শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, রাত ১০:৩৩
শিরোনাম
  • ঘৃণাকে বিজয়ী হতে দেয়া যাবে না, ট্রাম্পকে ইঙ্গিত করে জর্জ ক্লুনি
  • আমার একটাই চিন্তা দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা: প্রধানমন্ত্রী
  • ‘কেন্দ্রীয় সরকারের আগ্রাসী নীতির কারণে কাশ্মীরকে হারাতে হবে’
  • সাড়ে চারমাস পর মুখোমুখি, খাদিজাকে উদ্দেশ্য করে যা বলল বদরুল
  • খালেদার ‘সাজা’ বিরোধী নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙ্গার কৌশল!
  • বিএনপির কর্মসূচি ‘যথাসময়ে’ জানানো হবে: রিজভী
  • দলের জন্য বোলিং করতেও রাজি মুশফিক
  • শিশু জিহাদের মৃত্যু: চার জনের ১০ বছর করে কারাদণ্ড
  • অবশেষে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখা সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে
  • সাক্ষ্য দিলেন খাদিজা, চাইলেন বদরুলের সর্বোচ্চ শাস্তি
  • বদরুলের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে আদালতে খাদিজা
  • আজ বগুড়ায় যেসব প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • রোহিঙ্গা স্থানান্তরের সরকারি পরিকল্পনার সঙ্গে দ্বিমত মানবাধিকার কমিশনের
  • মহেশখালীতে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের ‘বন্দুকযুদ্ধ’
  • হোয়াইট হাউসে কাজ করার দীর্ঘ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন এই বাংলাদেশি সাংবাদিক
Wednesday, July 12, 2017 11:40 pm
A- A A+ Print

‘জনগণ রাস্তায় নামলে আমাদের কিছুই করার থাকবে না’

10

ঢাকা: রাজধানী জুড়ে যানজট, রাস্তায় ময়লা এবং চিকুনগুনিয়া নিয়ে মানুষ মহাদুর্যোগে আছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ। তিনি বলেন, আগামি এক সপ্তাহের মধ্যে যদি যানজট ও ময়লার সমস্যার সমাধান না হয় তাহলে জনগণ রাস্তায় নামবে। এতে কিছু করার থাকবে না। বুধবার জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে ফ্লোর নিয়ে এসব কথাবলেন তিনি। কাজী ফিরোজ রশিদ বলেন, রাস্তায় বর্জ্যের কারণে মানুষ চলতে পারছে না। দুর্গন্ধে মানুষ যাতায়ত করতে পারছে না। ড্রেনের পানি স্যুয়ারেজ লাইনের ময়লা আর বৃষ্টির পানি একাকার হয়ে গেছে। সমস্ত রাস্তা ভরে গেছে। অনেক এলাকায় এক হাটু পানি হয়ে গেছে। আমার নির্বাচনী এলাকা আর কে মিশন রোড এলাকার ২০ ফুট রাস্তার ১০ ফুটই ময়লা রাখার জন্য বরাদ্দ দিয়েছে সিটি কর্পোরেশন। মানুষ যেতে পারছে না। চিকুনগুনিয়া নিয়ে তিনি বলেন, চিকুনগুনিয়া সম্পর্কে মন্ত্রী বলেছেন ভয়ের কারণ নেই। কিন্তু মোটা গুনিয়াতে তো ভয়ের কারণ আছে। মানুষ যেভাবে আক্রান্ত হচ্ছে, যে নামই দেন। মশা মারলেন না, মশার ওষুধ দিলেন না এখন বলেন চিকুনগুনিয়ায় ভয়ের কারণ নেই। আমাদের নির্ভয় দিচ্ছেন, যারা (মেয়ররা) মশা মারবেন তারা তো নির্ভয় দেন না। উনারাতো মশারির ভেতর থাকেন। আজ পর্যন্ত মশা মারার উদ্যোগ দেখলাম না। সাধারণ লোকরা পানির মধ্যে বসাবাস করে। মশার মধ্যে ঘুমাতে হয় খেতে হয়। মানুষ যাবে কোথায়। সড়ক পরিবহন মন্ত্রীর সমালোচনা করে কাজী ফিরোজ বলেন, মন্ত্রী বলেছেন ভিআইপিরা উল্টো পথে যাতায়াত করেন। হয়তো দুই একজন উল্টো পথে যাতায়াত করেন। আজ তো উল্টো পথেও যাতায়াত বন্ধ। রাস্তার দুই পথই বন্ধ। রাস্তা যখন বন্ধ হয় গোটা শহরে দুর্ভোগ নেমে এসেছে। কার কাছে বলবো, কোথায় বলবো, কার কাছে বললে সমাধান হবে তাও জানি না। সমস্ত কিছু যদি একজনকেই দেখতে হয়, শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীকে। তাহলে এত মন্ত্রী, মেয়র উনাদের কাজ কি? প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কোথাও আর কারো কিছু দেখার নেই? কাউকেই কোথাও জবাব দিহি করতে হয় না। কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, জবাবদিহি করতে হবে। সামনে মহাপ্লাবন, সামনে নির্বাচন। জবাবদিহি কিন্তু করতে হবে। জবাবদিহি সেদিন জনগণ ঠিকই নেবেন। জনগণের কাছে প্রত্যেকটা প্রশ্নের জবাব দিয়ে ভোট চাইতে হবে। সেদিন বুঝবেন কত ধানে কত চাল হয়। আজ অনেকে গুরুত্ব দিচ্ছে না। জনগনকে আজকে কোন পাত্তাই দিচ্ছেন না। কিন্ত জনগণের কাছে আমাদের যেতে হবে। আর যদি মনে করেন না, আগের মত একটা নির্বাচনের দিয়ে ঘরে বসেই নির্বাচন করবেন। সেটা আর হবে না। সেই দিন শেষ হয়ে গেছে। তাই আগামি এক সপ্তাহের মধ্যে যদি ময়লা আর যানজটের সমস্যার নিরসন না হয় তাহলে জনগণ কিন্তু রাস্তায় নামবে তখন আমাদের কিছু করার থাকবে না।

Comments

Comments!

 ‘জনগণ রাস্তায় নামলে আমাদের কিছুই করার থাকবে না’AmarbangladeshonlineAmarbangladeshonline | Amarbangladeshonline

‘জনগণ রাস্তায় নামলে আমাদের কিছুই করার থাকবে না’

Wednesday, July 12, 2017 11:40 pm
10

ঢাকা: রাজধানী জুড়ে যানজট, রাস্তায় ময়লা এবং চিকুনগুনিয়া নিয়ে মানুষ মহাদুর্যোগে আছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ। তিনি বলেন, আগামি এক সপ্তাহের মধ্যে যদি যানজট ও ময়লার সমস্যার সমাধান না হয় তাহলে জনগণ রাস্তায় নামবে। এতে কিছু করার থাকবে না।

বুধবার জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে ফ্লোর নিয়ে এসব কথাবলেন তিনি।

কাজী ফিরোজ রশিদ বলেন, রাস্তায় বর্জ্যের কারণে মানুষ চলতে পারছে না। দুর্গন্ধে মানুষ যাতায়ত করতে পারছে না। ড্রেনের পানি স্যুয়ারেজ লাইনের ময়লা আর বৃষ্টির পানি একাকার হয়ে গেছে। সমস্ত রাস্তা ভরে গেছে। অনেক এলাকায় এক হাটু পানি হয়ে গেছে। আমার নির্বাচনী এলাকা আর কে মিশন রোড এলাকার ২০ ফুট রাস্তার ১০ ফুটই ময়লা রাখার জন্য বরাদ্দ দিয়েছে সিটি কর্পোরেশন। মানুষ যেতে পারছে না।

চিকুনগুনিয়া নিয়ে তিনি বলেন, চিকুনগুনিয়া সম্পর্কে মন্ত্রী বলেছেন ভয়ের কারণ নেই। কিন্তু মোটা গুনিয়াতে তো ভয়ের কারণ আছে। মানুষ যেভাবে আক্রান্ত হচ্ছে, যে নামই দেন। মশা মারলেন না, মশার ওষুধ দিলেন না এখন বলেন চিকুনগুনিয়ায় ভয়ের কারণ নেই। আমাদের নির্ভয় দিচ্ছেন, যারা (মেয়ররা) মশা মারবেন তারা তো নির্ভয় দেন না। উনারাতো মশারির ভেতর থাকেন। আজ পর্যন্ত মশা মারার উদ্যোগ দেখলাম না। সাধারণ লোকরা পানির মধ্যে বসাবাস করে। মশার মধ্যে ঘুমাতে হয় খেতে হয়। মানুষ যাবে কোথায়।

সড়ক পরিবহন মন্ত্রীর সমালোচনা করে কাজী ফিরোজ বলেন, মন্ত্রী বলেছেন ভিআইপিরা উল্টো পথে যাতায়াত করেন। হয়তো দুই একজন উল্টো পথে যাতায়াত করেন। আজ তো উল্টো পথেও যাতায়াত বন্ধ। রাস্তার দুই পথই বন্ধ। রাস্তা যখন বন্ধ হয় গোটা শহরে দুর্ভোগ নেমে এসেছে। কার কাছে বলবো, কোথায় বলবো, কার কাছে বললে সমাধান হবে তাও জানি না। সমস্ত কিছু যদি একজনকেই দেখতে হয়, শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীকে। তাহলে এত মন্ত্রী, মেয়র উনাদের কাজ কি? প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কোথাও আর কারো কিছু দেখার নেই? কাউকেই কোথাও জবাব দিহি করতে হয় না।

কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, জবাবদিহি করতে হবে। সামনে মহাপ্লাবন, সামনে নির্বাচন। জবাবদিহি কিন্তু করতে হবে। জবাবদিহি সেদিন জনগণ ঠিকই নেবেন। জনগণের কাছে প্রত্যেকটা প্রশ্নের জবাব দিয়ে ভোট চাইতে হবে। সেদিন বুঝবেন কত ধানে কত চাল হয়। আজ অনেকে গুরুত্ব দিচ্ছে না। জনগনকে আজকে কোন পাত্তাই দিচ্ছেন না। কিন্ত জনগণের কাছে আমাদের যেতে হবে। আর যদি মনে করেন না, আগের মত একটা নির্বাচনের দিয়ে ঘরে বসেই নির্বাচন করবেন। সেটা আর হবে না। সেই দিন শেষ হয়ে গেছে। তাই আগামি এক সপ্তাহের মধ্যে যদি ময়লা আর যানজটের সমস্যার নিরসন না হয় তাহলে জনগণ কিন্তু রাস্তায় নামবে তখন আমাদের কিছু করার থাকবে না।

Comments

comments

সম্পাদক : মোহাম্মদ আবদুল বাছির
প্রকাশক: মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম
ফোন : ‎০১৭১৩৪০৯০৯০
৩৪৫/১, দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০
X
 
নিয়মিত খবর পড়তে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন
X