শনিবার, ২৭শে মে, ২০১৭ ইং, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৯:৩৭
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Thursday, April 20, 2017 7:35 pm
A- A A+ Print

‘চোরাচালান রুখতে টেকনাফ থেকে মায়ানমারে লঞ্চ সার্ভিস চালু হবে’

173022_1

চোরাচালান বন্ধে বাংলাদেশের টেকনাফ থেকে মায়ানমারের মংডুতে যাতায়াতে লঞ্চ সার্ভিস চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে জাতীয় চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের টেকনাফ থেকে মায়ানমারের মংডু শহরে যাত্রীবাহী লঞ্চ সার্ভিস চালু করা যায় কিনা সেটা আমার চিন্তা করছি। এখন শত শত পর্যটক এক দিনের জন্য আমাদের এখান থেকে অনুমতি নিয়ে মংডু যাচ্ছেন, সে রকম আবার মংডু থেকে ও আমাদের এখানে আসছেন। সেটা একটা সিস্টেমে আনার জন্য আমরা এখানে লঞ্চ সার্ভিস চালু করতে ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছি।’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এ সব জায়গায় যত্রতত্র দিয়ে গেলে চোরাচালানের যে আশঙ্কা থাকে তা যেন বন্ধ হয়। যারা আসবেন তারা আমাদের অথরিটির অর্থাৎ কাস্টমস, বিজিবির সামনে দিয়ে আসবেন। সেইভাবেই যাবেন। সেজন্যই আমারা এই ব্যবস্থাটা নিতে যাচ্ছি।’ মাদক ব্যবসার সঙ্গে যে সকল প্রভাবশালী ব্যক্তি জড়িত আছেন, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান মন্ত্রী। আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, ‘সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে রেলওয়ের মাধ্যমে চোরাই পণ্য আসছে, মাঝে মাঝে জব্দ করছি। এটা প্রতিরোধের জন্য রেল পুলিশকে আরো সক্রিয় হওয়ার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তারপরও চোরাচালান প্রতিরোধে টহল ও মোবাইল কোর্টও বাড়ানো হবে।’ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত এক লাখ ৮৫ হাজার অভিযান চালিয়ে ৮ হাজার ৬৫০ জনকে আটক করেছে। প্রায় ৭৫০ কোটি টাকার মালামাল আটক করেছে বলেও জানান মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘সংস্থাওয়ারী চোরাচালান মামলা পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, গত বছরের অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট ৯ হাজার ৮৩৪টি মামলা হয়েছে। এ পর্যন্ত ২ হাজার ৬৩৩ জন সাজা পেয়েছে।’ সীমান্তে মালামাল স্ক্যানিংয়ে বিভিন্ন সংস্থা সমন্বয় করে কাজ করবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘স্থলবন্দরগুলোতে অত্যধুনিক স্ক্যানার মেশিন বসানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছি। পর্যায়ক্রমে সীমান্তের সব স্থলবন্দরগুলোতে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপন করব।’ ‘মাদক সংক্রান্ত মামলা দ্রুত ‍নিষ্পত্তির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। মাদক ও অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে সীমান্তে তল্লাশী আরো জোরদার করা হবে’ বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। সভায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব কামাল উদ্দিন আহমেদ, আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রধানরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
 

Comments

Comments!

 ‘চোরাচালান রুখতে টেকনাফ থেকে মায়ানমারে লঞ্চ সার্ভিস চালু হবে’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘চোরাচালান রুখতে টেকনাফ থেকে মায়ানমারে লঞ্চ সার্ভিস চালু হবে’

Thursday, April 20, 2017 7:35 pm
173022_1

চোরাচালান বন্ধে বাংলাদেশের টেকনাফ থেকে মায়ানমারের মংডুতে যাতায়াতে লঞ্চ সার্ভিস চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে জাতীয় চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের টেকনাফ থেকে মায়ানমারের মংডু শহরে যাত্রীবাহী লঞ্চ সার্ভিস চালু করা যায় কিনা সেটা আমার চিন্তা করছি। এখন শত শত পর্যটক এক দিনের জন্য আমাদের এখান থেকে অনুমতি নিয়ে মংডু যাচ্ছেন, সে রকম আবার মংডু থেকে ও আমাদের এখানে আসছেন। সেটা একটা সিস্টেমে আনার জন্য আমরা এখানে লঞ্চ সার্ভিস চালু করতে ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছি।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এ সব জায়গায় যত্রতত্র দিয়ে গেলে চোরাচালানের যে আশঙ্কা থাকে তা যেন বন্ধ হয়। যারা আসবেন তারা আমাদের অথরিটির অর্থাৎ কাস্টমস, বিজিবির সামনে দিয়ে আসবেন। সেইভাবেই যাবেন। সেজন্যই আমারা এই ব্যবস্থাটা নিতে যাচ্ছি।’

মাদক ব্যবসার সঙ্গে যে সকল প্রভাবশালী ব্যক্তি জড়িত আছেন, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

আসাদুজ্জামান খাঁন বলেন, ‘সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে রেলওয়ের মাধ্যমে চোরাই পণ্য আসছে, মাঝে মাঝে জব্দ করছি। এটা প্রতিরোধের জন্য রেল পুলিশকে আরো সক্রিয় হওয়ার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তারপরও চোরাচালান প্রতিরোধে টহল ও মোবাইল কোর্টও বাড়ানো হবে।’

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত এক লাখ ৮৫ হাজার অভিযান চালিয়ে ৮ হাজার ৬৫০ জনকে আটক করেছে। প্রায় ৭৫০ কোটি টাকার মালামাল আটক করেছে বলেও জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘সংস্থাওয়ারী চোরাচালান মামলা পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, গত বছরের অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট ৯ হাজার ৮৩৪টি মামলা হয়েছে। এ পর্যন্ত ২ হাজার ৬৩৩ জন সাজা পেয়েছে।’

সীমান্তে মালামাল স্ক্যানিংয়ে বিভিন্ন সংস্থা সমন্বয় করে কাজ করবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘স্থলবন্দরগুলোতে অত্যধুনিক স্ক্যানার মেশিন বসানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছি। পর্যায়ক্রমে সীমান্তের সব স্থলবন্দরগুলোতে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপন করব।’

‘মাদক সংক্রান্ত মামলা দ্রুত ‍নিষ্পত্তির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। মাদক ও অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে সীমান্তে তল্লাশী আরো জোরদার করা হবে’ বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

সভায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব কামাল উদ্দিন আহমেদ, আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রধানরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X