সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ৩:১০
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Monday, October 24, 2016 9:26 am
A- A A+ Print

ছোট্ট ইভার কাজে ভুল হলে জুটত খুনতির ছ্যাঁকা, রডের আঘাত

252744_1

ইভা নামে ছয় বছর বয়সী একটি শিশুকে দিয়ে ঘরের কাজ করানো হতো। কাজে ছোটখাটো কোনো ভুল হলে শিশুটির ওপর চলতো অমানবিক নির্যাতন। মাত্র দুই বছর বয়সে দরিদ্র বাবা-মার কাছ থেকে শিশুটিকে ‘কিনে’ আনে অবস্থাপন্ন পরিবারটি। আদর-স্নেহের কাঙাল ইভার ভাগ্যে প্রায়ই জুটত মারধর, লোহার শিক কিংবা খুনতি আগুনে গরম করে হাতে-পায়ে, পিঠে ছ্যাঁকা, রডের আঘাত। গত শনিবার রাতে ইভা পালিয়ে বাইরে এসে কান্নাকাটি শুরু করলে বিষয়টি জানাজানি হয়। এরপর পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় এবং গৃহকর্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। কুমিল্লা মহানগরীর কালিয়াজুড়ি এলাকার মাজার সংলগ্ন মাহবুবুর রহমানের বাসায় কাজ করতো ইভা। মেডিকো নামে একটি ওষুধ কোম্পানির এরিয়া ম্যানেজার মাহাবুব। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে তার স্ত্রী রোমানা আক্তার পলি । জানা গেছে, ইভার বয়স যখন চার বছর তখন থেকেই গৃহকর্ত্রী তাকে দিয়ে ঘরের কাজকর্ম করতে বাধ্য করে। ঘর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, কাপড়-চোপড় পরিষ্কার, এমনকি রান্নাঘরেও কাজ করানো হতো তাকে দিয়ে। ভুলভ্রান্তি হলে মারধর। ইভা তার বাবার নাম নজরুল ইসলাম নজু বললেও বাড়ির ঠিকানা জানে না। গত শনিবার রাতে ইভা বাসা থেকে পালিয়ে রাস্তায় এলে নির্যাতনের বিষয়টি জনসম্মুখে প্রকাশ পায়। কেঁদে কেঁদে ইভা তার উপর নির্যাতনের বয়ান দেয় পুলিশ ও সাংবাদিকদের কাছে। সে জানায়, ‘পলি খালা (রোমানা আক্তার পলি) আমাকে শিক দিয়ে আগুনের ছ্যাঁকা দিয়েছে। কয়েকদিন আগে মাথায় রড দিয়ে আঘাত করেছে। খালারা যখন বাড়ির বাইরে যায়, তখন আমাকে দড়ি (রশি) দিয়ে বেঁধে যায়। আজ (শনিবার) দড়ি ছিঁড়ে আমি পালিয়ে বের হয়ে এসেছি।’ কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মো. আবদুর রব জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছ্যাঁকা দেওয়াসহ শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে। রোমানা আক্তার পলি বাড়ি থেকে পালিয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Comments

Comments!

 ছোট্ট ইভার কাজে ভুল হলে জুটত খুনতির ছ্যাঁকা, রডের আঘাতAmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

ছোট্ট ইভার কাজে ভুল হলে জুটত খুনতির ছ্যাঁকা, রডের আঘাত

Monday, October 24, 2016 9:26 am
252744_1

ইভা নামে ছয় বছর বয়সী একটি শিশুকে দিয়ে ঘরের কাজ করানো হতো। কাজে ছোটখাটো কোনো ভুল হলে শিশুটির ওপর চলতো অমানবিক নির্যাতন। মাত্র দুই বছর বয়সে দরিদ্র বাবা-মার কাছ থেকে শিশুটিকে ‘কিনে’ আনে অবস্থাপন্ন পরিবারটি। আদর-স্নেহের কাঙাল ইভার ভাগ্যে প্রায়ই জুটত মারধর, লোহার শিক কিংবা খুনতি আগুনে গরম করে হাতে-পায়ে, পিঠে ছ্যাঁকা, রডের আঘাত। গত শনিবার রাতে ইভা পালিয়ে বাইরে এসে কান্নাকাটি শুরু করলে বিষয়টি জানাজানি হয়। এরপর পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় এবং গৃহকর্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।
কুমিল্লা মহানগরীর কালিয়াজুড়ি এলাকার মাজার সংলগ্ন মাহবুবুর রহমানের বাসায় কাজ করতো ইভা। মেডিকো নামে একটি ওষুধ কোম্পানির এরিয়া ম্যানেজার মাহাবুব। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে তার স্ত্রী রোমানা আক্তার পলি ।
জানা গেছে, ইভার বয়স যখন চার বছর তখন থেকেই গৃহকর্ত্রী তাকে দিয়ে ঘরের কাজকর্ম করতে বাধ্য করে। ঘর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, কাপড়-চোপড় পরিষ্কার, এমনকি রান্নাঘরেও কাজ করানো হতো তাকে দিয়ে। ভুলভ্রান্তি হলে মারধর। ইভা তার বাবার নাম নজরুল ইসলাম নজু বললেও বাড়ির ঠিকানা জানে না।
গত শনিবার রাতে ইভা বাসা থেকে পালিয়ে রাস্তায় এলে নির্যাতনের বিষয়টি জনসম্মুখে প্রকাশ পায়। কেঁদে কেঁদে ইভা তার উপর নির্যাতনের বয়ান দেয় পুলিশ ও সাংবাদিকদের কাছে। সে জানায়, ‘পলি খালা (রোমানা আক্তার পলি) আমাকে শিক দিয়ে আগুনের ছ্যাঁকা দিয়েছে। কয়েকদিন আগে মাথায় রড দিয়ে আঘাত করেছে। খালারা যখন বাড়ির বাইরে যায়, তখন আমাকে দড়ি (রশি) দিয়ে বেঁধে যায়। আজ (শনিবার) দড়ি ছিঁড়ে আমি পালিয়ে বের হয়ে এসেছি।’ কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মো. আবদুর রব জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছ্যাঁকা দেওয়াসহ শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে। রোমানা আক্তার পলি বাড়ি থেকে পালিয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X