শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ১০:৫০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, November 7, 2016 10:18 am
A- A A+ Print

চীনের সেই ভয়ংকর স্কুল পথে লোহার সিড়ি

160321_1

   
ঢাকা: চলতি বছরের মে মাসের ঘটনা। চীনের আলোকচিত্রী ‘চেন জি’ বেইজিং ভিত্তিক একটি পত্রিকায় কিছু ছবি প্রকাশ করেন। সেই ছবি আলোড়ন তুলে পুরো বিশ্বে। নড়েচড়ে বসে চীনের প্রশাসনও। কারণ ছবিগুলোতে খুদে শিক্ষার্থীদের স্কুল যাত্রার যে বর্ণনা ফুটে উঠেছিলো তা এক কথায় ভয়ংকর। পড়ুয়াদের ওই স্কুল যাত্রাকে পৃথীবির সবচেয়ে ভয়ংকর ও বিপদসংকুল স্কুল যাত্রা হিসেবে আখ্যা দেয়া হয়। কারণ সিয়াচেন প্রদেশের আতুলার গ্রামের ওই শিক্ষার্থীদেরকে শুধু স্কুলে যেতে মাটি হতে ৮০০ মিটার উপর পর্যন্ত পথ পাড়ি দিতে হতো ঝুলন্ত সিড়ি মারিয়ে। এ পথ পাড়ি দিতে গিয়ে অকালে ঝড়ে গেছে ৭টি তাজা প্রাণও।
তাই প্রতিবেদন প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসেছিল চীনের প্রশাসন। তারা ওই গ্রামের শিক্ষার্থী এবং গ্রামবাসীর জন্য অপেক্ষাকৃত নিরাপদ লোহার সিড়ি নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। সেই কাজও এখন শেষের পথে। প্রশাসন আশা করছে নভেম্বরের মধ্যেই শেষ হবে এর নির্মাণ কাজ। এই সিড়ি নির্মাণে ব্যবহৃত হয়েছে প্রায় দেড় হাজার লোহার পাইপ। আর খরচ বাবদ প্রশাসনকে গুণতে হচ্ছে ১ লাখ ৫০ হাজার ডলার। প্রশাসনের এমন উদ্যোগে বেজায় খুশি আতুলার গ্রামবাসী। গ্রাম প্রধান এরের জিয়াং বলেন, সিড়ি নির্মাণের ফলে আমাদের গ্রামের শিশুদের আর ঝুঁকি নিয়ে স্কুলে যেতে হবে না। আর গ্রামবাসীও এখন থেকে বাজার সদাই আর যাতায়াতের জন্য ব্যবহার করতে পারবে এই পথ। গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী ওই গ্রামে বসবাসরত মানুষের সংখ্যা প্রায় ৪০০ জন।
 

Comments

Comments!

 চীনের সেই ভয়ংকর স্কুল পথে লোহার সিড়িAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

চীনের সেই ভয়ংকর স্কুল পথে লোহার সিড়ি

Monday, November 7, 2016 10:18 am
160321_1

 

 

ঢাকা: চলতি বছরের মে মাসের ঘটনা। চীনের আলোকচিত্রী ‘চেন জি’ বেইজিং ভিত্তিক একটি পত্রিকায় কিছু ছবি প্রকাশ করেন। সেই ছবি আলোড়ন তুলে পুরো বিশ্বে।

নড়েচড়ে বসে চীনের প্রশাসনও। কারণ ছবিগুলোতে খুদে শিক্ষার্থীদের স্কুল যাত্রার যে বর্ণনা ফুটে উঠেছিলো তা এক কথায় ভয়ংকর। পড়ুয়াদের ওই স্কুল যাত্রাকে পৃথীবির সবচেয়ে ভয়ংকর ও বিপদসংকুল স্কুল যাত্রা হিসেবে আখ্যা দেয়া হয়।

কারণ সিয়াচেন প্রদেশের আতুলার গ্রামের ওই শিক্ষার্থীদেরকে শুধু স্কুলে যেতে মাটি হতে ৮০০ মিটার উপর পর্যন্ত পথ পাড়ি দিতে হতো ঝুলন্ত সিড়ি মারিয়ে। এ পথ পাড়ি দিতে গিয়ে অকালে ঝড়ে গেছে ৭টি তাজা প্রাণও।

তাই প্রতিবেদন প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসেছিল চীনের প্রশাসন। তারা ওই গ্রামের শিক্ষার্থী এবং গ্রামবাসীর জন্য অপেক্ষাকৃত নিরাপদ লোহার সিড়ি নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। সেই কাজও এখন শেষের পথে। প্রশাসন আশা করছে নভেম্বরের মধ্যেই শেষ হবে এর নির্মাণ কাজ।

এই সিড়ি নির্মাণে ব্যবহৃত হয়েছে প্রায় দেড় হাজার লোহার পাইপ। আর খরচ বাবদ প্রশাসনকে গুণতে হচ্ছে ১ লাখ ৫০ হাজার ডলার।

প্রশাসনের এমন উদ্যোগে বেজায় খুশি আতুলার গ্রামবাসী। গ্রাম প্রধান এরের জিয়াং বলেন, সিড়ি নির্মাণের ফলে আমাদের গ্রামের শিশুদের আর ঝুঁকি নিয়ে স্কুলে যেতে হবে না। আর গ্রামবাসীও এখন থেকে বাজার সদাই আর যাতায়াতের জন্য ব্যবহার করতে পারবে এই পথ।

গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী ওই গ্রামে বসবাসরত মানুষের সংখ্যা প্রায় ৪০০ জন।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X