রবিবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, সকাল ৮:৪৮
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, July 24, 2017 7:38 am
A- A A+ Print

‘ছিনতাইকারীরা এএসপি মিজানকে হত্যা করে’

178856_1

ঢাকা: ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসিইউ) প্রধান ও অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেছেন, ছিনতাইকারীরা সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মিজানুর রহমানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। রবিবার ডিএমপি’র মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন। খবর বাসসের। মনিরুল ইসলাম আরো বলেন, শনিবার রাতে গাজীপুর জেলার টঙ্গি এলাকায় ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা (পশ্চিম) বিভাগের একটি দল অভিযান চালিয়ে এএসপি মিজানুর রহমান তালুকদার হত্যায় জড়িত মো: শাহ আলম ওরফে বুড্ডা নামে এক ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করে। পরে তার দেয়া স্বীকারোক্তি ও তদন্তে প্রাপ্ত আগের তথ্যে হত্যার প্রকৃত ঘটনা মিলে যায়। তিনি বলেন, ঈদের আগে রাস্তায় গাড়ির চাপ থাকায় হাইওয়ে পুলিশের এএসপি মিজানুর রহমান তার কর্মস্থল সাভারের উদ্দেশ্যে ভোরে রওনা হন। ওই দিন গত ২১ জুন ফজরের আযানের পর ৩ নম্বর সেক্টরের মসজিদের পাশে তিনি পৌঁছলে ছিনতাইকারীরা তাকে যাত্রী সেজে ডেকে তাদের প্রাইভেটকারে উঠায়। গ্রেপ্তারকৃত শাহ আলমের উদ্ধৃতি দিয়ে মনিরুল জানান, এএসপি মিজানুর রহমানকে গাড়ীতে উঠানোর পর চালক জাকির খুব জোরে গাড়ীতে গান বাজিয়ে, লাইট বন্ধ করে দ্রুত গাড়ী চালিয়ে জসীম উদ্দিন রোড হয়ে প্রথমে হাউজ বিল্ডিং, পরে উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের দিকে যায়। তখন গাড়ীর পিছনের সীটে বসা মিন্টু এএসপি মিজানুর রহমানের মাথায় লাঠি দিয়ে জোরে আঘাত করে। পরে তাদের মধ্যে অপর একজন এএসপি মিজানকে প্রাইভেটকারে থাকা জুট কাপড়ের টুকরা দিয়ে গলায় প্যাঁচ দিয়ে ধরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। ছিনতাইকারীরা টহল পুলিশের ভয়ে প্রধান সড়ক ব্যবহার না করে ১০ নম্বর সেক্টর দিয়ে বেড়ি বাঁধ এলাকায় পৌঁছে। পরে তারা বিরুলিয়া ব্রীজের আগেই রাস্তার পাশে এএসপি মিজানকে মৃত অবস্থায় ফেলে রেখে গাড়ীতে উঠে চলে যায়। তিনি আরও বলেন-এরা সাধারণত একজন যাত্রীকে টার্গেট করে গাড়িতে উঠিয়ে তাকে দুই পাশ দিয়ে চেপে ধরে কোন কিছু দিয়ে হত্যা করে। সাধারণত তারা পুলিশ ও সাংবাদিক পেলে তাদের ছেড়ে দিলে বিপদ হতে পারে ভেবে হত্যা করে। এএসপি মিজানকে মাথায় আঘাত ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। মনিরুল জানান, শাহআলমকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে ওই গাড়িতে ছিনতাইকারী চক্রের চারজন সদস্য ছিলো। বাকি তিনজনকে গ্রেপ্তার ও ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত গাড়িটি উদ্ধারে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। উল্লেখ্য, গত ২১ জুন রাজধানীর রূপনগর থানার মিরপুর বেড়িবাঁধের বোটক্লাব এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে এএসপি মিজানুর রহমান তালুকদারের (৫০) লাশ উদ্ধার করা হয়।

Comments

Comments!

 ‘ছিনতাইকারীরা এএসপি মিজানকে হত্যা করে’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘ছিনতাইকারীরা এএসপি মিজানকে হত্যা করে’

Monday, July 24, 2017 7:38 am
178856_1

ঢাকা: ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসিইউ) প্রধান ও অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেছেন, ছিনতাইকারীরা সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মিজানুর রহমানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে।

রবিবার ডিএমপি’র মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন। খবর বাসসের।

মনিরুল ইসলাম আরো বলেন, শনিবার রাতে গাজীপুর জেলার টঙ্গি এলাকায় ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা (পশ্চিম) বিভাগের একটি দল অভিযান চালিয়ে এএসপি মিজানুর রহমান তালুকদার হত্যায় জড়িত মো: শাহ আলম ওরফে বুড্ডা নামে এক ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করে। পরে তার দেয়া স্বীকারোক্তি ও তদন্তে প্রাপ্ত আগের তথ্যে হত্যার প্রকৃত ঘটনা মিলে যায়।

তিনি বলেন, ঈদের আগে রাস্তায় গাড়ির চাপ থাকায় হাইওয়ে পুলিশের এএসপি মিজানুর রহমান তার কর্মস্থল সাভারের উদ্দেশ্যে ভোরে রওনা হন। ওই দিন গত ২১ জুন ফজরের আযানের পর ৩ নম্বর সেক্টরের মসজিদের পাশে তিনি পৌঁছলে ছিনতাইকারীরা তাকে যাত্রী সেজে ডেকে তাদের প্রাইভেটকারে উঠায়।

গ্রেপ্তারকৃত শাহ আলমের উদ্ধৃতি দিয়ে মনিরুল জানান, এএসপি মিজানুর রহমানকে গাড়ীতে উঠানোর পর চালক জাকির খুব জোরে গাড়ীতে গান বাজিয়ে, লাইট বন্ধ করে দ্রুত গাড়ী চালিয়ে জসীম উদ্দিন রোড হয়ে প্রথমে হাউজ বিল্ডিং, পরে উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের দিকে যায়। তখন গাড়ীর পিছনের সীটে বসা মিন্টু এএসপি মিজানুর রহমানের মাথায় লাঠি দিয়ে জোরে আঘাত করে। পরে তাদের মধ্যে অপর একজন এএসপি মিজানকে প্রাইভেটকারে থাকা জুট কাপড়ের টুকরা দিয়ে গলায় প্যাঁচ দিয়ে ধরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

ছিনতাইকারীরা টহল পুলিশের ভয়ে প্রধান সড়ক ব্যবহার না করে ১০ নম্বর সেক্টর দিয়ে বেড়ি বাঁধ এলাকায় পৌঁছে। পরে তারা বিরুলিয়া ব্রীজের আগেই রাস্তার পাশে এএসপি মিজানকে মৃত অবস্থায় ফেলে রেখে গাড়ীতে উঠে চলে যায়।

তিনি আরও বলেন-এরা সাধারণত একজন যাত্রীকে টার্গেট করে গাড়িতে উঠিয়ে তাকে দুই পাশ দিয়ে চেপে ধরে কোন কিছু দিয়ে হত্যা করে। সাধারণত তারা পুলিশ ও সাংবাদিক পেলে তাদের ছেড়ে দিলে বিপদ হতে পারে ভেবে হত্যা করে। এএসপি মিজানকে মাথায় আঘাত ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়।

মনিরুল জানান, শাহআলমকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে ওই গাড়িতে ছিনতাইকারী চক্রের চারজন সদস্য ছিলো। বাকি তিনজনকে গ্রেপ্তার ও ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত গাড়িটি উদ্ধারে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২১ জুন রাজধানীর রূপনগর থানার মিরপুর বেড়িবাঁধের বোটক্লাব এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে এএসপি মিজানুর রহমান তালুকদারের (৫০) লাশ উদ্ধার করা হয়।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X