বৃহস্পতিবার, ২৪শে আগস্ট, ২০১৭ ইং, ৯ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৮:৫৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Friday, May 19, 2017 1:49 pm
A- A A+ Print

চালের দাম বাড়ছেই

Rice20170519130219

পাইকারি ও খুচরা বাজারে চালের দাম ফের কেজিতে দুই থেকে তিন টাকা বেড়েছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, পাইকারি বাজারে চালের দাম বৃদ্ধির কারণে খুচরা বাজারে চালের দাম বেশি নেওয়া হচ্ছে। এদিকে দিন দিন চালের দাম নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়ার কারণে ক্ষুব্ধ ক্রেতারা। তারা বলছেন, নানা অজুহাতে নিত্যপ্রয়োজনীয় এ পণ্যের দাম বাড়ছেই। শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার, কৃষি মার্কেট, মোহাম্মদপুর বাজারসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে চালের দাম বৃদ্ধির এ চিত্র পাওয়া গেছে। মোহাম্মদপুর বাজারের চাল ব্যবসায়ী আবদুল মজিদ বলেন, ‘পাইকারি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে বস্তায় ৫০ থেকে ৬০ টাকা বেশি দিয়ে চাল কিনতে হচ্ছে। তাই চালের দাম বেশি রাখতে হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, গত সপ্তাহে যে চালের বস্তা (৫০ কেজি) ২ হাজার ৬৫০ টাকায় কিনেছি, এ সপ্তাহে সেই বস্তা কিনতে হয়েছে ২ হাজার ৭৫০ টাকায়। জিগাতলা বাজারের চাল ব্যবসায়ী হারুন মিয়া বলেন, সাধারণ মানুষের চাহিদা হচ্ছে গুটি স্বর্ণা ও পারিজাত চাল। সরকার কর আরোপ করায় ভারত থেকে একেবারে চাল আমদানি বন্ধ রয়েছে। তাই চালের দাম বেড়েছে। তিনি বলেন, ‘আটাশ চাল ৫০ কেজির বস্তা কিনতে হচ্ছে পাইকারি ২৩০০ টাকায়, যা গত সপ্তাহে কিনেছি ২ হাজার ২২০ টাকা। এখন কেজিতে যদি ২ টাকা বেশি না রাখি তাহলে আমাদেরতো কোন লাভই থাকবে না।’ বাজারে মিনিকেট চাল বিক্রি হয়েছে ৫৬-৬০ টাকা কেজি, যা গত সপ্তাহে ছিল ৫৪-৫৫ টাকা। পারিজাত বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা, গত সপ্তাহে ছিল ৪৮ টাকা, গুটি স্বর্ণা চাল ৪৭ টাকা, আটাশ চাল ৪৭-৪৯ টাকা, নাজিরশাইল ৫৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, যা গত সপ্তাহে ছিল ৫০-৫৫ টাকা কেজি। চাল কিনতে আসা নাসরিন সুলতানা নামে এক নারী জানান, বাজারের যে চরিত্র দাঁড়িয়েছে, এতে কয়েকদিন পর না খেয়েই থাকতে হবে। এভাবে চালের দাম বাড়তে থাকলে আমাদের মতো সাধারণ জনগণের অবস্থা খারাপ হবে। তিনি বলেন, ‘পরিবারের সদস্য বেশি হওয়ায় আয়ের বড় একটি অংশই চলে যায় চাল কিনতে। সেই চালের দাম যদি দফায় দফায় বাড়ছে।’

Comments

Comments!

 চালের দাম বাড়ছেইAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

চালের দাম বাড়ছেই

Friday, May 19, 2017 1:49 pm
Rice20170519130219

পাইকারি ও খুচরা বাজারে চালের দাম ফের কেজিতে দুই থেকে তিন টাকা বেড়েছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, পাইকারি বাজারে চালের দাম বৃদ্ধির কারণে খুচরা বাজারে চালের দাম বেশি নেওয়া হচ্ছে।

এদিকে দিন দিন চালের দাম নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়ার কারণে ক্ষুব্ধ ক্রেতারা। তারা বলছেন, নানা অজুহাতে নিত্যপ্রয়োজনীয় এ পণ্যের দাম বাড়ছেই। শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার, কৃষি মার্কেট, মোহাম্মদপুর বাজারসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে চালের দাম বৃদ্ধির এ চিত্র পাওয়া গেছে।

মোহাম্মদপুর বাজারের চাল ব্যবসায়ী আবদুল মজিদ বলেন, ‘পাইকারি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে বস্তায় ৫০ থেকে ৬০ টাকা বেশি দিয়ে চাল কিনতে হচ্ছে। তাই চালের দাম বেশি রাখতে হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, গত সপ্তাহে যে চালের বস্তা (৫০ কেজি) ২ হাজার ৬৫০ টাকায় কিনেছি, এ সপ্তাহে সেই বস্তা কিনতে হয়েছে ২ হাজার ৭৫০ টাকায়।

জিগাতলা বাজারের চাল ব্যবসায়ী হারুন মিয়া বলেন, সাধারণ মানুষের চাহিদা হচ্ছে গুটি স্বর্ণা ও পারিজাত চাল। সরকার কর আরোপ করায় ভারত থেকে একেবারে চাল আমদানি বন্ধ রয়েছে। তাই চালের দাম বেড়েছে।

তিনি বলেন, ‘আটাশ চাল ৫০ কেজির বস্তা কিনতে হচ্ছে পাইকারি ২৩০০ টাকায়, যা গত সপ্তাহে কিনেছি ২ হাজার ২২০ টাকা। এখন কেজিতে যদি ২ টাকা বেশি না রাখি তাহলে আমাদেরতো কোন লাভই থাকবে না।’

বাজারে মিনিকেট চাল বিক্রি হয়েছে ৫৬-৬০ টাকা কেজি, যা গত সপ্তাহে ছিল ৫৪-৫৫ টাকা। পারিজাত বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা, গত সপ্তাহে ছিল ৪৮ টাকা, গুটি স্বর্ণা চাল ৪৭ টাকা, আটাশ চাল ৪৭-৪৯ টাকা, নাজিরশাইল ৫৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, যা গত সপ্তাহে ছিল ৫০-৫৫ টাকা কেজি।

চাল কিনতে আসা নাসরিন সুলতানা নামে এক নারী জানান, বাজারের যে চরিত্র দাঁড়িয়েছে, এতে কয়েকদিন পর না খেয়েই থাকতে হবে। এভাবে চালের দাম বাড়তে থাকলে আমাদের মতো সাধারণ জনগণের অবস্থা খারাপ হবে।

তিনি বলেন, ‘পরিবারের সদস্য বেশি হওয়ায় আয়ের বড় একটি অংশই চলে যায় চাল কিনতে। সেই চালের দাম যদি দফায় দফায় বাড়ছে।’

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X