেন মিরাজও: দিনশেষে দুই রান নিতে গিয়ে নিউজিল্যান্ডকে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। মিচেল স্যান্টনারের সরাসরি হিটে নন স্ট্রাইকিং প্রান্তে রানআউট হন মিরাজ। তার আউটের মধ্য দিয়ে শেষ হয় চতুর্থ দিনের খেলা।   বোল্ড হয়ে ফিরলেন তামিম: ইনজুরিতে ইমরুল মাঠ ছাড়ার পর ছন্নছাড়া হয়ে পড়েন তামিম ইকবাল। ফলে মিচেল স্যান্টনারের একটি গুড লেন্থের বলে বোল্ড হন তামিম। মাঠ ছাড়ার আগে ৪৪ বলে ২৫ রানের ইনিংস খেলেন দেশসেরা এ ওপেনার।   দারুণ শুরুর পর ইমরুলের ইনজুরি: দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ করেন তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস। কিন্তু দলীয় ৪৬ রানের সময় রান নিতে গিয়ে পেশীতে চোট পান ইমরুল কায়েস। এরপর আর উঠে দাড়াতে পারেননি তিনি। ব্যক্তিগত ২৪ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন ইমরুল।   শেষ উইকেট তুলে নিলেন শুভাশিষ: গলার কাঁটা হিসেবে আটকে থাকা মিচেল স্যান্টনারকে ফিরিয়ে কিউইদের অলআউট করলেন শুভাশিষ রয়। তার বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৭৩ রান করেন স্যান্টনার। ফলে কিউইদের ৫৩৯ রানে অলআউট করায় ৫৬ রানের লিড পেল বাংলাদেশ।   রাব্বীর তৃতীয় শিকার ওয়াগনার: দ্বিতীয় সেশনে চা পানের বিরতির পর নিউজিল্যান্ড শিবিরে আঘাত হানেন কামরুল ইসলাম রাব্বী। ১৪০তম ওভারে তার করা শেষ বলে উইকেটরক্ষক ইমরুল কায়েসের হাতে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন নেইল ওয়াগনার। রাব্বীর তৃতীয় শিকার হওয়ার আগে ১৮ রান করেন তিনি।   দ্বিতীয় সেশনে ৯০ রানে ২ উইকেট: দ্বিতীয় সেশনে বিজে ওয়াটলিং ও মিচেল স্যান্টনারের প্রতিরোধে ৯০ রান করেছে নিউজিল্যান্ড। এই সেশনের একই ওভারে কিউই শিবিরে জোড়া আঘাত হানেন মাহমুদউল্লাহ। বল করতে এসেই একই ওভারে ওয়াটলিং ও টিম সাউদিকে সাজঘরে পাঠান তিনি।   জোড়া আঘাতে স্বস্তি ফেরালেন মাহমুদউল্লাহ: ওভারের প্রথম বলে ওয়াটলিংকে ফেরানোর পর চতুর্থ বলেই টিম সাউদিকে ফেরান মাহমুদউল্লাহ। এলবিডব্লিউর শিকার হয়ে মাত্র ১ রানেই সাজঘরে ফিরেন সাউদি। মাহমুদউল্লাহর জোড়া আঘাতে কিছুটা স্বস্তি ফেরে বাংলাদেশ শিবিরে।   প্রতিরোধ ভাঙলেন মাহমুদউল্লাহ: বিপদজনক হয়ে উঠা স্যান্টনার ও ওয়াটলিং জুটি ভাঙলেন মাহমুদউল্লাহ। বিজে ওয়াটলিংকে ইমরুল কায়েসের হাতে ক্যাচ দিলেও শুরুতে আউট দেননি আম্পায়ার। তবে রিভির কল্যাণে ওয়াটলিংয়ের (৪৯) উইকেটটি পেয়ে যান মাহমুদউল্লাহ। ওয়াটলিংয়ের আউটের ফলে স্যান্টনারের সঙ্গে তার ৭৪ রানের জুটি ভাঙে। স্বাগতিকদের প্রতিরোধ: সপ্তম উইকেটে ৫৫ রানের জুটি গড়েছেন বিজে ওয়াটলিং ও মিচেল স্যান্টনার। তাদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে দ্বিতীয় সেশনে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে কিউইরা। প্রথম সেশন: চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনে বাংলাদেশ ৩ উইকেট তুলে নিয়েছে। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ড ৩৬ ওভারে তুলেছে ১১০ রান। বল হাতে সাকিব আল হাসান ২টি ও শুভাশিষ রায় ১ উইকেট নিয়েছেন। সাজঘরে ফিরেছেন টম লাথাম (১৭৭), কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম (১৪) ও হেনরি নিকলস (৫৩)। সাকিবের দ্বিতীয় উইকেট: টম লাথাম সাকিবের সোজা বলে সুইপ খেলতে গিয়ে এলবিডাব্লিউ হলেন ব্যক্তিগত ১৭৭ রানে। ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলার পর ডাবল সেঞ্চুরির পথে ভালোই এগিয়ে যাচ্ছিলেন বাঁহাতি ওপেনার। কিন্তু সাকিবের বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ে ধরাশয়ী কিউই ওপেনার। ৩২৯ বলে ১৮ চার ও ১ ছক্কায় ১৭৭ রানের ইনিংসটি সাজান লাথাম। এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০১৪ সালে দুবাইয়ে ১৩৭ রান করেছিলেন টম লাথাম। লাথামের দুই হাজার: ১৬২ রান তুলে টেস্ট ক্রিকেটে দুই হাজার রানের মাইলফলক অতিক্রম করেছেন টম লাথাম। শুভাশিষের প্রথম উইকেট: কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের উইকেট দিয়ে টেস্ট উইকেটের খাতা খুললেন পেসার শুভাশিষ রায়। ডানহাতি এ পেসারের বলে ড্রাইভ করতে গিয়ে উইকেটের পিছনে ইমরুলের হাতে ক্যাচ দেন গ্র্যান্ডহোম। আউট হওয়ার দুই বল আগে একটি চার ও একটি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন গ্র্যান্ডহোম। ১৪ রান করেন ডানহাতি এ অলরাউন্ডার। স্লিপে কঠিন ক্যাচ ছাড়লেন মিরাজ: লেগ স্লিপে দাঁড়িয়ে হেনরি নিকলসের ক্যাচ নিতে বেগ পেতে হয়নি মেহেদী হাসান মিরাজকে। কিন্তু দুই ওভার পর তৃতীয় স্লিপে দাঁড়িয়ে টম লাথামের কঠিন ক্যাচ ছাড়লেন তরুণ তুর্কী। কামরুল ইসলাম রাব্বীর বলে ড্রাইভ করতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ দেন বাঁহাতি ওপেনার লাথাম। তৃতীয় স্লিপে দাঁড়ানো মিরাজ বাম দিকে লাফিয়েও বল তালুবন্দি করতে পারেননি। ১৫৮ রানে মিরাজের হাতে দ্বিতীয় জীবন পান লাথাম। সাকিবের আঘাত: চতুর্থ দিনে নিজের দ্বিতীয় ওভারেই সাফল্য পেলেন সাকিব আল হাসান। সাকিবের ঘূর্ণিতে বধ হাফ-সেঞ্চুরিয়ান হেনরি নিকলস। সাকিবের লেগ স্ট্যাম্পের উপরের বল লেগ সাইডে ফ্লিক করতে চেয়েছিলেন নিকলস। কিন্তু লেগ স্লিপে মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে ক্যাচ তুলে দেন ৫৩ রান করা বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। নিকলসের উইকেট তুলে নিয়ে ১৪২ রানের জুটি ভাঙলেন সাকিব। লাথামের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস: পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০১৪ সালে দুবাইয়ে ১৩৭ রান করেছিলেন টম লাথাম। রোববার এ রান টপকে যান বাঁহাতি এ ব্যাটসম্যান। এ প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত কিউই ওপেনার বাংলাদেশের বিপক্ষে করেছেন ১৪৫ রান। গতকাল ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ১৩৬ রানে অপরাজিত থাকেন লাথাম। সতর্ক শুরু: তৃতীয় দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান টম লাথাম ও হেনরি নিকলস চতুর্থ দিনের শুরু থেকেই সতর্ক ব্যাটিং করছেন। রান তোলার ক্ষেত্রে কোনো আগ্রাসন দেখাচ্ছেন না তারা। এরই মধ্যে হেনরি নিকলস হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন। দারুণ ব্যাটিং করছেন সেঞ্চুরিয়ান লাথামও। মিরাজের হাতে নতুন বল: চতুর্থ দিনের শুরুতে পুরোনো বলে ৩ ওভার বোলিং করেন বোলাররা। চতুর্থ ওভারে নতুন বল পায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয়বারের মত স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে নতুন বল। সব মিলিয়ে নিয়ম অনুযায়ী ৮০ ওভার পর নতুন বল পেল বাংলাদেশ।    

Comments

Comments!

 চতুর্থ দিন শেষে ১২২ রানের লিড টাইগারদেরAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

চতুর্থ দিন শেষে ১২২ রানের লিড টাইগারদের

Sunday, January 15, 2017 1:11 pm
19

বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শনিবার ভোর সাড়ে তিনটায় শুরু হয়। গতকাল ২৯২ করা নিউজিল্যান্ড আজ চতুর্থ দিনে ব্যাট করতে নেমে ৫৩৯ রানে অলআউট হয়েছে। ফলে দ্বিতীয় ইনিংসে মাঠে নামার আগে ৫৬ রানের লিড পায় বাংলাদেশ।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৫৯৫ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে চতুর্থদিনে ৫৩৯ রানে অলআউট হয় নিউজিল্যান্ড। ৫৬ রানের লিড নিয়ে খেলতে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে আজ ৬৬ রান তুলে দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ। এই রান তুলতে তিনটি উইকেট হারায় বাংলাদেশ। পঞ্চম দিনে মাঠে নামার আগে বাংলাদেশের টোটাল লিড ১২২ রান। দেখা যাক শেষ দিনে বাকি ৭ উইকেট নিয়ে কতদূর যেতে পারেন মুশফিকুর রহিমের দল।

 

স্কোর: বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস ৬৬/৩; আউট হয়ে ফিরে গেছেন তামিম ইকবাল ২১, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৫ ও মেহেদী হাসান মিরাজ ১ রান।

 

উইকেট বিলিয়ে দিলেন মিরাজও: দিনশেষে দুই রান নিতে গিয়ে নিউজিল্যান্ডকে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। মিচেল স্যান্টনারের সরাসরি হিটে নন স্ট্রাইকিং প্রান্তে রানআউট হন মিরাজ। তার আউটের মধ্য দিয়ে শেষ হয় চতুর্থ দিনের খেলা।

 

বোল্ড হয়ে ফিরলেন তামিম: ইনজুরিতে ইমরুল মাঠ ছাড়ার পর ছন্নছাড়া হয়ে পড়েন তামিম ইকবাল। ফলে মিচেল স্যান্টনারের একটি গুড লেন্থের বলে বোল্ড হন তামিম। মাঠ ছাড়ার আগে ৪৪ বলে ২৫ রানের ইনিংস খেলেন দেশসেরা এ ওপেনার।

 

দারুণ শুরুর পর ইমরুলের ইনজুরি: দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ করেন তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস। কিন্তু দলীয় ৪৬ রানের সময় রান নিতে গিয়ে পেশীতে চোট পান ইমরুল কায়েস। এরপর আর উঠে দাড়াতে পারেননি তিনি। ব্যক্তিগত ২৪ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন ইমরুল।

 

শেষ উইকেট তুলে নিলেন শুভাশিষ: গলার কাঁটা হিসেবে আটকে থাকা মিচেল স্যান্টনারকে ফিরিয়ে কিউইদের অলআউট করলেন শুভাশিষ রয়। তার বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৭৩ রান করেন স্যান্টনার। ফলে কিউইদের ৫৩৯ রানে অলআউট করায় ৫৬ রানের লিড পেল বাংলাদেশ।

 

রাব্বীর তৃতীয় শিকার ওয়াগনার: দ্বিতীয় সেশনে চা পানের বিরতির পর নিউজিল্যান্ড শিবিরে আঘাত হানেন কামরুল ইসলাম রাব্বী। ১৪০তম ওভারে তার করা শেষ বলে উইকেটরক্ষক ইমরুল কায়েসের হাতে ক্যাচ দিয়ে মাঠ ছাড়েন নেইল ওয়াগনার। রাব্বীর তৃতীয় শিকার হওয়ার আগে ১৮ রান করেন তিনি।

 

দ্বিতীয় সেশনে ৯০ রানে ২ উইকেট: দ্বিতীয় সেশনে বিজে ওয়াটলিং ও মিচেল স্যান্টনারের প্রতিরোধে ৯০ রান করেছে নিউজিল্যান্ড। এই সেশনের একই ওভারে কিউই শিবিরে জোড়া আঘাত হানেন মাহমুদউল্লাহ। বল করতে এসেই একই ওভারে ওয়াটলিং ও টিম সাউদিকে সাজঘরে পাঠান তিনি।

 

জোড়া আঘাতে স্বস্তি ফেরালেন মাহমুদউল্লাহ: ওভারের প্রথম বলে ওয়াটলিংকে ফেরানোর পর চতুর্থ বলেই টিম সাউদিকে ফেরান মাহমুদউল্লাহ। এলবিডব্লিউর শিকার হয়ে মাত্র ১ রানেই সাজঘরে ফিরেন সাউদি। মাহমুদউল্লাহর জোড়া আঘাতে কিছুটা স্বস্তি ফেরে বাংলাদেশ শিবিরে।

 

প্রতিরোধ ভাঙলেন মাহমুদউল্লাহ: বিপদজনক হয়ে উঠা স্যান্টনার ও ওয়াটলিং জুটি ভাঙলেন মাহমুদউল্লাহ। বিজে ওয়াটলিংকে ইমরুল কায়েসের হাতে ক্যাচ দিলেও শুরুতে আউট দেননি আম্পায়ার। তবে রিভির কল্যাণে ওয়াটলিংয়ের (৪৯) উইকেটটি পেয়ে যান মাহমুদউল্লাহ। ওয়াটলিংয়ের আউটের ফলে স্যান্টনারের সঙ্গে তার ৭৪ রানের জুটি ভাঙে।

স্বাগতিকদের প্রতিরোধ: সপ্তম উইকেটে ৫৫ রানের জুটি গড়েছেন বিজে ওয়াটলিং ও মিচেল স্যান্টনার। তাদের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে দ্বিতীয় সেশনে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে কিউইরা।

প্রথম সেশন: চতুর্থ দিনের প্রথম সেশনে বাংলাদেশ ৩ উইকেট তুলে নিয়েছে। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ড ৩৬ ওভারে তুলেছে ১১০ রান। বল হাতে সাকিব আল হাসান ২টি ও শুভাশিষ রায় ১ উইকেট নিয়েছেন। সাজঘরে ফিরেছেন টম লাথাম (১৭৭), কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম (১৪) ও হেনরি নিকলস (৫৩)।

সাকিবের দ্বিতীয় উইকেট: টম লাথাম সাকিবের সোজা বলে সুইপ খেলতে গিয়ে এলবিডাব্লিউ হলেন ব্যক্তিগত ১৭৭ রানে। ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলার পর ডাবল সেঞ্চুরির পথে ভালোই এগিয়ে যাচ্ছিলেন বাঁহাতি ওপেনার। কিন্তু সাকিবের বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ে ধরাশয়ী কিউই ওপেনার। ৩২৯ বলে ১৮ চার ও ১ ছক্কায় ১৭৭ রানের ইনিংসটি সাজান লাথাম। এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০১৪ সালে দুবাইয়ে ১৩৭ রান করেছিলেন টম লাথাম।


লাথামের দুই হাজার: ১৬২ রান তুলে টেস্ট ক্রিকেটে দুই হাজার রানের মাইলফলক অতিক্রম করেছেন টম লাথাম।

শুভাশিষের প্রথম উইকেট: কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের উইকেট দিয়ে টেস্ট উইকেটের খাতা খুললেন পেসার শুভাশিষ রায়। ডানহাতি এ পেসারের বলে ড্রাইভ করতে গিয়ে উইকেটের পিছনে ইমরুলের হাতে ক্যাচ দেন গ্র্যান্ডহোম। আউট হওয়ার দুই বল আগে একটি চার ও একটি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন গ্র্যান্ডহোম। ১৪ রান করেন ডানহাতি এ অলরাউন্ডার।

স্লিপে কঠিন ক্যাচ ছাড়লেন মিরাজ: লেগ স্লিপে দাঁড়িয়ে হেনরি নিকলসের ক্যাচ নিতে বেগ পেতে হয়নি মেহেদী হাসান মিরাজকে। কিন্তু দুই ওভার পর তৃতীয় স্লিপে দাঁড়িয়ে টম লাথামের কঠিন ক্যাচ ছাড়লেন তরুণ তুর্কী। কামরুল ইসলাম রাব্বীর বলে ড্রাইভ করতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ দেন বাঁহাতি ওপেনার লাথাম। তৃতীয় স্লিপে দাঁড়ানো মিরাজ বাম দিকে লাফিয়েও বল তালুবন্দি করতে পারেননি। ১৫৮ রানে মিরাজের হাতে দ্বিতীয় জীবন পান লাথাম।

সাকিবের আঘাত: চতুর্থ দিনে নিজের দ্বিতীয় ওভারেই সাফল্য পেলেন সাকিব আল হাসান। সাকিবের ঘূর্ণিতে বধ হাফ-সেঞ্চুরিয়ান হেনরি নিকলস। সাকিবের লেগ স্ট্যাম্পের উপরের বল লেগ সাইডে ফ্লিক করতে চেয়েছিলেন নিকলস। কিন্তু লেগ স্লিপে মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে ক্যাচ তুলে দেন ৫৩ রান করা বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। নিকলসের উইকেট তুলে নিয়ে ১৪২ রানের জুটি ভাঙলেন সাকিব।


লাথামের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস: পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০১৪ সালে দুবাইয়ে ১৩৭ রান করেছিলেন টম লাথাম। রোববার এ রান টপকে যান বাঁহাতি এ ব্যাটসম্যান। এ প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত কিউই ওপেনার বাংলাদেশের বিপক্ষে করেছেন ১৪৫ রান। গতকাল ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ১৩৬ রানে অপরাজিত থাকেন লাথাম।

সতর্ক শুরু: তৃতীয় দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান টম লাথাম ও হেনরি নিকলস চতুর্থ দিনের শুরু থেকেই সতর্ক ব্যাটিং করছেন। রান তোলার ক্ষেত্রে কোনো আগ্রাসন দেখাচ্ছেন না তারা। এরই মধ্যে হেনরি নিকলস হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন। দারুণ ব্যাটিং করছেন সেঞ্চুরিয়ান লাথামও।

মিরাজের হাতে নতুন বল: চতুর্থ দিনের শুরুতে পুরোনো বলে ৩ ওভার বোলিং করেন বোলাররা। চতুর্থ ওভারে নতুন বল পায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয়বারের মত স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে নতুন বল। সব মিলিয়ে নিয়ম অনুযায়ী ৮০ ওভার পর নতুন বল পেল বাংলাদেশ।

 

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X